সুরা মায়ারিজ বাংলা Sura Al Maarij in Words & Audio

৭০ – সুরা মায়ারিজ – আয়াত : ৪৪, মাক্কী, রুকু ২

১১৪ টি সুরা >> তাফসীরঃ বুখারী >> তিরমিজি

Arabicতাফসীর

সুরা মায়ারিজ Sura Al Maarij mp3 Download

পরম করুণাময় অতি দয়ালু আল্লাহর নামেبِسۡمِ ٱللَّهِ ٱلرَّحۡمَٰنِ ٱلرَّحِيمِ
(1) এক প্রশ্নকারী জিজ্ঞাসা করল এমন আযাব সম্পর্কে, যা আপতিত হবে-[1]سَأَلَ سَآئِلُۢ بِعَذَابٖ وَاقِعٖ ١
(2) কাফিরদের উপর, যার কোন প্রতিরোধকারী নেই।لِّلۡكَٰفِرِينَ لَيۡسَ لَهُۥ دَافِعٞ ٢
(3) ঊর্ধ্বারোহণের সোপানসমূহের অধিকারী আল্লাহর পক্ষ থেকে,مِّنَ ٱللَّهِ ذِي ٱلۡمَعَارِجِ ٣
(4) ফেরেশতাগণ ও রূহ এমন এক দিনে আল্লাহর পানে ঊর্ধ্বগামী হয়, যার পরিমাণ পঞ্চাশ হাজার বছর।تَعۡرُجُ ٱلۡمَلَٰٓئِكَةُ وَٱلرُّوحُ إِلَيۡهِ فِي يَوۡمٖ كَانَ مِقۡدَارُهُۥ خَمۡسِينَ أَلۡفَ سَنَةٖ ٤
(5) অতএব তুমি উত্তমরূপে ধৈর্যধারণ কর।فَٱصۡبِرۡ صَبۡرٗا جَمِيلًا ٥
(6) তারা তো এটিকে সুদূরপরাহত মনে করে।إِنَّهُمۡ يَرَوۡنَهُۥ بَعِيدٗا ٦
(7) আর আমি দেখছি তা আসন্ন।وَنَرَىٰهُ قَرِيبٗا ٧
(8) সেদিন আসমান হয়ে যাবে গলিত ধাতুর ন্যায়।يَوۡمَ تَكُونُ ٱلسَّمَآءُ كَٱلۡمُهۡلِ ٨
(9) এবং পর্বতসমূহ হয়ে যাবে রঙিন পশমের ন্যায়।وَتَكُونُ ٱلۡجِبَالُ كَٱلۡعِهۡنِ ٩
(10) আর অন্তরঙ্গ বন্ধু অন্তরঙ্গ বন্ধুকে জিজ্ঞাসা করবে না।وَلَا يَسۡ‍َٔلُ حَمِيمٌ حَمِيمٗا ١٠
(11) তাদেরকে একে অপরের দৃষ্টিগোচর করা হবে। অপরাধী চাইবে যদি সে সেদিনের শাস্তি থেকে তার সন্তান-সন্ততিকে পণ হিসেবে দিয়ে মুক্তি পেতে,يُبَصَّرُونَهُمۡۚ يَوَدُّ ٱلۡمُجۡرِمُ لَوۡ يَفۡتَدِي مِنۡ عَذَابِ يَوۡمِئِذِۢ بِبَنِيهِ ١١
(12) আর তার স্ত্রী ও ভাইকে,وَصَٰحِبَتِهِۦ وَأَخِيهِ ١٢
(13) আর তার জ্ঞাতি-গোষ্ঠীকে, যারা তাকে আশ্রয় দিত।وَفَصِيلَتِهِ ٱلَّتِي تُ‍ٔۡوِيهِ ١٣
(14) আর যমীনে যারা আছে তাদের সবাইকে, যাতে এটি তাকে রক্ষা করে।وَمَن فِي ٱلۡأَرۡضِ جَمِيعٗا ثُمَّ يُنجِيهِ ١٤
(15) কখনো নয়! এটিতো লেলিহান আগুন।كَلَّآۖ إِنَّهَا لَظَىٰ ١٥
(16) যা মাথার চামড়া খসিয়ে নেবে।نَزَّاعَةٗ لِّلشَّوَىٰ ١٦
(17) জাহান্নাম তাকে ডাকবে যে পৃষ্ঠ প্রদর্শন করেছিল এবং মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিল ।تَدۡعُواْ مَنۡ أَدۡبَرَ وَتَوَلَّىٰ ١٧
(18) আর সম্পদ জমা করেছিল, অতঃপর তা সংরক্ষণ করে রেখেছিল। وَجَمَعَ فَأَوۡعَىٰٓ ١٨
(19) নিশ্চয় মানুষকে সৃষ্টি করা হয়েছে অস্থির করে।۞إِنَّ ٱلۡإِنسَٰنَ خُلِقَ هَلُوعًا ١٩
(20) যখন তাকে বিপদ স্পর্শ করে তখন সে হয়ে পড়ে অতিমাত্রায় উৎকন্ঠিত।إِذَا مَسَّهُ ٱلشَّرُّ جَزُوعٗا ٢٠
(21) আর যখন কল্যাণ তাকে স্পর্শ করে তখন সে হয়ে পড়ে অতিশয় কৃপণ।وَإِذَا مَسَّهُ ٱلۡخَيۡرُ مَنُوعًا ٢١
(22) সালাত আদায়কারীগণ ছাড়া,إِلَّا ٱلۡمُصَلِّينَ ٢٢
(23) যারা তাদের সালাতের ক্ষেত্রে নিয়মিত।ٱلَّذِينَ هُمۡ عَلَىٰ صَلَاتِهِمۡ دَآئِمُونَ ٢٣
(24) আর যাদের ধন-সম্পদে রয়েছে নির্ধারিত হক,وَٱلَّذِينَ فِيٓ أَمۡوَٰلِهِمۡ حَقّٞ مَّعۡلُومٞ ٢٤
(25) যাচঞাকারী ও বঞ্চিতের,لِّلسَّآئِلِ وَٱلۡمَحۡرُومِ ٢٥
(26) আর যারা প্রতিফল-দিবসকে সত্য বলে বিশ্বাস করে।وَٱلَّذِينَ يُصَدِّقُونَ بِيَوۡمِ ٱلدِّينِ ٢٦
(27) আর যারা তাদের রবের আযাব সম্পর্কে ভীত-সন্ত্রস্ত।وَٱلَّذِينَ هُم مِّنۡ عَذَابِ رَبِّهِم مُّشۡفِقُونَ ٢٧
(28) নিশ্চয় তাদের রবের আযাব থেকে কেউ নিরাপদ নয়।إِنَّ عَذَابَ رَبِّهِمۡ غَيۡرُ مَأۡمُونٖ ٢٨
(29) আর যারা তাদের যৌনাংগসমূহের হিফাযতকারী।وَٱلَّذِينَ هُمۡ لِفُرُوجِهِمۡ حَٰفِظُونَ ٢٩
(30) তবে তাদের স্ত্রী ও তাদের ডান হাত যাদের মালিক হয়েছে সে দাসীগণের ক্ষেত্র ছাড়া।  তাহলে তারা সে ক্ষেত্রে নিন্দনীয় হবে না।إِلَّا عَلَىٰٓ أَزۡوَٰجِهِمۡ أَوۡ مَا مَلَكَتۡ أَيۡمَٰنُهُمۡ فَإِنَّهُمۡ غَيۡرُ مَلُومِينَ ٣٠
(31) তবে যে কেউ এদের বাইরে অন্যকে কামনা করে, তারাই তো সীমালংঘনকারী।فَمَنِ ٱبۡتَغَىٰ وَرَآءَ ذَٰلِكَ فَأُوْلَٰٓئِكَ هُمُ ٱلۡعَادُونَ ٣١
(32) আর যারা নিজদের আমানত ও ওয়াদা রক্ষাকারী,وَٱلَّذِينَ هُمۡ لِأَمَٰنَٰتِهِمۡ وَعَهۡدِهِمۡ رَٰعُونَ ٣٢
(33) আর যারা তাদের সাক্ষ্যদানে অটল,وَٱلَّذِينَ هُم بِشَهَٰدَٰتِهِمۡ قَآئِمُونَ ٣٣
(34) আর যারা নিজদের সালাতের হিফাযত করে,وَٱلَّذِينَ هُمۡ عَلَىٰ صَلَاتِهِمۡ يُحَافِظُونَ ٣٤
(35) তারাই জান্নাতসমূহে সম্মানিত হবে।   أُوْلَٰٓئِكَ فِي جَنَّٰتٖ مُّكۡرَمُونَ ٣٥
সুরা মায়ারিজع রুকু
(36) কাফিরদের কী হল যে, তারা তোমার দিকে ছুটছে,فَمَالِ ٱلَّذِينَ كَفَرُواْ قِبَلَكَ مُهۡطِعِينَ ٣٦
(37) ডানে ও বামে দলে দলে?عَنِ ٱلۡيَمِينِ وَعَنِ ٱلشِّمَالِ عِزِينَ ٣٧
(38) তাদের প্রত্যেক ব্যক্তি কি আশা করে যে, তাকে প্রাচুর্যময় জান্নাতে দাখিল করা হবে? أَيَطۡمَعُ كُلُّ ٱمۡرِيٕٖ مِّنۡهُمۡ أَن يُدۡخَلَ جَنَّةَ نَعِيمٖ ٣٨
(39) কখনো নয়, নিশ্চয় আমি তাদেরকে সৃষ্টি করেছি তারা যা জানে তা থেকে।كَلَّآۖ إِنَّا خَلَقۡنَٰهُم مِّمَّا يَعۡلَمُونَ ٣٩
(40) অতএব, আমি উদয়স্থল ও অস্তাচলসমূহের রবের কসম করছি যে, আমি অবশ্যই সক্ষম!فَلَآ أُقۡسِمُ بِرَبِّ ٱلۡمَشَٰرِقِ وَٱلۡمَغَٰرِبِ إِنَّا لَقَٰدِرُونَ ٤٠
(41) তাদের চাইতে উত্তমদেরকে তাদের স্থলে নিয়ে আসতে এবং আমি অক্ষম নই।عَلَىٰٓ أَن نُّبَدِّلَ خَيۡرٗا مِّنۡهُمۡ وَمَا نَحۡنُ بِمَسۡبُوقِينَ ٤١
(42) অতএব তাদেরকে ছেড়ে দাও, তারা (বেহুদা কথায়) মত্ত থাকুক আর খেল-তামাশা করুক যতক্ষণ না তারা দেখা পায় সেদিনের, যার প্রতিশ্রুতি তাদেরকে দেয়া হয়েছে।فَذَرۡهُمۡ يَخُوضُواْ وَيَلۡعَبُواْ حَتَّىٰ يُلَٰقُواْ يَوۡمَهُمُ ٱلَّذِي يُوعَدُونَ ٤٢
(43) যেদিন দ্রুতবেগে তারা কবর থেকে বের হয়ে আসবে, যেন তারা কোন লক্ষ্যের দিকে ছুটছে,   يَوۡمَ يَخۡرُجُونَ مِنَ ٱلۡأَجۡدَاثِ سِرَاعٗا كَأَنَّهُمۡ إِلَىٰ نُصُبٖ يُوفِضُونَ ٤٣
(44) অবনত চোখে। লাঞ্ছনা তাদেরকে আচ্ছন্ন করবে! এটিই সেদিন যার ওয়াদা তাদেরকে দেয়া হয়েছিল।خَٰشِعَةً أَبۡصَٰرُهُمۡ تَرۡهَقُهُمۡ ذِلَّةٞۚ ذَٰلِكَ ٱلۡيَوۡمُ ٱلَّذِي كَانُواْ يُوعَدُونَ ٤٤
সুরা মায়ারিজع রুকু

[1] আয়াতটির আরেক অর্থ হল, ‘একজন প্রার্থনাকারী এমন আযাবের দো‘আ করল যা আপতিত হবে’।

Sura Al Maarij in Words

(1)

سَأَلَ

জিজ্ঞাসা করল

Asked

سَآئِلٌۢ

এক প্রশ্নকারী

a questioner

بِعَذَابٍ

এমন আযাব সম্পর্কে

for a punishment

وَاقِعٍ

যা আপতিত হবে

bound to happen

(2)

لِّلْكَٰفِرِينَ

কাফিরদের উপর,

To the disbelievers

لَيْسَ

নেই

not

لَهُۥ

তার

of it

دَافِعٌ

কোন প্রতিরোধকারী

any preventer

(3)

مِّنَ

থেকে

From

ٱللَّهِ

আল্লাহ,

Allah

ذِى

মালিক

Owner

ٱلْمَعَارِجِ

ঊর্ধ্বারোহণের সোপানসমূহের অধিকারী

(of) the ways of ascent

(4)

تَعْرُجُ

চড়ে

Ascend

ٱلْمَلَٰٓئِكَةُ

ফেরেশতাগণ

the Angels

وَٱلرُّوحُ

ও রূহ(জিবরাঈল)

and the Spirit

إِلَيْهِ

তাকে

to Him

فِى

মধ্যে

in

يَوْمٍ

একদিনের

a Day

كَانَ

{হয়}

{is}

مِقْدَارُهُۥ

তার পরিমাপ

its measure

خَمْسِينَ

পঞ্চাশ (হয়)

(is) fifty

أَلْفَ

হাজার

thousand

سَنَةٍ

বছর

year(s)

(5)

فَٱصْبِرْ

সুতরাং, ধৈর্য ধরুন

So be patient

صَبْرًا

ধৈর্য

a patience

جَمِيلًا

উত্তম

good

(6)

إِنَّهُمْ

তারা নিশ্চয়

Indeed they

يَرَوْنَهُۥ

তা দেখে

see it

بَعِيدًا

বহুদূরে

(as) far off

(7)

وَنَرَىٰهُ

কিন্তু আমরা তা দেখেছি

But We see it

قَرِيبًا

নিকটে

near

(8)

يَوْمَ

সেদিন

(The) Day –

تَكُونُ

হবে

will be

ٱلسَّمَآءُ

আকাশ

the sky

كَٱلْمُهْلِ

গলিত ধাতুর মত,

like molten copper

(9)

وَتَكُونُ

এবং হবে

And will be

ٱلْجِبَالُ

পর্বতসমূহ

the mountains

كَٱلْعِهْنِ

রঙিন পশমের মত,

like wool

(10)

وَلَا

এবং না

And not

يَسْـَٔلُ

জিজ্ঞাসা করবে

will ask

حَمِيمٌ

কোন বন্ধু

a friend

حَمِيمًا

বন্ধুকে

(of) a friend
(11)

يُبَصَّرُونَهُمْ

তাদেরকে দেখানো হবে

They will be made to see each other

يَوَدُّ

ইচ্ছা করবে

Would wish

ٱلْمُجْرِمُ

অপরাধী

the criminal

لَوْ

যদি

if

يَفْتَدِى

মুক্তিপন দিতে পারত

he (could be) ransomed

مِنْ

থেকে

from

عَذَابِ

আযাব

(the) punishment

يَوْمِئِذٍۭ

সেদিন

(of) that Day

بِبَنِيهِ

তার সন্তানদের দ্বারা

by his children

(12)

وَصَٰحِبَتِهِۦ

এবং তার স্ত্রী

And his spouse

وَأَخِيهِ

এবং তার ভাই,

and his brother

(13)

وَفَصِيلَتِهِ

আর তার জ্ঞাতি-গোষ্ঠীকে

And his nearest kindred

ٱلَّتِى

যা

who

تُـْٔوِيهِ

তাকে আশ্রয় দেয়

sheltered him

(14)

وَمَن

এবং যা

And whoever

فِى

মধ্যে্

(is) on

ٱلْأَرْضِ

যমীনের

the earth

جَمِيعًا

সবকিছুই

all

ثُمَّ

তারপর

then

يُنجِيهِ

তাকে মুক্তি দিত

it (could) save him

(15)

كَلَّآ

অবশ্যই নহে!

By no means!

إِنَّهَا

নিশ্চয় তা

Indeed it (is)

لَظَىٰ

লেলিহান আগুন

surely a Flame of Hell

(16)

نَزَّاعَةً

লেহনকারী

A remover

لِّلشَّوَىٰ

চামড়াকে

of the skin of the head

(17)

تَدْعُوا۟

আহবান করে

Inviting

مَنْ

যে

(him) who

أَدْبَرَ

পিঠ প্রদর্শন করে

turned his back

وَتَوَلَّىٰ

ও মুখ ফিরিয়ে

and went away

(18)

وَجَمَعَ

এবং জমা করেছে

And collected

فَأَوْعَىٰٓ

অতঃপর তা সংরক্ষিত রেখেছে

and hoarded

(19)

إِنَّ

নিশ্চয়

Indeed

ٱلْإِنسَٰنَ

মানুষকে

the man

خُلِقَ

সৃষ্টি করা হয়েছে

was created

هَلُوعًا

অস্থির

anxious –

(20)

إِذَا

কখন

When

مَسَّهُ

তাকে স্পর্শ করে

touches him

ٱلشَّرُّ

মন্দ,

the evil

جَزُوعًا

দুর্দশাগ্রস্ত.

distressed

(21)

وَإِذَا

এবং কখন

And when

مَسَّهُ

তাকে স্পর্শ করে

touches him

ٱلْخَيْرُ

কল্যাণ

the good

مَنُوعًا

কৃপণ হয়

withholding

(22)

إِلَّا

ছাড়া

Except

ٱلْمُصَلِّينَ

নামাযিরা

those who pray –

(23)

ٱلَّذِينَ

যারা

Those who

هُمْ

{তারা}

{they}

عَلَىٰ

উপর

at

صَلَاتِهِمْ

তাদের নামযের

their prayer

دَآئِمُونَ

নিয়মিত

(are) constant

(24)

وَٱلَّذِينَ

এবং যারা

And those who

فِىٓ

মধ্যে

in

أَمْوَٰلِهِمْ

তাদের সম্পদ

their wealth

حَقٌّ

অধিকার

(is) a right

مَّعْلُومٌ

অবগত

known

(25)

لِّلسَّآئِلِ

প্রার্থনাকারীর জন্যে

For the one who asks

وَٱلْمَحْرُومِ

এবং বঞ্চিতের

and the deprived

(26)

وَٱلَّذِينَ

এবং যারা

And those who

يُصَدِّقُونَ

সাক্ষ্য দেয়

accept (the) truth

بِيَوْمِ

দিনের

(of the) Day

ٱلدِّينِ

বিচার

(of) the Judgment

(27)

وَٱلَّذِينَ

এবং যারা

And those who

هُم

{তারা}

{they}

مِّنْ

থেকে

of

عَذَابِ

আযাব

(the) punishment

رَبِّهِم

তাদের রবের

(of) their Lord

مُّشْفِقُونَ

ভয়কারী

(are) fearful –

(28)

إِنَّ

নিশ্চয়

Indeed

عَذَابَ

আযাব

(the) punishment

رَبِّهِمْ

তাদের রবের

(of) your Lord

غَيْرُ

নয়

(is) not

مَأْمُونٍ

নিরাপদ

to be felt secure (of) –

(29)

وَٱلَّذِينَ

এবং যারা

And those who

هُمْ

{তারা}

{they}

لِفُرُوجِهِمْ

তাদের যৌনাংগসমূহের

their modesty

حَٰفِظُونَ

হিফাযতকারী

(are) guardians

(30)

إِلَّا

ছাড়া

Except

عَلَىٰٓ

উপর

from

أَزْوَٰجِهِمْ

তাদের স্ত্রীদের

their spouses

أَوْ

বা

or

مَا

যা

what

مَلَكَتْ

মালিক হয়েছে

they possess

أَيْمَٰنُهُمْ

তাদের ডান হাতসমূহ

rightfully

فَإِنَّهُمْ

তারপর নিশ্চয় তারা

then indeed, they

غَيْرُ

নয়

(are) not

مَلُومِينَ

নিন্দনীয়

blameworthy

(31)

فَمَنِ

তবে যে কেউ

But whoever

ٱبْتَغَىٰ

চায়

seeks

وَرَآءَ

ছাড়া

beyond

ذَٰلِكَ

এটা

that

فَأُو۟لَٰٓئِكَ

অতএব ঐসব লোক

then those

هُمُ

{তারাই}

{they}

ٱلْعَادُونَ

সীমালংঘনকারী

(are) the transgressors –

(32)

وَٱلَّذِينَ

এবং যারা

And those who

هُمْ

{তারা}

{they}

لِأَمَٰنَٰتِهِمْ

তাদের আমানতের ক্ষেত্রে

of their trusts

وَعَهْدِهِمْ

ও তাদের ওয়াদার

and their promise

رَٰعُونَ

পালনকারী

(are) observers

(33)

وَٱلَّذِينَ

এবং যারা

And those who

هُم

{তারা}

{they}

بِشَهَٰدَٰتِهِمْ

তাদের সাক্ষ্যদানে

in their testimonies

قَآئِمُونَ

অটল

stand firm

(34)

وَٱلَّذِينَ

এবং যারা,

And those who

هُمْ

{তারা}

{they}

عَلَىٰ

উপর

on

صَلَاتِهِمْ

তাদের নামাযের

their prayer

يُحَافِظُونَ

সংরক্ষণ করে

keep a guard –

(35)

أُو۟لَٰٓئِكَ

ঐসব লোক

Those

فِى

মধ্যে হবে

(will be) in

جَنَّٰتٍ

জান্নাতসমূহের

Gardens

مُّكْرَمُونَ

সম্মানিত.

honored

Sura Al Maarij Ruku 1

(36)

فَمَالِ

অতএব কি হয়েছে

So what is with

ٱلَّذِينَ

যারা (তাদের)

those who

كَفَرُوا۟

কুফরি করেছে

disbelieve

قِبَلَكَ

তোমার সামনে

before you

مُهْطِعِينَ

দৌড়ে আসছে

(they) hasten

(37)

عَنِ

থেকে

On

ٱلْيَمِينِ

ডান দিক

the right

وَعَنِ

ও থেকে

and on

ٱلشِّمَالِ

বামদিক

the left

عِزِينَ

দলে দলে

(in) separate groups?

(38)

أَيَطْمَعُ

লোভকরে কি

Does long

كُلُّ

প্রত্যেক

every

ٱمْرِئٍ

ব্যক্তি

person

مِّنْهُمْ

তাদের মধ্যে

among them

أَن

যে

that

يُدْخَلَ

প্রবেশ করানো হবে

he enters

جَنَّةَ

জান্নাতে

a Garden

نَعِيمٍ

নিয়ামতের

(of) Delight?

(39)

كَلَّآ

কখনও নয়!

By no means!

إِنَّا

নিশ্চয় আমরা

Indeed We

خَلَقْنَٰهُم

[আমরা] তাদেরকে সৃষ্টি করেছি

[We] have created them

مِّمَّا

যা থেকে

from what

يَعْلَمُونَ

তারা জানে.

they know

(40)

فَلَآ

অতএব, না

But nay!

أُقْسِمُ

আমি কসম করছি যে

I swear

بِرَبِّ

রবের

by (the) Lord

ٱلْمَشَٰرِقِ

উদয়স্থল

(of) the rising

وَٱلْمَغَٰرِبِ

ও অস্তাচলসমূহের

and the settings

إِنَّا

নিশ্চয় আমরা

that We

لَقَٰدِرُونَ

সক্ষম

(are) surely Able

(41)

عَلَىٰٓ

উপর

To

أَن

যে

that

نُّبَدِّلَ

বদলাব

We replace

خَيْرًا

আমরা

(with) better

مِّنْهُمْ

তাদের চেয়ে

than them;

وَمَا

এবং না

and not

نَحْنُ

আমাদের

We

بِمَسْبُوقِينَ

অতিক্রমকারী

(are) to be outrun

(42)

فَذَرْهُمْ

সুতরাং তাদের ছেড়ে দাও,

So leave them

يَخُوضُوا۟

(করতে) বেহুদা কথায়

(to) converse vainly

وَيَلْعَبُوا۟

আর খেল-তামাশায়

and amuse themselves

حَتَّىٰ

যতক্ষণ না

until

يُلَٰقُوا۟

দেখা পায়

they meet

يَوْمَهُمُ

সেদিনের,

their Day

ٱلَّذِى

যার

which

يُوعَدُونَ

তাদের ওয়াদা করা হয়েছে

they are promised

(43)

يَوْمَ

যেদিন

(The) Day

يَخْرُجُونَ

তারা বের হবে

they will come out

مِنَ

থেকে

from

ٱلْأَجْدَاثِ

কবরগুলো

the graves

سِرَاعًا

দ্রুতভাবে

rapidly

كَأَنَّهُمْ

তারা যেন

as if they (were)

إِلَىٰ

দিকে

to

نُصُبٍ

লক্ষ্যের

a goal

يُوفِضُونَ

ছুটে যাচ্ছে

hastening

(44)

خَٰشِعَةً

অবনত

Humbled

أَبْصَٰرُهُمْ

তাদের চোখ

their eyes

تَرْهَقُهُمْ

তাদেরকে আচ্ছন্ন করবে

will cover them

ذِلَّةٌ

লাঞ্ছনা

humiliation

ذَٰلِكَ

এটা

That

ٱلْيَوْمُ

সেদিন

(is) the Day

ٱلَّذِى

যার

which

كَانُوا۟

তাদেরকে দেয়া হয়েছিল

they were

يُوعَدُونَ

যার ওয়াদা

promised

Sura Al Maarij Ruku 2

৬৯ সুরা হাক্বকাহ<< সুরা মায়ারিজ >>৭১ সুরা নূহ

By Quran Sharif

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply