পুণ্যময় কাজের বাইআত আর বিজয়ের পর হিজরত নেই

পুণ্যময় কাজের বাইআত আর বিজয়ের পর হিজরত নেই

পুণ্যময় কাজের বাইআত আর বিজয়ের পর হিজরত নেই >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

২০. অধ্যায়ঃ মক্কা বিজয়ের পর ইসলাম, জিহাদ ও পুণ্যময় কাজের বাইআত আর বিজয়ের পর হিজরত নেই[ মক্কা থেকে মাদীনায়]- এ কথার অর্থ সংক্রান্ত আলোচনা

৪৭২০

মুজাশি ইবনি মাসউদ সুলামী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, একদা আমি নবী [সাঃআঃ]-এর খিদমাতে তাহাঁর নিকট হিজরাতের বাইআত গ্রহণের উদ্দেশে আসলাম। তখন তিনি বলিলেন, হিজরাতের দিন শেষ হয়ে গেছে, তার অধিকারীরা ইতোমধ্যেই তা করে ফেলেছেন। [সে ফযিলত আর কারো পাবার অবকাশ নেই] তবে ইসলাম, জিহাদ ও সৎকাজের উপর অটল থাকার বাইআত হইতে পারে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৬৭৩, ইসলামিক সেন্টার- ৪৬৭৫]

৪৭২১

মুজাশি ইবনি মাসউদ সুলামী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, মক্কা বিজয়ের পর একদা আমি আমার ভাই আবু মাবাদ [রাদি.]- কে নিয়ে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর দরবারে আসলাম। তখন আমি আরয করলাম, হে আল্লাহ্‌র রসূল! আপনি তাকে হিজরাতের বাইআত করান। তিনি তখন বলিলেন, হিজরাতের দিন অতিক্রান্ত, তার যোগ্য পাত্ররা সে সুযোগ নিয়ে নিয়েছে। আমি বললাম, তাহলে কিসের উপর বাইআত নিবেন? তিনি বলিলেন, ইসলাম, জিহাদ ও সৎকাজের বাইআত হইতে পারে।

আবু উসমান [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বলেন, আমি আবু মাবাদের সাথে সাক্ষাৎ করে তাকে মুজাশি [রহমাতুল্লাহি আলাইহি]-এর কথা জানালাম। তিনি বলিলেন, সে যথার্থই বলেছে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৬৭৪, ইসলামিক সেন্টার- ৪৬৭৬]

৪৭২২

আবু বাকর ইবনি আবু শাইবাহ্ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] এ সানাদ হইতে বর্ণীতঃ

তবে তিনি বলেছেন, আমি তার ভাইয়ের সাথে দেখা করলাম, তখন তিনি বলিলেন, মুজাশি যথার্থ বলেছে, তবে তিনি আবু মাবাদের নাম রিওয়ায়াতে উল্লেখ করেননি। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৬৭৫, ইসলামিক সেন্টার- ৪৬৭৭]

৪৭২৩

ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বিজয় দিবসে তথা মক্কা বিজয়ের দিন বলেছেন, আর হিজরত নেই [হিজরাতের অবকাশ বাকী নেই] বরং এখন আছে জিহাদ আর নেক-নিয়্যাত। আর যখন তোমাদেরকে জিহাদে বের হওয়ার জন্য আহবান জানানো হয়, তখন তোমরা [জিহাদের উদ্দেশে] বের হয়ে যাও। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৬৭৬,ইসলামিক সেন্টার- ৪৬৭৮]

৪৭২৪

মানসূর [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে উক্ত সানাদ হইতে বর্ণীতঃ

অনুরূপ বর্ণনা করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৬৭৭, ইসলামিক সেন্টার- ৪৬৭৯]

৪৭২৫

আয়েশাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, একদা রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-কে হিজরত সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হলো। তখন তিনি বলিলেন, [মক্কা] বিজয়ের পর আর হিজরত নেই, তবে জিহাদ ও নিয়্যাত রয়েছে। যখন তোমাদেরকে জিহাদে বের হওয়ার জন্য ডাক দেয়া হয়, তখন তোমরা বের হয়ে যাও। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৬৭৮, ইসলামিক সেন্টার- ৪৬৮০]

৪৭২৬

আবু সাঈদ খুদরী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

একদা জনৈক বেদুঈন রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-কে হিজরত সম্পর্কে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ওহে! তোমার জন্য আফসোস! হিজরাতের অবস্থা তো কঠিন ব্যাপার। তোমার কাছে কি উট আছে? সে বলিল, হ্যাঁ! তিনি বলিলেন, তুমি কি তার যাকাত দিয়ে থাকো? সে বলিল, হ্যাঁ। তিনি বলিলেন, তুমি দরিয়ার ওপার থেকেই আমাল করে যাও, কেননা আল্লাহ তাআলা তোমার কোন আমালই বিফল করে দিবেন না। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৬৭৯, ইসলামিক সেন্টার- ৪৬৮১]

৪৭২৭

আওযাঈ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে এ সানাদ হইতে বর্ণীতঃ

অনুরূপ হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। তবে তিনি [আবদুল্লাহ] বলেন, নিশ্চয় আল্লাহ তোমার কোন আমালই নিষ্ফল হইতে দিবেন না। তিনি এ হাদীসে আরও অতিরিক্ত বর্ণনা করিয়াছেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] জিজ্ঞেস করিলেন, তুমি কি পানি পান করানোর দিন ওগুলোকে [উটনীগুলোকে] দোহন করে থাকো? তিনি উত্তর দিলেন, হ্যাঁ। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৬৮০, ইসলামিক সেন্টার- ৪৬৮২]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply