সুরা মুহাম্মাদ বাংলা Sura Muhammad in Words & Audio

সুরা মুহাম্মাদ বাংলা Sura Muhammad in Words & Audio

১১৪ টি সুরা >> তাফসীরঃ বুখারী >> তিরমিজি

Arabicতাফসীর

৪৭, সুরা মুহাম্মাদ, আয়াত-৩৮, মাদানী, রুকু-৪

সুরা মুহাম্মাদ mp3 Download

সুরা মুহাম্মাদ ع রুকু [১][1] >> [২][2] >> [৩][3] >> [৪][4]

পরম করুণাময় অতি দয়ালু আল্লাহর নামেبِسۡمِ ٱللَّهِ ٱلرَّحۡمَٰنِ ٱلرَّحِيمِ
(1) যারা কুফরী করেছে এবং আল্লাহর পথ থেকে বারণ করেছে, তিনি তাদের আমলসমূহ ব্যর্থ করে দিয়েছেন।ٱلَّذِينَ كَفَرُواْ وَصَدُّواْ عَن سَبِيلِ ٱللَّهِ أَضَلَّ أَعۡمَٰلَهُمۡ ١
(2) আর যারা ঈমান এনেছে, সৎকর্ম করেছে এবং মুহাম্মাদের প্রতি যা নাযিল করা হয়েছে তাতে বিশ্বাস স্থাপন করেছে ‘আর তা তাদের রবের পক্ষ হতে (প্রেরিত) সত্য, তিনি তাদের থেকে তাদের মন্দ কাজগুলো দূর করে দেবেন এবং তিনি তাদের অবস্থা সংশোধন করে দেবেন।وَٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ وَعَمِلُواْ ٱلصَّٰلِحَٰتِ وَءَامَنُواْ بِمَا نُزِّلَ عَلَىٰ مُحَمَّدٖ وَهُوَ ٱلۡحَقُّ مِن رَّبِّهِمۡ كَفَّرَ عَنۡهُمۡ سَيِّ‍َٔاتِهِمۡ وَأَصۡلَحَ بَالَهُمۡ ٢
(3) তা এজন্য যে, যারা কুফরী করে তারা বাতিলের অনুসরণ করে, আর যারা ঈমান আনে তারা তাদের রবের প্রেরিত হকের অনুসরণ করে। এভাবেই আল্লাহ মানুষের জন্য তাদের দৃষ্টান্তসমূহ বর্ণনা করেন।ذَٰلِكَ بِأَنَّ ٱلَّذِينَ كَفَرُواْ ٱتَّبَعُواْ ٱلۡبَٰطِلَ وَأَنَّ ٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ ٱتَّبَعُواْ ٱلۡحَقَّ مِن رَّبِّهِمۡۚ كَذَٰلِكَ يَضۡرِبُ ٱللَّهُ لِلنَّاسِ أَمۡثَٰلَهُمۡ ٣
(4) অতএব তোমরা যখন কাফিরদের সাথে যুদ্ধে অবতীর্ণ হও, তখন তাদের ঘাড়ে আঘাত কর। পরিশেষে তোমরা যখন তাদেরকে সম্পূর্ণভাবে পর্যুদস্ত করবে তখন তাদেরকে শক্তভাবে বেঁধে নাও। তারপর হয় অনুগ্রহ না হয় মুক্তিপণ আদায়, যতক্ষণ না যুদ্ধ তার বোঝা রেখে দেয়[1]। এটাই বিধান। আর আল্লাহ ইচ্ছা করলে তাদের কাছ থেকে প্রতিশোধ গ্রহণ করতে পারতেন, কিন্তু তিনি তোমাদের একজনকে অন্যের দ্বারা পরীক্ষা করতে চান। আর যারা আল্লাহর পথে নিহত হয় তিনি কখনো তাদের আমলসমূহ বিনষ্ট করবেন না।فَإِذَا لَقِيتُمُ ٱلَّذِينَ كَفَرُواْ فَضَرۡبَ ٱلرِّقَابِ حَتَّىٰٓ إِذَآ أَثۡخَنتُمُوهُمۡ فَشُدُّواْ ٱلۡوَثَاقَ فَإِمَّا مَنَّۢا بَعۡدُ وَإِمَّا فِدَآءً حَتَّىٰ تَضَعَ ٱلۡحَرۡبُ أَوۡزَارَهَاۚ ذَٰلِكَۖ وَلَوۡ يَشَآءُ ٱللَّهُ لَٱنتَصَرَ مِنۡهُمۡ وَلَٰكِن لِّيَبۡلُوَاْ بَعۡضَكُم بِبَعۡضٖۗ وَٱلَّذِينَ قُتِلُواْ فِي سَبِيلِ ٱللَّهِ فَلَن يُضِلَّ أَعۡمَٰلَهُمۡ ٤
(5) অচিরেই তিনি তাদেরকে হিদায়াত দিবেন এবং তাদের অবস্থা সংশোধন করে দিবেন।سَيَهۡدِيهِمۡ وَيُصۡلِحُ بَالَهُمۡ ٥
(6) আর তিনি তাদেরকে জান্নাতে প্রবেশ করাবেন, যার পরিচয় তিনি তাদেরকে দিয়েছেন।وَيُدۡخِلُهُمُ ٱلۡجَنَّةَ عَرَّفَهَا لَهُمۡ ٦
(7) হে মুমিনগণ, যদি তোমরা আল্লাহকে সাহায্য কর তবে আল্লাহও তোমাদেরকে সাহায্য করবেন এবং তোমাদের পা সুদৃঢ় করে দেবেন।يَٰٓأَيُّهَا ٱلَّذِينَ ءَامَنُوٓاْ إِن تَنصُرُواْ ٱللَّهَ يَنصُرۡكُمۡ وَيُثَبِّتۡ أَقۡدَامَكُمۡ ٧
(8) আর যারা কুফরী করে তাদের জন্য রয়েছে ধ্বংস এবং তিনি তাদের আমলসমূহ ব্যর্থ করে দিয়েছেন।وَٱلَّذِينَ كَفَرُواْ فَتَعۡسٗا لَّهُمۡ وَأَضَلَّ أَعۡمَٰلَهُمۡ ٨
(9) তা এজন্য যে, আল্লাহ যা নাযিল করেছেন তারা তা অপছন্দ করে। অতএব তিনি তাদের আমলসমূহ বিনষ্ট করে দিয়েছেন।ذَٰلِكَ بِأَنَّهُمۡ كَرِهُواْ مَآ أَنزَلَ ٱللَّهُ فَأَحۡبَطَ أَعۡمَٰلَهُمۡ ٩
(10) তবে কি তারা যমীনে ভ্রমণ করেনি, তারপর দেখেনি যারা তাদের পূর্বে ছিল তাদের পরিণাম কেমন হয়েছিল? আল্লাহ তাদেরকে ধ্বংস করে দিয়েছেন। আর কাফিরদের জন্য রয়েছে এর অনুরূপ পরিণাম।۞أَفَلَمۡ يَسِيرُواْ فِي ٱلۡأَرۡضِ فَيَنظُرُواْ كَيۡفَ كَانَ عَٰقِبَةُ ٱلَّذِينَ مِن قَبۡلِهِمۡۖ دَمَّرَ ٱللَّهُ عَلَيۡهِمۡۖ وَلِلۡكَٰفِرِينَ أَمۡثَٰلُهَا ١٠
(11) তা এজন্য যে, নিশ্চয় আল্লাহ মুমিনদের অভিভাবক। আর নিশ্চয় কাফিরদের কোন অভিভাবক নেই।ذَٰلِكَ بِأَنَّ ٱللَّهَ مَوۡلَى ٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ وَأَنَّ ٱلۡكَٰفِرِينَ لَا مَوۡلَىٰ لَهُمۡ ١١

সুরা মুহাম্মাদ ع রুকু [১][1] >> [২][2] >> [৩][3] >> [৪][4]

.

(12) নিশ্চয় যারা ঈমান এনেছে ও সৎকর্ম করেছে, আল্লাহ তাদেরকে জান্নাতে দাখিল করবেন। যার নিম্নদেশে নহরসমূহ প্রবাহিত হয়। কিন্তু যারা কুফরী করে তারা ভোগ-বিলাসে মত্ত থাকে এবং তারা আহার করে যেমন চতুষ্পদ জন্তুরা আহার করে। আর জাহান্নামই তাদের বাসস্থান।إِنَّ ٱللَّهَ يُدۡخِلُ ٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ وَعَمِلُواْ ٱلصَّٰلِحَٰتِ جَنَّٰتٖ تَجۡرِي مِن تَحۡتِهَا ٱلۡأَنۡهَٰرُۖ وَٱلَّذِينَ كَفَرُواْ يَتَمَتَّعُونَ وَيَأۡكُلُونَ كَمَا تَأۡكُلُ ٱلۡأَنۡعَٰمُ وَٱلنَّارُ مَثۡوٗى لَّهُمۡ ١٢
(13) আর তোমার জনপদ যা থেকে তারা তোমাকে বহিষ্কার করেছে তার তুলনায় শক্তিমত্তায় প্রবলতর অনেক জনপদ ছিল, আমি তাদেরকে ধ্বংস করে দিয়েছিলাম, ফলে তাদের কোনই সাহায্যকারী ছিল না।وَكَأَيِّن مِّن قَرۡيَةٍ هِيَ أَشَدُّ قُوَّةٗ مِّن قَرۡيَتِكَ ٱلَّتِيٓ أَخۡرَجَتۡكَ أَهۡلَكۡنَٰهُمۡ فَلَا نَاصِرَ لَهُمۡ ١٣
(14) যে ব্যক্তি তার রবের পক্ষ থেকে আগত সুস্পষ্ট প্রমাণের উপর প্রতিষ্ঠিত সে কি তার মত, যার মন্দ আমল তার জন্য চাকচিক্যময় করে দেয়া হয়েছে এবং যারা তাদের খেয়াল খুশীর অনুসরণ করে?أَفَمَن كَانَ عَلَىٰ بَيِّنَةٖ مِّن رَّبِّهِۦ كَمَن زُيِّنَ لَهُۥ سُوٓءُ عَمَلِهِۦ وَٱتَّبَعُوٓاْ أَهۡوَآءَهُم ١٤
(15) মুত্তাকীদেরকে যে জান্নাতের ওয়াদা দেয়া হয়েছে তার দৃষ্টান্ত হল, তাতে রয়েছে নির্মল পানির নহরসমূহ, দুধের ঝর্নাধারা, যার স্বাদ পরিবর্তিত হয়নি, পানকারীদের জন্য সুস্বাদু সুরার নহরসমূহ এবং আছে পরিশোধিত মধুর ঝর্নাধারা। তথায় তাদের জন্য থাকবে সব ধরনের ফলমূল আর তাদের রবের পক্ষ  থেকে ক্ষমা। তারা কি তাদের ন্যায়, যারা জাহান্নামে স্থায়ী হবে এবং তাদেরকে ফুটন্ত পানি পান করানো হবে ফলে তা তাদের নাড়িভুঁড়ি ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন করে দেবে?مَّثَلُ ٱلۡجَنَّةِ ٱلَّتِي وُعِدَ ٱلۡمُتَّقُونَۖ فِيهَآ أَنۡهَٰرٞ مِّن مَّآءٍ غَيۡرِ ءَاسِنٖ وَأَنۡهَٰرٞ مِّن لَّبَنٖ لَّمۡ يَتَغَيَّرۡ طَعۡمُهُۥ وَأَنۡهَٰرٞ مِّنۡ خَمۡرٖ لَّذَّةٖ لِّلشَّٰرِبِينَ وَأَنۡهَٰرٞ مِّنۡ عَسَلٖ مُّصَفّٗىۖ وَلَهُمۡ فِيهَا مِن كُلِّ ٱلثَّمَرَٰتِ وَمَغۡفِرَةٞ مِّن رَّبِّهِمۡۖ كَمَنۡ هُوَ خَٰلِدٞ فِي ٱلنَّارِ وَسُقُواْ مَآءً حَمِيمٗا فَقَطَّعَ أَمۡعَآءَهُمۡ ١٥
(16) আর তাদের মধ্যে এমন কতক রয়েছে, যারা তোমার প্রতি মনোযোগ দিয়ে শুনে। অবশেষে যখন তারা তোমার কাছ থেকে বের হয়ে যায় তখন তারা যাদের জ্ঞান দান করা হয়েছে তাদের উদ্দেশ্যে বলে, ‘এই মাত্র সে কী বলল?’ এরাই তারা, যাদের অন্তরসমূহে আল্লাহ মোহর মেরে দিয়েছেন এবং তারা নিজদের খেয়াল-খুশীর অনুসরণ করেছে।وَمِنۡهُم مَّن يَسۡتَمِعُ إِلَيۡكَ حَتَّىٰٓ إِذَا خَرَجُواْ مِنۡ عِندِكَ قَالُواْ لِلَّذِينَ أُوتُواْ ٱلۡعِلۡمَ مَاذَا قَالَ ءَانِفًاۚ أُوْلَٰٓئِكَ ٱلَّذِينَ طَبَعَ ٱللَّهُ عَلَىٰ قُلُوبِهِمۡ وَٱتَّبَعُوٓاْ أَهۡوَآءَهُمۡ ١٦
(17) আর যারা হিদায়াতপ্রাপ্ত হয়েছে আল্লাহ তাদের হিদায়াত প্রাপ্তি আরো বৃদ্ধি করেন এবং তাদেরকে তাদের তাকওয়া প্রদান করেন।وَٱلَّذِينَ ٱهۡتَدَوۡاْ زَادَهُمۡ هُدٗى وَءَاتَىٰهُمۡ تَقۡوَىٰهُمۡ ١٧
(18) সুতরাং তারা কি কেবল এই অপেক্ষা করছে যে, কিয়ামত তাদের উপর আকস্মিকভাবে এসে পড়ুক? অথচ কিয়ামতের আলামতসমূহ তো এসেই পড়েছে। সুতরাং কিয়ামত এসে পড়লে তারা উপদেশ গ্রহণ করবে কেমন করে?فَهَلۡ يَنظُرُونَ إِلَّا ٱلسَّاعَةَ أَن تَأۡتِيَهُم بَغۡتَةٗۖ فَقَدۡ جَآءَ أَشۡرَاطُهَاۚ فَأَنَّىٰ لَهُمۡ إِذَا جَآءَتۡهُمۡ ذِكۡرَىٰهُمۡ ١٨
(19) অতএব জেনে রাখ, নিঃসন্দেহে আল্লাহ ছাড়া কোন (সত্য) ইলাহ নেই। তুমি ক্ষমা চাও তোমার ও মুমিন নারী-পুরুষদের ত্রুটি-বিচ্যুতির জন্য। আল্লাহ তোমাদের গতিবিধি এবং নিবাস সম্পর্কে অবগত রয়েছেন।فَٱعۡلَمۡ أَنَّهُۥ لَآ إِلَٰهَ إِلَّا ٱللَّهُ وَٱسۡتَغۡفِرۡ لِذَنۢبِكَ وَلِلۡمُؤۡمِنِينَ وَٱلۡمُؤۡمِنَٰتِۗ وَٱللَّهُ يَعۡلَمُ مُتَقَلَّبَكُمۡ وَمَثۡوَىٰكُمۡ ١٩
সুরা মুহাম্মাদع রুকু

সুরা মুহাম্মাদ ع রুকু [২][2] >> [১][1] >> [৩][3] >> [৪][4]

.

(20) আর যারা ঈমান এনেছে তারা বলে, ‘কেন একটি সূরা নাযিল করা হয়নি?’ অতঃপর যখন দ্ব্যর্থহীন কোন সুস্পষ্ট সূরা নাযিল করা হয় এবং তাতে যুদ্ধের উল্লেখ থাকে, তখন তুমি দেখবে যাদের অন্তরে ব্যাধি রয়েছে তারা তোমার দিকে মৃত্যুভয়ে মূর্ছিত ব্যক্তির দৃষ্টিতে তাকাচ্ছে। সুতরাং ধ্বংস তাদের জন্য।وَيَقُولُ ٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ لَوۡلَا نُزِّلَتۡ سُورَةٞۖ فَإِذَآ أُنزِلَتۡ سُورَةٞ مُّحۡكَمَةٞ وَذُكِرَ فِيهَا ٱلۡقِتَالُ رَأَيۡتَ ٱلَّذِينَ فِي قُلُوبِهِم مَّرَضٞ يَنظُرُونَ إِلَيۡكَ نَظَرَ ٱلۡمَغۡشِيِّ عَلَيۡهِ مِنَ ٱلۡمَوۡتِۖ فَأَوۡلَىٰ لَهُمۡ٢٠
(21) আনুগত্য ও ন্যায়সঙ্গত কথা (তাদের জন্য) উত্তম। অতঃপর যখন সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়, তখন যদি তারা আল্লাহর সাথে কৃত ওয়াদা সত্যে পরিণত করত, তবে তা তাদের জন্য কল্যাণকর হত।طَاعَةٞ وَقَوۡلٞ مَّعۡرُوفٞۚ فَإِذَا عَزَمَ ٱلۡأَمۡرُ فَلَوۡ صَدَقُواْ ٱللَّهَ لَكَانَ خَيۡرٗا لَّهُمۡ ٢١
(22) তবে কি তোমরা প্রত্যাশা করছ যে, যদি তোমরা শাসন কর্তৃত্ব পাও, তবে তোমরা যমীনে বিপর্যয় সৃষ্টি করবে এবং তোমাদের আত্মীয়তার বন্ধন ছিন্ন করবে?فَهَلۡ عَسَيۡتُمۡ إِن تَوَلَّيۡتُمۡ أَن تُفۡسِدُواْ فِي ٱلۡأَرۡضِ وَتُقَطِّعُوٓاْ أَرۡحَامَكُمۡ ٢٢
(23) এরাই যাদেরকে আল্লাহ লানত করেছেন, ফলে তাদেরকে বধির ও তাদের দৃষ্টিসমূহকে অন্ধ করে দিয়েছেন।أُوْلَٰٓئِكَ ٱلَّذِينَ لَعَنَهُمُ ٱللَّهُ فَأَصَمَّهُمۡ وَأَعۡمَىٰٓ أَبۡصَٰرَهُمۡ ٢٣
(24) তবে কি তারা কুরআন নিয়ে গভীর চিন্তা- ভাবনা করে না? নাকি তাদের অন্তরসমূহে তালা রয়েছে?أَفَلَا يَتَدَبَّرُونَ ٱلۡقُرۡءَانَ أَمۡ عَلَىٰ قُلُوبٍ أَقۡفَالُهَآ ٢٤
(25) নিশ্চয় যারা হিদায়াতের পথ সুস্পষ্ট হওয়ার পর তাদের পৃষ্টপ্রদর্শনপূর্বক মুখ ফিরিয়ে নেয়, শয়তান তাদের কাজকে চমৎকৃত করে দেখায় এবং তাদেরকে মিথ্যা আশা দিয়ে থাকে।إِنَّ ٱلَّذِينَ ٱرۡتَدُّواْ عَلَىٰٓ أَدۡبَٰرِهِم مِّنۢ بَعۡدِ مَا تَبَيَّنَ لَهُمُ ٱلۡهُدَى ٱلشَّيۡطَٰنُ سَوَّلَ لَهُمۡ وَأَمۡلَىٰ لَهُمۡ ٢٥
(26) এটি এ জন্য যে, আল্লাহ যা নাযিল করেছেন তা যারা অপছন্দ করে। তাদের উদ্দেশ্যে, তারা বলে, ‘অচিরেই আমরা কতিপয় বিষয়ে তোমাদের আনুগত্য করব’। আল্লাহ তাদের গোপনীয়তা সম্পর্কে অবহিত রয়েছেন।ذَٰلِكَ بِأَنَّهُمۡ قَالُواْ لِلَّذِينَ كَرِهُواْ مَا نَزَّلَ ٱللَّهُ سَنُطِيعُكُمۡ فِي بَعۡضِ ٱلۡأَمۡرِۖ وَٱللَّهُ يَعۡلَمُ إِسۡرَارَهُمۡ ٢٦
(27) অতঃপর তাদের অবস্থা কেমন হবে, যখন ফেরেশতারা তাদের মুখমন্ডল ও পৃষ্ঠদেশসমূহে আঘাত করতে করতে তাদের জীবনাবসান ঘটাবে?فَكَيۡفَ إِذَا تَوَفَّتۡهُمُ ٱلۡمَلَٰٓئِكَةُ يَضۡرِبُونَ وُجُوهَهُمۡ وَأَدۡبَٰرَهُمۡ ٢٧
(28) এটি এ জন্য যে, তারা এমন সব বিষয়ের অনুসরণ করেছে যা আল্লাহকে ক্রোধান্বিত করেছে এবং তারা তাঁর সন্তোষকে অপছন্দ করেছে। ফলে আল্লাহ তাদের কর্মসমূহ নিস্ফল করে দিয়েছেন।ذَٰلِكَ بِأَنَّهُمُ ٱتَّبَعُواْ مَآ أَسۡخَطَ ٱللَّهَ وَكَرِهُواْ رِضۡوَٰنَهُۥ فَأَحۡبَطَ أَعۡمَٰلَهُمۡ ٢٨

সুরা মুহাম্মাদ ع রুকু [৩][3] >> [১][1] >> [২][2] >> [৪][4]

.

(29) নাকি যাদের অন্তরে ব্যাধি রয়েছে তারা ধারণা করেছে যে, আল্লাহ তাদের গোপন বিদ্বেষভাব প্রকাশ করে দিবেন না?أَمۡ حَسِبَ ٱلَّذِينَ فِي قُلُوبِهِم مَّرَضٌ أَن لَّن يُخۡرِجَ ٱللَّهُ أَضۡغَٰنَهُمۡ ٢٩
(30) আর যদি আমি চাইতাম তবে আমি তোমাকে এদের দেখিয়ে দিতে পারতাম। ফলে লক্ষণ দেখেই তুমি তাদের চিনতে পারতে। তবে তুমি অবশ্যই কথার ভঙ্গিতে তাদের চিনতে পারবে। আল্লাহ তোমাদের আমলসমূহ জানেন।وَلَوۡ نَشَآءُ لَأَرَيۡنَٰكَهُمۡ فَلَعَرَفۡتَهُم بِسِيمَٰهُمۡۚ وَلَتَعۡرِفَنَّهُمۡ فِي لَحۡنِ ٱلۡقَوۡلِۚ وَٱللَّهُ يَعۡلَمُ أَعۡمَٰلَكُمۡ ٣٠
(31) আর আমি অবশ্যই তোমাদেরকে পরীক্ষা করব যতক্ষণ না আমি প্রকাশ করে দেই তোমাদের মধ্যে কারা জিহাদকারী ও ধৈর্যশীল এবং আমি তোমাদের কথা- কাজ পরীক্ষা করে নেব।وَلَنَبۡلُوَنَّكُمۡ حَتَّىٰ نَعۡلَمَ ٱلۡمُجَٰهِدِينَ مِنكُمۡ وَٱلصَّٰبِرِينَ وَنَبۡلُوَاْ أَخۡبَارَكُمۡ ٣١
(32) নিশ্চয় যারা কুফরী করেছে, আল্লাহর পথে বাধা দিয়েছে এবং তাদের নিকট হিদায়াতের পথ সুস্পষ্ট হওয়ার পরও রাসূলের বিরোধিতা করেছে, তারা আল্লাহর কোনই ক্ষতি সাধন করতে পারবে না। আর শীঘ্রই তিনি তাদের আমলসমূহ নিষ্ফল করে দেবেন।إِنَّ ٱلَّذِينَ كَفَرُواْ وَصَدُّواْ عَن سَبِيلِ ٱللَّهِ وَشَآقُّواْ ٱلرَّسُولَ مِنۢ بَعۡدِ مَا تَبَيَّنَ لَهُمُ ٱلۡهُدَىٰ لَن يَضُرُّواْ ٱللَّهَ شَيۡ‍ٔٗا وَسَيُحۡبِطُ أَعۡمَٰلَهُمۡ٣٢
(33) হে মুমিনগণ, তোমরা আল্লাহর আনুগত্য কর এবং রাসূলের আনুগত্য কর। আর তোমরা তোমাদের আমলসমূহ বিনষ্ট করো না।۞يَٰٓأَيُّهَا ٱلَّذِينَ ءَامَنُوٓاْ أَطِيعُواْ ٱللَّهَ وَأَطِيعُواْ ٱلرَّسُولَ وَلَا تُبۡطِلُوٓاْ أَعۡمَٰلَكُمۡ ٣٣
(34) নিশ্চয়ই যারা কুফরী করেছে এবং আল্লাহর পথে বাধা দিয়েছে। তারপর কাফির অবস্থায়ই মারা গেছে, আল্লাহ কখনই তাদের ক্ষমা করবেন না।إِنَّ ٱلَّذِينَ كَفَرُواْ وَصَدُّواْ عَن سَبِيلِ ٱللَّهِ ثُمَّ مَاتُواْ وَهُمۡ كُفَّارٞ فَلَن يَغۡفِرَ ٱللَّهُ لَهُمۡ ٣٤
(35) অতএব তোমরা হীনবল হয়ো না ও সন্ধির আহবান জানিও না এবং তোমরাই প্রবল। আর আল্লাহ তোমাদের সাথেই রয়েছেন এবং কখনই তিনি তোমাদের কর্মফল হ্রাস করবেন না।فَلَا تَهِنُواْ وَتَدۡعُوٓاْ إِلَى ٱلسَّلۡمِ وَأَنتُمُ ٱلۡأَعۡلَوۡنَ وَٱللَّهُ مَعَكُمۡ وَلَن يَتِرَكُمۡ أَعۡمَٰلَكُمۡ ٣٥
(36) দুনিয়ার জীবন তো কেবল খেল-তামাশা ও অর্থহীন কথাবার্তা। আর যদি তোমরা ঈমান আন এবং তাকওয়া অবলম্বন কর, তবে তিনি তোমাদেরকে  তোমাদের প্রতিদান দিবেন এবং তিনি তোমাদের কাছে ধন-সম্পদ চাইবেন না।إِنَّمَا ٱلۡحَيَوٰةُ ٱلدُّنۡيَا لَعِبٞ وَلَهۡوٞۚ وَإِن تُؤۡمِنُواْ وَتَتَّقُواْ يُؤۡتِكُمۡ أُجُورَكُمۡ وَلَا يَسۡ‍َٔلۡكُمۡ أَمۡوَٰلَكُمۡ ٣٦
(37) যদি তিনি তোমাদের নিকট তা চান, অতঃপর তিনি তোমাদের ওপর প্রবল চাপ দেন, তাহলে তো তোমরা কার্পণ্য করবে। আর তিনি তোমাদের গোপন বিদ্বেষসমূহ বের করে দেবেন।إِن يَسۡ‍َٔلۡكُمُوهَا فَيُحۡفِكُمۡ تَبۡخَلُواْ وَيُخۡرِجۡ أَضۡغَٰنَكُمۡ ٣٧
(38) তোমরাই তো তারা, তোমাদের আহবান করা হচ্ছে যে,  তোমরা আল্লাহর পথে ব্যয় করবে। অথচ তোমাদের কেউ কেউ কার্পণ্য করছে। তবে যে কার্পণ্য করছে সে তো নিজের প্রতিই কার্পণ্য করছে। আর আল্লাহ অভাবমুক্ত এবং তোমরা অভাবগ্রস্ত। যদি তোমরা মুখ ফিরিয়ে নাও, তবে তিনি তোমাদের ছাড়া অন্য কোন কওমকে স্থলাভিষিক্ত করবেন। তারপর তারা তোমাদের অনুরূপ হবে না।هَٰٓأَنتُمۡ هَٰٓؤُلَآءِ تُدۡعَوۡنَ لِتُنفِقُواْ فِي سَبِيلِ ٱللَّهِ فَمِنكُم مَّن يَبۡخَلُۖ وَمَن يَبۡخَلۡ فَإِنَّمَا يَبۡخَلُ عَن نَّفۡسِهِۦۚ وَٱللَّهُ ٱلۡغَنِيُّ وَأَنتُمُ ٱلۡفُقَرَآءُۚ وَإِن تَتَوَلَّوۡاْ يَسۡتَبۡدِلۡ قَوۡمًا غَيۡرَكُمۡ ثُمَّ لَا يَكُونُوٓاْ أَمۡثَٰلَكُم ٣٨

সুরা মুহাম্মাদ ع রুকু [৪][4] >> [১][1] >> [২][2] >> [৩][3]

শব্দে শব্দে সুরা মুহাম্মাদ বাংলা Sura Muhammad in Words ع [১][1] >> [২][2] >> [৩][3] >> [৪][4]

(1)

ٱلَّذِينَ

যারা

Those who

كَفَرُوا۟

অস্বীকার করেছে

disbelieve

وَصَدُّوا۟

ও বাধা দিয়েছে (লোকদেরকে)

and turn away

عَن

হতে

from

سَبِيلِ

পথ

(the) way of Allah

ٱللَّهِ

আল্লাহর

(the) way of Allah

أَضَلَّ

ব্যর্থ করে দিয়েছেন তিনি

He will cause to be lost

أَعْمَٰلَهُمْ

তাদের কর্ম সমূহকে

their deeds

(2)

وَٱلَّذِينَ

আর যারা

And those who

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছে

believe

وَعَمِلُوا۟

ও কাজ করেছে

and do

ٱلصَّٰلِحَٰتِ

সৎকর্মের

righteous deeds

وَءَامَنُوا۟

এবং ঈমান এনেছে

and believe

بِمَا

(তার উপর) যা

in what

نُزِّلَ

অবতীর্ণ করা হয়েছে

is revealed

عَلَىٰ

উপর

to

مُحَمَّدٍ

মুহাম্মাদের

Muhammad

وَهُوَ

এবং তা

and it

ٱلْحَقُّ

সত্য

(is) the truth

مِن

পক্ষ হতে

from

رَّبِّهِمْ

তাদের রবের

their Lord

كَفَّرَ

(আল্লাহ্‌) মিটিয়ে দিয়েছেন

He will remove

عَنْهُمْ

তাদের হতে

from them

سَيِّـَٔاتِهِمْ

তাদের ত্রুটি সমুহ

their misdeeds

وَأَصْلَحَ

ও শুধরে দিবেন

and improve

بَالَهُمْ

তাদের অবস্থা

their condition

(3)

ذَٰلِكَ

এটা

That

بِأَنَّ

এ কারণে যে

(is) because

ٱلَّذِينَ

যারা

those who

كَفَرُوا۟

অস্বীকার করেছে

disbelieve

ٱتَّبَعُوا۟

তারা অনুসরণ করেছে

follow

ٱلْبَٰطِلَ

মিথ্যাকে

falsehood

وَأَنَّ

আর নিশ্চয়ই

and because

ٱلَّذِينَ

যারা

those who

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছে

believe

ٱتَّبَعُوا۟

তারা অনুসরণ করেছে

follow

ٱلْحَقَّ

সত্যকে

(the) truth

مِن

(আগত) পক্ষ হতে

from

رَّبِّهِمْ

তাদের রবের

their Lord

كَذَٰلِكَ

এভাবে

Thus

يَضْرِبُ

বর্ণনা করেন

Allah presents

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah presents

لِلنَّاسِ

লোকদের জন্যে

to the people

أَمْثَٰلَهُمْ

তাদের দৃষ্টান্ত সমুহ

their similitudes

(4)

فَإِذَا

অতঃপর যখন

So when

لَقِيتُمُ

তোমরা যুদ্ধে অবতীর্ণ হবে

you meet

ٱلَّذِينَ

তাদের সাথে (যারা)

those who

كَفَرُوا۟

অস্বীকার করেছে

disbelieve

فَضَرْبَ

তখন আঘাত করা(প্রথম কাজ)

then strike

ٱلرِّقَابِ

(তাদের) ঘাড়ে-গর্দানে

the necks

حَتَّىٰٓ

এমনকি

until

إِذَآ

যখন

when

أَثْخَنتُمُوهُمْ

তাদেরকে সম্পূর্ণভাবে পরাজিত করবে

you have subdued them

فَشُدُّوا۟

তোমরা তখন শক্ত করে বাঁধবে

then bind firmly

ٱلْوَثَاقَ

(বন্দীদের) বাঁধন

the bond

فَإِمَّا

অতঃপর হয়তো

then either

مَنًّۢا

অনুকম্পা করবে

a favor

بَعْدُ

পরে

afterwards

وَإِمَّا

নাহয়

or

فِدَآءً

মুক্তিপণ নেবে

ransom

حَتَّىٰ

যতক্ষণ না

until

تَضَعَ

সংবরণ করবে

lays down

ٱلْحَرْبُ

যুদ্ধ

the war

أَوْزَارَهَا

তার অস্ত্রসমূহকে

its burdens

ذَٰلِكَ

এটা (বিধান)

That

وَلَوْ

এবং যদি

And if

يَشَآءُ

ইচ্ছে করতেন

Allah had willed

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌ (তবে)

Allah had willed

لَٱنتَصَرَ

অবশ্যই প্রতিশোধ গ্রহণ করতেন

surely, He could have taken retribution

مِنْهُمْ

তাদের হতে

from them

وَلَٰكِن

কিন্তু

but

لِّيَبْلُوَا۟

(এ পন্থা নিয়েছেন) যাতে তিনি পরীক্ষা করতে পারেন

to test

بَعْضَكُم

তোমাদের এককে

some of you

بِبَعْضٍ

অপরকে দিয়ে

with others

وَٱلَّذِينَ

এবং যারা

And those who

قُتِلُوا۟

নিহত হয়

are killed

فِى

মধ্যে

in

سَبِيلِ

পথের

(the) way of Allah

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র

(the) way of Allah

فَلَن

সেক্ষেত্রে কখনও না

then never

يُضِلَّ

তিনি নিষ্ফল করবেন

He will cause to be lost

أَعْمَٰلَهُمْ

তাদের কর্ম সমুহকে

their deeds

(5)

سَيَهْدِيهِمْ

তিনি অচিরেই তাদেরকে পরিচালিত করবেন সৎ পথে

He will guide them

وَيُصْلِحُ

ও ভালো করবেন

and improve

بَالَهُمْ

তাদের অবস্থা

their condition

(6)

وَيُدْخِلُهُمُ

এবং তাদের প্রবেশ করাবেন

And admit them

ٱلْجَنَّةَ

জান্নাতে

(to) Paradise

عَرَّفَهَا

তার পরিচয় তিনি জানিয়েছেন

He has made it known

لَهُمْ

তাদেরকে

to them

(7)

يَٰٓأَيُّهَا

হে

O you who believe!

ٱلَّذِينَ

যারা

O you who believe!

ءَامَنُوٓا۟

ঈমান এনেছ

O you who believe!

إِن

যদি

If

تَنصُرُوا۟

তোমরা সাহায্য কর

you help

ٱللَّهَ

আল্লাহকে

Allah

يَنصُرْكُمْ

তিনি তোমাদেরকে সাহায্য করবেন

He will help you

وَيُثَبِّتْ

ও সুদৃঢ় করবেন

and make firm

أَقْدَامَكُمْ

তোমাদের পা গুলোকে

your feet

(8)

وَٱلَّذِينَ

এবং যারা

But those who

كَفَرُوا۟

অস্বীকার করেছে

disbelieve

فَتَعْسًا

দুর্গতি সেক্ষেত্রে

destruction is

لَّهُمْ

তাদের জন্যে

for them

وَأَضَلَّ

এবং তিনি পণ্ড করে দিয়েছেন

and He will cause to be lost

أَعْمَٰلَهُمْ

তাদের কর্মসমূহকে

their deeds

(9)

ذَٰلِكَ

এটা

That

بِأَنَّهُمْ

এ কারণে যে তারা

(is) because they

كَرِهُوا۟

অপছন্দ করেছে

hate

مَآ

যা

what

أَنزَلَ

নাযিল করেছেন

Allah has revealed

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah has revealed

فَأَحْبَطَ

অতএব তিনি নষ্ট করে দিয়েছেন

so He has made worthless

أَعْمَٰلَهُمْ

তাদের কর্মসমূহকে

their deeds

(10)

أَفَلَمْ

নি তবে কি

Do not

يَسِيرُوا۟

তারা ভ্রমণ করে

they travel

فِى

মধ্যে

in

ٱلْأَرْضِ

পৃথিবীর

the earth

فَيَنظُرُوا۟

তারা দেখে তখন (নাই)

and see

كَيْفَ

কেমন

how

كَانَ

ছিল

was

عَٰقِبَةُ

পরিণাম

(the) end

ٱلَّذِينَ

(তাদের) যারা

(of) those

مِن

মধ্য হতে

before them?

قَبْلِهِمْ

তাদের পূর্বে (ছিল)

before them?

دَمَّرَ

ধ্বংস করে দিয়েছেন

Allah destroyed

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah destroyed

عَلَيْهِمْ

তাদেরকে

[over] them

وَلِلْكَٰفِرِينَ

এবং কাফেরদের জন্য (নির্দিষ্ট হয়ে আছে)

and for the disbelievers

أَمْثَٰلُهَا

তার অনুরূপ পরিণতি

its likeness

(11)

ذَٰلِكَ

এটা

That

بِأَنَّ

এ জন্যে যে

(is) because

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌

Allah

مَوْلَى

অভিভাবক

(is the) Protector

ٱلَّذِينَ

(তাদের) যারা

(of) those who

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছে

believe

وَأَنَّ

এবং (এও) যে

and because

ٱلْكَٰفِرِينَ

কাফেরদের

the disbelievers –

لَا

নেই

(there is) no

مَوْلَىٰ

কোনো অভিভাবক

protector

لَهُمْ

তাদের জন্যে

for them

Sura Muhammad in Words ع [১][1] >> [২][2] >> [৩][3] >> [৪][4]

(12)

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌

Allah

يُدْخِلُ

প্রবেশ করাবেন

will admit

ٱلَّذِينَ

(তাদেরকে) যারা

those who

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছে

believe

وَعَمِلُوا۟

ও কাজ করেছে

and do

ٱلصَّٰلِحَٰتِ

সৎকর্ম

righteous deeds

جَنَّٰتٍ

জান্নাতে

(to) gardens

تَجْرِى

প্র্রবাহিত হয়

flow

مِن

থেকে

from

تَحْتِهَا

তার নিচ

underneath it

ٱلْأَنْهَٰرُ

ঝর্না ধারাসমুহ

the rivers

وَٱلَّذِينَ

এবং যারা

but those who

كَفَرُوا۟

অস্বীকার করেছে

disbelieve

يَتَمَتَّعُونَ

তারা ভোগবিলাস করছে

they enjoy

وَيَأْكُلُونَ

ও তারা খাচ্ছে

and eat

كَمَا

যেমন

as

تَأْكُلُ

খায়

eat

ٱلْأَنْعَٰمُ

চতুষ্পদ জন্তু

the cattle

وَٱلنَّارُ

এবং জাহান্নামই

and the Fire

مَثْوًى

নিবাস

(will be) an abode

لَّهُمْ

তাদের জন্যে

for them

(13)

وَكَأَيِّن

এবং কতই না

And how many

مِّن

থেকে

of

قَرْيَةٍ

জনপদ (বিলীন হয়েছে)

a town

هِىَ

যা (ছিল)

which

أَشَدُّ

অধিকতর দৃঢ়

(was) stronger

قُوَّةً

শক্তিতে

(in) strength

مِّن

চেয়েও

than

قَرْيَتِكَ

তোমার জনপদের

your town

ٱلَّتِىٓ

যা (হতে)

which

أَخْرَجَتْكَ

তোমাকে বের করেছে

has driven you out?

أَهْلَكْنَٰهُمْ

আমরা তাদেরকে ধ্বংস করে দিয়েছি

We destroyed them

فَلَا

অতঃপর না (ছিল)

so no

نَاصِرَ

কোনো সাহায্যকারী

helper

لَهُمْ

তাদের জন্যে

for them

(14)

أَفَمَن

তবে কি যে

Then is (he) who

كَانَ

হয়

is

عَلَىٰ

(হেদায়াতের) উপর

on

بَيِّنَةٍ

সুস্পষ্ট

a clear proof

مِّن

পক্ষ হতে

from

رَّبِّهِۦ

তার রবের

his Lord

كَمَن

(তার) মতো যাকে

like (he) who

زُيِّنَ

শোভনীয় করা হয়েছে

is made attractive

لَهُۥ

তার জন্যে

for him

سُوٓءُ

খারাপ

(the) evil

عَمَلِهِۦ

তার কাজকে

(of) his deeds

وَٱتَّبَعُوٓا۟

এবং তারা অনুসরণ করেছে

while they follow

أَهْوَآءَهُم

তাদের খেয়াল খুশির

their desires

(15)

مَّثَلُ

একটি দৃষ্টান্ত

A parable

ٱلْجَنَّةِ

জান্নাতের

(of) Paradise

ٱلَّتِى

যা

which

وُعِدَ

প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে

is promised

ٱلْمُتَّقُونَ

মুত্তাকীদের (জন্যে)

(to) the righteous

فِيهَآ

তার মধ্যে আছে

Therein

أَنْهَٰرٌ

ঝর্নাধারাসমূহ

(are) rivers

مِّن

থেকে

of

مَّآءٍ

পানির

water

غَيْرِ

নয়/ অ

not

ءَاسِنٍ

পরিবর্তনীয় (তার রং গন্ধ)

polluted

وَأَنْهَٰرٌ

এবং ঝর্ণাসমূহ

and rivers

مِّن

থেকে

of

لَّبَنٍ

দুধের

milk

لَّمْ

না

not

يَتَغَيَّرْ

পরিবর্তন হয়

changes

طَعْمُهُۥ

তার স্বাদ

its taste

وَأَنْهَٰرٌ

এবং ঝর্ণাসমূহ

and rivers

مِّنْ

থেকে

of

خَمْرٍ

সুধার

wine

لَّذَّةٍ

সুস্বাদু

delicious

لِّلشَّٰرِبِينَ

পানকারীদের জন্যে

to (the) drinkers

وَأَنْهَٰرٌ

এবং ঝর্ণাসমূহ

and rivers

مِّنْ

থেকে

of

عَسَلٍ

মধুর

honey

مُّصَفًّى

পরিশোধিত পরিচ্ছন্ন

purified

وَلَهُمْ

এবং তাদের জন্যে (রয়েছে)

and for them

فِيهَا

তার মধ্যে

therein

مِن

থেকে

of

كُلِّ

সব (ধরনের)

all

ٱلثَّمَرَٰتِ

ফলমূল

fruits

وَمَغْفِرَةٌ

এবং ক্ষমা

and forgiveness

مِّن

পক্ষ হতে

from

رَّبِّهِمْ

তাদের রবের

their Lord

كَمَنْ

(এসবের অধিকারী কি) তার মতো

like he who

هُوَ

যে

like he who

خَٰلِدٌ

স্থায়ী হবে

(will) abide forever

فِى

মধ্যে

in

ٱلنَّارِ

জাহান্নামের

the Fire

وَسُقُوا۟

ও যাদেরকে পান করানো হবে

and they will be given to drink

مَآءً

পানি

water

حَمِيمًا

উত্তপ্ত/ ফুটন্ত

boiling

فَقَطَّعَ

ছিন্নবিচ্ছিন্ন করে দেবে

so it cuts into pieces

أَمْعَآءَهُمْ

তাদের নাড়িভুঁড়ি

their intestines

(16)

وَمِنْهُم

এবং তাদের মধ্যে

And among them

مَّن

কেউ কেউ (এমন আছে)

(are some) who

يَسْتَمِعُ

যে শুনে

listen

إِلَيْكَ

তোমার দিকে মনোযোগ দিয়ে

to you

حَتَّىٰٓ

এমন কি

until

إِذَا

যখন

when

خَرَجُوا۟

তারা বের হয়ে যায়

they depart

مِنْ

হতে

from

عِندِكَ

তোমার নিকট

you

قَالُوا۟

তারা বলে

they say

لِلَّذِينَ

যাদের (আহলে-কিতাবদেরকে)

to those who

أُوتُوا۟

দেওয়া হয়েছে

were given

ٱلْعِلْمَ

জ্ঞান

the knowledge

مَاذَا

“কি

“What

قَالَ

বলল

(has) he said

ءَانِفًا

এইমাত্র”

just now?”

أُو۟لَٰٓئِكَ

ঐসব লোক

Those

ٱلَّذِينَ

(তারাই) যাদের

(are) the ones

طَبَعَ

মোহর মেরে দিয়েছেন

Allah has set a seal

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah has set a seal

عَلَىٰ

উপর

upon

قُلُوبِهِمْ

তাদের অন্তর গুলোর

their hearts

وَٱتَّبَعُوٓا۟

এবং তারা অনুসরণ করে

and they follow

أَهْوَآءَهُمْ

তাদের খেয়াল খুশির

their desires

(17)

وَٱلَّذِينَ

এবং যারা

And those who

ٱهْتَدَوْا۟

সৎপথ অবলম্বন করেছে

accept guidance

زَادَهُمْ

তাদেরকে (আল্লাহ্‌) বাড়িয়ে দেন

He increases them

هُدًى

সৎপথে চলার শক্তি

(in) guidance

وَءَاتَىٰهُمْ

এবং তাদের দান করেন

and gives them

تَقْوَىٰهُمْ

তাদের তাকওয়া

their righteousness

(18)

فَهَلْ

তবে (কি)

Then do

يَنظُرُونَ

তারা অপেক্ষা করছে

they wait

إِلَّا

এছাড়া

but

ٱلسَّاعَةَ

কিয়ামতের

(for) the Hour

أَن

যে

that

تَأْتِيَهُم

তাদের কাছে আসবে

it should come to them

بَغْتَةً

হঠাৎ করে

suddenly?

فَقَدْ

নিশ্চয়ই

But indeed

جَآءَ

এসেছে

have come

أَشْرَاطُهَا

তার লক্ষণসমূহ

its indications

فَأَنَّىٰ

অতএব কেমন করে

Then how

لَهُمْ

তাদের জন্যে

to them

إِذَا

যখন

when

جَآءَتْهُمْ

তা তাদের কাছে আসবে (কিয়ামত)

has come to them

ذِكْرَىٰهُمْ

তাদের উপদেশ (গ্রহণ সম্ভব হবে?)

their reminder

(19)

فَٱعْلَمْ

অতএব জেনে রাখো

So know

أَنَّهُۥ

যে

that [He] –

لَآ

নেই

(there is) no

إِلَٰهَ

কোনো ইলাহ (যে ইবাদাত পেতে পারে)

god

إِلَّا

ছাড়া

but

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah

وَٱسْتَغْفِرْ

এবং ক্ষমা প্রার্থনা করো

and ask forgiveness

لِذَنۢبِكَ

তোমার পাপের জন্যে

for your sin

وَلِلْمُؤْمِنِينَ

এবং মু’মিন পুরুষদের জন্যে

and for the believing men

وَٱلْمُؤْمِنَٰتِ

এবং মু’মিন নারীদের জন্যে

and the believing women

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ্‌

And Allah

يَعْلَمُ

জানেন

knows

مُتَقَلَّبَكُمْ

তোমাদের গতিবিধি

your movement

وَمَثْوَىٰكُمْ

এবং তোমাদের অবস্থান

and your resting places

(20)

وَيَقُولُ

এবং বলে

And say

ٱلَّذِينَ

যারা

those who

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছে

believe

لَوْلَا

“কেন না

“Why not

نُزِّلَتْ

নাযিল করা হয়

has been revealed

سُورَةٌ

একটি সূরাহ (যুদ্ধাদেশ দিয়ে)”

a Surah?”

فَإِذَآ

অতঃপর যখন

But when

أُنزِلَتْ

নাযিল করা হলো

is revealed

سُورَةٌ

একটি সূরাহ

a Surah

مُّحْكَمَةٌ

দ্ব্যর্থহীন

precise

وَذُكِرَ

এবং উল্লেখ করা ছিল

and is mentioned

فِيهَا

তার মধ্যে

in it

ٱلْقِتَالُ

যুদ্ধের (নির্দেশ)

the fighting

رَأَيْتَ

তুমি দেখলে

you see

ٱلَّذِينَ

তাদেরকে (যাদের)

those who

فِى

আছে

in

قُلُوبِهِم

তাদের অন্তরসমূহে

their hearts

مَّرَضٌ

রোগ

(is) a disease

يَنظُرُونَ

তারা তাকাচ্ছে

looking

إِلَيْكَ

তোমার দিকে

at you

نَظَرَ

(এমন) দৃষ্টিতে

a look

ٱلْمَغْشِىِّ

ছেয়ে গেছে

(of) one fainting

عَلَيْهِ

যার উপর

(of) one fainting

مِنَ

থেকে

from

ٱلْمَوْتِ

মৃত্যু

the death

فَأَوْلَىٰ

সুতরাং দুর্ভোগ

But more appropriate

لَهُمْ

তাদের জন্যে

for them

Sura Muhammad in Words ع [২][2] >> [১][1] >> [৩][3] >> [৪][4]

(21)

طَاعَةٌ

(তাদের মুখে তো) আনুগত্য

(Is) obedience

وَقَوْلٌ

ও কথা

and a word

مَّعْرُوفٌ

ন্যায়সংগত / ভালো ভালো

kind

فَإِذَا

কিন্তু যখন

And when

عَزَمَ

চূড়ান্ত হলো

(is) determined

ٱلْأَمْرُ

(জিহাদের) বিষয়টি

the matter

فَلَوْ

তখন যদি

then if

صَدَقُوا۟

তারা সত্য প্রমাণ করত

they had been true

ٱللَّهَ

আল্লাহকে( দেওয়া ওয়াদা)

(to) Allah

لَكَانَ

অবশই হতো

surely it would have been

خَيْرًا

উত্তম

better

لَّهُمْ

তাদের জন্যে

for them

(22)

فَهَلْ

তবে কি

Then would

عَسَيْتُمْ

তোমাদের হতে এ সম্ভাবনা আছে?

you perhaps

إِن

যদি

if

تَوَلَّيْتُمْ

তোমরা ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হও

you are given authority

أَن

যে

that

تُفْسِدُوا۟

তোমরা বিপর্যয় সৃষ্টি করবে

you cause corruption

فِى

মধ্যে

in

ٱلْأَرْضِ

পৃথিবীর

the earth

وَتُقَطِّعُوٓا۟

এবং তোমরা ছিন্ন করবে

and cut off

أَرْحَامَكُمْ

তোমাদের আত্মীয়তার বন্ধনসমূহকে

your ties of kinship

(23)

أُو۟لَٰٓئِكَ

ঐসব লোক

Those

ٱلَّذِينَ

তারাই

(are) the ones

لَعَنَهُمُ

যাদেরকে অভিশাপ দিয়েছেন

Allah has cursed them

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah has cursed them

فَأَصَمَّهُمْ

এরপর তাদেরকে বধির করে দিয়েছেন

so He made them deaf

وَأَعْمَىٰٓ

ও অন্ধ করে দিয়েছেন

and blinded

أَبْصَٰرَهُمْ

তাদের দৃষ্টি শক্তিকে

their vision

(24)

أَفَلَا

না তবে কি

Then do not

يَتَدَبَّرُونَ

তারা চিন্তা গবেষণা করে

they ponder

ٱلْقُرْءَانَ

কুরআন (সম্বন্ধে)

(over) the Quran

أَمْ

অথবা

or

عَلَىٰ

উপর

upon

قُلُوبٍ

অন্তরসমূহের

(their) hearts

أَقْفَالُهَآ

তাদের তালা (পড়েছে)

(are) locks?

(25)

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

ٱلَّذِينَ

যারা

those who

ٱرْتَدُّوا۟

ফিরে যায়

return

عَلَىٰٓ

দিকে

on

أَدْبَٰرِهِم

তাদের পিছনের

their backs

مِّنۢ

থেকে

after

بَعْدِ

এরপরেও

after

مَا

যা

what

تَبَيَّنَ

সুস্পষ্ট হয়েছে

(has) become clear

لَهُمُ

তাদের কাছে

to them

ٱلْهُدَى

(অর্থাৎ) সৎপথ

the guidance

ٱلشَّيْطَٰنُ

শয়তান

Shaitaan

سَوَّلَ

শোভন করে দেখায়

enticed

لَهُمْ

তাদের জন্যে (একাজ)

[for] them

وَأَمْلَىٰ

মিথ্যা আশা দেয়

and prolonged hope

لَهُمْ

তাদের জন্যে

for them

(26)

ذَٰلِكَ

এটা

That

بِأَنَّهُمْ

এ কারণে যে তারা

(is) because they

قَالُوا۟

বলে

[they] said

لِلَّذِينَ

(তাদের)-কে যারা

to those who

كَرِهُوا۟

অপছন্দ করেছে

hate

مَا

যা

what

نَزَّلَ

অবতরণ করেছেন

Allah has revealed

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah has revealed

سَنُطِيعُكُمْ

“অচিরেই আমরা তোমাদের আনুগত্য করব

“We will obey you

فِى

ক্ষেত্রে

in

بَعْضِ

কিছু

part

ٱلْأَمْرِ

বিষয়ের”

(of) the matter”

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ্‌

But Allah

يَعْلَمُ

জানেন

knows

إِسْرَارَهُمْ

তাদের গোপন অভিসন্ধি (সম্পর্কে)

their secrets

(27)

فَكَيْفَ

অতঃপর কেমন হবে

Then how

إِذَا

(তখন) যখন

when

تَوَفَّتْهُمُ

তাদের প্রান হরণ করবে

take them in death

ٱلْمَلَٰٓئِكَةُ

ফেরেশতারা

the Angels

يَضْرِبُونَ

তারা মারবে

striking

وُجُوهَهُمْ

তাদের মুখমন্ডলগুলোতে

their faces

وَأَدْبَٰرَهُمْ

ও তাদের পিঠে

and their backs?

(28)

ذَٰلِكَ

এটা

That

بِأَنَّهُمُ

এ কারণে যে তারা

(is) because they

ٱتَّبَعُوا۟

অনুসরণ করেছিল (সেই পথের)

followed

مَآ

যা

what

أَسْخَطَ

অসন্তুষ্ট করেছে

angered

ٱللَّهَ

আল্লাহকে

Allah

وَكَرِهُوا۟

ও তারা অপছন্দ করেছে

and hated

رِضْوَٰنَهُۥ

তাঁর সন্তুষ্টির (পথ)

His pleasure

فَأَحْبَطَ

ফলে তিনি নষ্ট করে দিয়েছেন

so He made worthless

أَعْمَٰلَهُمْ

তাদের কর্মসমূহকে

their deeds

Sura Muhammad in Words ع [৩][3] >> [১][1] >> [২][2] >> [৪][4]

(29)

أَمْ

কি

Or do

حَسِبَ

মনে করেছে

think

ٱلَّذِينَ

তারা

those who

فِى

আছে

in

قُلُوبِهِم

যাদের অন্তরসমূহে

their hearts

مَّرَضٌ

রোগ (আছে)

(is) a disease

أَن

যে

that

لَّن

কখনও না

never

يُخْرِجَ

প্রকাশ করবেন

will Allah bring forth

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

will Allah bring forth

أَضْغَٰنَهُمْ

তাদের বিদ্বেষগুলোকে

their hatred?

(30)

وَلَوْ

এবং যদি

And if

نَشَآءُ

আমরা ইচ্ছে করি

We willed

لَأَرَيْنَٰكَهُمْ

আমরা অবশ্যই তাদের দেখাতে পারি

surely We could show them to you

فَلَعَرَفْتَهُم

তুমি তখন তাদের চিনবেই

and you would know them

بِسِيمَٰهُمْ

দ্বারা তাদের লক্ষণগুলো

by their marks;

وَلَتَعْرِفَنَّهُمْ

এবং তাদেরকে তুমি অবশ্যই চিনবে

but surely you will know them

فِى

আছে

by

لَحْنِ

ভংগিতে

(the) tone

ٱلْقَوْلِ

কথা (বলার)

(of their) speech

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ্‌ই

And Allah

يَعْلَمُ

জানেন

knows

أَعْمَٰلَكُمْ

তোমাদের কর্মসমূহকে

your deeds

(31)

وَلَنَبْلُوَنَّكُمْ

এবং তোমাদের পরীক্ষা করব আমরা অবশ্যই

And surely We will test you

حَتَّىٰ

যতক্ষণ না

until

نَعْلَمَ

আমরা জানবো

We make evident

ٱلْمُجَٰهِدِينَ

মুজাহিদদেরকে

those who strive

مِنكُمْ

তোমাদের মধ্যকার

among you

وَٱلصَّٰبِرِينَ

ও ধৈর্যশীলদেরকে

and the patient ones

وَنَبْلُوَا۟

এবং আমরা পরীক্ষা করবো

and We will test

أَخْبَارَكُمْ

তোমাদের খবরাদি

your affairs

(32)

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

ٱلَّذِينَ

যারা

those who

كَفَرُوا۟

অস্বীকার করেছে

disbelieve

وَصَدُّوا۟

ও বাধা দিয়েছে (লোকদেরকে)

and turn away

عَن

হতে

from

سَبِيلِ

পথ

(the) way of Allah

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র

(the) way of Allah

وَشَآقُّوا۟

এবং বিরোধিতা করেছে

and opposed

ٱلرَّسُولَ

রাসুলের

the Messenger

مِنۢ

মধ্য হতে

after

بَعْدِ

এরপরেও

after

مَا

যা

what

تَبَيَّنَ

সুস্পষ্ট হয়েছে

(has been) made clear

لَهُمُ

তাদের কাছে

to them

ٱلْهُدَىٰ

(অর্থাৎ) সৎপথ

the guidance

لَن

কখনও না

never

يَضُرُّوا۟

তারা ক্ষতি করতে পারবে

will they harm

ٱللَّهَ

আল্লাহকে

Allah

شَيْـًٔا

কিছুমাত্রও

(in) anything

وَسَيُحْبِطُ

এবং অচিরেই তিনি বিনষ্ট করে দিবেন

and He will make worthless

أَعْمَٰلَهُمْ

তাদের কর্মসমূহকে

their deeds

(33)

يَٰٓأَيُّهَا

হে

O you who believe!

ٱلَّذِينَ

যারা

O you who believe!

ءَامَنُوٓا۟

ঈমান এনেছ

O you who believe!

أَطِيعُوا۟

তোমরা আনুগত্য করো

Obey

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌র

Allah

وَأَطِيعُوا۟

ও আনুগত্য করো

and obey

ٱلرَّسُولَ

রাসুলের

the Messenger

وَلَا

এবং না

and (do) not

تُبْطِلُوٓا۟

তোমরা বিনষ্ট করো

make vain

أَعْمَٰلَكُمْ

তোমাদের কর্মসমূহকে

your deeds

(34)

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

ٱلَّذِينَ

যারা

those who

كَفَرُوا۟

অস্বীকার করেছে

disbelieve

وَصَدُّوا۟

ও বাধা দিয়েছে (লোকদেরকে)

and turn away

عَن

হতে

from

سَبِيلِ

পথ

(the) way

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র

(of) Allah

ثُمَّ

তারপর

then

مَاتُوا۟

তারা মারা গেছে

died

وَهُمْ

এমতাবস্থায় যে

while they

كُفَّارٌ

কাফের (ছিল)

(were) disbelievers

فَلَن

ফলে কখনও না

never

يَغْفِرَ

ক্ষমা করবেন

will Allah forgive

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

will Allah forgive

لَهُمْ

তাদেরকে

them

(35)

فَلَا

অতএব না

So (do) not

تَهِنُوا۟

তোমরা সাহস হারিয়ো না

weaken

وَتَدْعُوٓا۟

এবং তোমরা আহবান করো (না)

and call

إِلَى

দিকে

for

ٱلسَّلْمِ

সন্ধির

peace

وَأَنتُمُ

এবং তোমরাই (হবে)

while you

ٱلْأَعْلَوْنَ

বিজয়ী

(are) superior

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ্‌

and Allah

مَعَكُمْ

তোমাদের সাথে (আছেন)

(is) with you

وَلَن

এবং কখনও না

and never

يَتِرَكُمْ

তোমাদের কমাবেন

will deprive you

أَعْمَٰلَكُمْ

তোমাদের কর্মসমূহকে

(of) your deeds

(36)

إِنَّمَا

প্রকৃতপক্ষে

Only

ٱلْحَيَوٰةُ

জীবন

the life

ٱلدُّنْيَا

পার্থিব

(of) the world

لَعِبٌ

খেলা

(is) play

وَلَهْوٌ

ও তামাশা (মাত্র)

and amusement

وَإِن

এবং যদি

And if

تُؤْمِنُوا۟

তোমরা ঈমান আন

you believe

وَتَتَّقُوا۟

ও তোমরা ভয় করে চল

and fear (Allah)

يُؤْتِكُمْ

তিনি তোমাদের দান করবেন

He will give you

أُجُورَكُمْ

তোমাদের কর্মফলসমূহকে

your rewards

وَلَا

এবং না

and not

يَسْـَٔلْكُمْ

তোমাদের থেকে তিনি চান

will ask you

أَمْوَٰلَكُمْ

তোমাদের সম্পদগুলোকে

(for) your wealth

(37)

إِن

যদি

If

يَسْـَٔلْكُمُوهَا

তা তোমাদের থেকে চান তিনি

He were to ask you for it

فَيُحْفِكُمْ

অতঃপর তোমাদেরকে চাপ দেন

and press you

تَبْخَلُوا۟

তোমরা কৃপণতা করবে

you will withhold

وَيُخْرِجْ

এবং তিনি প্রকাশ করবেন

and He will bring forth

أَضْغَٰنَكُمْ

তোমাদের গোপন ত্রুটিকে

your hatred

(38)

هَٰٓأَنتُمْ

তোমরা দেখ

Here you are –

هَٰٓؤُلَآءِ

ঐসব লোক (যাদের)

these

تُدْعَوْنَ

আহবান করা হচ্ছে

called

لِتُنفِقُوا۟

তোমরা খরচ কর যেন

to spend

فِى

মধ্যে

in

سَبِيلِ

পথের

(the) way

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র

(of) Allah –

فَمِنكُم

তখন তোমাদের মধ্য হতে

but among you

مَّن

কেউ কেউ

(are some) who

يَبْخَلُ

কৃপণতা করে

withhold

وَمَن

অথচ যে

and whoever

يَبْخَلْ

কৃপণতা করে

withholds

فَإِنَّمَا

প্রকৃতপক্ষে

then only

يَبْخَلُ

সে কৃপণতা করে

he withholds

عَن

প্রতি

from

نَّفْسِهِۦ

তার নিজের

himself

وَٱللَّهُ

এবং আলাহ

But Allah

ٱلْغَنِىُّ

অভাবমুক্ত

(is) Free of need

وَأَنتُمُ

কিন্তু তোমরা

while you

ٱلْفُقَرَآءُ

অভাবগ্রস্ত

(are) the needy

وَإِن

আর যদি

And if

تَتَوَلَّوْا۟

তোমরা মুখ ফিরাও (তবে)

you turn away

يَسْتَبْدِلْ

তিনি পরিবর্তন করে আনবেন

He will replace you

قَوْمًا

(অন্য এক) জাতিকে

(with) a people

غَيْرَكُمْ

তোমাদের ব্যতীত

other than you

ثُمَّ

এরপর

then

لَا

না

not

يَكُونُوٓا۟

তারা হবে

they will be

أَمْثَٰلَكُم

তোমাদের মতো

(the) likes of you

Sura Muhammad in Words ع [৪][4] >> [১][1] >> [২][2] >> [৩][3]

[1] অর্থ যুদ্ধ বন্ধ হওয়া।

৪৬ সুরা আহক্বাফ << সুরা মুহাম্মাদ >> ৪৮ সুরা ফাতাহ

By Quran Sharif

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply