সুরা মুজাদালাহ বাংলা অনুবাদ Sura Al Mujadalah in Words & Audio

সুরা মুজাদালাহ বাংলা অনুবাদ Sura Al Mujadalah in Words & Audio

১১৪ টি সুরা >> তাফসীরঃ বুখারী >> তিরমিজি

Arabicতাফসীর

৫৮ – সুরা মুজাদালাহ – আয়াত : ২২, মাদানী, রুকু ৩

সুরা মুজাদালাহ mp3 Download

পরম করুণাময় অতি দয়ালু আল্লাহর নামেبِسۡمِ ٱللَّهِ ٱلرَّحۡمَٰنِ ٱلرَّحِيمِ
(1) আল্লাহ অবশ্যই সে রমনীর কথা শুনেছেন যে তার স্বামীর ব্যাপারে তোমার সাথে বাদানুবাদ করছিল আর আল্লাহর কাছে ফরিয়াদ করছিল। আল্লাহ তোমাদের কথোপকথন শোনেন। নিশ্চয় আল্লাহ সর্বশ্রোতা, সর্বদ্রষ্টা।قَدۡ سَمِعَ ٱللَّهُ قَوۡلَ ٱلَّتِي تُجَٰدِلُكَ فِي زَوۡجِهَا وَتَشۡتَكِيٓ إِلَى ٱللَّهِ وَٱللَّهُ يَسۡمَعُ تَحَاوُرَكُمَآۚ إِنَّ ٱللَّهَ سَمِيعُۢ بَصِيرٌ ١
(2) তোমাদের মধ্যে যারা তাদের স্ত্রীদের সাথে যিহার[1] করে, তাদের স্ত্রীগণ তাদের মাতা নয়। তাদের মাতা তো কেবল তারাই যারা তাদেরকে জন্ম দিয়েছে। আর তারা অবশ্যই অসঙ্গত ও অসত্য কথা বলে। আর নিশ্চয় আল্লাহ অধিক পাপ মোচনকারী, বড়ই ক্ষমাশীল।ٱلَّذِينَ يُظَٰهِرُونَ مِنكُم مِّن نِّسَآئِهِم مَّا هُنَّ أُمَّهَٰتِهِمۡۖ إِنۡ أُمَّهَٰتُهُمۡ إِلَّا ٱلَّٰٓـِٔي وَلَدۡنَهُمۡۚ وَإِنَّهُمۡ لَيَقُولُونَ مُنكَرٗا مِّنَ ٱلۡقَوۡلِ وَزُورٗاۚ وَإِنَّ ٱللَّهَ لَعَفُوٌّ غَفُورٞ ٢
(3) আর যারা তাদের স্ত্রীদের সাথে ‘যিহার’ করে অতঃপর তারা যা বলেছে তা থেকে ফিরে আসে, তবে একে অপরকে স্পর্শ করার পূর্বে একটি দাস মুক্ত করবে। এর মাধ্যমে তোমাদেরকে উপদেশ দেয়া হচ্ছে। আর তোমরা যা কর, সে সম্পর্কে আল্লাহ সম্যক অবহিত।وَٱلَّذِينَ يُظَٰهِرُونَ مِن نِّسَآئِهِمۡ ثُمَّ يَعُودُونَ لِمَا قَالُواْ فَتَحۡرِيرُ رَقَبَةٖ مِّن قَبۡلِ أَن يَتَمَآسَّاۚ ذَٰلِكُمۡ تُوعَظُونَ بِهِۦۚ وَٱللَّهُ بِمَا تَعۡمَلُونَ خَبِيرٞ ٣
(4) কিন্তু যে তা পাবে না, সে লাগাতার দু’মাস সিয়াম পালন করবে, একে অপরকে স্পর্শ করার পূর্বে। আর যে (এরূপ করার) সামর্থ্য রাখে না সে ষাটজন মিসকীনকে খাবার খাওয়াবে। এ বিধান এ জন্য যে, তোমরা যাতে আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের প্রতি ঈমান আন। আর এগুলো আল্লাহর (নির্ধারিত) সীমা এবং কাফিরদের জন্য রয়েছে যন্ত্রণাদায়ক আযাব।فَمَن لَّمۡ يَجِدۡ فَصِيَامُ شَهۡرَيۡنِ مُتَتَابِعَيۡنِ مِن قَبۡلِ أَن يَتَمَآسَّاۖ فَمَن لَّمۡ يَسۡتَطِعۡ فَإِطۡعَامُ سِتِّينَ مِسۡكِينٗاۚ ذَٰلِكَ لِتُؤۡمِنُواْ بِٱللَّهِ وَرَسُولِهِۦۚ وَتِلۡكَ حُدُودُ ٱللَّهِۗ وَلِلۡكَٰفِرِينَ عَذَابٌ أَلِيمٌ ٤
(5) যারা আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের বিরোধিতা করে তাদেরকে অপদস্থ করা হবে যেভাবে অপদস্থ করা হয়েছিল তাদের পূর্ববর্তীদেরকে। আর আমি নাযিল করেছি সুস্পষ্ট প্রমাণাদি। আর কাফিরদের জন্য রয়েছে অপমানজনক আযাব।إِنَّ ٱلَّذِينَ يُحَآدُّونَ ٱللَّهَ وَرَسُولَهُۥ كُبِتُواْ كَمَا كُبِتَ ٱلَّذِينَ مِن قَبۡلِهِمۡۚ وَقَدۡ أَنزَلۡنَآ ءَايَٰتِۢ بَيِّنَٰتٖۚ وَلِلۡكَٰفِرِينَ عَذَابٞ مُّهِينٞ ٥
(6) যে দিন আল্লাহ তাদের সকলকে পুনরুজ্জীবিত করে উঠাবেন অতঃপর তারা যে আমল করেছিল তা তাদেরকে জানিয়ে দেবেন। আল্লাহ তা হিসাব করে রেখেছেন যদিও তারা তা ভুলে গেছে। আর আল্লাহ প্রত্যেক বিষয়ে প্রত্যক্ষদর্শী।يَوۡمَ يَبۡعَثُهُمُ ٱللَّهُ جَمِيعٗا فَيُنَبِّئُهُم بِمَا عَمِلُوٓاْۚ أَحۡصَىٰهُ ٱللَّهُ وَنَسُوهُۚ وَٱللَّهُ عَلَىٰ كُلِّ شَيۡءٖ شَهِيدٌ ٦
সুরা মুজাদালাহع রুকু
(7) তুমি কি লক্ষ্য করনি যে, আসমানসমূহ ও যমীনে যা কিছু আছে নিশ্চয় আল্লাহ তা জানেন? তিন জনের কোন গোপন পরামর্শ হয় না যাতে চতুর্থজন হিসেবে আল্লাহ থাকেন না, আর পাঁচ জনেরও হয় না, যাতে ষষ্ঠজন হিসেবে তিনি থাকেন না। এর চেয়ে কম হোক কিংবা বেশি হোক, তিনি তো তাদের সঙ্গেই আছেন, তারা যেখানেই থাকুক না কেন। তারপর কিয়ামতের দিন তিনি তাদেরকে তাদের কৃতকর্ম সম্পর্কে জানিয়ে দেবেন। নিশ্চয় আল্লাহ সব বিষয়ে সম্যক অবগত।أَلَمۡ تَرَ أَنَّ ٱللَّهَ يَعۡلَمُ مَا فِي ٱلسَّمَٰوَٰتِ وَمَا فِي ٱلۡأَرۡضِۖ مَا يَكُونُ مِن نَّجۡوَىٰ ثَلَٰثَةٍ إِلَّا هُوَ رَابِعُهُمۡ وَلَا خَمۡسَةٍ إِلَّا هُوَ سَادِسُهُمۡ وَلَآ أَدۡنَىٰ مِن ذَٰلِكَ وَلَآ أَكۡثَرَ إِلَّا هُوَ مَعَهُمۡ أَيۡنَ مَا كَانُواْۖ ثُمَّ يُنَبِّئُهُم بِمَا عَمِلُواْ يَوۡمَ ٱلۡقِيَٰمَةِۚ إِنَّ ٱللَّهَ بِكُلِّ شَيۡءٍ عَلِيمٌ ٧
(8) তুমি কি তাদের প্রতি লক্ষ্য করনি, যাদেরকে গোপন পরাপর্শ করতে নিষেধ করা হয়েছিল? তারপরও তারা তারই পুনরাবৃত্তি করল যা করতে তাদেরকে নিষেধ করা হয়েছিল। আর তারা পাপাচার, সীমালঙ্ঘন ও রাসূলের বিরুদ্ধাচরণের জন্য গোপন পরাপর্শ করে। আর তারা যখন তোমার কাছে আসে তখন তারা তোমাকে এমন (কথার দ্বারা) অভিবাদন জানায় যেভাবে আল্লাহ তোমাকে অভিবাদন করেননি। আর তারা মনে মনে বলে, ‘আমরা যা বলি তার জন্য আল্লাহ আমাদেরকে শাস্তি দেন না কেন? তাদের জন্য জাহান্নামই যথেষ্ট। তারা তাতে প্রবেশ করবে। আর তা কতইনা নিকৃষ্ট গন্তব্যস্থল!أَلَمۡ تَرَ إِلَى ٱلَّذِينَ نُهُواْ عَنِ ٱلنَّجۡوَىٰ ثُمَّ يَعُودُونَ لِمَا نُهُواْ عَنۡهُ وَيَتَنَٰجَوۡنَ بِٱلۡإِثۡمِ وَٱلۡعُدۡوَٰنِ وَمَعۡصِيَتِ ٱلرَّسُولِۖ وَإِذَا جَآءُوكَ حَيَّوۡكَ بِمَا لَمۡ يُحَيِّكَ بِهِ ٱللَّهُ وَيَقُولُونَ فِيٓ أَنفُسِهِمۡ لَوۡلَا يُعَذِّبُنَا ٱللَّهُ بِمَا نَقُولُۚ حَسۡبُهُمۡ جَهَنَّمُ يَصۡلَوۡنَهَاۖ فَبِئۡسَ ٱلۡمَصِيرُ ٨
(9) হে মুমিনগণ, তোমরা যখন গোপনে পরামর্শ করবে তখন তোমরা যেন গুনাহ, সীমালঙ্ঘন ও রাসূলের বিরুদ্ধাচরণের ব্যাপারে গোপন পরামর্শ না কর। আর তোমরা সৎকর্ম ও তাকওয়ার বিষয়ে গোপন পরামর্শ কর। তোমরা আল্লাহকে ভয় কর, যাঁর কাছে তোমাদেরকে সমবেত করা হবে।يَٰٓأَيُّهَا ٱلَّذِينَ ءَامَنُوٓاْ إِذَا تَنَٰجَيۡتُمۡ فَلَا تَتَنَٰجَوۡاْ بِٱلۡإِثۡمِ وَٱلۡعُدۡوَٰنِ وَمَعۡصِيَتِ ٱلرَّسُولِ وَتَنَٰجَوۡاْ بِٱلۡبِرِّ وَٱلتَّقۡوَىٰۖ وَٱتَّقُواْ ٱللَّهَ ٱلَّذِيٓ إِلَيۡهِ تُحۡشَرُونَ ٩
(10) গোপন পরামর্শ তো হল মুমিনরা যাতে দুঃখ পায় সে উদ্দেশ্যে কৃত শয়তানের কুমন্ত্রণা মাত্র। আর আল্লাহর অনুমতি ছাড়া সে তাদের কিছুই ক্ষতি করতে পারে না। অতএব আল্লাহরই ওপর মুমিনরা যেন তাওয়াক্কুল করে।إِنَّمَا ٱلنَّجۡوَىٰ مِنَ ٱلشَّيۡطَٰنِ لِيَحۡزُنَ ٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ وَلَيۡسَ بِضَآرِّهِمۡ شَيۡ‍ًٔا إِلَّا بِإِذۡنِ ٱللَّهِۚ وَعَلَى ٱللَّهِ فَلۡيَتَوَكَّلِ ٱلۡمُؤۡمِنُونَ ١٠
(11) হে মুমিনগণ, তোমাদেরকে যখন বলা হয়, ‘মজলিসে স্থান করে দাও’, তখন তোমরা স্থান করে দেবে। আল্লাহ তোমাদের জন্য স্থান করে দেবেন। আর যখন তোমাদেরকে বলা হয়, ‘তোমরা উঠে যাও’, তখন তোমরা উঠে যাবে। তোমাদের মধ্যে যারা ঈমান এনেছে এবং যাদেরকে জ্ঞান দান করা হয়েছে আল্লাহ তাদেরকে মর্যাদায় সমুন্নত করবেন। আর তোমরা যা কর আল্লাহ সে সম্পর্কে সম্যক অবহিত।يَٰٓأَيُّهَا ٱلَّذِينَ ءَامَنُوٓاْ إِذَا قِيلَ لَكُمۡ تَفَسَّحُواْ فِي ٱلۡمَجَٰلِسِ فَٱفۡسَحُواْ يَفۡسَحِ ٱللَّهُ لَكُمۡۖ وَإِذَا قِيلَ ٱنشُزُواْ فَٱنشُزُواْ يَرۡفَعِ ٱللَّهُ ٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ مِنكُمۡ وَٱلَّذِينَ أُوتُواْ ٱلۡعِلۡمَ دَرَجَٰتٖۚ وَٱللَّهُ بِمَا تَعۡمَلُونَ خَبِيرٞ ١١
(12) হে মুমিনগণ, তোমরা যখন রাসূলের সাথে একান্তে কথা বলতে চাও, তখন তোমাদের এরূপ কথার পূর্বে কিছু সদাকা পেশ কর। এটি তোমাদের জন্য শ্রেয়তর ও পবিত্রতর; কিন্তু যদি তোমরা সক্ষম না হও তবে আল্লাহ পরম ক্ষমাশীল, অতিশয় দয়ালু।يَٰٓأَيُّهَا ٱلَّذِينَ ءَامَنُوٓاْ إِذَا نَٰجَيۡتُمُ ٱلرَّسُولَ فَقَدِّمُواْ بَيۡنَ يَدَيۡ نَجۡوَىٰكُمۡ صَدَقَةٗۚ ذَٰلِكَ خَيۡرٞ لَّكُمۡ وَأَطۡهَرُۚ فَإِن لَّمۡ تَجِدُواْ فَإِنَّ ٱللَّهَ غَفُورٞ رَّحِيمٌ١٢
(13) তোমরা কি ভয় পেয়ে গেলে যে, একান্ত পরামর্শের পূর্বে সদাকা পেশ করবে? হ্যাঁ, যখন তোমরা তা করতে পারলে না, আর আল্লাহও তোমাদের ক্ষমা করে দিলেন, তখন তোমরা সালাত কায়েম কর, যাকাত দাও এবং আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের আনুগত্য কর। তোমরা যা কর, আল্লাহ সে সম্পর্কে সম্যক অবগত।ءَأَشۡفَقۡتُمۡ أَن تُقَدِّمُواْ بَيۡنَ يَدَيۡ نَجۡوَىٰكُمۡ صَدَقَٰتٖۚ فَإِذۡ لَمۡ تَفۡعَلُواْ وَتَابَ ٱللَّهُ عَلَيۡكُمۡ فَأَقِيمُواْ ٱلصَّلَوٰةَ وَءَاتُواْ ٱلزَّكَوٰةَ وَأَطِيعُواْ ٱللَّهَ وَرَسُولَهُۥۚ وَٱللَّهُ خَبِيرُۢ بِمَا تَعۡمَلُونَ ١٣
সুরা মুজাদালাহع রুকু
(14) তুমি কি তাদের লক্ষ্য করনি, যারা এমন এক কওমের সাথে বন্ধুত্ব করে যাদের উপর আল্লাহর গযব নিপতিত হয়েছে? তারা তোমাদের দলভুক্ত নয় এবং তোমরাও তাদের দলভুক্ত নও। আর তারা জেনে শুনেই মিথ্যার উপর কসম করে।۞أَلَمۡ تَرَ إِلَى ٱلَّذِينَ تَوَلَّوۡاْ قَوۡمًا غَضِبَ ٱللَّهُ عَلَيۡهِم مَّا هُم مِّنكُمۡ وَلَا مِنۡهُمۡ وَيَحۡلِفُونَ عَلَى ٱلۡكَذِبِ وَهُمۡ يَعۡلَمُونَ ١٤
(15) আল্লাহ তাদের জন্য কঠোর আযাব প্রস্তুত করে রেখেছেন। নিশ্চয় তারা যা করত তা কতইনা মন্দ!أَعَدَّ ٱللَّهُ لَهُمۡ عَذَابٗا شَدِيدًاۖ إِنَّهُمۡ سَآءَ مَا كَانُواْ يَعۡمَلُونَ ١٥
(16) তারা তাদের কসমগুলোকে ঢাল হিসেবে নিয়েছে। অতঃপর তারা আল্লাহর পথে বাধা প্রদান করেছে। ফলে তাদের জন্য রয়েছে লাঞ্ছনাদায়ক আযাব।ٱتَّخَذُوٓاْ أَيۡمَٰنَهُمۡ جُنَّةٗ فَصَدُّواْ عَن سَبِيلِ ٱللَّهِ فَلَهُمۡ عَذَابٞ مُّهِينٞ ١٦
(17) আল্লাহর বিপরীতে তাদের ধন-সম্পদ ও সন্তান-সন্ততি তাদের আদৌ কোন কাজে আসবে না। এরাই জাহান্নামের অধিবাসী। তারা সেখানে স্থায়ী হবে।لَّن تُغۡنِيَ عَنۡهُمۡ أَمۡوَٰلُهُمۡ وَلَآ أَوۡلَٰدُهُم مِّنَ ٱللَّهِ شَيۡ‍ًٔاۚ أُوْلَٰٓئِكَ أَصۡحَٰبُ ٱلنَّارِۖ هُمۡ فِيهَا خَٰلِدُونَ ١٧
(18) সেদিন আল্লাহ তাদের সকলকে পুনরুত্থিত করবেন, তখন তারা আল্লাহর নিকট এমন কসম করবে যেমন কসম তোমাদের নিকট করে থাকে এবং তারা মনে করে যে, তারা কোন কিছুর উপর আছে। জেনে রাখ, নিশ্চয় এরা মিথ্যাবাদী।يَوۡمَ يَبۡعَثُهُمُ ٱللَّهُ جَمِيعٗا فَيَحۡلِفُونَ لَهُۥ كَمَا يَحۡلِفُونَ لَكُمۡ وَيَحۡسَبُونَ أَنَّهُمۡ عَلَىٰ شَيۡءٍۚ أَلَآ إِنَّهُمۡ هُمُ ٱلۡكَٰذِبُونَ ١٨
(19) শয়তান এদের ওপর চেপে বসেছে এবং তাদেরকে আল্লাহর যিকির ভুলিয়ে দিয়েছে। এরাই শয়তানের দল। জেনে রাখ, নিশ্চয় শয়তানের দল ক্ষতিগ্রস্ত।ٱسۡتَحۡوَذَ عَلَيۡهِمُ ٱلشَّيۡطَٰنُ فَأَنسَىٰهُمۡ ذِكۡرَ ٱللَّهِۚ أُوْلَٰٓئِكَ حِزۡبُ ٱلشَّيۡطَٰنِۚ أَلَآ إِنَّ حِزۡبَ ٱلشَّيۡطَٰنِ هُمُ ٱلۡخَٰسِرُونَ ١٩
(20) নিশ্চয় যারা আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের বিরোধিতা করে তারা চরম লাঞ্ছিতদের অন্তর্ভুক্ত।إِنَّ ٱلَّذِينَ يُحَآدُّونَ ٱللَّهَ وَرَسُولَهُۥٓ أُوْلَٰٓئِكَ فِي ٱلۡأَذَلِّينَ ٢٠
(21) আল্লাহ লিখে দিয়েছেন যে, ‘আমি ও আমার রাসূলগণ অবশ্যই বিজয়ী হব।’ নিশ্চয় আল্লাহ মহা শক্তিমান, মহা পরাক্রমশালী।كَتَبَ ٱللَّهُ لَأَغۡلِبَنَّ أَنَا۠ وَرُسُلِيٓۚ إِنَّ ٱللَّهَ قَوِيٌّ عَزِيزٞ ٢١
(22) তুমি পাবে না এমন জাতিকে যারা আল্লাহ ও পরকালের প্রতি ঈমান আনে, বন্ধুত্ব করতে তার সাথে যে আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের বিরোধীতা করে, যদিও তারা তাদের পিতা, অথবা পুত্র, অথবা ভাই, অথবা জ্ঞাতি-গোষ্ঠী হয়। এরাই, যাদের অন্তরে আল্লাহ ঈমান লিখে দিয়েছেন এবং তাঁর পক্ষ থেকে রূহ দ্বারা তাদের শক্তিশালী করেছেন। তিনি তাদের প্রবেশ করাবেন এমন জান্নাতসমূহে যার নিচে দিয়ে ঝর্ণাধারাসমূহ প্রবাহিত হয়। সেখানে তারা স্থায়ী হবে। আল্লাহ তাদের প্রতি সন্তুষ্ট হয়েছেন এবং তারাও আল্লাহর প্রতি সন্তুষ্ট হয়েছে। এরাই আল্লাহর দল। জেনে রাখ, নিশ্চয় আল্লাহর দলই সফলকাম।لَّا تَجِدُ قَوۡمٗا يُؤۡمِنُونَ بِٱللَّهِ وَٱلۡيَوۡمِ ٱلۡأٓخِرِ يُوَآدُّونَ مَنۡ حَآدَّ ٱللَّهَ وَرَسُولَهُۥ وَلَوۡ كَانُوٓاْ ءَابَآءَهُمۡ أَوۡ أَبۡنَآءَهُمۡ أَوۡ إِخۡوَٰنَهُمۡ أَوۡ عَشِيرَتَهُمۡۚ أُوْلَٰٓئِكَ كَتَبَ فِي قُلُوبِهِمُ ٱلۡإِيمَٰنَ وَأَيَّدَهُم بِرُوحٖ مِّنۡهُۖ وَيُدۡخِلُهُمۡ جَنَّٰتٖ تَجۡرِي مِن تَحۡتِهَا ٱلۡأَنۡهَٰرُ خَٰلِدِينَ فِيهَاۚ رَضِيَ ٱللَّهُ عَنۡهُمۡ وَرَضُواْ عَنۡهُۚ أُوْلَٰٓئِكَ حِزۡبُ ٱللَّهِۚ أَلَآ إِنَّ حِزۡبَ ٱللَّهِ هُمُ ٱلۡمُفۡلِحُونَ ٢٢
সুরা মুজাদালাহع রুকু

Sura Al Mujadalah in Words

(1)

قَدْ

নিশ্চয়ই

Indeed

سَمِعَ

শুনেছেন

Allah has heard

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah has heard

قَوْلَ

কথা

(the) speech

ٱلَّتِى

(সেই নারীর) যে

(of) one who

تُجَٰدِلُكَ

তোমার সাথে তর্কবিতর্ক করছে

disputes with you

فِى

ব্যাপারে

concerning

زَوْجِهَا

তার স্বামীর

her husband

وَتَشْتَكِىٓ

এবং অভিযোগ করছে

and she directs her complaint

إِلَى

কাছে

to

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র

Allah

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ্‌

And Allah

يَسْمَعُ

শুনছেন

hears

تَحَاوُرَكُمَآ

তোমাদের দুজনের কথাবার্তা

(the) dialogue of both of you

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌

Allah

سَمِيعٌۢ

সবকিছু শোনেন

(is) All-Hearer

بَصِيرٌ

সবকিছু দেখেন

All-Seer

(2)

ٱلَّذِينَ

যারা

Those who

يُظَٰهِرُونَ

যিহার করে

pronounce zihar

مِنكُم

তোমাদের মধ্য থেকে

among you

مِّن

সাথে

from

نِّسَآئِهِم

তাদের স্ত্রীদের

(to) their wives

مَّا

না

not

هُنَّ

তারা

they

أُمَّهَٰتِهِمْ

তাদের মা (হয়ে যায়)

(are) their mothers

إِنْ

নয় (অন্যরা)

Not

أُمَّهَٰتُهُمْ

তাদের মা

(are) their mothers

إِلَّا

এছাড়া

except

ٱلَّٰٓـِٔى

যারা

those who

وَلَدْنَهُمْ

তাদের জন্ম দিয়েছে

gave them birth

وَإِنَّهُمْ

এবং তারা নিশ্চয়ই

And indeed they

لَيَقُولُونَ

বলে অবশ্যই

surely say

مُنكَرًا

অসঙ্গত

an evil

مِّنَ

থেকে

of

ٱلْقَوْلِ

কথা

[the] word

وَزُورًا

ও মিথ্যা

and a lie

وَإِنَّ

এবং নিশ্চয়ই

But indeed

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌

Allah

لَعَفُوٌّ

অবশ্যই মার্জনাকারী

(is) surely Oft-Pardoning

غَفُورٌ

ক্ষমাশীল

Oft-Forgiving

(3)

وَٱلَّذِينَ

এবং তারা যখন

And those who

يُظَٰهِرُونَ

যিহার করে

pronounce zihar

مِن

সাথে

from

نِّسَآئِهِمْ

তাদের স্ত্রীদের

(to) their wives

ثُمَّ

এরপর

then

يَعُودُونَ

ফিরে যায়

go back

لِمَا

(তা হতে) যা

on what

قَالُوا۟

তারা বলেছিল

they said

فَتَحْرِيرُ

মুক্ত করতে হবে

then freeing

رَقَبَةٍ

একজন দাস

(of) a slave

مِّن

থেকে

before

قَبْلِ

পূর্বে

before

أَن

যে

that

يَتَمَآسَّا

পরস্পরকে স্পর্শ করার

they touch each other

ذَٰلِكُمْ

এসব

That

تُوعَظُونَ

তোমাদের উপদেশ দেয়া হচ্ছে

you are admonished

بِهِۦ

এদ্বারা

to it

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ্‌

And Allah

بِمَا

ঐ বিষয়ে যা

of what

تَعْمَلُونَ

তোমরা কাজ কর

you do

خَبِيرٌ

খুব অবহিত

(is) All-Aware

(4)

فَمَن

যে অতঃপর

Then whoever

لَّمْ

না

(does) not

يَجِدْ

পায় (কোন দাস)

find

فَصِيَامُ

তবে রোজা রাখবে

then fasting

شَهْرَيْنِ

দু’মাস

(for) two months

مُتَتَابِعَيْنِ

একটানা

consecutively

مِن

থেকে

before

قَبْلِ

পূর্বে

before

أَن

যে

that

يَتَمَآسَّا

পরস্পরে স্পর্শ করার

they both touch each other

فَمَن

যে অতঃপর

But (he) who

لَّمْ

না

not

يَسْتَطِعْ

সমর্থ হবে

is able

فَإِطْعَامُ

তবে খানা খাওয়াবে

then (the) feeding

سِتِّينَ

ষাটজন

(of) sixty

مِسْكِينًا

নিঃস্বকে

needy one(s)

ذَٰلِكَ

এটা (এজন্যে)

That

لِتُؤْمِنُوا۟

যেন তোমরা ঈমান আন

so that you may believe

بِٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র উপর

in Allah

وَرَسُولِهِۦ

এবং তাঁর রাসূলের (উপর)

and His Messenger

وَتِلْكَ

এবং এটা

and these

حُدُودُ

নির্ধারিত সীমাসমূহ

(are the) limits

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র

(of) Allah

وَلِلْكَٰفِرِينَ

এবং কাফিরদের জন্য (রয়েছে)

and for the disbelievers

عَذَابٌ

শাস্তি

(is) a punishment

أَلِيمٌ

যন্ত্রণাদায়ক

painful

(5)

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

ٱلَّذِينَ

যারা

those who

يُحَآدُّونَ

বিরোধিতা করে

oppose

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌র

Allah

وَرَسُولَهُۥ

তাঁর রাসুলের

and His Messenger

كُبِتُوا۟

তাদের লাঞ্ছিত করা হবে

(will) be disgraced

كَمَا

যেমন

as

كُبِتَ

লাঞ্ছিত করা হয়েছিল

were disgraced

ٱلَّذِينَ

(তাদেরকে) যারা

those

مِن

থেকে

before them

قَبْلِهِمْ

তাদের পূর্বে (ছিল)

before them

وَقَدْ

এবং নিশ্চয়ই

And certainly

أَنزَلْنَآ

আমরা অবতীর্ণ করেছি

We have sent down

ءَايَٰتٍۭ

আয়াতসমূহ

Verses

بَيِّنَٰتٍ

সুস্পষ্ট

clear

وَلِلْكَٰفِرِينَ

এবং কাফিরদের জন্যে রয়েছে

And for the disbelievers

عَذَابٌ

শাস্তি

(is) a punishment

مُّهِينٌ

অপমানকর

humiliating

(6)

يَوْمَ

যেদিন

(On the) Day

يَبْعَثُهُمُ

তাদের উত্থিত করবেন

(when) Allah will raise them

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

(when) Allah will raise them

جَمِيعًا

সকলকেই

all

فَيُنَبِّئُهُم

অতঃপর তাদের জানিয়ে দিবেন

and inform them

بِمَا

যা

of what

عَمِلُوٓا۟

তারা কাজ করেছে

they did

أَحْصَىٰهُ

তা গুণে রেখেছেন

Allah has recorded it

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah has recorded it

وَنَسُوهُ

অথচ তা তারা ভুলে গেছে

while they forgot it

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ্‌

And Allah

عَلَىٰ

উপর

(is) over

كُلِّ

সব

all

شَىْءٍ

কিছুরই

things

شَهِيدٌ

সাক্ষী

a Witness

Sura Al Mujadalah in Words Ruku1

(7)

أَلَمْ

না কি

Do not

تَرَ

তুমি জানো

you see

أَنَّ

যে

that

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌

Allah

يَعْلَمُ

জানেন

knows

مَا

যা কিছু

whatever

فِى

মধ্যে আছে

(is) in

ٱلسَّمَٰوَٰتِ

আকাশসমূহের

the heavens

وَمَا

এবং যা কিছু

and whatever

فِى

মধ্যে আছে

(is) in

ٱلْأَرْضِ

পৃথিবীর

the earth?

مَا

না

Not

يَكُونُ

হতে পারে

there is

مِن

কোনো

any

نَّجْوَىٰ

গোপন পরামর্শ

secret counsel

ثَلَٰثَةٍ

তিনজনের

(of) three

إِلَّا

এছাড়া

but

هُوَ

তিনি (থাকেন)

He (is)

رَابِعُهُمْ

তাদের চতুর্থজন

(the) fourth of them

وَلَا

এবং না

and not

خَمْسَةٍ

পাঁচজনের

five

إِلَّا

এছাড়া

but

هُوَ

তিনি (হবেন)

He (is)

سَادِسُهُمْ

তাদের ষষ্ঠজন

(the) sixth of them

وَلَآ

এবং না

and not

أَدْنَىٰ

কম হোক

less

مِن

চেয়ে

than

ذَٰلِكَ

এর

that

وَلَآ

এবং না

and not

أَكْثَرَ

বেশি (হোক)

more

إِلَّا

এছাড়া

but

هُوَ

তিনি

He

مَعَهُمْ

তাদের সাথে (আছেন)

(is) with them

أَيْنَ

যেখানেই

wherever

مَا

না

wherever

كَانُوا۟

তারা থাকুক

they are

ثُمَّ

এরপর

Then

يُنَبِّئُهُم

তাদের জানাবেন

He will inform them

بِمَا

ঐ বিষয়ে যা

of what

عَمِلُوا۟

তারা কাজ করেছে

they did

يَوْمَ

দিনে

(on the) Day

ٱلْقِيَٰمَةِ

কিয়ামতের

(of) the Resurrection

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌

Allah

بِكُلِّ

সব সম্পর্কে

of every

شَىْءٍ

কিছুর

thing

عَلِيمٌ

খুব অবহিত

(is) All-Knower

(8)

أَلَمْ

নি কি

Do not

تَرَ

তুমি দেখ

you see

إِلَى

দিকে

to

ٱلَّذِينَ

(তাদেরকে) যাদের

those who

نُهُوا۟

নিষেধ করা হয়েছিল

were forbidden

عَنِ

হতে

from

ٱلنَّجْوَىٰ

গোপন পরামর্শ

secret counsels

ثُمَّ

এরপর

then

يَعُودُونَ

তারা পুনরাবৃত্তি করে

they return

لِمَا

ঐ বিষয়ে যা

to what

نُهُوا۟

নিষেধ করা হয়েছিল

they were forbidden

عَنْهُ

তা হতে

from (it)

وَيَتَنَٰجَوْنَ

ও পরস্পর গোপন পরামর্শ করে

and they hold secret counsels

بِٱلْإِثْمِ

পাপের

for sin

وَٱلْعُدْوَٰنِ

ও বাড়াবাড়ির

and aggression

وَمَعْصِيَتِ

এবং অবাধ্যতার (জন্যে)

and disobedience

ٱلرَّسُولِ

রাসূলের

(to) the Messenger?

وَإِذَا

এবং যখন

And when

جَآءُوكَ

তারা তোমার কাছে আসে

they come to you

حَيَّوْكَ

তোমাকে অভিবাদন করে

they greet you

بِمَا

এমন ভাবে

with what

لَمْ

নি

not

يُحَيِّكَ

তোমাকে অভিবাদন করে

greets you

بِهِ

যেভাবে

therewith

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah

وَيَقُولُونَ

এবং তারা বলে

and they say

فِىٓ

মধ্যে

among

أَنفُسِهِمْ

তাদের নিজেদের (মনের)

themselves

لَوْلَا

“না কেন

“Why (does) not

يُعَذِّبُنَا

আমাদেরকে শাস্তি দেন

Allah punish us

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah punish us

بِمَا

একারনে যা

for what

نَقُولُ

বলি আমরা”

we say?”

حَسْبُهُمْ

তাদের জন্যে যথেষ্ট

Sufficient (for) them

جَهَنَّمُ

জাহান্নাম

(is) Hell

يَصْلَوْنَهَا

তাতে তারা প্রবেশ করবে

they will burn in it

فَبِئْسَ

অতি নিকৃষ্ট তা

and worst is

ٱلْمَصِيرُ

আবাসস্থল (হিসেবে)

the destination

(9)

يَٰٓأَيُّهَا

হে

O you who believe!

ٱلَّذِينَ

যারা

O you who believe!

ءَامَنُوٓا۟

ঈমান এনেছ

O you who believe!

إِذَا

যখন

When

تَنَٰجَيْتُمْ

তোমরা গোপনে পরামর্শ করো

you hold secret counsel

فَلَا

না তবে

then (do) not

تَتَنَٰجَوْا۟

পরস্পরে গোপন পরামর্শ করো

hold secret counsel

بِٱلْإِثْمِ

পাপের বিষয়ে

for sin

وَٱلْعُدْوَٰنِ

ও বাড়াবাড়ির

and aggression

وَمَعْصِيَتِ

এবং অবাধ্যতার (ক্ষেত্রে)

and disobedience

ٱلرَّسُولِ

রাসূলের

(to) the Messenger

وَتَنَٰجَوْا۟

এবং তোমরা গোপনে পরামর্শ করো

but hold secret counsel

بِٱلْبِرِّ

কল্যাণকর কাজ সম্পর্কে

for righteousness

وَٱلتَّقْوَىٰ

এবং তাকওয়ার (ক্ষেত্রে)

and piety

وَٱتَّقُوا۟

এবং তোমরা ভয় করো

And fear

ٱللَّهَ

আল্লাহকে

Allah

ٱلَّذِىٓ

যিনি (এমন সত্তা যে)

the One Who

إِلَيْهِ

তাঁর দিকে

to Him

تُحْشَرُونَ

তোমাদের সমবেত করা হবে

you will be gathered

(10)

إِنَّمَا

মূলত

Only

ٱلنَّجْوَىٰ

গোপন পরামর্শ (করা হয়)

the secret counsels

مِنَ

পক্ষ হতে

(are) from

ٱلشَّيْطَٰنِ

শয়তানের

the Shaitaan

لِيَحْزُنَ

দুঃখ দেয়ার জন্যে

that he may grieve

ٱلَّذِينَ

(তাদেরকে) যারা

those who

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছে

believe

وَلَيْسَ

আর না (কেউ)

but not

بِضَآرِّهِمْ

তাদেরকে ক্ষতি করতে পারবে

he (can) harm them

شَيْـًٔا

কিছুই

(in) anything

إِلَّا

ব্যতীত

except

بِإِذْنِ

অনুমতি

by Allah’s permission

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র

by Allah’s permission

وَعَلَى

এবং উপর

And upon

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌রই

Allah

فَلْيَتَوَكَّلِ

ভরসা করা কর্তব্য

let put (their) trust

ٱلْمُؤْمِنُونَ

মু’মিনদের

the believers

(11)

يَٰٓأَيُّهَا

হে

O you who believe!

ٱلَّذِينَ

যারা

O you who believe!

ءَامَنُوٓا۟

ঈমান এনেছ

O you who believe!

إِذَا

যখন

When

قِيلَ

বলা হয়

it is said

لَكُمْ

তোমাদেরকে

to you

تَفَسَّحُوا۟

“তোমরা প্রশস্ত করে দাও”

“Make room”

فِى

মধ্যে

in

ٱلْمَجَٰلِسِ

বৈঠকের

the assemblies

فَٱفْسَحُوا۟

তোমরা তখন প্রশস্ত করে দাও

then make room

يَفْسَحِ

প্রশস্থতা দেবেন

Allah will make room

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah will make room

لَكُمْ

তোমাদেরকে

for you

وَإِذَا

এবং যখন

And when

قِيلَ

বলা হয়

it is said

ٱنشُزُوا۟

“তোমরা উঠে যাও”

“Rise up”

فَٱنشُزُوا۟

তোমরা তখন উঠে যেয়ো

then rise up

يَرْفَعِ

উন্নত করবেন/ বাড়িয়ে দেবেন

Allah will raise

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah will raise

ٱلَّذِينَ

(তাদেরকে) যারা

those who

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছে

believe

مِنكُمْ

তোমাদের মধ্য হতে

among you

وَٱلَّذِينَ

এবং যাদের

and those who

أُوتُوا۟

দেয়া হয়েছে

were given

ٱلْعِلْمَ

জ্ঞান

the knowledge

دَرَجَٰتٍ

মর্যাদায় (উন্নত করবেন)

(in) degrees

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ্‌

And Allah

بِمَا

সেবিষয়ে যা

of what

تَعْمَلُونَ

তোমরা কাজ করছ

you do

خَبِيرٌ

খুব অবহিত

(is) All-Aware

(12)

يَٰٓأَيُّهَا

হে

O you who believe!

ٱلَّذِينَ

যারা

O you who believe!

ءَامَنُوٓا۟

ঈমান এনেছ

O you who believe!

إِذَا

যখন

When

نَٰجَيْتُمُ

তোমরা একান্তে কথা বলবে

you privately consult

ٱلرَّسُولَ

রাসূলের সাথে

the Messenger

فَقَدِّمُوا۟

তোমরা পেশ করবে

then offer

بَيْنَ

(মাঝে)

before

يَدَىْ

পূর্বে

before

نَجْوَىٰكُمْ

তোমার একান্তে কথা বলার

your private consultation

صَدَقَةً

সদকা

charity

ذَٰلِكَ

এটা

That

خَيْرٌ

উত্তম

(is) better

لَّكُمْ

তোমাদের জন্য

for you

وَأَطْهَرُ

এবং পবিত্র

and purer

فَإِن

আর যদি

But if

لَّمْ

না

not

تَجِدُوا۟

তোমরা পাও (কিছুই)

you find

فَإِنَّ

নিশ্চয়ই তবে

then indeed

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌

Allah

غَفُورٌ

ক্ষমাশীল

(is) Oft-Forgiving

رَّحِيمٌ

পরম দয়ালু

Most Merciful

(13)

ءَأَشْفَقْتُمْ

তোমরা কি ভয় পেয়ে গেছ

Are you afraid

أَن

যে

to

تُقَدِّمُوا۟

তোমরা দিবে

offer

بَيْنَ

(মাঝে)

before

يَدَىْ

পূর্বে

before

نَجْوَىٰكُمْ

তোমাদের একান্তে কথা বলার

your private consultation

صَدَقَٰتٍ

সদকা

charities?

فَإِذْ

যদি অতঃপর

Then when

لَمْ

না

you do not

تَفْعَلُوا۟

তোমরা করতে পার

you do not

وَتَابَ

আর মাফ করে দিলেন

and Allah has forgiven

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

and Allah has forgiven

عَلَيْكُمْ

তোমাদেরকে

you

فَأَقِيمُوا۟

তবে তোমরা প্রতিষ্ঠা কর

then establish

ٱلصَّلَوٰةَ

সালাত

the prayer

وَءَاتُوا۟

এবং তোমরা দাও

and give

ٱلزَّكَوٰةَ

জাকাত

the zakah

وَأَطِيعُوا۟

এবং তোমরা আনুগত্য করো

and obey

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌র

Allah

وَرَسُولَهُۥ

ও তাঁর রাসূলের

and His Messenger

وَٱللَّهُ

এবং আল্লাহ্‌

And Allah

خَبِيرٌۢ

খুব অবহিত

(is) All-Aware

بِمَا

ঐ বিষয়ে যা

of what

تَعْمَلُونَ

তোমরা কাজ কর

you do

Sura Al Mujadalah in Words Ruku2

(14)

أَلَمْ

নি কি

Do not

تَرَ

তুমি দেখ

you see

إِلَى

প্রতি

to

ٱلَّذِينَ

(তাদের) যারা

those who

تَوَلَّوْا۟

বন্ধু বানিয়ে নিয়েছে

take as allies

قَوْمًا

(এমন) সম্প্রদায়

a people

غَضِبَ

অভিশাপ দিয়েছেন

wrath

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

(of) Allah

عَلَيْهِم

যাদের উপর

(is) upon them?

مَّا

না

They (are) not

هُم

তারা

They (are) not

مِّنكُمْ

তোমাদের অন্তর্ভুক্ত

of you

وَلَا

এবং না

and not

مِنْهُمْ

তাদের অন্তর্ভুক্ত

of them

وَيَحْلِفُونَ

এবং তারা শপথ করে

and they swear

عَلَى

উপর

to

ٱلْكَذِبِ

মিথ্যার

the lie

وَهُمْ

অথচ তারা

while they

يَعْلَمُونَ

জানেও

know

(15)

أَعَدَّ

প্রস্তুত রেখেছেন

Allah has prepared

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah has prepared

لَهُمْ

তাদের জন্যে

for them

عَذَابًا

শাস্তি

a punishment

شَدِيدًا

কঠোর

severe

إِنَّهُمْ

নিশ্চয়ই তারা

Indeed, [they]

سَآءَ

অতি মন্দ

evil is

مَا

যা কিছু

what

كَانُوا۟

তারা ছিল

they used to

يَعْمَلُونَ

তারা কাজ করে আসছে

do

(16)

ٱتَّخَذُوٓا۟

তারা গ্রহণ করেছে

They have taken

أَيْمَٰنَهُمْ

তাদের শপথগুলোকে

their oaths

جُنَّةً

ঢালস্বরূপ

(as) a cover

فَصَدُّوا۟

অতঃপর তারা বাধা দেয়

so they hinder

عَن

হতে

from

سَبِيلِ

পথ

(the) way of Allah

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র

(the) way of Allah

فَلَهُمْ

অতএব তাদের জন্য (রয়েছে)

so for them

عَذَابٌ

শাস্তি

(is) a punishment

مُّهِينٌ

অপমানকর

humiliating

(17)

لَّن

কখনই না

Never

تُغْنِىَ

কাজে লাগবে

will avail

عَنْهُمْ

তাদের জন্যে

them

أَمْوَٰلُهُمْ

তাদের ধনসম্পদ

their wealth

وَلَآ

এবং না

and not

أَوْلَٰدُهُم

তাদের সন্তানাদি (বাঁচার জন্য)

their children

مِّنَ

হতে

against

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌

Allah

شَيْـًٔا

কিছুমাত্র

(in) anything

أُو۟لَٰٓئِكَ

ঐসব লোক

Those

أَصْحَٰبُ

অধিবাসী

(will be) companions

ٱلنَّارِ

জাহান্নামের

(of) the Fire

هُمْ

তারা

they

فِيهَا

তার মধ্যে

in it

خَٰلِدُونَ

চিরকাল থাকবে

will abide forever

(18)

يَوْمَ

যেদিন

(On the) Day

يَبْعَثُهُمُ

তাদের উঠাবেন

Allah will raise them

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah will raise them

جَمِيعًا

সকলকেই

all

فَيَحْلِفُونَ

তারা তখনও শপথ করবে

then they will swear

لَهُۥ

তাঁর কাছে

to Him

كَمَا

যেমন

as

يَحْلِفُونَ

তারা শপথ করে

they swear

لَكُمْ

তোমাদের কাছে

to you

وَيَحْسَبُونَ

ও তারা মনে করে

And they think

أَنَّهُمْ

যে তারা

that they

عَلَىٰ

(প্রতিষ্ঠিত) উপর

(are) on

شَىْءٍ

কোনো কিছুর

something

أَلَآ

সাবধান

No doubt!

إِنَّهُمْ

নিশ্চয়ই তারা

Indeed, they

هُمُ

তারাই

they

ٱلْكَٰذِبُونَ

মিথ্যাবাদী

(are) the liars

(19)

ٱسْتَحْوَذَ

প্রভুত্ব বিস্তার করেছে

Has overcome

عَلَيْهِمُ

তাদের উপর

them

ٱلشَّيْطَٰنُ

শয়তান

the Shaitaan

فَأَنسَىٰهُمْ

অতঃপর তাদের ভুলিয়ে দিয়েছে

so he made them forget

ذِكْرَ

স্মরণ

(the) remembrance

ٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র

(of) Allah

أُو۟لَٰٓئِكَ

ঐসব লোক (অন্তর্ভুক্ত)

Those

حِزْبُ

দলের

(are the) party

ٱلشَّيْطَٰنِ

শয়তানের

(of) the Shaitaan

أَلَآ

সাবধান

No doubt!

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

حِزْبَ

দল

(the) party

ٱلشَّيْطَٰنِ

শয়তানের

(of) the Shaitaan

هُمُ

তারাই

they

ٱلْخَٰسِرُونَ

ক্ষতিগ্রস্ত হবে

(will be) the losers

(20)

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

ٱلَّذِينَ

যারা

those who

يُحَآدُّونَ

বিরোধিতা করে

oppose

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌র

Allah

وَرَسُولَهُۥٓ

ও তাঁর রাসূলের

and His Messenger

أُو۟لَٰٓئِكَ

ঐসব লোক

those

فِى

অন্তর্ভুক্ত

(will be) among

ٱلْأَذَلِّينَ

চরম অপমানিতদের

the most humiliated

(21)

كَتَبَ

লিখে দিয়েছেন

Allah has decreed

ٱللَّهُ

আল্লাহ্‌

Allah has decreed

لَأَغْلِبَنَّ

“অবশ্যই বিজয়ী হব

“Surely, I will overcome

أَنَا۠

আমি

I

وَرُسُلِىٓ

ও আমার রাসূলরা”

and My Messengers”

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌

Allah

قَوِىٌّ

শক্তিধর

(is) All-Strong

عَزِيزٌ

পরাক্রমশালী

All-Mighty

(22)

لَّا

না

You will not find

تَجِدُ

পাবে তুমি

You will not find

قَوْمًا

সম্প্রদায়কে (এমন যে)

a people

يُؤْمِنُونَ

বিশ্বাস করে

who believe

بِٱللَّهِ

আল্লাহ্‌র উপর

in Allah

وَٱلْيَوْمِ

ও উপর দিনের

and the Day

ٱلْءَاخِرِ

শেষ

the Last

يُوَآدُّونَ

(আবার তারা) বন্ধুত্বও করে

loving

مَنْ

(তাদের সাথে) যারা

(those) who

حَآدَّ

বিরোধিতা করে

oppose

ٱللَّهَ

আল্লাহ্‌র

Allah

وَرَسُولَهُۥ

ও তাঁর রাসূলের

and His Messenger

وَلَوْ

এবং যদিও

even if

كَانُوٓا۟

তারা হয়

they were

ءَابَآءَهُمْ

তাদের পিতা

their fathers

أَوْ

বা

or

أَبْنَآءَهُمْ

তাদের পুত্র

their sons

أَوْ

বা

or

إِخْوَٰنَهُمْ

তাদের ভাইয়েরা

their brothers

أَوْ

বা

or

عَشِيرَتَهُمْ

তাদের জাতি-গোত্র

their kindred

أُو۟لَٰٓئِكَ

ঐসব লোক (আল্লাহ)

Those

كَتَبَ

সুদৃঢ় করে দিয়েছেন

He has decreed

فِى

মধ্যে

within

قُلُوبِهِمُ

তাদের অন্তর সমূহের

their hearts

ٱلْإِيمَٰنَ

ঈমান

faith

وَأَيَّدَهُم

ও তাদের শক্তিশালী করেছেন

and supported them

بِرُوحٍ

রূহ দিয়ে

with a spirit

مِّنْهُ

তাঁর পক্ষ হতে

from Him

وَيُدْخِلُهُمْ

এবং তাদেরকে প্রবেশ করাবেন

And He will admit them

جَنَّٰتٍ

জান্নাতে

(to) Gardens

تَجْرِى

প্রবাহিত হয়

flow

مِن

থেকে

from

تَحْتِهَا

তার নিচ

underneath it

ٱلْأَنْهَٰرُ

ঝর্ণাধারা সমূহ

the rivers

خَٰلِدِينَ

তারা চিরকাল থাকবে

will abide forever

فِيهَا

তার মধ্যে

in it

رَضِىَ

সন্তুষ্ট/ প্রসন্ন হয়েছেন

Allah is pleased

ٱللَّهُ

আল্লাহ

Allah is pleased

عَنْهُمْ

তাদের প্রতি

with them

وَرَضُوا۟

ও তারা সন্তুষ্ট হয়েছে

and they are pleased

عَنْهُ

তাঁর প্রতি

with Him

أُو۟لَٰٓئِكَ

ঐসব লোক(অন্তর্ভুক্ত)

Those

حِزْبُ

দলের

(are the) party

ٱللَّهِ

আল্লাহর

(of) Allah

أَلَآ

জেনে রাখ

No doubt!

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

حِزْبَ

দল

(the) party

ٱللَّهِ

আল্লাহর

(of) Allah

هُمُ

তারাই

they

ٱلْمُفْلِحُونَ

সফলকাম

(are) the successful ones

Sura Al Mujadalah in Words Ruku3

[1] স্ত্রীকে মায়ের সাথে অথবা মায়ের কোন অংগের সাথে তুলনা করাকে ‘যিহার’ বলে। প্রাচীন আরব সমাজে স্ত্রীকে মায়ের সাথে তুলনা করার মাধ্যমে বৈবাহিক সম্পর্ক ছিন্ন করা হত। ইসলামে এর মাধ্যমে সরাসরি বৈবাহিক সম্পর্ক ছিন্ন হয়  না। তবে অসঙ্গত কথা বলার কারণে কাফ্ফারা দিতে হয়।

৫৭সুরা হাদীদ<< সুরা মুজাদালাহ >> ৫৯ সুরা হাশর

By Quran Sharif

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply