হেবা দান । কোন কোন সন্তানকে প্রাধান্য দেয়া মাকরূহ

হেবা দান । কোন কোন সন্তানকে প্রাধান্য দেয়া মাকরূহ

হেবা দান । কোন কোন সন্তানকে প্রাধান্য দেয়া মাকরূহ , এই পর্বের হাদীস =৭ টি (১০৪৫-১০৫১) >> আল লুলু ওয়াল মারজান এর মুল সুচিপত্র দেখুন

পর্ব-২৪ঃ হেবা

২৪/১. সদাকাহ্‌কারীর জন্য তার সদাকাহ্‌কৃত বস্তু সদাকাহ গ্রহীতার নিকট থেকে ক্রয় করা ঘৃণিত।
২৪/২. সদাকাহ গ্রহণকারীর হস্তগত হয়ে যাওয়া সদাকাহ ও হেবার মাল সদাকাহ্কারীর ফিরিয়ে নেয়া হারাম যদি না তা তার ছেলেকে বা অধস্তনকে হেবা করে থাকে ।
২৪/৩. হেবার ক্ষেত্রে কোন কোন সন্তানকে প্রাধান্য দেয়া মাকরূহ ।
২৪/৪. উমরা [এমন দান যেখানে দানকারী ও দানগ্রহীতা পরস্পরের মৃত্যু পর্যন্ত অপেক্ষা করিবে যাতে তাহাদের একজন স্থায়ীভাবে বাড়িটির মালিক হয়ে যায়, উমরাকে রুকবাও বলা হয়] ।

২৪/১. সদাকাহ্‌কারীর জন্য তার সদাকাহ্‌কৃত বস্তু সদাকাহ গ্রহীতার নিকট থেকে ক্রয় করা ঘৃণিত।

১০৪৫. উমার [রাদি.] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, আমার একটি ঘোড়া আল্লাহ্‌র পথে দান করলাম। যার কাছে ঘোড়াটি ছিল সে এর হাক আদায় করিতে পারল না। তখন আমি তা ক্রয় করিতে চাইলাম এবং আমার ধারণা ছিল যে, সে সেটি কম মূল্যে বিক্রি করিবে। এ সম্পর্কে নাবী [সাঃআঃ]-কে আমি জিজ্ঞেস করলাম। তিনি বললেনঃ তুমি ক্রয় করিবে না এবং তোমার সদাকাহ ফিরিয়ে নিবে না, সে তা এক দিরহামের বিনিময়ে দিলেও। কেননা, যে ব্যক্তি নিজের সদাকাহ ফিরিয়ে নেয় সে যেন নিজের বমি পুনঃ ভক্ষণ করে

[বোখারী পর্ব ২৪: /৫৯, হাঃ ১৪৯০; মুসলিম ২৪/১, হাঃ ১৬২০] হেবা দান -এই হাদীসটির তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

১০৪৬. উমার ইবনি খাত্তাব [রাদি.] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, আমি আল্লাহ্‌র রাহে একটি অশ্ব আরোহণের জন্য দান করেছিলাম। অতঃপর আমি তা বিক্রি হইতে দেখিতে পাই। আমি আল্লাহ্‌র রসূল  [সাঃআঃ]-এর নিকট জিজ্ঞেস করলাম, আমি কি সেটা কিনে নেব? রাসুলুল্লাহ্ [সাঃআঃ] বলিলেন, না, তুমি তা ক্রয় করো না এবং তোমার সদাকাহ ফেরত নিও না।


[বোখারী পর্ব ৫৬: /১১৯, হাঃ ২৯৭০; মুসলিম ২৪/১, হাঃ ১৬২০] হেবা দান -এই হাদীসটির তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

২৪/২. সদাকাহ গ্রহণকারীর হস্তগত হয়ে যাওয়া সদাকাহ ও হেবার মাল সদাকাহ্কারীর ফিরিয়ে নেয়া হারাম যদি না তা তার ছেলেকে বা অধস্তনকে হেবা করে থাকে ।

১০৪৭. ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, নাবী [সাঃআঃ] বলেছেন, দান করে তা ফেরত গ্রহণকারী ঐ কুকুরের মত, যে বমি করে এরপর তার বমি খায়।

[বোখারী পর্ব ৫১: /১৪, হাঃ ২৫৮৯; মুসলিম ২৪/২, হাঃ ১৬২২] হেবা দান -এই হাদীসটির তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

২৪/৩. হেবার ক্ষেত্রে কোন কোন সন্তানকে প্রাধান্য দেয়া মাকরূহ ।

১০৪৮. নুমান বাশীর [রাদি.] হইতে বর্ণিতঃ

তার পিতা তাকে নিয়ে রাসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর নিকট এলেন এবং বলিলেন, আমি আমার এই পুত্রকে একটি গোলাম দান করেছি। তখন তিনি জিজ্ঞেস করিলেন, তোমার সব পুত্রকেই কি তুমি এরূপ দান করেছ? তিনি বলিলেন, না; তিনি [সাঃআঃ] বলিলেন, তবে তুমি তা ফিরিয়ে নাও।

[বোখারী পর্ব ৫১: /১২, হাঃ ২৫৮৬; মুসলিম ২৪/৩, হাঃ ১৬২৩] হেবাদান -এই হাদীসটির তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

১০৪৯. আমির [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, আমি নুমান ইবনি বাশীর [রাদি.]-কে মিম্বরের উপর বলিতে শুনিয়াছি যে, আমার পিতা আমাকে কিছু দান করেছিলেন। তখন [আমার মাতা] আম্‌রা বিনতে রাওয়াহা [রাদি.] বলেন, রাসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-কে সাক্ষী রাখা ব্যতীত সম্মত নই। তখন তিনি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর নিকট আসলেন এবং বলিলেন, আমরা বিনতে রাওয়াহার গর্ভজাত আমার পুত্রকে কিছু দান করেছি। হে আল্লাহ্‌র রসূল ! আপনাকে সাক্ষী রাখার জন্য সে আমাকে বলেছে। তিনি আমাকে জিজ্ঞেস করিলেন, তোমার সব ছেলেকেই কি এ রকম করেছ? তিনি বলিলেন, না। রাসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলিলেন, তবে আল্লাহ্‌কে ভয় কর এবং আপন সন্তানদের মাঝে সমতা রক্ষা কর। {নুমান [রাদি.]} বলেন, অতঃপর তিনি ফিরে গেলেন এবং তার দান ফিরিয়ে নিলেন।

[বোখারী পর্ব ৫১: /১৩, হাঃ ২৫৮৭; মুসলিম ২৪/৩, হাঃ ১৬২৩] হেবা দান -এই হাদীসটির তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

২৪/৪. উমরা [এমন দান যেখানে দানকারী ও দানগ্রহীতা পরস্পরের মৃত্যু পর্যন্ত অপেক্ষা করিবে যাতে তাহাদের একজন স্থায়ীভাবে বাড়িটির মালিক হয়ে যায়, উমরাকে রুকবাও বলা হয়] ।

১০৫০. জাবির [রাদি.] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, নাবী [সাঃআঃ] উমরাহ [বস্তু] সম্পর্কে ফায়সালা দিয়েছেন, যাকে দান করা হয়েছে, সে-ই সেটার মালিক হইবে।

[বোখারী পর্ব ৫১: /৩২, হাঃ ২৬২৫; মুসলিম ২৪/৪, হাঃ ১৬২৫] হেবা দান -এই হাদীসটির তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

১০৫১. আবু হুরাইরাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণিতঃ

নাবী [সাঃআঃ] বলেছেন, উমরা বৈ

ধ। [বোখারী পর্ব ৫১ : /৩২, হাঃ ২৬২৬; মুসলিম ২৪/৪, হাঃ ১৬২৫, ১৬২৬] হেবা দান -এই হাদীসটির তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

By লুলু ওয়াল মারজান

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply