হাজ্জে তামাত্তু প্রসঙ্গে

হাজ্জে তামাত্তু প্রসঙ্গে

হাজ্জে তামাত্তু প্রসঙ্গে >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৩০. অধ্যায়ঃ হাজ্জে তামাত্তু প্রসঙ্গে

২৮৯৫

মুসলিম আল কুর্রী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি ইবনি আব্বাস [রাদি.]-এর নিকট তামাত্তু হজ্জ সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলাম। তিনি তার অনুমতি দিলেন কিন্তু ইবনি যুবায়র তা নিষেধ করিতেন। ইবনি আব্বাস [রাদি.] বলিলেন, এই তো ইবনি যুবায়র [রাদি.]-এর মা, তিনি বর্ণনা করিয়াছেন যে, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] এটা করার অনুমতি দিয়েছেন। তোমরা তার কাছে গিয়ে তাকে জিজ্ঞেস কর। রাবী বলেন, আমরা তার কাছে গেলাম, তিনি ছিলেন স্থুলদেহী এবং তার দৃষ্টিশক্তি লোপ পেয়েছিল। তিনি বলিলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তামাত্তু হজ্জের অনুমতি দিয়েছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৮৭১, ইসলামিক সেন্টার- ২৮৭০]

২৮৯৬

শুবাহ্‌ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

এ সূত্রে বর্ণিত হয়েছে। অধঃস্তন রাবী আবদুর রহমানের বর্ণনায় “আল মুতআহ্‌” উল্লেখ আছে- “মুতআতুল হজ্জ” নয় এবং ইবনি জাফার [রহমাতুল্লাহি আলাইহি]-এর বর্ণনায় শুবাহ্‌ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বলেন, মুসলিম আল কুর্‌রী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বলেছেন, তামাত্তু হজ্জ না মুত্‌আহ বিবাহ সম্পর্কে বলা হয়েছে, তা আমি জানি না। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৮৭২, ইসলামিক সেন্টার- ২৮৭১]

২৮৯৭

মুসলিম আল কুর্‌রী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

ইবনি আব্বাস [রাদি.]-কে বলিতে শুনেছেন, নবী [সাঃআঃ] উমরার ইহরাম বাঁধলেন এবং তাহাঁর সাহাবীগণ হজ্জের ইহরাম বাঁধলেন। নবী [সাঃআঃ] এবং তাহাঁর সাহাবীগণের মধ্যে যাদের সাথে কুরবানীর পশু ছিল, তারা ইহরাম খুলেননি। অন্যরা [তাওয়াফ ও সাঈর পর] ইহরাম মুক্ত হয়ে গেলেন। যারা সাথে কুরবানীর পশু এনেছিলেন, ত্বল্‌হাহ্‌ [রাদি.] তাদের অন্তর্ভুক্ত ছিলেন। অতএবং তিনিও ইহরাম খুলেননি। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৮৭৩, ইসলামিক সেন্টার- ২৮৭২]

২৮৯৮

শুবাহ্‌ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

পূর্বোক্ত হাদীসের অনুরূপ বর্ণিত। তবে তার বর্ণনায় হাদীসের শেষাংশ এরূপ : “যাদের সাথে কুরবানীর পশু ছিল না, ত্বল্‌হাহ্‌ ইবনি উবায়দুল্লাহ [রাদি.] এবং আরও এক ব্যক্তি তাদের অন্তর্ভুক্ত ছিলেন। অতএব তারা উভয়ে ইহরাম খুলে ফেলেন।” [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৮৭৪, ইসলামিক সেন্টার- ২৮৭৩]

By বুলূগুল মারাম

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Leave a Reply