সুরা হাক্বকাহ বাংলা Sura Al Haqqa in Words & Audio

সুরা হাক্বকাহ বাংলা Sura Al Haqqa in Words & Audio

১১৪ টি সুরা >> তাফসীরঃ বুখারী >> তিরমিজি

Arabicতাফসীর

৬৯ – সুরা হাক্বকাহ – আয়াত : ৫২, মাক্কী, রুকু ২

সুরা হাক্বকাহ Sura Al Haqqa mp3 Download

পরম করুণাময় অতি দয়ালু আল্লাহর নামেبِسۡمِ ٱللَّهِ ٱلرَّحۡمَٰنِ ٱلرَّحِيمِ
(1) অবশ্যম্ভাবী ঘটনা (কিয়ামত)।ٱلۡحَآقَّةُ ١
(2) অবশ্যম্ভাবী ঘটনা কী ?مَا ٱلۡحَآقَّةُ ٢
(3) আর কিসে তোমাকে জানাবে অবশ্যম্ভাবী ঘটনা কী?وَمَآ أَدۡرَىٰكَ مَا ٱلۡحَآقَّةُ ٣
(4) সামূদ ও ‘আদ সম্প্রদায় সজোরে আঘাতকারী (কিয়ামত)কে অস্বীকার করেছিল।كَذَّبَتۡ ثَمُودُ وَعَادُۢ بِٱلۡقَارِعَةِ ٤
(5) আর সামূদ সম্প্রদায়, তাদেরকে বিকট শব্দ দ্বারা ধ্বংস করা হয়েছিল।فَأَمَّا ثَمُودُ فَأُهۡلِكُواْ بِٱلطَّاغِيَةِ ٥
(6) আর ‘আদ সম্প্রদায়, তাদেরকে ধ্বংস করা হয়েছিল প্রচন্ড ঠান্ডা ঝঞ্ঝাবায়ু দ্বারা।وَأَمَّا عَادٞ فَأُهۡلِكُواْ بِرِيحٖ صَرۡصَرٍ عَاتِيَةٖ ٦
(7) তিনি তাদের উপর তা সাত রাত ও আট দিন বিরামহীনভাবে চাপিয়ে দিয়েছিলেন। ফলে তুমি উক্ত সম্প্রদায়কে সেখানে লুটিয়ে পড়া অবস্থায় দেখতে পেতে যেন তারা সারশূন্য খেজুর গাছের মত।سَخَّرَهَا عَلَيۡهِمۡ سَبۡعَ لَيَالٖ وَثَمَٰنِيَةَ أَيَّامٍ حُسُومٗاۖ فَتَرَى ٱلۡقَوۡمَ فِيهَا صَرۡعَىٰ كَأَنَّهُمۡ أَعۡجَازُ نَخۡلٍ خَاوِيَةٖ ٧
(8) তারপর তুমি কি তাদের জন্য কোন অবশিষ্ট কিছু দেখতে পাও?فَهَلۡ تَرَىٰ لَهُم مِّنۢ بَاقِيَةٖ ٨
(9) আর ফির‘আউন, তার পূর্ববর্তীরা এবং উল্টে দেয়া জনপদবাসীরা পাপাচারে লিপ্ত হয়েছিল।وَجَآءَ فِرۡعَوۡنُ وَمَن قَبۡلَهُۥ وَٱلۡمُؤۡتَفِكَٰتُ بِٱلۡخَاطِئَةِ ٩
(10) আর তারা তাদের রবের রাসূলকে অমান্য করেছিল। সুতরাং তিনি তাদেরকে অত্যন্ত কঠোরভাবে পাকড়াও করলেন।فَعَصَوۡاْ رَسُولَ رَبِّهِمۡ فَأَخَذَهُمۡ أَخۡذَةٗ رَّابِيَةً ١٠
(11) যখন জলোচ্ছ্বাস হল, অবশ্যই তখন আমি তোমাদেরকে নৌযানে আরোহণ করিয়েছি।إِنَّا لَمَّا طَغَا ٱلۡمَآءُ حَمَلۡنَٰكُمۡ فِي ٱلۡجَارِيَةِ ١١
(12) একে তোমাদের নিমিত্তে উপদেশ বানানোর জন্য এবং সংরক্ষণকারী কান তা সংরক্ষণ করার জন্য।لِنَجۡعَلَهَا لَكُمۡ تَذۡكِرَةٗ وَتَعِيَهَآ أُذُنٞ وَٰعِيَةٞ ١٢
(13) অতঃপর যখন শিংগায় ফুঁক দেয়া হবে- একটি মাত্র ফুঁক।فَإِذَا نُفِخَ فِي ٱلصُّورِ نَفۡخَةٞ وَٰحِدَةٞ ١٣
(14) আর যমীন ও পর্বতমালাকে সরিয়ে নেয়া হবে এবং মাত্র একটি আঘাতে এগুলো চূর্ণ-বিচূর্ণ হয়ে যাবে।وَحُمِلَتِ ٱلۡأَرۡضُ وَٱلۡجِبَالُ فَدُكَّتَا دَكَّةٗ وَٰحِدَةٗ ١٤
(15) ফলে সে দিন মহাঘটনা সংঘটিত হবে।فَيَوۡمَئِذٖ وَقَعَتِ ٱلۡوَاقِعَةُ ١٥
(16) আর আসমান বিদীর্ণ হয়ে যাবে। ফলে সেদিন তা হয়ে যাবে দুর্বল বিক্ষিপ্ত।وَٱنشَقَّتِ ٱلسَّمَآءُ فَهِيَ يَوۡمَئِذٖ وَاهِيَةٞ ١٦
(17) ফেরেশতাগণ আসমানের বিভিন্ন প্রান্তে থাকবে। সেদিন তোমার রবের আরশকে আটজন ফেরেশতা তাদের উর্ধ্বে বহন করবে।وَٱلۡمَلَكُ عَلَىٰٓ أَرۡجَآئِهَاۚ وَيَحۡمِلُ عَرۡشَ رَبِّكَ فَوۡقَهُمۡ يَوۡمَئِذٖ ثَمَٰنِيَةٞ ١٧
(18) সেদিন তোমাদেরকে উপস্থিত করা হবে। তোমাদের কোন গোপনীয়তাই গোপন থাকবে না।يَوۡمَئِذٖ تُعۡرَضُونَ لَا تَخۡفَىٰ مِنكُمۡ خَافِيَةٞ ١٨
(19) তখন যার আমলনামা তার ডান হাতে দেয়া হবে সে বলবে, ‘নাও, আমার আমলনামা পড়ে দেখ’।فَأَمَّا مَنۡ أُوتِيَ كِتَٰبَهُۥ بِيَمِينِهِۦ فَيَقُولُ هَآؤُمُ ٱقۡرَءُواْ كِتَٰبِيَهۡ ١٩
(20) আমার দৃঢ় বিশ্বাস ছিল যে, আমি আমার হিসাবের সম্মুখীন হব’।إِنِّي ظَنَنتُ أَنِّي مُلَٰقٍ حِسَابِيَهۡ٢٠
(21) সুতরাং সে সন্তোষজনক জীবনে থাকবে।فَهُوَ فِي عِيشَةٖ رَّاضِيَةٖ ٢١
(22) সুউচ্চ জান্নাতে,فِي جَنَّةٍ عَالِيَةٖ ٢٢
(23) তার ফলসমূহ নিকটবর্তী থাকবে।قُطُوفُهَا دَانِيَةٞ ٢٣
(24) (বলা হবে,) ‘বিগত দিনসমূহে তোমরা যা অগ্রে প্রেরণ করেছ তার বিনিময়ে তোমরা তৃপ্তি সহকারে খাও ও পান কর’।كُلُواْ وَٱشۡرَبُواْ هَنِيٓ‍َٔۢا بِمَآ أَسۡلَفۡتُمۡ فِي ٱلۡأَيَّامِ ٱلۡخَالِيَةِ ٢٤
(25) কিন্তু যার আমলনামা তার বাম হাতে দেয়া হবে সে বলবে, ‘হায়, আমাকে যদি আমার আমলনামা দেয়া না হত’!وَأَمَّا مَنۡ أُوتِيَ كِتَٰبَهُۥ بِشِمَالِهِۦ فَيَقُولُ يَٰلَيۡتَنِي لَمۡ أُوتَ كِتَٰبِيَهۡ ٢٥
(26) ‘আর যদি আমি না জানতাম আমার হিসাব’!وَلَمۡ أَدۡرِ مَا حِسَابِيَهۡ٢٦
(27) হায়, মৃত্যুই যদি আমার চূড়ান্ত ফয়সালা হত’!يَٰلَيۡتَهَا كَانَتِ ٱلۡقَاضِيَةَ ٢٧
(28) আমার সম্পদ আমার কোন কাজেই আসল না!’مَآ أَغۡنَىٰ عَنِّي مَالِيَهۡۜ ٢٨
(29) আমার ক্ষমতাও আমার থেকে চলে গেল!هَلَكَ عَنِّي سُلۡطَٰنِيَهۡ ٢٩
(30) (বলা হবে,) ‘তাকে ধর অতঃপর তাকে বেড়ি পরিয়ে দাও।’خُذُوهُ فَغُلُّوهُ ٣٠
(31) তারপর তাকে তোমরা নিক্ষেপ কর জাহান্নামে’।ثُمَّ ٱلۡجَحِيمَ صَلُّوهُ ٣١
(32) তারপর তাকে বাঁধ এমন এক শেকলে যার দৈর্ঘ্য হবে সত্তর হাত।’ثُمَّ فِي سِلۡسِلَةٖ ذَرۡعُهَا سَبۡعُونَ ذِرَاعٗا فَٱسۡلُكُوهُ ٣٢
(33) সে তো মহান আল্লাহর প্রতি ঈমান পোষণ করত না,إِنَّهُۥ كَانَ لَا يُؤۡمِنُ بِٱللَّهِ ٱلۡعَظِيمِ ٣٣
(34) আর মিসকীনকে খাদ্যদানে উৎসাহিত করত না।وَلَا يَحُضُّ عَلَىٰ طَعَامِ ٱلۡمِسۡكِينِ ٣٤
(35) অতএব আজ এখানে তার কোন অন্তরঙ্গ বন্ধু থাকবে না।فَلَيۡسَ لَهُ ٱلۡيَوۡمَ هَٰهُنَا حَمِيمٞ ٣٥
(36) আর ক্ষত-নিংসৃত পূঁজ ছাড়া কোন খাদ্য থাকবে না,وَلَا طَعَامٌ إِلَّا مِنۡ غِسۡلِينٖ ٣٦
(37) অপরাধীরাই শুধু তা খাবে।لَّا يَأۡكُلُهُۥٓ إِلَّا ٱلۡخَٰطِ‍ُٔونَ ٣٧
সুরা হাক্বকাহع রুকু
(38) অতএব তোমরা যা দেখছ, আমি তার কসম করছি।فَلَآ أُقۡسِمُ بِمَا تُبۡصِرُونَ ٣٨
(39) আর যা তোমরা দেখছ না তারও,وَمَا لَا تُبۡصِرُونَ ٣٩
(40) নিশ্চয়ই এটি এক সম্মানিত রাসূলের বাণী।إِنَّهُۥ لَقَوۡلُ رَسُولٖ كَرِيمٖ ٤٠
(41) আর এটি কোন কবির কথা নয়। তোমরা কমই বিশ্বাস কর।وَمَا هُوَ بِقَوۡلِ شَاعِرٖۚ قَلِيلٗا مَّا تُؤۡمِنُونَ ٤١
(42) আর কোন গণকের কথাও নয়। তোমরা কমই উপদেশ গ্রহণ কর।وَلَا بِقَوۡلِ كَاهِنٖۚ قَلِيلٗا مَّا تَذَكَّرُونَ ٤٢
(43) এটি সৃষ্টিকুলের রবের পক্ষ থেকে নাযিলকৃত।تَنزِيلٞ مِّن رَّبِّ ٱلۡعَٰلَمِينَ ٤٣
(44) যদি সে আমার নামে কোন মিথ্যা রচনা করত,وَلَوۡ تَقَوَّلَ عَلَيۡنَا بَعۡضَ ٱلۡأَقَاوِيلِ ٤٤
(45) তবে আমি তার ডান হাত পাকড়াও করতাম।لَأَخَذۡنَا مِنۡهُ بِٱلۡيَمِينِ ٤٥
(46) তারপর অবশ্যই আমি তার হৃদপিন্ডের শিরা কেটে ফেলতাম।ثُمَّ لَقَطَعۡنَا مِنۡهُ ٱلۡوَتِينَ ٤٦
(47) অতঃপর তোমাদের মধ্যে কেউই তাকে রক্ষা করার থাকত না।فَمَا مِنكُم مِّنۡ أَحَدٍ عَنۡهُ حَٰجِزِينَ ٤٧
(48) আর এটিতো মুত্তাকীদের জন্য এক নিশ্চিত উপদেশ।وَإِنَّهُۥ لَتَذۡكِرَةٞ لِّلۡمُتَّقِينَ ٤٨
(49) আর আমি অবশ্যই জানি যে, তোমাদের মধ্যে কতক রয়েছে মিথ্যারোপকারী।وَإِنَّا لَنَعۡلَمُ أَنَّ مِنكُم مُّكَذِّبِينَ ٤٩
(50) আর এটি নিশ্চয় কাফিরদের জন্য এক নিশ্চিত অনুশোচনার কারণ।وَإِنَّهُۥ لَحَسۡرَةٌ عَلَى ٱلۡكَٰفِرِينَ ٥٠
(51) আর নিশ্চয় এটি সুনিশ্চিত সত্য।وَإِنَّهُۥ لَحَقُّ ٱلۡيَقِينِ ٥١
(52) অতএব তুমি তোমার মহান রবের নামে তাসবীহ পাঠ কর।فَسَبِّحۡ بِٱسۡمِ رَبِّكَ ٱلۡعَظِيمِ ٥٢  
সুরা হাক্বকাহع রুকু

Sura Al Haqqa in Words

(1)

ٱلْحَآقَّةُ

সুনিশ্চিত ঘটনা!

The Inevitable Reality!

(2)

مَا

কি সেই?

What

ٱلْحَآقَّةُ

সুনিশ্চিত ঘটনা

(is) the Inevitable Reality?

(3)

وَمَآ

এবং কি?

And what

أَدْرَىٰكَ

জান তুমি

will make you know

مَا

কি সেই

what

ٱلْحَآقَّةُ

সুনিশ্চিত ঘটনা

(is) the Inevitable Reality?

(4)

كَذَّبَتْ

মিথারোপ করেছিল

Denied

ثَمُودُ

সামুদ

Thamud

وَعَادٌۢ

এবং আদ

and Aad

بِٱلْقَارِعَةِ

মহাপ্রলয়কে

the Striking Calamity

(5)

فَأَمَّا

আর

So as for

ثَمُودُ

সামুদ

Thamud

فَأُهْلِكُوا۟

ধ্বংস করা হয়েছে অতঃপর

they were destroyed

بِٱلطَّاغِيَةِ

তাঁর ঝনঝা বায়ু দিয়ে

by the overpowering (blast)

(6)

وَأَمَّا

আর

And as for

عَادٌ

আদ

Aad

فَأُهْلِكُوا۟

অতঃপর ধ্বংস করা হয়েছে

they were destroyed

بِرِيحٍ

বায়ু দিয়ে

by a wind

صَرْصَرٍ

ঝঞ্জা

screaming

عَاتِيَةٍ

প্রচন্ড

violent

(7)

سَخَّرَهَا

তা প্রবাহিত করেন

Which He imposed

عَلَيْهِمْ

তাদের উপর

upon them

سَبْعَ

সাত

(for) seven

لَيَالٍ

রাত

nights

وَثَمَٰنِيَةَ

এবং আট

and eight

أَيَّامٍ

দিন

days

حُسُومًا

ক্রমাগত

(in) succession

فَتَرَى

তুমি দেখতে তখন (তথায় থাকিলে)

so you would see

ٱلْقَوْمَ

সে জাতিকে

the people

فِيهَا

তার মধ্যে

therein

صَرْعَىٰ

পড়ে থাকা

fallen

كَأَنَّهُمْ

তারা যেন

as if they were

أَعْجَازُ

কাণ্ড সমূহ

trunks

نَخْلٍ

খেজুর গাছের

(of) date-palms

خَاوِيَةٍ

পরিত্যাক্ত

hollow

(8)

فَهَلْ

কি এক্ষণে

Then do

تَرَىٰ

তুমি দেখ

you see

لَهُم

তদেরকে

of them

مِّنۢ

কিছু

any

بَاقِيَةٍ

অবশিষ্ট

remains?

(9)

وَجَآءَ

এবং এসেছিল

And came

فِرْعَوْنُ

ফিরাউন

Firaun

وَمَن

ও যারা

and (those)

قَبْلَهُۥ

তার পূর্বে

before him

وَٱلْمُؤْتَفِكَٰتُ

এবং উলটে দেয়া বস্তীবাসীদের

and the overturned cities

بِٱلْخَاطِئَةِ

অপরাধের কারণে

with sin

(10)

فَعَصَوْا۟

অতঃপর তারা অমান্য করেছিল

And they disobeyed

رَسُولَ

রাসূলকে

(the) Messenger

رَبِّهِمْ

তাদের রবের

(of) their Lord

فَأَخَذَهُمْ

ফলে তাদের ধরলেন

so He seized them

أَخْذَةً

ধরা

(with) a seizure

رَّابِيَةً

শক্ত

exceeding

(11)

إِنَّا

আমরা নিশ্চয়ই

Indeed We

لَمَّا

যখন

when

طَغَا

জলোচ্ছ্বাস হয়েছিল

overflowed

ٱلْمَآءُ

(পানি)

the water

حَمَلْنَٰكُمْ

তোমাদের আমরা আরোহী করেছিলাম

We carried you

فِى

মধ্যে

in

ٱلْجَارِيَةِ

নৌযানের

the sailing (ship)

(12)

لِنَجْعَلَهَا

তা বানাই আমরা যেন

That We might make it

لَكُمْ

তোমাদের জন্যে

for you

تَذْكِرَةً

শিক্ষা

a reminder

وَتَعِيَهَآ

এবং তার ষ্মৃতি বহন করে

and would be conscious of it

أُذُنٌ

কান

an ear

وَٰعِيَةٌ

স্মরন বাহক

conscious

(13)

فَإِذَا

যখন অতঃপর

Then when

نُفِخَ

ফুক দেয়া হবে

is blown

فِى

মধ্যে

in

ٱلصُّورِ

শিঙ্গায়

the trumpet –

نَفْخَةٌ

ফুক

a blast

وَٰحِدَةٌ

একবার

single

(14)

وَحُمِلَتِ

এবং উঠানো হবে

And are lifted

ٱلْأَرْضُ

যমীন

the earth

وَٱلْجِبَالُ

এবং পাহাড়গুলো

and the mountains

فَدُكَّتَا

বিচূর্ণ করা হবে অতঃপর

and crushed

دَكَّةً

চূর্ণ বিচূর্ণ

(with) a crushing

وَٰحِدَةً

একবার

single

(15)

فَيَوْمَئِذٍ

সেদিন অতঃপর

Then (on) that Day

وَقَعَتِ

সংঘটিত হবে

will occur

ٱلْوَاقِعَةُ

মহাপ্রলয়

the Occurrence

(16)

وَٱنشَقَّتِ

এবং বিদীর্ণ হবে

And will split

ٱلسَّمَآءُ

আসমান

the heaven

فَهِىَ

তা অতঃপর

so it

يَوْمَئِذٍ

সেদিন

(is on) that Day

وَاهِيَةٌ

বিশ্লিষ্ট হবে

frail

(17)

وَٱلْمَلَكُ

এবং ফেরেশতাগণ

And the Angels

عَلَىٰٓ

উপর

(will be) on

أَرْجَآئِهَا

(আসমানের) বিভিন্ন প্রান্তে থাকবে

its edges

وَيَحْمِلُ

এবং বহন করবে

and will bear

عَرْشَ

আরশ

(the) Throne

رَبِّكَ

তোমার রবের

(of) your Lord

فَوْقَهُمْ

তাদের উপরে,

above them

يَوْمَئِذٍ

সেদিন

that Day

ثَمَٰنِيَةٌ

আট (ফেরেশতা)

eight

(18)

يَوْمَئِذٍ

সেদিন

That Day

تُعْرَضُونَ

পেশ করা হবে তোমাদের

you will be exhibited

لَا

না

not

تَخْفَىٰ

আড়াল করা হবে

will be hidden

مِنكُمْ

তোমাদের মধ্যে

among you

خَافِيَةٌ

কোন গোপন কিছুই

any secret

(19)

فَأَمَّا

আর

Then as for

مَنْ

যাকে

(him) who

أُوتِىَ

দেয়া হবে

is given

كِتَٰبَهُۥ

তার আমলনামা

his record

بِيَمِينِهِۦ

তাঁর ডান হাতে

in his right hand

فَيَقُولُ

সে বলবে অতংপর

will say

هَآؤُمُ

“এখানে,

“Here

ٱقْرَءُوا۟

তোমরা পড়

read

كِتَٰبِيَهْ

আমার আমলনামা

my record!

(20)

إِنِّى

নিশ্চয়ই, আমি

Indeed I

ظَنَنتُ

মনে করেছিলাম

was certain

أَنِّى

আমি যে

that I

مُلَٰقٍ

সাক্ষাৎকারী

(will) meet

حِسَابِيَهْ

আমার হিসাবের”

my account”

(21)

فَهُوَ

সে অতংপর

So he

فِى

মধ্যে হবে

(will be) in

عِيشَةٍ

জীবনের

a life

رَّاضِيَةٍ

সন্তোষজনক

pleasant

(22)

فِى

মধ্যে

In

جَنَّةٍ

জান্নাতের

a Garden

عَالِيَةٍ

সুউচ্চ

elevated

(23)

قُطُوفُهَا

তার ফলরাশি (থাকবে)

Its clusters of fruits

دَانِيَةٌ

নিকটে

hanging near

(24)

كُلُوا۟

“তোমরা খাও

“Eat

وَٱشْرَبُوا۟

ও পান কর

and drink

هَنِيٓـًٔۢا

মজা করে

(in) satisfaction

بِمَآ

যা বদলে

for what

أَسْلَفْتُمْ

তোমরা অতিবাহিত করেছ

you sent before you

فِى

মধ্যে

in

ٱلْأَيَّامِ

দিনগুলোর

the days

ٱلْخَالِيَةِ

বিগত”

past”

(25)

وَأَمَّا

আর

But as for

مَنْ

যাকে

(him) who

أُوتِىَ

দেয়া হবে

is given

كِتَٰبَهُۥ

তার আমলনামা

his record

بِشِمَالِهِۦ

তার বাম হাতে

in his left hand

فَيَقُولُ

সে বলবে অতংপর

will say

يَٰلَيْتَنِى

“আমার আফসোস

“O! I wish

لَمْ

না (যদি)

not

أُوتَ

দেয়া হত

I had been given

كِتَٰبِيَهْ

আমার আমলনামা

my record

(26)

وَلَمْ

এবং না

And not

أَدْرِ

আমি জানতাম

I had known

مَا

যা

what

حِسَابِيَهْ

আমার হিসাব

(is) my account

(27)

يَٰلَيْتَهَا

হায় তা

O! I wish it

كَانَتِ

যদি হত

had been

ٱلْقَاضِيَةَ

(মৃত্যু) চূড়ান্ত

the end

(28)

مَآ

না

Not

أَغْنَىٰ

কাজে আসল

has availed

عَنِّى

আমার জন্যে

me

مَالِيَهْ

আমার ধন-সম্পদ,

my wealth

(29)

هَلَكَ

বরবাদ হয়েছে

Is gone

عَنِّى

আমার থেকে

from me

سُلْطَٰنِيَهْ

আমার ক্ষমতা”

my authority”

(30)

خُذُوهُ

“তাকে ধর

“Seize him

فَغُلُّوهُ

তাকে বেড়ি অতংপর পরাও

and shackle him

(31)

ثُمَّ

তারপর

Then

ٱلْجَحِيمَ

জাহান্নামে

(into) the Hellfire

صَلُّوهُ

অগ্নিদগ্ধ কর.

burn him

(32)

ثُمَّ

তারপর

Then

فِى

মধ্যে

into

سِلْسِلَةٍ

শিকল

a chain

ذَرْعُهَا

তার দীর্ঘতা

its length

سَبْعُونَ

সত্তর

(is) seventy

ذِرَاعًا

হাত

cubits

فَٱسْلُكُوهُ

অতংপর তাকে বেধে ফেল”

insert him”

(33)

إِنَّهُۥ

সে নিশ্চয়

Indeed, he

كَانَ

ছিল

(did)

لَا

না

not

يُؤْمِنُ

বিশ্বাসী

believe

بِٱللَّهِ

আল্লাহতে

in Allah

ٱلْعَظِيمِ

মহান,

the Most Great

(34)

وَلَا

আর (করেনি) না

And (did) not

يَحُضُّ

উৎসাহ দিত

feel the urge

عَلَىٰ

উপর

on

طَعَامِ

খাওয়ানোর

(the) feeding

ٱلْمِسْكِينِ

মিসকিনকে

(of) the poor

(35)

فَلَيْسَ

নাই অতএব

So not

لَهُ

তার জন্য

for him

ٱلْيَوْمَ

আজ

today

هَٰهُنَا

এখানে

here

حَمِيمٌ

কোন অন্তরঙ্গ বন্ধু,

any devoted friend

(36)

وَلَا

এবং না

And not

طَعَامٌ

খাবার

any food

إِلَّا

ছাড়া

except

مِنْ

থেকে

from

غِسْلِينٍ

ক্ষতনিংস্রিত রস

(the) discharge of wounds

(37)

لَّا

না

Not

يَأْكُلُهُۥٓ

তা খায়

will eat it

إِلَّا

ছাড়া

except

ٱلْخَٰطِـُٔونَ

অপরাধীরা

the sinners

Sura Al Haqqa in Words Ruku 1

(38)

فَلَآ

না অতংপর

But nay!

أُقْسِمُ

আমি শপথ করে বলছি

I swear

بِمَا

যা

by what

تُبْصِرُونَ

তুমি দেখো,

you see

(39)

وَمَا

এবং যা

And what

لَا

না

not

تُبْصِرُونَ

তুমি দেখো,

you see

(40)

إِنَّهُۥ

নিশ্চয় তা

Indeed it (is)

لَقَوْلُ

বানী অবশ্যই

surely (the) Word

رَسُولٍ

একজন রসূল (এর)

(of) a Messenger

كَرِيمٍ

সম্মানিত

noble

(41)

وَمَا

এবং না

And not

هُوَ

তা

it

بِقَوْلِ

কথা

(is the) word

شَاعِرٍ

কবির

(of) a poet;

قَلِيلًا

কমই

little

مَّا

যা

(is) what

تُؤْمِنُونَ

তোমরা ইমান আন

you believe!

(42)

وَلَا

এবং না

And not

بِقَوْلِ

বানী

(it is the) word

كَاهِنٍ

কোন গণকের

(of) a soothsayer;

قَلِيلًا

কমই

little

مَّا

যা

(is) what

تَذَكَّرُونَ

তোমরা উপদেশ গ্রহণ কর

you remember

(43)

تَنزِيلٌ

নাযিলকৃত

(It is) a revelation

مِّن

থেকে

from

رَّبِّ

রবের

(the) Lord

ٱلْعَٰلَمِينَ

মহাবিশ্বের

(of) the worlds

(44)

وَلَوْ

এবং যদি

And if

تَقَوَّلَ

কথা বানাত

he (had) fabricated

عَلَيْنَا

আমাদের বিপক্ষে

against Us

بَعْضَ

কিছু

some

ٱلْأَقَاوِيلِ

কথা

sayings

(45)

لَأَخَذْنَا

অবশ্যই আমরা ধরতাম

Certainly We (would) have seized

مِنْهُ

তাকে

him

بِٱلْيَمِينِ

ডান হাত দ্বারা;

by the right hand;

(46)

ثُمَّ

তারপর

Then

لَقَطَعْنَا

অবশ্যই আমরা কাটতাম

certainly We (would) have cut off

مِنْهُ

তার থেকে

from him

ٱلْوَتِينَ

মহাধমনী.

the aorta

(47)

فَمَا

এবং না

And not

مِنكُم

তোমাদের মধ্যে

from you

مِّنْ

কোন

any

أَحَدٍ

কেও

one

عَنْهُ

{তার কাছ থেকে}

{from him}

حَٰجِزِينَ

বিরতকারী

(could) prevent

(48)

وَإِنَّهُۥ

এবং তা

And indeed it

لَتَذْكِرَةٌ

অবশ্যই উপদেশ

(is) surely a reminder

لِّلْمُتَّقِينَ

মুত্তাকীদের

for the Allah-fearing

(49)

وَإِنَّا

এবং নিশ্চয় আমরা

And indeed We

لَنَعْلَمُ

অবশ্যই জানি

surely know

أَنَّ

যে

that

مِنكُم

তোমাদের মধ্যে

among you

مُّكَذِّبِينَ

অস্বীকারকারীরা (সম্পূর্ণ).

(are) deniers

(50)

وَإِنَّهُۥ

এবং নিশ্চয় তা

And indeed it

لَحَسْرَةٌ

আক্ষেপের

(is) surely a regret

عَلَى

উপর

upon

ٱلْكَٰفِرِينَ

কাফিরদের.

the disbelievers

(51)

وَإِنَّهُۥ

ও নিশ্চয় তা

And indeed it (is)

لَحَقُّ

অবশ্যই সত্য

surely (the) truth

ٱلْيَقِينِ

সুনিশ্চিত

(of) certainty

(52)

فَسَبِّحْ

অতএব তাসবীহ পাঠ কর

So glorify

بِٱسْمِ

নামের

(the) name

رَبِّكَ

তোমার রবের

(of) your Lord

ٱلْعَظِيمِ

মহান

the Most Great

Sura Al Haqqa in Words Ruku 2

৬৮ সুরা কালাম<< সুরা হাক্বকাহ >> ৭০ সুরা মা’য়ারিজ

By Quran Sharif

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply