আল-আব্‌দ , আল-আমাত [দাস-দাসী] এবং আল-মাওলা …

আল-আব্‌দ , আল-আমাত [দাস-দাসী] এবং আল-মাওলা

আল-আব্‌দ , আল-আমাত [দাস-দাসী] এবং আল-মাওলা >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৩. অধ্যায়ঃ আল-আব্‌দ , আল-আমাত [দাস-দাসী] এবং আল-মাওলা, আস-সাইয়্যিদ শব্দসমূহ ব্যবহারের বিধান

৫৭৬৭

আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ তোমাদের কেউ যেন আমার আব্‌দ ও আমাত তথা আমার বান্দা, আমার বান্দী না বলে। কারণ তোমাদের সকল পুরুষই আল্লাহ্‌র বান্দা এবং তোমাদের সকল নারীই আল্লাহর বান্দী। সুতরাং বলবে, গোলামী, ওয়া জারিয়াতী, ওয়া ফাতায়া, ওয়া ফাতাতী অর্থাৎ আমার সেবক, আমার সেবিকা। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৬৭৮, ইসলামিক সেন্টার- ৫৭০৯]

৫৭৬৮

আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ অবশ্যই তোমাদের কেউ যেন আমার দাস না বলে। কারণ, তোমাদের প্রত্যেকেই আল্লাহর দাস ও বান্দা। তবে সে বলবে আমার সেবক। আর কোন আব্‌দ যেন তার মনিবকে আমার রব্ব না বলে বরং বলবে আমার সাইয়্যিদ [মনিব ও নেতা]। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৬৭৯, ইসলামিক সেন্টার- ৫৭১০]

৫৭৬৯

আমাশ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

আবু বাক্‌র ইবনি আবু শাইবাহ্‌, আবু কুরায়ব ও আবু সাঈদ আশাজ্জ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] … আমাশ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে উপরোল্লিখিত সূত্রে হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। তবে তাঁদের উভয়ের বর্ণনাতে রয়েছে, গোলাম তার সাইয়্যিদ ও মনিবকে আমার মাওলা বলবে না।

এবং [প্রথম সূত্রের] বর্ণনাকারী আবু মুআবিয়াহ্‌ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] এর বর্ণিত হাদীসে বর্ধিত উল্লেখ করিয়াছেন যে, কারণ, তোমাদের মাওলা হলেন আল্লাহ। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৬৮০, ইসলামিক সেন্টার- ৫৭১১]

৫৭৭০

হাম্মাম ইবনি মুনাব্বিহ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

মুহাম্মাদ ইবনি রাফি [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] … হাম্মাম ইবনি মুনাব্বিহ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণিত। তিনি বলেন, এ হলো সেসব হাদীস, যা আবু হুরাইরাহ [রাদি.] রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] হইতে আমাদের নিকট বর্ণনা করিয়াছেন। এ কথা বলে তিনি কয়েকটি হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। [সে সবের একটি হলো] রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] আরও বলেন, তোমাদের কেউ [মনিব সম্পর্কে এভাবে] বলবে না যে, তোমার রব্বকে পান করাও, তোমার রব্বকে খাবার দাও, তোমার রব্বকে ওযূ করাও। তিনি আরও বলেন, তোমাদের কেউ যেন না বলে আমার রব্ব এবং বলবে আমার সাইয়্যিদ তথা সরদার বা নেতা, আমার মাওলা বা মনিব। আর তোমাদের কেউ যেন না বলে, আমার দাস আমার দাসী, বরং বলবে, আমার সেবক, আমার সেবিকা। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৬৮১, ইসলামিক সেন্টার- ৫৭১২]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply