সুরা হাদীদ বাংলা অনুবাদ Sura Al Hadid in Words & Audio

সুরা হাদীদ বাংলা অনুবাদ Sura Al Hadid in Words & Audio

সুরা হাদীদ >> ১১৪ টি সূরার সূচীপত্র লিস্ট >> ২০ টির অধিক তাফসীর কিতাব পড়ুন

৫৭ – সুরা হাদীদ – আয়াত : ২৯, মাদানী, রুকু ৪

সুরা হাদীদ mp3 Download

পরম করুণাময় অতি দয়ালু আল্লাহর নামেبِسۡمِ ٱللَّهِ ٱلرَّحۡمَٰنِ ٱلرَّحِيمِ
(1) আসমানসমূহ ও যমীনে যা কিছু আছে, সবই আল্লাহর তাসবীহ পাঠ করে। আর তিনি পরাক্রমশালী, প্রজ্ঞাময়।سَبَّحَ لِلَّهِ مَا فِي ٱلسَّمَٰوَٰتِ وَٱلۡأَرۡضِۖ وَهُوَ ٱلۡعَزِيزُ ٱلۡحَكِيمُ ١
(2) আসমানসমূহ ও যমীনের রাজত্ব তাঁরই। তিনিই জীবন দেন এবং তিনিই মৃত্যু দেন। আর তিনি সকল কিছুর উপর সর্বশক্তিমান।لَهُۥ مُلۡكُ ٱلسَّمَٰوَٰتِ وَٱلۡأَرۡضِۖ يُحۡيِۦ وَيُمِيتُۖ وَهُوَ عَلَىٰ كُلِّ شَيۡءٖ قَدِيرٌ ٢
(3) তিনিই প্রথম ও শেষ এবং প্রকাশ্য ও গোপন; আর তিনি সকল বিষয়ে সম্যক অবগত।هُوَ ٱلۡأَوَّلُ وَٱلۡأٓخِرُ وَٱلظَّٰهِرُ وَٱلۡبَاطِنُۖ وَهُوَ بِكُلِّ شَيۡءٍ عَلِيمٌ ٣
(4) তিনিই আসমানসমূহ ও যমীন ছয় দিনে সৃষ্টি করেছেন, তারপর তিনি আরশে উঠেছেন। তিনি জানেন যমীনে যা কিছু প্রবেশ করে এবং তা থেকে যা কিছু বের হয়; আর আসমান থেকে যা কিছু অবতীর্ণ হয় এবং তাতে যা কিছু উত্থিত হয়। আর তোমরা যেখানেই থাক না কেন, তিনি তোমাদের সাথেই আছেন। আর তোমরা যা কর, আল্লাহ তার সম্যক দ্রষ্টা।هُوَ ٱلَّذِي خَلَقَ ٱلسَّمَٰوَٰتِ وَٱلۡأَرۡضَ فِي سِتَّةِ أَيَّامٖ ثُمَّ ٱسۡتَوَىٰ عَلَى ٱلۡعَرۡشِۖ يَعۡلَمُ مَا يَلِجُ فِي ٱلۡأَرۡضِ وَمَا يَخۡرُجُ مِنۡهَا وَمَا يَنزِلُ مِنَ ٱلسَّمَآءِ وَمَا يَعۡرُجُ فِيهَاۖ وَهُوَ مَعَكُمۡ أَيۡنَ مَا كُنتُمۡۚ وَٱللَّهُ بِمَا تَعۡمَلُونَ بَصِيرٞ ٤
(5) আসমানসমূহ ও যমীনের রাজত্ব তাঁরই এবং আল্লাহরই দিকে সকল বিষয় প্রত্যাবর্তিত হবে।لَّهُۥ مُلۡكُ ٱلسَّمَٰوَٰتِ وَٱلۡأَرۡضِۚ وَإِلَى ٱللَّهِ تُرۡجَعُ ٱلۡأُمُورُ ٥
(6) তিনি রাতকে দিনের মধ্যে প্রবেশ করান এবং দিনকে রাতের মধ্যে প্রবেশ করান। আর তিনি অন্তরসমূহের বিষয়াদি সম্পর্কে সম্যক অবগত।يُولِجُ ٱلَّيۡلَ فِي ٱلنَّهَارِ وَيُولِجُ ٱلنَّهَارَ فِي ٱلَّيۡلِۚ وَهُوَ عَلِيمُۢ بِذَاتِ ٱلصُّدُورِ ٦
(7) তোমরা আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের প্রতি ঈমান আন এবং তিনি তোমাদেরকে যা কিছুর উত্তরাধিকারী করেছেন, তা থেকে ব্যয় কর। অতঃপর তোমাদের মধ্যে যারা ঈমান আনে ও (আল্লাহর পথে) ব্যয় করে তাদের জন্য রয়েছে বিরাট প্রতিফল।ءَامِنُواْ بِٱللَّهِ وَرَسُولِهِۦ وَأَنفِقُواْ مِمَّا جَعَلَكُم مُّسۡتَخۡلَفِينَ فِيهِۖ فَٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ مِنكُمۡ وَأَنفَقُواْ لَهُمۡ أَجۡرٞ كَبِيرٞ ٧
(8) আর তোমাদের কী হলো যে, তোমরা আল্লাহর প্রতি ঈমান আনছ না? অথচ রাসূল তোমাদেরকে তোমাদের রবের প্রতি ঈমান আনতে আহবান করছে। আর তিনি  তোমাদের কাছ থেকে অঙ্গীকার গ্রহণ করেছেন, যদি তোমরা মুমিন হও।وَمَا لَكُمۡ لَا تُؤۡمِنُونَ بِٱللَّهِ وَٱلرَّسُولُ يَدۡعُوكُمۡ لِتُؤۡمِنُواْ بِرَبِّكُمۡ وَقَدۡ أَخَذَ مِيثَٰقَكُمۡ إِن كُنتُم مُّؤۡمِنِينَ ٨
(9) তিনিই তাঁর বান্দার প্রতি সুস্পষ্ট আয়াতসমূহ নাযিল করেন, যাতে তিনি তোমাদেরকে অন্ধকার থেকে আলোর দিকে বের করে আনতে পারেন। আর নিশ্চয় আল্লাহ তোমাদের প্রতি অতিশয় দয়ালু, পরম করুণাময়।هُوَ ٱلَّذِي يُنَزِّلُ عَلَىٰ عَبۡدِهِۦٓ ءَايَٰتِۢ بَيِّنَٰتٖ لِّيُخۡرِجَكُم مِّنَ ٱلظُّلُمَٰتِ إِلَى ٱلنُّورِۚ وَإِنَّ ٱللَّهَ بِكُمۡ لَرَءُوفٞ رَّحِيمٞ ٩
(10) তোমাদের কী হলো যে, তোমরা আল্লাহর পথে ব্যয় করছ না ? অথচ আসমানসমূহ ও যমীনের উত্তরাধিকারতো আল্লাহরই? তোমাদের মধ্যে যারা মক্কা বিজয়ের পূর্বে ব্যয় করেছে এবং যুদ্ধ করেছে তারা সমান নয়। তারা মর্যাদায় তাদের চেয়ে শ্রেষ্ঠ, যারা পরে ব্যয় করেছে ও যুদ্ধ করেছে। তবে আল্লাহ প্রত্যেকের জন্যই কল্যাণের ওয়াদা করেছেন। আর তোমরা যা কর, সে সম্পর্কে আল্লাহ সবিশেষ অবগত।وَمَا لَكُمۡ أَلَّا تُنفِقُواْ فِي سَبِيلِ ٱللَّهِ وَلِلَّهِ مِيرَٰثُ ٱلسَّمَٰوَٰتِ وَٱلۡأَرۡضِۚ لَا يَسۡتَوِي مِنكُم مَّنۡ أَنفَقَ مِن قَبۡلِ ٱلۡفَتۡحِ وَقَٰتَلَۚ أُوْلَٰٓئِكَ أَعۡظَمُ دَرَجَةٗ مِّنَ ٱلَّذِينَ أَنفَقُواْ مِنۢ بَعۡدُ وَقَٰتَلُواْۚ وَكُلّٗا وَعَدَ ٱللَّهُ ٱلۡحُسۡنَىٰۚ وَٱللَّهُ بِمَا تَعۡمَلُونَ خَبِيرٞ ١٠
সুরা হাদীদع রুকু
(11) এমন কে আছে যে, আল্লাহকে উত্তম করয দিবে ? তাহলে তিনি তার জন্য তা বহুগুণে বৃদ্ধি করে দিবেন এবং তার জন্য রয়েছে সম্মানজনক প্রতিদান।مَّن ذَا ٱلَّذِي يُقۡرِضُ ٱللَّهَ قَرۡضًا حَسَنٗا فَيُضَٰعِفَهُۥ لَهُۥ وَلَهُۥٓ أَجۡرٞ كَرِيمٞ ١١
(12) সেদিন তুমি মুমিন পুরুষদের ও মুমিন নারীদের দেখতে পাবে যে, তাদের সামনে ও তাদের ডান পার্শ্বে তাদের নূর ছুটতে থাকবে। (বলা হবে) ‘আজ তোমাদের সুসংবাদ হল জান্নাত, যার তলদেশ দিয়ে নদীসমূহ প্রবাহিত, তথায় তোমরা স্থায়ী হবে। এটাই হল মহাসাফল্য।يَوۡمَ تَرَى ٱلۡمُؤۡمِنِينَ وَٱلۡمُؤۡمِنَٰتِ يَسۡعَىٰ نُورُهُم بَيۡنَ أَيۡدِيهِمۡ وَبِأَيۡمَٰنِهِمۖ بُشۡرَىٰكُمُ ٱلۡيَوۡمَ جَنَّٰتٞ تَجۡرِي مِن تَحۡتِهَا ٱلۡأَنۡهَٰرُ خَٰلِدِينَ فِيهَاۚ ذَٰلِكَ هُوَ ٱلۡفَوۡزُ ٱلۡعَظِيمُ ١٢
(13) সেদিন মুনাফিক পুরুষ ও মুনাফিক নারীগণ ঈমানদারদের বলবে, ‘তোমরা আমাদের জন্য অপেক্ষা কর, তোমাদের নূর থেকে আমরা একটু নিয়ে নেই’, বলা হবে, ‘তোমরা তোমাদের পিছনে ফিরে যাও এবং নূরের সন্ধান কর,’ তারপর তাদের মাঝখানে একটি প্রাচীর স্থাপন করে দেয়া হবে, যাতে একটি দরজা থাকবে। তার ভিতরভাগে থাকবে রহমত এবং তার বহির্ভাগে থাকবে আযাব।يَوۡمَ يَقُولُ ٱلۡمُنَٰفِقُونَ وَٱلۡمُنَٰفِقَٰتُ لِلَّذِينَ ءَامَنُواْ ٱنظُرُونَا نَقۡتَبِسۡ مِن نُّورِكُمۡ قِيلَ ٱرۡجِعُواْ وَرَآءَكُمۡ فَٱلۡتَمِسُواْ نُورٗاۖ فَضُرِبَ بَيۡنَهُم بِسُورٖ لَّهُۥ بَابُۢ بَاطِنُهُۥ فِيهِ ٱلرَّحۡمَةُ وَظَٰهِرُهُۥ مِن قِبَلِهِ ٱلۡعَذَابُ ١٣
(14) মুনাফিকরা মুমিনদেরকে ডেকে বলবে, ‘আমরা কি তোমাদের সাথে ছিলাম না? তারা বলবে ‘হ্যাঁ, কিন্তু তোমরা নিজেরাই নিজদেরকে বিপদগ্রস্ত করেছ। আর তোমরা অপেক্ষা করেছিলে[1] এবং সন্দেহ পোষণ করেছিলে এবং আকাঙ্ক্ষা তোমাদেরকে প্রতারিত করেছিল, অবশেষে আল্লাহর নির্দেশ এসে গেল। আর মহা প্রতারক[2] তোমাদেরকে আল্লাহ সম্পর্কে প্রতারিত করেছিল।يُنَادُونَهُمۡ أَلَمۡ نَكُن مَّعَكُمۡۖ قَالُواْ بَلَىٰ وَلَٰكِنَّكُمۡ فَتَنتُمۡ أَنفُسَكُمۡ وَتَرَبَّصۡتُمۡ وَٱرۡتَبۡتُمۡ وَغَرَّتۡكُمُ ٱلۡأَمَانِيُّ حَتَّىٰ جَآءَ أَمۡرُ ٱللَّهِ وَغَرَّكُم بِٱللَّهِ ٱلۡغَرُورُ ١٤
(15) সুতরাং আজ তোমাদের কাছ থেকে কোন মুক্তিপণ গ্রহণ করা হবে না এবং যারা কুফরী করেছিল তাদের কাছ থেকেও না। জাহান্নামই তোমাদের আবাসস্থল। সেটাই তোমাদের উপযুক্ত স্থান। আর কতই না নিকৃষ্ট সেই গন্তব্যস্থল!فَٱلۡيَوۡمَ لَا يُؤۡخَذُ مِنكُمۡ فِدۡيَةٞ وَلَا مِنَ ٱلَّذِينَ كَفَرُواْۚ مَأۡوَىٰكُمُ ٱلنَّارُۖ هِيَ مَوۡلَىٰكُمۡۖ وَبِئۡسَ ٱلۡمَصِيرُ ١٥
(16) যারা ঈমান এনেছে তাদের হৃদয় কি আল্লাহর স্মরণে এবং যে সত্য নাযিল হয়েছে তার কারণে বিগলিত হওয়ার সময় হয়নি ? আর তারা যেন তাদের মত না হয়, যাদেরকে ইতঃপূর্বে কিতাব দেয়া হয়েছিল, তারপর তাদের উপর দিয়ে দীর্ঘকাল অতিক্রান্ত হল, অতঃপর তাদের অন্তরসমূহ কঠিন হয়ে গেল। আর তাদের অধিকাংশই ফাসিক।۞أَلَمۡ يَأۡنِ لِلَّذِينَ ءَامَنُوٓاْ أَن تَخۡشَعَ قُلُوبُهُمۡ لِذِكۡرِ ٱللَّهِ وَمَا نَزَلَ مِنَ ٱلۡحَقِّ وَلَا يَكُونُواْ كَٱلَّذِينَ أُوتُواْ ٱلۡكِتَٰبَ مِن قَبۡلُ فَطَالَ عَلَيۡهِمُ ٱلۡأَمَدُ فَقَسَتۡ قُلُوبُهُمۡۖ وَكَثِيرٞ مِّنۡهُمۡ فَٰسِقُونَ ١٦
(17) তোমরা জেনে রাখ যে, আল্লাহ্ যমীনকে তার মৃত্যুর পর পুনর্জীবিত করেন। আমি নিদর্শনসমূহ তোমাদের কাছে সুস্পষ্টভাবে বর্ণনা করেছি, আশা করা যায় তোমরা বুঝতে পারবে।ٱعۡلَمُوٓاْ أَنَّ ٱللَّهَ يُحۡيِ ٱلۡأَرۡضَ بَعۡدَ مَوۡتِهَاۚ قَدۡ بَيَّنَّا لَكُمُ ٱلۡأٓيَٰتِ لَعَلَّكُمۡ تَعۡقِلُونَ ١٧
(18) নিশ্চয় দানশীল পুরুষ ও দানশীল নারী এবং যারা আল্লাহকে উত্তম করয দেয়, তাদের জন্য বহুগুণ বাড়িয়ে দেয়া হবে এবং তাদের জন্য রয়েছে সম্মানজনক প্রতিদান।إِنَّ ٱلۡمُصَّدِّقِينَ وَٱلۡمُصَّدِّقَٰتِ وَأَقۡرَضُواْ ٱللَّهَ قَرۡضًا حَسَنٗا يُضَٰعَفُ لَهُمۡ وَلَهُمۡ أَجۡرٞ كَرِيمٞ ١٨
(19) আর যারা আল্লাহ ও তাঁর রাসূলদের প্রতি ঈমান আনে, তারাই তাদের রবের নিকট সিদ্দীক ও শহীদ। তাদের জন্য রয়েছে তাদের প্রতিফল এবং তাদের নূর। আর যারা কুফরী করে এবং আমার আয়াতসমূহ অস্বীকার করে, তারাই জাহান্নামের অধিবাসী।وَٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ بِٱللَّهِ وَرُسُلِهِۦٓ أُوْلَٰٓئِكَ هُمُ ٱلصِّدِّيقُونَۖ وَٱلشُّهَدَآءُ عِندَ رَبِّهِمۡ لَهُمۡ أَجۡرُهُمۡ وَنُورُهُمۡۖ وَٱلَّذِينَ كَفَرُواْ وَكَذَّبُواْ بِ‍َٔايَٰتِنَآ أُوْلَٰٓئِكَ أَصۡحَٰبُ ٱلۡجَحِيمِ ١٩
সুরা হাদীদع রুকু
(20) তোমরা জেনে রাখ যে, দুনিয়ার জীবন ক্রীড়া কৌতুক, শোভা-সৌন্দর্য, তোমাদের পারস্পরিক গর্ব-অহঙ্কার এবং ধন-সম্পদ ও সন্তান-সন্ততিতে আধিক্যের প্রতিযোগিতা মাত্র। এর উপমা হল বৃষ্টির মত, যার উৎপন্ন ফসল কৃষকদেরকে আনন্দ দেয়, তারপর তা শুকিয়ে যায়, তখন তুমি তা হলুদ বর্ণের দেখতে পাও, তারপর তা খড়-কুটায় পরিণত হয়। আর আখিরাতে আছে কঠিন আযাব এবং আল্লাহর পক্ষ থেকে ক্ষমা ও সন্তুষ্টি। আর দুনিয়ার জীবনটা তো ধোকার সামগ্রী ছাড়া আর কিছুই নয়।ٱعۡلَمُوٓاْ أَنَّمَا ٱلۡحَيَوٰةُ ٱلدُّنۡيَا لَعِبٞ وَلَهۡوٞ وَزِينَةٞ وَتَفَاخُرُۢ بَيۡنَكُمۡ وَتَكَاثُرٞ فِي ٱلۡأَمۡوَٰلِ وَٱلۡأَوۡلَٰدِۖ كَمَثَلِ غَيۡثٍ أَعۡجَبَ ٱلۡكُفَّارَ نَبَاتُهُۥ ثُمَّ يَهِيجُ فَتَرَىٰهُ مُصۡفَرّٗا ثُمَّ يَكُونُ حُطَٰمٗاۖ وَفِي ٱلۡأٓخِرَةِ عَذَابٞ شَدِيدٞ وَمَغۡفِرَةٞ مِّنَ ٱللَّهِ وَرِضۡوَٰنٞۚ وَمَا ٱلۡحَيَوٰةُ ٱلدُّنۡيَآ إِلَّا مَتَٰعُ ٱلۡغُرُورِ ٢٠
(21) তোমরা তোমাদের রবের পক্ষ থেকে ক্ষমা ও সেই জান্নাতের দিকে প্রতিযোগিতায় অবতীর্ণ হও, যার  প্রশস্ততা আসমান ও যমীনের প্রশস্ততার মত। তা প্রস্তত করা হয়েছে যারা আল্লাহ ও তাঁর রাসূলদের প্রতি ঈমান আনে তাদের জন্য। এটা আল্লাহর অনুগ্রহ। তিনি যাকে ইচ্ছা তা দান করেন। আর আল্লাহ মহা অনুগ্রহশীল।سَابِقُوٓاْ إِلَىٰ مَغۡفِرَةٖ مِّن رَّبِّكُمۡ وَجَنَّةٍ عَرۡضُهَا كَعَرۡضِ ٱلسَّمَآءِ وَٱلۡأَرۡضِ أُعِدَّتۡ لِلَّذِينَ ءَامَنُواْ بِٱللَّهِ وَرُسُلِهِۦۚ ذَٰلِكَ فَضۡلُ ٱللَّهِ يُؤۡتِيهِ مَن يَشَآءُۚ وَٱللَّهُ ذُو ٱلۡفَضۡلِ ٱلۡعَظِيمِ ٢١
(22) যমীনে এবং তোমাদের নিজদের মধ্যে এমন কোন মুসীবত আপতিত হয় না, যা আমি সংঘটিত করার পূর্বে কিতাবে লিপিবদ্ধ রাখি না। নিশ্চয় এটা আল্লাহর পক্ষে খুবই সহজ।مَآ أَصَابَ مِن مُّصِيبَةٖ فِي ٱلۡأَرۡضِ وَلَا فِيٓ أَنفُسِكُمۡ إِلَّا فِي كِتَٰبٖ مِّن قَبۡلِ أَن نَّبۡرَأَهَآۚ إِنَّ ذَٰلِكَ عَلَى ٱللَّهِ يَسِيرٞ ٢٢
(23) যাতে তোমরা আফসোস না কর তার উপর যা তোমাদের থেকে হারিয়ে গেছে এবং তোমরা উৎফুল্ল না হও তিনি তোমাদেরকে যা দিয়েছেন তার কারণে। আর আল্লাহ কোন উদ্ধত ও অহঙ্কারীকে পছন্দ করেন না।لِّكَيۡلَا تَأۡسَوۡاْ عَلَىٰ مَا فَاتَكُمۡ وَلَا تَفۡرَحُواْ بِمَآ ءَاتَىٰكُمۡۗ وَٱللَّهُ لَا يُحِبُّ كُلَّ مُخۡتَالٖ فَخُورٍ ٢٣
(24) যারা কৃপণতা করে এবং মানুষকে কৃপণতার নির্দেশ দেয়, আর যে মুখ ফিরিয়ে নেয়, তাহলে আল্লাহ নিশ্চয় অভাবমুক্ত, সপ্রশংসিত।ٱلَّذِينَ يَبۡخَلُونَ وَيَأۡمُرُونَ ٱلنَّاسَ بِٱلۡبُخۡلِۗ وَمَن يَتَوَلَّ فَإِنَّ ٱللَّهَ هُوَ ٱلۡغَنِيُّ ٱلۡحَمِيدُ ٢٤
(25) নিশ্চয় আমি আমার রাসূলদেরকে স্পষ্ট প্রমাণাদিসহ পাঠিয়েছি এবং তাদের সাথে কিতাব ও (ন্যায়ের) মানদন্ড নাযিল করেছি, যাতে মানুষ সুবিচার প্রতিষ্ঠা করে। আমি আরো নাযিল করেছি লোহা, তাতে প্রচন্ড শক্তি ও মানুষের জন্য বহু কল্যাণ রয়েছে। আর যাতে আল্লাহ জেনে নিতে পারেন, কে না দেখেও তাঁকে ও তাঁর রাসূলদেরকে সাহায্য করে। অবশ্যই আল্লাহ মহাশক্তিধর, মহাপরাক্রমশালী।لَقَدۡ أَرۡسَلۡنَا رُسُلَنَا بِٱلۡبَيِّنَٰتِ وَأَنزَلۡنَا مَعَهُمُ ٱلۡكِتَٰبَ وَٱلۡمِيزَانَ لِيَقُومَ ٱلنَّاسُ بِٱلۡقِسۡطِۖ وَأَنزَلۡنَا ٱلۡحَدِيدَ فِيهِ بَأۡسٞ شَدِيدٞ وَمَنَٰفِعُ لِلنَّاسِ وَلِيَعۡلَمَ ٱللَّهُ مَن يَنصُرُهُۥ وَرُسُلَهُۥ بِٱلۡغَيۡبِۚ إِنَّ ٱللَّهَ قَوِيٌّ عَزِيزٞ ٢٥
সুরা হাদীদع রুকু
(26) আর আমি তো নূহ ও ইবরাহীমকে রাসূলরূপে পাঠিয়েছিলাম এবং তাদের বংশধরদের মধ্যে নবুওয়াত ও কিতাব দিয়েছিলাম। তারপর তাদের মধ্যে কেউ কেউ সঠিক পথ অবলম্বনকারী ছিল, আর তাদের অধিকাংশই ছিল ফাসিক।وَلَقَدۡ أَرۡسَلۡنَا نُوحٗا وَإِبۡرَٰهِيمَ وَجَعَلۡنَا فِي ذُرِّيَّتِهِمَا ٱلنُّبُوَّةَ وَٱلۡكِتَٰبَۖ فَمِنۡهُم مُّهۡتَدٖۖ وَكَثِيرٞ مِّنۡهُمۡ فَٰسِقُونَ ٢٦
(27) তারপর তাদের পিছনে আমি আমার রাসূলদেরকে অনুগামী করেছিলাম এবং মারইয়াম পুত্র ঈসাকেও অনুগামী করেছিলাম। আর তাকে ইনজীল কিতাব দিয়েছিলাম এবং যারা তার অনুসরণ করেছিল তাদের অন্তরসমূহে করুণা ও দয়ামায়া দিয়েছিলাম। আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের আশায় তারাই বৈরাগ্যবাদের প্রবর্তন করেছিল। এটা আমি তাদের ওপর লিপিবদ্ধ করে দেইনি। তারপর তাও তারা যথাযথভাবে রক্ষণাবেক্ষণ করেনি। আর তাদের মধ্যে যারা ঈমান এনেছিল তাদেরকে আমি তাদের প্রতিদান দিয়েছিলাম এবং তাদের মধ্যে অধিকাংশই ছিল ফাসিক।ثُمَّ قَفَّيۡنَا عَلَىٰٓ ءَاثَٰرِهِم بِرُسُلِنَا وَقَفَّيۡنَا بِعِيسَى ٱبۡنِ مَرۡيَمَ وَءَاتَيۡنَٰهُ ٱلۡإِنجِيلَۖ وَجَعَلۡنَا فِي قُلُوبِ ٱلَّذِينَ ٱتَّبَعُوهُ رَأۡفَةٗ وَرَحۡمَةٗۚ وَرَهۡبَانِيَّةً ٱبۡتَدَعُوهَا مَا كَتَبۡنَٰهَا عَلَيۡهِمۡ إِلَّا ٱبۡتِغَآءَ رِضۡوَٰنِ ٱللَّهِ فَمَا رَعَوۡهَا حَقَّ رِعَايَتِهَاۖ فَ‍َٔاتَيۡنَا ٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ مِنۡهُمۡ أَجۡرَهُمۡۖ وَكَثِيرٞ مِّنۡهُمۡ فَٰسِقُونَ ٢٧
(28) হে মুমিনগণ, তোমরা আল্লাহকে ভয় কর এবং তাঁর রাসূলের প্রতি ঈমান আন, তিনি স্বীয় রহমতে তোমাদেরকে দ্বিগুণ পুরস্কার দেবেন, আর তোমাদেরকে নূর দেবেন যার সাহায্যে তোমরা চলতে পারবে এবং তিনি তোমাদেরকে ক্ষমা করে দেবেন। আর আল্লাহ বড়ই ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু।يَٰٓأَيُّهَا ٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ ٱتَّقُواْ ٱللَّهَ وَءَامِنُواْ بِرَسُولِهِۦ يُؤۡتِكُمۡ كِفۡلَيۡنِ مِن رَّحۡمَتِهِۦ وَيَجۡعَل لَّكُمۡ نُورٗا تَمۡشُونَ بِهِۦ وَيَغۡفِرۡ لَكُمۡۚ وَٱللَّهُ غَفُورٞ رَّحِيمٞ ٢٨
(29) (তা এজন্য যে,) আহলে কিতাবগণ যেন জেনে নিতে পারে, আল্লাহর অনুগ্রহের কোন বস্তুতেই তারা ক্ষমতা রাখে না। আর নিশ্চয় অনুগ্রহ আল্লাহর হাতেই, যাকে ইচ্ছা তিনি তা দেন। আর আল্লাহ মহাঅনুগ্রহের অধিকারী।لِّئَلَّا يَعۡلَمَ أَهۡلُ ٱلۡكِتَٰبِ أَلَّا يَقۡدِرُونَ عَلَىٰ شَيۡءٖ مِّن فَضۡلِ ٱللَّهِ وَأَنَّ ٱلۡفَضۡلَ بِيَدِ ٱللَّهِ يُؤۡتِيهِ مَن يَشَآءُۚ وَٱللَّهُ ذُو ٱلۡفَضۡلِ ٱلۡعَظِيمِ ٢٩
সুরা হাদীদع রুকু

Sura Al Hadid in Words

(1)

سَبَّحَ

মহিমা ঘোষণা করছে

Glorifies

لِلَّهِ

আল্লাহ্‌রই জন্য

[to] Allah

مَا

যা কিছু

whatever

فِى

মধ্যে আছে

(is) in

ٱلسَّمَٰوَٰتِ

আকাশের

the heavens

وَٱلْأَرْضِ

ও পৃথিবীতে

and the earth

وَهُوَ

এবং তিনি

and He

ٱلْعَزِيزُ

পরাক্রমশালী

(is) the All-Mighty

ٱلْحَكِيمُ

প্রজ্ঞাময়

the All-Wise

(2)

لَهُۥ

তাঁরই জন্যে

For Him

مُلْكُ

সার্বভৌমত্ব

(is the) dominion

ٱلسَّمَٰوَٰتِ

আকাশের

(of) the heavens

وَٱلْأَرْضِ

ও পৃথিবীর

and the earth

يُحْىِۦ

তিনি জীবন দান করেন

He gives life

وَيُمِيتُ

ও মৃত্যু ঘটান

and causes death

وَهُوَ

এবং তিনিই

and He

عَلَىٰ

উপর

(is) over

كُلِّ

সব

all

شَىْءٍ

কিছুরই

things

قَدِيرٌ

সর্বশক্তিমান

All-Powerful

(3)

هُوَ

তিনিই

He

ٱلْأَوَّلُ

প্রথম

(is) the First

وَٱلْءَاخِرُ

ও (তিনিই) শেষ

and the Last

وَٱلظَّٰهِرُ

এবং (তিনিই) ব্যক্ত

and the Apparent

وَٱلْبَاطِنُ

ও তিনিই অব্যক্ত

and the Unapparent

وَهُوَ

এবং তিনিই

and He

بِكُلِّ

সব সম্বন্ধে

(is) of every

شَىْءٍ

কিছু

thing

عَلِيمٌ

খুব অবহিত

All-Knower

(4)

هُوَ

তিনিই

He

ٱلَّذِى

যিনি

(is) the One Who

خَلَقَ

সৃষ্টি করেছেন

created

ٱلسَّمَٰوَٰتِ

আকাশ সমুহকে

the heavens

وَٱلْأَرْضَ

ও পৃথিবীকে

and the earth

فِى

মধ্যে

in

سِتَّةِ

ছয়

six

أَيَّامٍ

দিনের

periods

ثُمَّ

অতঃপর

then

ٱسْتَوَىٰ

সমাসীন হন

He rose

عَلَى

উপর

over

ٱلْعَرْشِ

আরশের

the Throne

يَعْلَمُ

তিনি জানেন

He knows

مَا

যা কিছু

what

يَلِجُ

ঢোকে

penetrates

فِى

মধ্যে

in(to)

ٱلْأَرْضِ

মাটির

the earth

وَمَا

এবং যা

and what

يَخْرُجُ

বের হয়

comes forth

مِنْهَا

তা থেকে

from it

وَمَا

এবং যা কিছু

and what

يَنزِلُ

নামে

descends

مِنَ

হতে

from

ٱلسَّمَآءِ

আকাশ

the heaven

وَمَا

ও যা কিছু

and what

يَعْرُجُ

উঠে

ascends

فِيهَا

তার মধ্য হতে

therein

وَهُوَ

এবং তিনি (আছেন)

and He

مَعَكُمْ

তোমাদের সাথে

(is) with you

أَيْنَ

যেখানেই

wherever

مَا

যা

wherever

كُنتُمْ

তোমরা থাক

you are

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ্‌

And Allah

بِمَا

ঐ সম্বন্ধে যা

of what

تَعْمَلُونَ

তোমরা কাজ করছ

you do

بَصِيرٌ

খুব দেখেন

(is) All-seer

(5)

لَّهُۥ

তাঁরই জন্যে

For Him

مُلْكُ

সার্বভৌমত্ব

(is the) dominion

ٱلسَّمَٰوَٰتِ

আকাশের

(of) the heavens

وَٱلْأَرْضِ

ও পৃথিবীর

and the earth

وَإِلَى

এবং দিকে

and to

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌রই

Allah

تُرْجَعُ

প্রত্যাবর্তিত হয়

will be returned

ٱلْأُمُورُ

(সমস্ত) সব বিষয়

the matters

(6)

يُولِجُ

তিনি প্রবেশ করান

He merges

ٱلَّيْلَ

রাতকে

the night

فِى

মধ্যে

into

ٱلنَّهَارِ

দিনের

the day

وَيُولِجُ

ও প্রবেশ করান

and He merges

ٱلنَّهَارَ

দিনকে

the day

فِى

মধ্যে

into

ٱلَّيْلِ

রাতের

the night

وَهُوَ

এবং তিনিই

and He

عَلِيمٌۢ

খুব অবহিত

(is) All-Knower

بِذَاتِ

অবস্থা সম্বন্ধে

of what is in the breasts

ٱلصُّدُورِ

অন্তর সমূহের

of what is in the breasts

(7)

ءَامِنُوا۟

তোমরা ঈমান আন

Believe

بِٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র উপর

in Allah

وَرَسُولِهِۦ

ও তাঁর রাসূলের উপর

and His Messenger

وَأَنفِقُوا۟

এবং তোমরা খরচ করো

and spend

مِمَّا

তা হতে

of what

جَعَلَكُم

তোমাদের করেছেন

He has made you

مُّسْتَخْلَفِينَ

উত্তরাধিকারী

trustees

فِيهِ

যাতে

therein

فَٱلَّذِينَ

অতঃএব যারা

And those

ءَامَنُوا۟

ঈমান আনে

who believe

مِنكُمْ

তোমাদের মধ্যে হতে

among you

وَأَنفَقُوا۟

ও খরচ করে

and spend

لَهُمْ

তাদের জন্য (রয়েছে)

for them

أَجْرٌ

পুরস্কার

(is) a reward

كَبِيرٌ

বড়

great

(8)

وَمَا

এবং কি হয়েছে

And what

لَكُمْ

তোমাদের

(is) for you

لَا

(যে) না

(that) not

تُؤْمِنُونَ

তোমরা ঈমান আন

you believe

بِٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র উপর

in Allah

وَٱلرَّسُولُ

অথচ রাসূল

while the Messenger

يَدْعُوكُمْ

তোমাদেরকে ডাকছেন

calls you

لِتُؤْمِنُوا۟

তোমরা ঈমান যেন আন

that you believe

بِرَبِّكُمْ

তোমার রবের উপর

in your Lord

وَقَدْ

এবং নিশ্চয়ই

and indeed

أَخَذَ

তিনি নিয়েছেন

He has taken

مِيثَٰقَكُمْ

তোমাদের প্রতিশ্রুতি

your covenant

إِن

যদি

if

كُنتُم

তোমরা হও

you are

مُّؤْمِنِينَ

মুমিন

believers

(9)

هُوَ

তিনিই (সেই আল্লাহ্‌)

He

ٱلَّذِى

যিনি

(is) the One Who

يُنَزِّلُ

অবতীর্ণ করেছেন

sends down

عَلَىٰ

উপর

upon

عَبْدِهِۦٓ

তাঁর বান্দার/ দাসের

His slave

ءَايَٰتٍۭ

আয়াত সমূহ

Verses

بَيِّنَٰتٍ

সুস্পষ্ট

clear

لِّيُخْرِجَكُم

তোমাদের বের করার জন্যে

that He may bring you out

مِّنَ

হতে

from

ٱلظُّلُمَٰتِ

অন্ধকারসমূহ

the darkness[es]

إِلَى

দিকে

into

ٱلنُّورِ

আলোর

the light

وَإِنَّ

এবং নিশ্চয়ই

And indeed

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌

Allah

بِكُمْ

তোমাদের উপর

to you

لَرَءُوفٌ

অবশ্যই করুণাময়

(is the) Most Kind

رَّحِيمٌ

পরম দয়ালু

(the) Most Merciful

(10)

وَمَا

এবং কি

And what

لَكُمْ

তোমাদের হয়েছে

(is) for you

أَلَّا

যে না

that not

تُنفِقُوا۟

তোমরা ব্যয় করছ

you spend

فِى

মধ্যে

in

سَبِيلِ

পথের

(the) way

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র

(of) Allah?

وَلِلَّهِ

অথচ আল্লাহ্‌রই জন্য

while for Allah

مِيرَٰثُ

উত্তারাধিকার (অর্থাৎ মালিকানা)

(is the) heritage

ٱلسَّمَٰوَٰتِ

আকাশের

(of) the heavens

وَٱلْأَرْضِ

ও পৃথিবীর

and the earth?

لَا

নয়

Not

يَسْتَوِى

সমান

are equal

مِنكُم

তোমাদের মধ্য হতে

among you

مَّنْ

যে

(those) who

أَنفَقَ

ব্যয় করেছে

spent

مِن

মধ্য হতে

before

قَبْلِ

পূর্বে

before

ٱلْفَتْحِ

বিজয়ের

the victory

وَقَٰتَلَ

এবং জিহাদ করেছে

and fought

أُو۟لَٰٓئِكَ

ঐসব লোক

Those

أَعْظَمُ

শ্রেস্ততর

(are) greater

دَرَجَةً

মর্যাদায়

(in) degree

مِّنَ

(তাদের) চেয়ে

than

ٱلَّذِينَ

যারা

those who

أَنفَقُوا۟

ব্যয় করেছে

spent

مِنۢ

মধ্য হতে

afterwards

بَعْدُ

(বিজয়ের) পরে

afterwards

وَقَٰتَلُوا۟

ও যুদ্ধ করেছে

and fought

وَكُلًّا

তবে প্রত্যেককে

But to all

وَعَدَ

প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন

Allah has promised

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah has promised

ٱلْحُسْنَىٰ

কল্যাণকর

the best

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ্‌

And Allah

بِمَا

ঐ বিষয়ে যা

of what

تَعْمَلُونَ

তোমরা কাজ করছ

you do

خَبِيرٌ

খুব অবগত

(is) All-Aware

Sura Al Hadid in Words Ruku1

(11)

مَّن

কে (আছে)

Who (is)

ذَا

সেই (ব্যক্তি)

the one who

ٱلَّذِى

যে

the one who

يُقْرِضُ

ঋণ দেবে

will loan

ٱللَّهَ

আল্লাহকে

(to) Allah

قَرْضًا

ঋণ

a loan

حَسَنًا

উত্তম

goodly

فَيُضَٰعِفَهُۥ

অতঃপর তা বহুগুণ বৃদ্ধি করবেন

so He will multiply it

لَهُۥ

তার জন্যে

for him

وَلَهُۥٓ

এবং তার জন্যে

and for him

أَجْرٌ

পুরস্কার (আছে)

(is) a reward

كَرِيمٌ

সম্মানজনক

noble?

(12)

يَوْمَ

সেদিন

(On the) Day

تَرَى

তুমি দেখবে

you will see

ٱلْمُؤْمِنِينَ

মুমিন পুরুষকে

the believing men

وَٱلْمُؤْمِنَٰتِ

ও মুমিন নারীকে

and the believing women

يَسْعَىٰ

ছুটে চলছে

running

نُورُهُم

তাদের আলো

their light

بَيْنَ

তাদের সামনে

before them

أَيْدِيهِمْ

তাদের সামনে

before them

وَبِأَيْمَٰنِهِم

ও তাদের ডানে

and on their right

بُشْرَىٰكُمُ

“(বলা হবে) তোমাদের জন্যে সুসংবাদ

“Glad tidings for you

ٱلْيَوْمَ

আজ

this Day

جَنَّٰتٌ

এক জান্নাতের

gardens

تَجْرِى

প্রবাহিত হয়

flowing

مِن

থেকে

from

تَحْتِهَا

তার নিচ

underneath it

ٱلْأَنْهَٰرُ

ঝর্ণাসমূহ

the rivers

خَٰلِدِينَ

তারা স্থায়ী হবে

abiding forever

فِيهَا

তার মধ্যে

therein

ذَٰلِكَ

এটাই

That

هُوَ

সেই

it

ٱلْفَوْزُ

সাফল্য

the success

ٱلْعَظِيمُ

মহা”

the great”

(13)

يَوْمَ

সেদিন

(On the) Day

يَقُولُ

বলবে

will say

ٱلْمُنَٰفِقُونَ

মোনাফেক পুরুষরা

the hypocrite men

وَٱلْمُنَٰفِقَٰتُ

ও মোনাফেক নারীরা

and the hypocrite women

لِلَّذِينَ

(তাদের) কে যারা

to those who

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছিল

believed

ٱنظُرُونَا

“আমাদের দিকে একটু দেখ

“Wait for us

نَقْتَبِسْ

(আলো নিয়ে) আমরা উপকৃত হব

we may acquire

مِن

হতে

of

نُّورِكُمْ

তোমাদের আলো”

your light”

قِيلَ

বলা হবে

It will be said

ٱرْجِعُوا۟

“তোমরা ফিরে যাও

“Go back

وَرَآءَكُمْ

তোমাদের পিছনে

behind you

فَٱلْتَمِسُوا۟

তোমরা অতঃপর খোঁজ করো

and seek

نُورًا

আলো”

light”

فَضُرِبَ

অতঃপর খাড়া করে দেওয়া হবে

Then will be put up

بَيْنَهُم

তাদের মাঝে

between them

بِسُورٍ

প্রাচীর

a wall

لَّهُۥ

তার থাকবে

for it

بَابٌۢ

একটি দরজা

a gate

بَاطِنُهُۥ

তার ভিতর দিকে

its interior

فِيهِ

সেখানে আছে

in it

ٱلرَّحْمَةُ

অনুগ্রহ

(is) mercy

وَظَٰهِرُهُۥ

এবং তার বাইরে

but its exterior

مِن

হতে

facing towards [it]

قِبَلِهِ

তার সামনের দিক

facing towards [it]

ٱلْعَذَابُ

শাস্তি

the punishment

(14)

يُنَادُونَهُمْ

তাদেরকে ডেকে বলবে তারা

They will call them

أَلَمْ

“নয় কি

“Were not

نَكُن

আমরা ছিলাম

we

مَّعَكُمْ

তোমাদের সাথে”

with you?”

قَالُوا۟

তারা বলবে

They will say

بَلَىٰ

“হ্যাঁ (তোমরা ছিলে)

“Yes

وَلَٰكِنَّكُمْ

কিন্তু তোমরা

but you

فَتَنتُمْ

তোমরা বিপদে ফেলেছিলে

led to temptation

أَنفُسَكُمْ

তোমাদের নিজেদেরকে

yourselves

وَتَرَبَّصْتُمْ

এবং তোমরা অপেক্ষা করেছিলে

and you awaited

وَٱرْتَبْتُمْ

ও তোমরা সন্দেহ করেছিলে

and you doubted

وَغَرَّتْكُمُ

এবং তোমাদেরকে ধোঁকা দিয়েছিল

and deceived you

ٱلْأَمَانِىُّ

মিথ্যা আকাঙ্ক্ষা

the wishful thinking

حَتَّىٰ

যতক্ষণ না

until

جَآءَ

আসল

came

أَمْرُ

নির্দেশ

(the) Command

ٱللَّهِ

আল্লাহর

(of) Allah

وَغَرَّكُم

এবং তোমাদেরকে ধোঁকা দিয়েছিল

And deceived you

بِٱللَّهِ

আল্লাহ্‌ সম্পর্কে

about Allah

ٱلْغَرُورُ

প্রতারক (শয়তান)

the deceiver

(15)

فَٱلْيَوْمَ

অতঃএব আজ

So today

لَا

না

not

يُؤْخَذُ

নেওয়া হবে

will be accepted

مِنكُمْ

তোমাদের হতে

from you

فِدْيَةٌ

কোনো মুক্তিপণ

any ransom

وَلَا

আর না

and not

مِنَ

হতে

from

ٱلَّذِينَ

যারা

those who

كَفَرُوا۟

অস্বীকার করেছিল

disbelieved

مَأْوَىٰكُمُ

তোমাদের আবাসস্থল

Your abode

ٱلنَّارُ

জাহান্নাম

(is) the Fire;

هِىَ

তা

it (is)

مَوْلَىٰكُمْ

তোমাদের সঙ্গী

your protector

وَبِئْسَ

এবং অতি নিকৃষ্ট

and wretched is

ٱلْمَصِيرُ

প্রত্যাবর্তনস্থল

the destination

(16)

أَلَمْ

নি কি (সে সময়)

Has not

يَأْنِ

সময় আসে

come (the) time

لِلَّذِينَ

(তাদের) জন্যে যারা

for those who

ءَامَنُوٓا۟

ঈমান এনেছে

believed

أَن

যে

that

تَخْشَعَ

বিগলিত হওয়ার

become humble

قُلُوبُهُمْ

তাদের অন্তর গুলো

their hearts

لِذِكْرِ

স্মরণে

at (the) remembrance (of) Allah

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র

at (the) remembrance (of) Allah

وَمَا

এবং যা

and what

نَزَلَ

অবতীর্ণ হয়েছে

has come down

مِنَ

থেকে

of

ٱلْحَقِّ

সত্য

the truth?

وَلَا

এবং না

And not

يَكُونُوا۟

তারা হবে

they become

كَٱلَّذِينَ

(তাদের) মত যাদের

like those who

أُوتُوا۟

দেওয়া হয়েছিল

were given

ٱلْكِتَٰبَ

কিতাব

the Book

مِن

মধ্য হতে

before

قَبْلُ

ইতি পূর্বে

before

فَطَالَ

অতঃপর অতিবাহিত হল

(and) was prolonged

عَلَيْهِمُ

তাদের উপর

for them

ٱلْأَمَدُ

বহুকাল

the term

فَقَسَتْ

এখন শক্ত হয়ে গিয়েছে

so hardened

قُلُوبُهُمْ

তাদের অন্তরগুলো

their hearts

وَكَثِيرٌ

এবং অধিকাংশই

and many

مِّنْهُمْ

তাদের মধ্য হতে

of them

فَٰسِقُونَ

সত্যত্যাগী

(are) defiantly disobedient

(17)

ٱعْلَمُوٓا۟

তোমরা জেনে রাখ

Know

أَنَّ

যে

that

ٱللَّهَ

আল্লাহ

Allah

يُحْىِ

জীবিত করেন

gives life

ٱلْأَرْضَ

মাটিকে

(to) the earth

بَعْدَ

পরে

after

مَوْتِهَا

তার মৃত্যুর

its death

قَدْ

নিশ্চয়ই

Indeed

بَيَّنَّا

আমরা বর্ণনা করেছি

We have made clear

لَكُمُ

তোমাদের জন্য

to you

ٱلْءَايَٰتِ

নিদর্শনগুলোকে

the Signs

لَعَلَّكُمْ

তোমরা সম্ভবত

so that you may

تَعْقِلُونَ

বুঝতে পারবে

understand

(18)

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

ٱلْمُصَّدِّقِينَ

দানশীল পুরুষরা

the men who give charity

وَٱلْمُصَّدِّقَٰتِ

ও দানশীল নারীরা

and the women who give charity

وَأَقْرَضُوا۟

এবং যারা ঋণ দিয়েছে

and who lend

ٱللَّهَ

আল্লাহ্কে

(to) Allah

قَرْضًا

ঋণ

a loan

حَسَنًا

উত্তম

goodly

يُضَٰعَفُ

বহুগুণ বাড়িয়ে দেওয়া হবে

it will be multiplied

لَهُمْ

তাদের জন্যে

for them

وَلَهُمْ

এবং তাদের জন্যে রয়েছে

and for them

أَجْرٌ

পুরস্কার

(is) a reward

كَرِيمٌ

সম্মানজনক

noble

(19)

وَٱلَّذِينَ

এবং যারা

And those who

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছে

believe

بِٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র উপর

in Allah

وَرُسُلِهِۦٓ

এবং তঁর রাসূলদের (উপর)

and His Messengers

أُو۟لَٰٓئِكَ

ঐসব লোক

[those]

هُمُ

তারাই

they

ٱلصِّدِّيقُونَ

সিদ্দিক (সত্যনিষ্ঠ)

(are) the truthful

وَٱلشُّهَدَآءُ

এবং (তারাই) শহীদ

and the martyrs

عِندَ

কাছে

(are) with

رَبِّهِمْ

তাদের রবের

their Lord

لَهُمْ

তাদের জন্যে রয়েছে

For them

أَجْرُهُمْ

তাদের পুরস্কার

(is) their reward

وَنُورُهُمْ

ও তাদের জ্যোতি

and their light

وَٱلَّذِينَ

এবং যারা

But those who

كَفَرُوا۟

অস্বীকার করেছে

disbelieve

وَكَذَّبُوا۟

ও মিথ্যা মনে করেছে

and deny

بِـَٔايَٰتِنَآ

আমাদের আয়াত গুলোকে

Our Verses

أُو۟لَٰٓئِكَ

ঐসব লোক

those

أَصْحَٰبُ

অধিবাসী (হবে)

(are the) companions

ٱلْجَحِيمِ

জাহান্নামের

(of) the Hellfire

Sura Al Hadid in Words Ruku2

(20)

ٱعْلَمُوٓا۟

তোমরা জেনে রাখ

Know

أَنَّمَا

প্রকৃতপক্ষে

that

ٱلْحَيَوٰةُ

জীবন

the life

ٱلدُّنْيَا

(এই) দুনিয়ার

(of) the world

لَعِبٌ

ক্রীড়া

(is) play

وَلَهْوٌ

ও কৌতুক (মাত্র)

and amusement

وَزِينَةٌ

এবং জাঁকজমক

and adornment

وَتَفَاخُرٌۢ

ও পারস্পরিক গৌরব অহংকার

and boasting

بَيْنَكُمْ

তোমাদের মাঝে

among you

وَتَكَاثُرٌ

ও পারস্পরিক প্রাচুর্য লাভের প্রতিযোগিতা

and competition in increase

فِى

ক্ষেত্রে

of

ٱلْأَمْوَٰلِ

সম্পদ সমুহের

the wealth

وَٱلْأَوْلَٰدِ

ও সন্তানসন্ততিতে

and the children

كَمَثَلِ

(এর) উপমা যেমন

like (the) example

غَيْثٍ

বৃষ্টি (হলে)

(of) a rain

أَعْجَبَ

চমৎকৃত করে

pleases

ٱلْكُفَّارَ

কৃষককে

the tillers

نَبَاتُهُۥ

তার উদ্ভিদ সম্ভার

its growth;

ثُمَّ

এরপর

then

يَهِيجُ

শুকিয়ে যায়

it dries

فَتَرَىٰهُ

অতঃপর তুমি তা দেখ

and you see it

مُصْفَرًّا

হলুদবর্ণ (হতে)

turning yellow;

ثُمَّ

এরপর

then

يَكُونُ

সেটা হয়ে যায়

becomes

حُطَٰمًا

খড়কুটা

debris

وَفِى

আর মধ্যে আছে

And in

ٱلْءَاخِرَةِ

আখেরাতের

the Hereafter

عَذَابٌ

শাস্তি

(is) a punishment

شَدِيدٌ

কঠোর

severe

وَمَغْفِرَةٌ

আর (আছে) ক্ষমা

and forgiveness

مِّنَ

পক্ষ হতে

from

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র

Allah

وَرِضْوَٰنٌ

এবং সন্তুষ্টিও

and Pleasure

وَمَا

এবং নয়

But not

ٱلْحَيَوٰةُ

জীবন

(is) the life

ٱلدُّنْيَآ

দুনিয়ার

(of) the world

إِلَّا

এছাড়া

except

مَتَٰعُ

সামগ্রী

(the) enjoyment

ٱلْغُرُورِ

ছলনার

(of) delusion

(21)

سَابِقُوٓا۟

তোমরা এগিয়ে যাও

Race

إِلَىٰ

দিকে

to

مَغْفِرَةٍ

ক্ষমার

(the) forgiveness

مِّن

পক্ষ হতে

from

رَّبِّكُمْ

তোমাদের রবের

your Lord

وَجَنَّةٍ

ও (এমন) জান্নাতের

and a Garden

عَرْضُهَا

যার প্রশস্ততা

its width

كَعَرْضِ

প্রশস্ততার মতো

(is) like (the) width

ٱلسَّمَآءِ

আকাশের

(of) the heaven

وَٱلْأَرْضِ

ও পৃথিবীর

and the earth

أُعِدَّتْ

প্রস্তুত করা হয়েছে

prepared

لِلَّذِينَ

(তাদের) জন্যে যারা

for those who

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছে

believe

بِٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র উপর

in Allah

وَرُسُلِهِۦ

ও তাঁর রাসূলদের (উপর)

and His Messengers

ذَٰلِكَ

এটা

That

فَضْلُ

অনুগ্রহ

(is the) Bounty

ٱللَّهِ

আল্লাহর

(of) Allah

يُؤْتِيهِ

তা দান করবেন

He gives

مَن

যাকে

(to) whom

يَشَآءُ

তিনি চান

He wills

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ

And Allah

ذُو

অধিকারী

(is) the Possessor of Bounty

ٱلْفَضْلِ

অনুগ্রহের

(is) the Possessor of Bounty

ٱلْعَظِيمِ

মহা

the Great

(22)

مَآ

না

Not

أَصَابَ

আপতিত

strikes

مِن

কোনো

any

مُّصِيبَةٍ

বিপদ

disaster

فِى

মধ্যে

in

ٱلْأَرْضِ

পৃথিবীর

the earth

وَلَا

আর না

and not

فِىٓ

উপর

in

أَنفُسِكُمْ

তোমাদের নিজেদের

yourselves

إِلَّا

এছাড়া যা

but

فِى

আছে

in

كِتَٰبٍ

একটি কিতাবে (লিখিত)

a Register

مِّن

থেকে

before

قَبْلِ

পূর্বেই

before

أَن

যে

that

نَّبْرَأَهَآ

তা আমরা ঘটাব

We bring it into existence

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

ذَٰلِكَ

এটা

that

عَلَى

জন্যে

for

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র

Allah

يَسِيرٌ

সহজ

(is) easy

(23)

لِّكَيْلَا

না এটা এজন্য যে

So that you may not

تَأْسَوْا۟

তোমরা বিমর্ষ হও

grieve

عَلَىٰ

উপর

over

مَا

যা

what

فَاتَكُمْ

তোমরা হারাও

has escaped you

وَلَا

এবং না

and (do) not

تَفْرَحُوا۟

উল্লাসিত হও তোমরা

exult

بِمَآ

ঐ বিষয়ে যা

at what

ءَاتَىٰكُمْ

তোমাদের দান করেন তিনি

He has given you

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ্‌‌

And Allah

لَا

না

(does) not

يُحِبُّ

ভালবাসেন

love

كُلَّ

প্রত্যেক

every

مُخْتَالٍ

উদ্ধত

self-deluded

فَخُورٍ

অহংকারীকে

boaster

(24)

ٱلَّذِينَ

যারা

Those who

يَبْخَلُونَ

কৃপণতা করে

are stingy

وَيَأْمُرُونَ

ও নির্দেশ দেয়

and enjoin

ٱلنَّاسَ

লোকদেরকে

(on) the people

بِٱلْبُخْلِ

কৃপণতার ব্যাপারে

stinginess

وَمَن

এবং যে

And whoever

يَتَوَلَّ

মুখ ফিরিয়ে নেয় (সে জেনে রাখুক)

turns away

فَإِنَّ

তবে নিশ্চয়ই

then indeed

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌

Allah

هُوَ

তিনিই

He

ٱلْغَنِىُّ

অভাবমুক্ত

(is) Free of need

ٱلْحَمِيدُ

প্রশংসিত

the Praiseworthy

(25)

لَقَدْ

নিশ্চয়ই

Certainly

أَرْسَلْنَا

আমরা পাঠিয়েছি

We sent

رُسُلَنَا

আমাদের রাসূলদেরকে

Our Messengers

بِٱلْبَيِّنَٰتِ

সুস্পষ্ট প্রমাণাদি সহ

with clear proofs

وَأَنزَلْنَا

এবং আমরা অবতীর্ণ করেছি

and We sent down

مَعَهُمُ

তাদের সাথে

with them

ٱلْكِتَٰبَ

কিতাব

the Scripture

وَٱلْمِيزَانَ

ও ন্যায়দণ্ড

and the Balance

لِيَقُومَ

প্রতিষ্ঠিত হয় যেন

that may establish

ٱلنَّاسُ

মানুষ

the people

بِٱلْقِسْطِ

ন্যায়বিচারের সাথে

justice

وَأَنزَلْنَا

ও আমরা অবতীর্ণ করেছি

And We sent down

ٱلْحَدِيدَ

লোহা

[the] iron

فِيهِ

যার মধ্যে রয়েছে

wherein

بَأْسٌ

শক্তি

(is) power

شَدِيدٌ

প্রচণ্ড

mighty

وَمَنَٰفِعُ

এবং নানা উপকার

and benefits

لِلنَّاسِ

মানুষের জন্য

for the people

وَلِيَعْلَمَ

এবং (এ উদ্দেশ্যে ) জানেন যেন

and so that Allah may make evident

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

and so that Allah may make evident

مَن

কে

(he) who

يَنصُرُهُۥ

তাঁকে সাহায্য করে

helps Him

وَرُسُلَهُۥ

ও তাঁর রাসূলদের

and His Messengers

بِٱلْغَيْبِ

(তাঁকে) না দেখা অবস্থায়

unseen

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌

Allah

قَوِىٌّ

শক্তিধর

(is) All-Strong

عَزِيزٌ

পরাক্রমাশালী

All-Mighty

Sura Al Hadid in Words Ruku3

(26)

وَلَقَدْ

এবং নিশ্চয়ই

And certainly

أَرْسَلْنَا

আমরা পাঠিয়েছি

We sent

نُوحًا

নূহকে

Nuh

وَإِبْرَٰهِيمَ

ও ইবরাহীমকে

and Ibrahim

وَجَعَلْنَا

এবং আমরা বজায় রেখেছি

and We placed

فِى

মধ্যে

in

ذُرِّيَّتِهِمَا

উভয়ের বংশধরদের

their offspring

ٱلنُّبُوَّةَ

নবুয়্যত

Prophethood

وَٱلْكِتَٰبَ

ও কিতাব

and the Scripture;

فَمِنْهُم

অতঃপর তাদের মধ্য হতে

and among them

مُّهْتَدٍ

(কিছু হয়েছে) সৎ পথ প্রাপ্ত

(is) a guided one

وَكَثِيرٌ

আর অনেকেই

but most

مِّنْهُمْ

তাদের মধ্যে হতে

of them

فَٰسِقُونَ

সত্যত্যাগী

(are) defiantly disobediently

(27)

ثُمَّ

এরপর

Then

قَفَّيْنَا

আমরা অনুগামী করেছি

We sent

عَلَىٰٓ

উপর

on

ءَاثَٰرِهِم

তাদের পদচিহ্নের

their footsteps

بِرُسُلِنَا

আমাদের রাসূলদেরকে

Our Messengers

وَقَفَّيْنَا

এবং আমরা এরপর অনুগামী করেছি

and We followed

بِعِيسَى

ঈসাকে

with Isa

ٱبْنِ

পুত্র

son

مَرْيَمَ

মারইয়ামের

(of) Maryam

وَءَاتَيْنَٰهُ

এবং আমরা তাকে দিয়েছি

and We gave him

ٱلْإِنجِيلَ

ইনজিল

the Injeel

وَجَعَلْنَا

এবং আমরা দিয়েছিলাম

And We placed

فِى

মধ্যে

in

قُلُوبِ

অন্তরসমূহের

(the) hearts

ٱلَّذِينَ

(তাদের) যারা

(of) those who

ٱتَّبَعُوهُ

তা্র অনুসরণ করেছে

followed him

رَأْفَةً

করুণা

compassion

وَرَحْمَةً

ও দয়া

and mercy

وَرَهْبَانِيَّةً

আর বৈরাগ্যবাদ/ সন্ন্যাসবাদ

But monasticism

ٱبْتَدَعُوهَا

তা তারা উদ্ভাবন করেছিল

they innovated –

مَا

না

not

كَتَبْنَٰهَا

তার আমরা বিধান দিয়েছি

We prescribed it

عَلَيْهِمْ

তাদের উপর

for them –

إِلَّا

কিন্তু

only

ٱبْتِغَآءَ

(তারা করেছিল) সন্ধানে

seeking

رِضْوَٰنِ

সন্তুষ্টির

(the) pleasure

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র

(of) Allah

فَمَا

কিন্তু না

but not

رَعَوْهَا

তা পালন করেছিল

they observed it

حَقَّ

যথাযথ ভাবে

(with) right

رِعَايَتِهَا

তা পালন করা (উচিৎ যেমন)

observance

فَـَٔاتَيْنَا

অতঃপর আমরা দিয়েছিলাম

So We gave

ٱلَّذِينَ

(তাদেরকে) যারা

those who

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছিল

believed

مِنْهُمْ

তাদের মধ্য হতে

among them

أَجْرَهُمْ

তাদের পুরস্কার

their reward

وَكَثِيرٌ

এবং অধিকাংশ

but most

مِّنْهُمْ

তাদের মধ্যকার

of them

فَٰسِقُونَ

সত্যত্যাগী (ফাসেক)

(are) defiantly disobediently

(28)

يَٰٓأَيُّهَا

হে

O you who believe!

ٱلَّذِينَ

যারা

O you who believe!

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছ

O you who believe!

ٱتَّقُوا۟

তোমরা ভয় করো

Fear

ٱللَّهَ

আল্লাহকে

Allah

وَءَامِنُوا۟

ও তোমরা ঈমান আন

and believe

بِرَسُولِهِۦ

তাঁর রাসূলের প্রতি

in His Messenger

يُؤْتِكُمْ

তিনি তোমাদের দিবেন

He will give you

كِفْلَيْنِ

দ্বিগুণ অংশ

double portion

مِن

থেকে

of

رَّحْمَتِهِۦ

তাঁর অনুগ্রহ

His Mercy

وَيَجْعَل

এবং দেবেন

and He will make

لَّكُمْ

তোমাদের জন্যে

for you

نُورًا

জ্যোতি

a light

تَمْشُونَ

তোমরা চলবে

you will walk

بِهِۦ

তা দিয়ে

with it

وَيَغْفِرْ

ও ক্ষমা করবেন

and He will forgive

لَكُمْ

তোমাদেরকে

you

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ্‌

And Allah

غَفُورٌ

ক্ষমাশীল

(is) Oft-Forgiving

رَّحِيمٌ

পরম দয়ালু

Most Merciful

(29)

لِّئَلَّا

যেন

So that

يَعْلَمَ

জানে

may know

أَهْلُ

অধিকারীরা

(the) People

ٱلْكِتَٰبِ

কিতাবের

(of) the Book

أَلَّا

যে না

that not

يَقْدِرُونَ

তারা অধিকার রাখে

they have power

عَلَىٰ

উপর

over

شَىْءٍ

কোনো কিছুই

anything

مِّن

মধ্যে হতে

from

فَضْلِ

অনুগ্রহের

(the) Bounty

ٱللَّهِ

আল্লাহর

(of) Allah

وَأَنَّ

এবং নিশ্চয়ই

and that

ٱلْفَضْلَ

(সমস্ত) অনুগ্রহ

the Bounty

بِيَدِ

হাতে

(is) in Allah’s Hand

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌রই

(is) in Allah’s Hand

يُؤْتِيهِ

তা দান করেন তিনি

He gives it

مَن

যাকে

whom

يَشَآءُ

তিনি চান

He wills

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ

And Allah

ذُو

অধিকারী

(is) the Possessor of Bounty

ٱلْفَضْلِ

অনুগ্রহের

(is) the Possessor of Bounty

ٱلْعَظِيمِ

মহা

the Great

Sura Al Hadid in Words Ruku4

[1] আমাদের অমঙ্গলের।

[2]  শয়তান।

৫৬ সুরা ওয়াক্বিয়া << সুরা হাদীদ >> ৫৮ সুরা মুজাদালাহ

By Quran Sharif

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply