সুরা মুমতাহিনা বাংলা অনুবাদ Sura Al Mumtahina in Words & Audio

সুরা মুমতাহিনা বাংলা অনুবাদ Sura Al Mumtahina in Words & Audio

১১৪ টি সুরা >> তাফসীরঃ বুখারী >> তিরমিজি

Arabicতাফসীর

৬০ – সুরা মুমতাহিনা – আয়াত : ১৩, মাদানী, রুকু ২

সুরা মুমতাহিনা mp3 Download

পরম করুণাময় অতি দয়ালু আল্লাহর নামেبِسۡمِ ٱللَّهِ ٱلرَّحۡمَٰنِ ٱلرَّحِيمِ
(1) হে ঈমানদারগণ, তোমরা আমার ও তোমাদের শত্রুদেরকে বন্ধুরূপে গ্রহণ করে তাদের প্রতি ভালোবাসা প্রদর্শন করো না, অথচ তোমাদের কাছে যে সত্য এসেছে তা তারা অস্বীকার করেছে এবং রাসূলকে ও তোমাদেরকে বের করে দিয়েছে এজন্য যে, তোমরা তোমাদের রব আল্লাহর প্রতি ঈমান এনেছ। তোমরা যদি আমার পথে সংগ্রামে ও আমার সন্তুষ্টির সন্ধানে বের হও (তবে কাফিরদেরকে বন্ধুরূপে গ্রহণ করো না) তোমরা গোপনে তাদের সাথে বন্ধুত্ব প্রকাশ কর অথচ তোমরা যা গোপন কর এবং যা প্রকাশ কর তা আমি জানি। তোমাদের মধ্যে যে এমন করবে সে সরল পথ হতে বিচ্যুত হবে।يَٰٓأَيُّهَا ٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ لَا تَتَّخِذُواْ عَدُوِّي وَعَدُوَّكُمۡ أَوۡلِيَآءَ تُلۡقُونَ إِلَيۡهِم بِٱلۡمَوَدَّةِ وَقَدۡ كَفَرُواْ بِمَا جَآءَكُم مِّنَ ٱلۡحَقِّ يُخۡرِجُونَ ٱلرَّسُولَ وَإِيَّاكُمۡ أَن تُؤۡمِنُواْ بِٱللَّهِ رَبِّكُمۡ إِن كُنتُمۡ خَرَجۡتُمۡ جِهَٰدٗا فِي سَبِيلِي وَٱبۡتِغَآءَ مَرۡضَاتِيۚ تُسِرُّونَ إِلَيۡهِم بِٱلۡمَوَدَّةِ وَأَنَا۠ أَعۡلَمُ بِمَآ أَخۡفَيۡتُمۡ وَمَآ أَعۡلَنتُمۡۚ وَمَن يَفۡعَلۡهُ مِنكُمۡ فَقَدۡ ضَلَّ سَوَآءَ ٱلسَّبِيلِ ١
(2) তারা যদি তোমাদেরকে বাগে পায় তবে তোমাদের শত্রু হবে এবং মন্দ নিয়ে তোমাদের দিকে তাদের হাত ও যবান বাড়াবে; তারা কামনা করে যদি তোমরা কুফরি করতে!إِن يَثۡقَفُوكُمۡ يَكُونُواْ لَكُمۡ أَعۡدَآءٗ وَيَبۡسُطُوٓاْ إِلَيۡكُمۡ أَيۡدِيَهُمۡ وَأَلۡسِنَتَهُم بِٱلسُّوٓءِ وَوَدُّواْ لَوۡ تَكۡفُرُونَ ٢
(3) কিয়ামত দিবসে তোমাদের আত্নীয়তা ও সন্তান-সন্ততি তোমাদের কোন উপকার করতে পারবে না। তিনি তোমাদের মাঝে ফায়সালা করে দেবেন। তোমরা যা কর আল্লাহ তার সম্যক দ্রষ্টা।لَن تَنفَعَكُمۡ أَرۡحَامُكُمۡ وَلَآ أَوۡلَٰدُكُمۡۚ يَوۡمَ ٱلۡقِيَٰمَةِ يَفۡصِلُ بَيۡنَكُمۡۚ وَٱللَّهُ بِمَا تَعۡمَلُونَ بَصِيرٞ ٣
(4) ইবরাহীম ও তার সাথে যারা ছিল তাদের মধ্যে তোমাদের জন্য রয়েছে উত্তম আদর্শ। তারা যখন স্বীয় সম্প্রদায়কে বলছিল, ‘তোমাদের সাথে এবং আল্লাহর পরিবর্তে তোমরা যা কিছুর উপাসনা কর তা হতে আমরা সম্পর্কমুক্ত। আমরা তোমাদেরকে অস্বীকার করি; এবং উদ্রেক হল আমাদের- তোমাদের মাঝে শত্রুতা ও বিদ্বেষ চিরকালের জন্য; যতক্ষণ না তোমরা এক আল্লাহর প্রতি ঈমান আন। তবে স্বীয় পিতার প্রতি ইবরাহীমের উক্তিটি ব্যতিক্রম: ‘আমি অবশ্যই তোমার জন্য আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করব আর তোমার ব্যাপারে আল্লাহর কাছে আমি কোন অধিকার রাখি না।’ হে আমাদের প্রতিপালক, আমরা আপনার ওপরই ভরসা করি, আপনারই অভিমুখী হই আর প্রত্যাবর্তন তো আপনারই কাছে।        قَدۡ كَانَتۡ لَكُمۡ أُسۡوَةٌ حَسَنَةٞ فِيٓ إِبۡرَٰهِيمَ وَٱلَّذِينَ مَعَهُۥٓ إِذۡ قَالُواْ لِقَوۡمِهِمۡ إِنَّا بُرَءَٰٓؤُاْ مِنكُمۡ وَمِمَّا تَعۡبُدُونَ مِن دُونِ ٱللَّهِ كَفَرۡنَا بِكُمۡ وَبَدَا بَيۡنَنَا وَبَيۡنَكُمُ ٱلۡعَدَٰوَةُ وَٱلۡبَغۡضَآءُ أَبَدًا حَتَّىٰ تُؤۡمِنُواْ بِٱللَّهِ وَحۡدَهُۥٓ إِلَّا قَوۡلَ إِبۡرَٰهِيمَ لِأَبِيهِ لَأَسۡتَغۡفِرَنَّ لَكَ وَمَآ أَمۡلِكُ لَكَ مِنَ ٱللَّهِ مِن شَيۡءٖۖ رَّبَّنَا عَلَيۡكَ تَوَكَّلۡنَا وَإِلَيۡكَ أَنَبۡنَا وَإِلَيۡكَ ٱلۡمَصِيرُ ٤
(5) হে আমাদের রব, আপনি আমাদেরকে কাফিরদের উৎপীড়নের পাত্র বানাবেন না। হে আমাদের রব, আপনি আমাদের ক্ষমা করে দিন। নিশ্চয় আপনি মহাপরাক্রমশালী, প্রজ্ঞাময়।رَبَّنَا لَا تَجۡعَلۡنَا فِتۡنَةٗ لِّلَّذِينَ كَفَرُواْ وَٱغۡفِرۡ لَنَا رَبَّنَآۖ إِنَّكَ أَنتَ ٱلۡعَزِيزُ ٱلۡحَكِيمُ ٥
(6) নিশ্চয় তোমাদের জন্য তাদের মধ্যে[1] উত্তম আদর্শ রয়েছে, যারা আল্লাহ ও শেষ দিবসের প্রত্যাশা করে, আর যে মুখ ফিরিয়ে নেয়, (সে জেনে রাখুক) নিশ্চয় আল্লাহ তো অভাবমুক্ত, সপ্রশংসিত।لَقَدۡ كَانَ لَكُمۡ فِيهِمۡ أُسۡوَةٌ حَسَنَةٞ لِّمَن كَانَ يَرۡجُواْ ٱللَّهَ وَٱلۡيَوۡمَ ٱلۡأٓخِرَۚ وَمَن يَتَوَلَّ فَإِنَّ ٱللَّهَ هُوَ ٱلۡغَنِيُّ ٱلۡحَمِيدُ ٦
সুরা মুমতাহিনাع রুকু
(7) যাদের সাথে তোমরা শত্রুতা করছ, আশা করা যায় আল্লাহ তোমাদের ও তাদের মধ্যে বন্ধুত্ব সৃষ্টি করে দেবেন। আর আল্লাহ সর্ব শক্তিমান এবং আল্লাহ অতিশয় ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু।۞عَسَى ٱللَّهُ أَن يَجۡعَلَ بَيۡنَكُمۡ وَبَيۡنَ ٱلَّذِينَ عَادَيۡتُم مِّنۡهُم مَّوَدَّةٗۚ وَٱللَّهُ قَدِيرٞۚ وَٱللَّهُ غَفُورٞ رَّحِيمٞ٧
(8) দীনের ব্যাপারে যারা তোমাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেনি এবং তোমাদেরকে তোমাদের বাড়ি-ঘর থেকে বের করে দেয়নি, তাদের প্রতি সদয় ব্যবহার করতে এবং তাদের প্রতি ন্যায়বিচার করতে আল্লাহ তোমাদেরকে নিষেধ করছেন না। নিশ্চয় আল্লাহ ন্যায় পরায়ণদেরকে ভালবাসেন।لَّا يَنۡهَىٰكُمُ ٱللَّهُ عَنِ ٱلَّذِينَ لَمۡ يُقَٰتِلُوكُمۡ فِي ٱلدِّينِ وَلَمۡ يُخۡرِجُوكُم مِّن دِيَٰرِكُمۡ أَن تَبَرُّوهُمۡ وَتُقۡسِطُوٓاْ إِلَيۡهِمۡۚ إِنَّ ٱللَّهَ يُحِبُّ ٱلۡمُقۡسِطِينَ٨
(9) আল্লাহ কেবল তাদের সাথেই বন্ধুত্ব করতে নিষেধ করেছেন, যারা দীনের ব্যাপারে তোমাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছে এবং তোমাদেরকে তোমাদের ঘর-বাড়ী থেকে বের করে দিয়েছে ও তোমাদেরকে বের করে দেয়ার ব্যাপারে সহায়তা করেছে। আর যারা তাদের সাথে বন্ধুত্ব করে, তারাই তো যালিম।إِنَّمَا يَنۡهَىٰكُمُ ٱللَّهُ عَنِ ٱلَّذِينَ قَٰتَلُوكُمۡ فِي ٱلدِّينِ وَأَخۡرَجُوكُم مِّن دِيَٰرِكُمۡ وَظَٰهَرُواْ عَلَىٰٓ إِخۡرَاجِكُمۡ أَن تَوَلَّوۡهُمۡۚ وَمَن يَتَوَلَّهُمۡ فَأُوْلَٰٓئِكَ هُمُ ٱلظَّٰلِمُونَ ٩
(10) হে ঈমানদারগণ, তোমাদের কাছে মু’মিন মহিলারা হিজরত করে আসলে তোমরা তাদেরকে পরীক্ষা করে দেখ। আল্লাহ তাদের ঈমান সম্পর্কে অধিক অবগত। অতঃপর যদি তোমরা জানতে পার যে, তারা মুমিন মহিলা, তাহলে তাদেরকে আর কাফিরদের নিকট ফেরত পাঠিও না। তারা কাফিরদের জন্য বৈধ নয় এবং কাফিররাও তাদের জন্য হালাল নয়। তারা[2] যা ব্যয় করেছে, তা তাদেরকে ফিরিয়ে দাও। তোমরা তাদেরকে বিয়ে করলে তোমাদের কোন অপরাধ হবে না, যদি তোমরা তাদেরকে তাদের মোহর প্রদান কর। আর তোমরা কাফির নারীদের সাথে বৈবাহিক সম্পর্ক বজায় রেখ না, তোমরা যা ব্যয় করেছ, তা তোমরা ফেরত চাও, আর তারা যা ব্যয় করেছে, তা যেন তারা চেয়ে নেয়। এটা আল্লাহর বিধান। তিনি তোমাদের মাঝে ফয়সালা করেন। আর আল্লাহ সর্বজ্ঞ, প্রজ্ঞাময়।يَٰٓأَيُّهَا ٱلَّذِينَ ءَامَنُوٓاْ إِذَا جَآءَكُمُ ٱلۡمُؤۡمِنَٰتُ مُهَٰجِرَٰتٖ فَٱمۡتَحِنُوهُنَّۖ ٱللَّهُ أَعۡلَمُ بِإِيمَٰنِهِنَّۖ فَإِنۡ عَلِمۡتُمُوهُنَّ مُؤۡمِنَٰتٖ فَلَا تَرۡجِعُوهُنَّ إِلَى ٱلۡكُفَّارِۖ لَا هُنَّ حِلّٞ لَّهُمۡ وَلَا هُمۡ يَحِلُّونَ لَهُنَّۖ وَءَاتُوهُم مَّآ أَنفَقُواْۚ وَلَا جُنَاحَ عَلَيۡكُمۡ أَن تَنكِحُوهُنَّ إِذَآ ءَاتَيۡتُمُوهُنَّ أُجُورَهُنَّۚ وَلَا تُمۡسِكُواْ بِعِصَمِ ٱلۡكَوَافِرِ وَسۡ‍َٔلُواْ مَآ أَنفَقۡتُمۡ وَلۡيَسۡ‍َٔلُواْ مَآ أَنفَقُواْۚ ذَٰلِكُمۡ حُكۡمُ ٱللَّهِ يَحۡكُمُ بَيۡنَكُمۡۖ وَٱللَّهُ عَلِيمٌ حَكِيمٞ ١٠
(11) আর তোমাদের স্ত্রীদের মধ্যে যদি কেউ হাতছাড়া হয়ে কাফিরদের নিকট চলে যায়, অতঃপর যদি তোমরা যুদ্ধজয়ী হয়ে গনীমত লাভ কর, তাহলে যাদের স্ত্রীরা চলে গেছে, তাদেরকে তারা যা ব্যয় করেছে, তার সমপরিমাণ প্রদান কর। আর তোমরা আল্লাহকে ভয় কর, যার প্রতি তোমরা বিশ্বাসী।وَإِن فَاتَكُمۡ شَيۡءٞ مِّنۡ أَزۡوَٰجِكُمۡ إِلَى ٱلۡكُفَّارِ فَعَاقَبۡتُمۡ فَ‍َٔاتُواْ ٱلَّذِينَ ذَهَبَتۡ أَزۡوَٰجُهُم مِّثۡلَ مَآ أَنفَقُواْۚ وَٱتَّقُواْ ٱللَّهَ ٱلَّذِيٓ أَنتُم بِهِۦ مُؤۡمِنُونَ ١١
(12) হে নবী, যখন মুমিন নারীরা তোমার কাছে এসে এই মর্মে বাইআত করে যে, তারা আল্লাহর সাথে কোন কিছু শরীক করবে না, চুরি করবে না, ব্যভিচার করবে না, নিজেদের সন্তানদেরকে হত্যা করবে না, তারা জেনে শুনে কোন অপবাদ রচনা করে রটাবে না এবং সৎকাজে তারা তোমার অবাধ্য হবে না। তখন তুমি তাদের বাইআত গ্রহণ কর এবং তাদের জন্য আল্লাহর নিকট ক্ষমা প্রার্থনা কর। নিশ্চয় আল্লাহ অতিশয় ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু।يَٰٓأَيُّهَا ٱلنَّبِيُّ إِذَا جَآءَكَ ٱلۡمُؤۡمِنَٰتُ يُبَايِعۡنَكَ عَلَىٰٓ أَن لَّا يُشۡرِكۡنَ بِٱللَّهِ شَيۡ‍ٔٗا وَلَا يَسۡرِقۡنَ وَلَا يَزۡنِينَ وَلَا يَقۡتُلۡنَ أَوۡلَٰدَهُنَّ وَلَا يَأۡتِينَ بِبُهۡتَٰنٖ يَفۡتَرِينَهُۥ بَيۡنَ أَيۡدِيهِنَّ وَأَرۡجُلِهِنَّ وَلَا يَعۡصِينَكَ فِي مَعۡرُوفٖ فَبَايِعۡهُنَّ وَٱسۡتَغۡفِرۡ لَهُنَّ ٱللَّهَۚ إِنَّ ٱللَّهَ غَفُورٞ رَّحِيمٞ ١٢
(13) হে ঈমানদারগণ, তোমরা সেই সম্প্রদায়ের সাথে বন্ধুত্ব করো না, যাদের প্রতি আল্লাহ রাগান্বিত হয়েছেন। তারা তো আখিরাত সম্পর্কে নিরাশ হয়ে পড়েছে, যেমনিভাবে কাফিররা কবরবাসীদের সম্পর্কে নিরাশ হয়েছে।يَٰٓأَيُّهَا ٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ لَا تَتَوَلَّوۡاْ قَوۡمًا غَضِبَ ٱللَّهُ عَلَيۡهِمۡ قَدۡ يَئِسُواْ مِنَ ٱلۡأٓخِرَةِ كَمَا يَئِسَ ٱلۡكُفَّارُ مِنۡ أَصۡحَٰبِ ٱلۡقُبُورِ ١٣
সুরা মুমতাহিনাع রুকু

Sura Al Mumtahina in Words

(1)

يَٰٓأَيُّهَا

ওহে

O you!

ٱلَّذِينَ

যারা

who!

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছ

believe!

لَا

না

(Do) not

تَتَّخِذُوا۟

তোমরা গ্রহণ করো

take

عَدُوِّى

আমার শত্রুকে

My enemies

وَعَدُوَّكُمْ

ও তোমাদের শত্রুকে

and your enemies

أَوْلِيَآءَ

বন্ধুরূপে

(as) allies

تُلْقُونَ

তোমরা স্থাপন কর

offering

إِلَيْهِم

তাদের সাথেে

them

بِٱلْمَوَدَّةِ

বন্ধুত্ব

love

وَقَدْ

অথচ নিশ্চয়

while

كَفَرُوا۟

ত্রা অস্বীকার করেছে

they have disbelieved

بِمَا

যা

in what

جَآءَكُم

তোমাদের কাছে এসেছে

came to you

مِّنَ

থেকে

of

ٱلْحَقِّ

সত্য

the truth

يُخْرِجُونَ

তারা বহিষ্কার করেছে

driving out

ٱلرَّسُولَ

রসূলকে

the Messenger

وَإِيَّاكُمْ

এবং তোমাদেরকেও

and yourselves

أَن

একারণে যে

because

تُؤْمِنُوا۟

তোমরা ঈমান এনেছো

you believe

بِٱللَّهِ

আল্লাহর উপর

in Allah

رَبِّكُمْ

তোমাদের রব

your Lord

إِن

যদি

If

كُنتُمْ

তোমরা

you

خَرَجْتُمْ

বের হয়ে থাকো

come forth

جِهَٰدًا

জিহাদে

(to) strive

فِى

(মধ্যে)

in

سَبِيلِى

আমার পথে

My way

وَٱبْتِغَآءَ

ও সন্ধানে

and (to) seek

مَرْضَاتِى

আমার সন্তুষ্টির

My Pleasure

تُسِرُّونَ

তোমরা গোপনে কর

You confide

إِلَيْهِم

তাদের সাথে

to them

بِٱلْمَوَدَّةِ

বন্ধুত্ব

love

وَأَنَا۠

আমি অথচ

but I Am

أَعْلَمُ

সম্যক অবগত

most knowing

بِمَآ

যা কিছু

of what

أَخْفَيْتُمْ

তোমরা গোপন কর

you conceal

وَمَآ

ও যা

and what

أَعْلَنتُمْ

তোমরা প্রকাশ কর

you declare

وَمَن

এবং যে

And whoever

يَفْعَلْهُ

তা করবে

does it

مِنكُمْ

তোমাদের মধ্যে

among you

فَقَدْ

অতঃপর নিশ্চয়

then certainly

ضَلَّ

ভ্রষ্ট হয়েছে

he has strayed

سَوَآءَ

সোজা

(from the) straight

ٱلسَّبِيلِ

পথ থেকে

path

(2)

إِن

যদি

If

يَثْقَفُوكُمْ

তোমাদের কাবু করতে পারে

they gain dominance over you

يَكُونُوا۟

তারা হয়

they would be

لَكُمْ

তোমাদের জন্য

to you

أَعْدَآءً

শত্রু

enemies

وَيَبْسُطُوٓا۟

ও তারা সম্প্রসারিত করে

and extend

إِلَيْكُمْ

তোমাদের দিবে

against you

أَيْدِيَهُمْ

তাদের হাতগুলো

their hands

وَأَلْسِنَتَهُم

ও তাদের রসনাগুলো

and their tongues

بِٱلسُّوٓءِ

মন্দের সাথে

with evil

وَوَدُّوا۟

ও তারা কামনা করে

and they desire

لَوْ

যদি

that

تَكْفُرُونَ

তোমরা কাফির হও

you would disbelieve

(3)

لَن

কখনো না

Never

تَنفَعَكُمْ

তোমাদের উপকার দেবে

will benefit you

أَرْحَامُكُمْ

তোমাদের আত্মীয়দের

your relatives

وَلَآ

এবং না

and not

أَوْلَٰدُكُمْ

তোমাদের সন্তানদের

your children

يَوْمَ

দিনে

(on the) Day

ٱلْقِيَٰمَةِ

কিয়ামতের

(of) the Resurrection

يَفْصِلُ

বিচ্ছেদ করবেন তিনি

He will judge

بَيْنَكُمْ

তোমাদের মাঝে

between you

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ

And Allah

بِمَا

যা

of what

تَعْمَلُونَ

তোমরা কাজ কর

you do

بَصِيرٌ

সব দেখেন

(is) All-Seer

(4)

قَدْ

নিশ্চই

Indeed

كَانَتْ

রয়েছে

(there) is

لَكُمْ

তোমাদের জন্য

for you

أُسْوَةٌ

আদর্শ

an example

حَسَنَةٌ

উত্তম

good

فِىٓ

মধ্যে

in

إِبْرَٰهِيمَ

ইব্রাহীমের

Ibrahim

وَٱلَّذِينَ

ও যারা

and those

مَعَهُۥٓ

তার সাথে

with him

إِذْ

যখন

when

قَالُوا۟

তারা বলেছিলো

they said

لِقَوْمِهِمْ

তাদের জাতিকে

to their people

إِنَّا

“আমরা নিশ্চই

“Indeed, we

بُرَءَٰٓؤُا۟

নিঃ সম্পর্ক

(are) disassociated

مِنكُمْ

তোমাদের থেকে

from you

وَمِمَّا

ও যা থেকে

and from what

تَعْبُدُونَ

তোমরা ইবাদত কর

you worship

مِن

মধ্য হতে

from

دُونِ

ছাড়া

besides

ٱللَّهِ

আল্লাহ

Allah

كَفَرْنَا

আমরা অস্বীকার করছি

We have denied

بِكُمْ

তোমাদেরকে

you

وَبَدَا

ও সৃষ্টি হল

and has appeared

بَيْنَنَا

আমাদের মাঝে

between us

وَبَيْنَكُمُ

ও তোমাদের মাঝে

and between you

ٱلْعَدَٰوَةُ

শত্রুতা

enmity

وَٱلْبَغْضَآءُ

ও বিদ্বেষ

and hatred

أَبَدًا

চিরকালের

forever

حَتَّىٰ

যতক্ষণ না

until

تُؤْمِنُوا۟

তোমরা ঈমান আনো

you believe

بِٱللَّهِ

আল্লাহর উপর

in Allah

وَحْدَهُۥٓ

তার একার”

Alone”

إِلَّا

তবে ব্যাতিক্রম

Except

قَوْلَ

উক্তি

(the) saying

إِبْرَٰهِيمَ

ইব্রাহীমের

(of) Ibrahim

لِأَبِيهِ

তার বাপের জন্য

to his father

لَأَسْتَغْفِرَنَّ

“আমি ক্ষমা চাইব অবশ্যই

“Surely I ask forgiveness

لَكَ

তোমার জন্য

for you

وَمَآ

ও না

but not

أَمْلِكُ

আমি সাধ্য রাখি

I have power

لَكَ

তোমার জন্য

for you

مِنَ

হতে

from

ٱللَّهِ

আল্লাহ

Allah

مِن

কোন

of

شَىْءٍ

কিছুই

anything

رَّبَّنَا

হে আমাদের রব

Our Lord

عَلَيْكَ

তোমার উপর

upon You

تَوَكَّلْنَا

আমরা ভরসা করেছি

we put our trust

وَإِلَيْكَ

ও তোমাার দিকে

and to You

أَنَبْنَا

আমরা অভিমুখী

we turn

وَإِلَيْكَ

ও তোমার কাছেই

and to You

ٱلْمَصِيرُ

প্রত্যাবর্তন স্থল

(is) the final return

(5)

رَبَّنَا

হে আমাদের রব

Our Lord

لَا

না

(do) not

تَجْعَلْنَا

আমাদের বানিও

make us

فِتْنَةً

ফিতনা

a trial

لِّلَّذِينَ

তাদের জান্য যারা

for those who

كَفَرُوا۟

কুফরি করেছে

disbelieve

وَٱغْفِرْ

ও মাফ কর

and forgive

لَنَا

আমাদের ,

us

رَبَّنَآ

হে আমাদের রব

our Lord

إِنَّكَ

তুমি নিশ্চই

Indeed You

أَنتَ

তুমিই

[You]

ٱلْعَزِيزُ

পরাক্রমশালী

(are) the All-Mighty

ٱلْحَكِيمُ

প্রজ্ঞাময়।”

the All-Wise”

Sura Al Mumtahina in Words Ruku1

(6)

لَقَدْ

নিশ্চই

Certainly

كَانَ

আছে

(there) is

لَكُمْ

তোমাদের জন্য

for you

فِيهِمْ

তাদের মধ্যে

in them

أُسْوَةٌ

আদর্শ

an example

حَسَنَةٌ

উত্তম

good

لِّمَن

যে তার জন্য

for (he) who

كَانَ

ছিল

is

يَرْجُوا۟

আকাঙ্খা রাখে

hopeful

ٱللَّهَ

আল্লাহর

(in) Allah

وَٱلْيَوْمَ

ও দিনের

and the Day

ٱلْءَاخِرَ

শেষ

the Last

وَمَن

এবং যে

And whoever

يَتَوَلَّ

মুখ ফিরাবে

turns away

فَإِنَّ

নিশ্চ্চই তবে

then indeed

ٱللَّهَ

আল্লাহ

Allah

هُوَ

তিনিই

He

ٱلْغَنِىُّ

অভাভহীন

(is) Free of need

ٱلْحَمِيدُ

প্রসংসিত।

the Praiseworthy

(7)

عَسَى

সম্ভবত

Perhaps

ٱللَّهُ

আল্লাহ

Allah

أَن

যে

that

يَجْعَلَ

সৃষ্টি করে দিবেন

will put

بَيْنَكُمْ

তোমাদের মাঝে

between you

وَبَيْنَ

ও মাঝে

and between

ٱلَّذِينَ

যাদের সাথে

those (to) whom

عَادَيْتُم

তোমরা শত্রুতা করেছো

you have been enemies

مِّنْهُم

তাদের মধ্যে

among them

مَّوَدَّةً

বন্ধুত্ব

love

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ

And Allah

قَدِيرٌ

সর্বশক্তিমান

(is) All-Powerful

وَٱللَّهُ

ও আল্লাহ

And Allah

غَفُورٌ

ক্ষমাশীল

(is) Oft-Forgiving

رَّحِيمٌ

মেহেরবান

Most Merciful

(8)

لَّا

না

Not

يَنْهَىٰكُمُ

তোমাদের নিষেধ করেন

(does) forbid you

ٱللَّهُ

আল্লাহ

Allah

عَنِ

থেকে

from

ٱلَّذِينَ

তাদের যারা

those who

لَمْ

নাই

(do) not

يُقَٰتِلُوكُمْ

যুদ্ধ করে তোমাদের সাথে

fight you

فِى

ব্যাপারে

in

ٱلدِّينِ

দ্বীনের

the religion

وَلَمْ

এবং নাই

and (do) not

يُخْرِجُوكُم

তোমাদের বহিষ্কৃত করে

drive you out

مِّن

থেকে

of

دِيَٰرِكُمْ

তোমাদের ঘরগুলোকে

your homes

أَن

যে

that

تَبَرُّوهُمْ

তোমরা তাদের সাথে নেকী কর

you deal kindly

وَتُقْسِطُوٓا۟

ও তোমরা ন্যায় বিচার কর

and deal justly

إِلَيْهِمْ

তাদের সহিত

with them

إِنَّ

নিশ্চয়

Indeed

ٱللَّهَ

আল্লাহ

Allah

يُحِبُّ

ভালোবাসেন

loves

ٱلْمُقْسِطِينَ

ন্যায়বিচারকারিদের

those who act justly

(9)

إِنَّمَا

মূলতঃ

Only

يَنْهَىٰكُمُ

নিষেধ করেছেন

forbids you

ٱللَّهُ

আল্লাহ

Allah

عَنِ

থেকে

from

ٱلَّذِينَ

যারা

those who

قَٰتَلُوكُمْ

যুদ্ধ করেছে তোমাদের বিরুদ্ধে

fight you

فِى

ব্যাপারে

in

ٱلدِّينِ

দ্বীনের

the religion

وَأَخْرَجُوكُم

ও যাদের বহিষ্কার করেছে

and drive you out

مِّن

থেকে

of

دِيَٰرِكُمْ

তোমাদের ঘরগুুলো

your homes

وَظَٰهَرُوا۟

এবং তারা সাহায্য করেছে

and support

عَلَىٰٓ

ব্যাপারে

in

إِخْرَاجِكُمْ

তোমাদের বহিিষ্কার

your expulsion

أَن

যে

that

تَوَلَّوْهُمْ

তাদের সাথেে তোমরা বন্ধুত্ব কর

you make them allies

وَمَن

এবং যে

And whoever

يَتَوَلَّهُمْ

তাদের(সাথে) বন্ধুত্ব করে

makes them allies

فَأُو۟لَٰٓئِكَ

অতঃপর ঐসব লোক

then those

هُمُ

তারা

they

ٱلظَّٰلِمُونَ

যালিম

(are) the wrongdoers

(10)

يَٰٓأَيُّهَا

ওহেে

O you!

ٱلَّذِينَ

যারা

who!

ءَامَنُوٓا۟

ঈমান এনেছ

believe!

إِذَا

যখন

When

جَآءَكُمُ

তোমাদের কাাছে আসবে

come to you

ٱلْمُؤْمِنَٰتُ

মুমিন মহিলারা

the believing women

مُهَٰجِرَٰتٍ

মুহাজির হয়ে

(as) emigrants

فَٱمْتَحِنُوهُنَّ

তাদের তোমরা পরীক্ষা তখন

then examine them

ٱللَّهُ

আল্লাহ

Allah

أَعْلَمُ

খুব জানেন

(is) most knowing

بِإِيمَٰنِهِنَّ

তাদের ঈমান সম্পর্কে

of their faith

فَإِنْ

যদিি অতএব

And if

عَلِمْتُمُوهُنَّ

তাদের তোমরা জানতে পারো

you know them

مُؤْمِنَٰتٍ

মুমিন রূপে

(to be) believers

فَلَا

না তখন

then (do) not

تَرْجِعُوهُنَّ

তাদেরকে ফেরত দিও

return them

إِلَى

দিকে

to

ٱلْكُفَّارِ

কাফিরদের

the disbelievers

لَا

না

Not

هُنَّ

তারা (মুমিন নারী)

they

حِلٌّ

হালাল

(are) lawful

لَّهُمْ

তাদের জন্য (কাফিরদের)

for them

وَلَا

ও না

and not

هُمْ

তারা

they

يَحِلُّونَ

হালাল

are lawful

لَهُنَّ

তাদের জন্য(মুমিন নারী্দের)

for them

وَءَاتُوهُم

তাদের দাও তোমরা

But give them

مَّآ

যা

what

أَنفَقُوا۟

তারা খরচ করেছে

they have spent

وَلَا

এবং নাই

And not

جُنَاحَ

গুনাহ

any blame

عَلَيْكُمْ

তোমাদের উপর

upon you

أَن

যে

if

تَنكِحُوهُنَّ

তাদের তোমরা বিবাহ কর

you marry them

إِذَآ

যখন

when

ءَاتَيْتُمُوهُنَّ

তাদের তোমরা দাও

you have given them

أُجُورَهُنَّ

তাদের মোহর

their (bridal) dues

وَلَا

এবং না

And (do) not

تُمْسِكُوا۟

তোমরা ধরে রেখ

hold

بِعِصَمِ

বিবাহ বন্ধন

to marriage bonds

ٱلْكَوَافِرِ

কাফির স্ত্রীদের

(with) disbelieving women

وَسْـَٔلُوا۟

ও তোমরা চাও

but ask (for)

مَآ

যা

what

أَنفَقْتُمْ

তোমরা খরচ করেছ

you have spent

وَلْيَسْـَٔلُوا۟

ও তারা চেয়ে নিবে

and let them ask

مَآ

যা

what

أَنفَقُوا۟

তারা খরচ করেছে

they have spent

ذَٰلِكُمْ

এটা

That

حُكْمُ

নির্দেশ

(is the) Judgment

ٱللَّهِ

আল্লাহর

(of) Allah

يَحْكُمُ

তিনি ফয়সালা দেন

He judges

بَيْنَكُمْ

তোমাদের মাঝে

between you

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ

And Allah

عَلِيمٌ

সরবজ্ঞ

(is) All-Knowing

حَكِيمٌ

প্রজ্ঞাময়

All-Wise

(11)

وَإِن

এবং যদি

And if

فَاتَكُمْ

তোমাদের হাত ছাড়া হয়

have gone from you

شَىْءٌ

কিছুু

any

مِّنْ

থেকে

of

أَزْوَٰجِكُمْ

তোমাদের স্ত্রীদের

your wives

إِلَى

নিকট

to

ٱلْكُفَّارِ

কাফিরদের

the disbelievers

فَعَاقَبْتُمْ

তোমরা অতঃপর সুযোগ পাও

then your turn comes

فَـَٔاتُوا۟

তবে তোমরা দাও

then give

ٱلَّذِينَ

তাদের

(to) those who

ذَهَبَتْ

চলে গেছে

have gone

أَزْوَٰجُهُم

যাদেের স্ত্রী

their wives

مِّثْلَ

সমান

(the) like

مَآ

যা

(of) what

أَنفَقُوا۟

তারা খরচ করেছে

they had spent

وَٱتَّقُوا۟

এবং তোমরা ভয় কর

And fear

ٱللَّهَ

আল্লাহকে

Allah

ٱلَّذِىٓ

যার

(in) Whom

أَنتُم

তোমরা

you

بِهِۦ

তার উপর

[in Him]

مُؤْمِنُونَ

ঈমানদার

(are) believers

(12)

يَٰٓأَيُّهَا

হে

O!

ٱلنَّبِىُّ

নবী

Prophet!

إِذَا

যখন

When

جَآءَكَ

তোমার কাছে আসবে

come to you

ٱلْمُؤْمِنَٰتُ

মুমিন নারীরা

the believing women

يُبَايِعْنَكَ

তোমার কাছে বয়াত করবে

pledging to you

عَلَىٰٓ

(এ কথার) উপর

[on]

أَن

যে

that

لَّا

না

not

يُشْرِكْنَ

তারা শিরক করবে

they will associate

بِٱللَّهِ

আল্লাহর সাথে

with Allah

شَيْـًٔا

কোনকিছু

anything

وَلَا

এবং না

and not

يَسْرِقْنَ

তারা চুরি করবে

they will steal

وَلَا

আর না

and not

يَزْنِينَ

তারা জিনা করবে না

they will commit adultery

وَلَا

এবং না

and not

يَقْتُلْنَ

তারা হত্যা করবে

they will kill

أَوْلَٰدَهُنَّ

তাআদের সন্তানদের

their children

وَلَا

ও না

and not

يَأْتِينَ

তারা আনবে

they bring

بِبُهْتَٰنٍ

অপমান

slander

يَفْتَرِينَهُۥ

তা তারা রচনা করে

they invent it

بَيْنَ

মাঝে

between

أَيْدِيهِنَّ

তাদের হাতগুলো

their hands

وَأَرْجُلِهِنَّ

ও তাদের পাগুলো

and their feet

وَلَا

এবং না

and not

يَعْصِينَكَ

তোমরা তারা অবাধ্য হবে

they will disobey you

فِى

ক্ষেত্রে

in

مَعْرُوفٍ

সৎকাজের

(the) right

فَبَايِعْهُنَّ

তাদের বয়াত নাও তবে

then accept their pledge

وَٱسْتَغْفِرْ

ও ক্ষমা চাও

and ask forgiveness

لَهُنَّ

তাদের জন্য (কাফিরদের)

for them

ٱللَّهَ

আল্লাহর (কাছে)

(from) Allah

إِنَّ

নিশ্চই

Indeed

ٱللَّهَ

আল্লাহ

Allah

غَفُورٌ

ক্ষমাশীল

(is) Oft-Forgiving

رَّحِيمٌ

মেহেরবান

Most Merciful

(13)

يَٰٓأَيُّهَا

ওহে

O you!

ٱلَّذِينَ

যারা

who!

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছ

believe!

لَا

না

(Do) not

تَتَوَلَّوْا۟

তোমতা বন্ধুত্ব করো

make allies

قَوْمًا

লোকদের (সংগে)

(of) a people

غَضِبَ

গযব দিয়েছেন

(The) wrath

ٱللَّهُ

আল্লাহ

(of) Allah

عَلَيْهِمْ

যাদের উপর

(is) upon them

قَدْ

নিশ্চই

Indeed

يَئِسُوا۟

তারা নিরাশ হয়েছে

they despair

مِنَ

থেকে

of

ٱلْءَاخِرَةِ

পরকাল

the Hereafter

كَمَا

যেমন

as

يَئِسَ

নিরাশ হয়েছে

despair

ٱلْكُفَّارُ

কাফিররা

the disbelievers

مِنْ

থেকে

of

أَصْحَٰبِ

অধিবাসীদের

(the) companions

ٱلْقُبُورِ

কবরগু্লো

(of) the graves

Sura Al Mumtahina in Words Ruku2

[1]  ইবরাহীম আ. ও তাঁর অনুসারীদের মধ্যে

[2] কাফির স্বামীরা

৫৯ সুরা হাশর<< সুরা মুমতাহিনা >> ৬১ সুরা সফ

By Quran Sharif

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply