সুরা তুর বাংলা অনুবাদ Sura At Tur in Words & Audio

সুরা তুর বাংলা অনুবাদ Sura At Tur in Words & Audio

সুরা তুর >> ১১৪ টি সূরার সূচীপত্র লিস্ট >> ২০ টির অধিক তাফসীর কিতাব পড়ুন

৫২ – সুরা তুর – আয়াত : ৪৯, মাক্কী, রুকু ২

সুরা তুর mp3 Download

সুরা তুর ع Ruku রুকু [১][1] >> [২][2]

সুরা তুর Sura At Tur in Words [১][1] >> [২][2]

পরম করুণাময় অতি দয়ালু আল্লাহর নামেبِسۡمِ ٱللَّهِ ٱلرَّحۡمَٰنِ ٱلرَّحِيمِ
(1) কসম তূর পর্বতের,وَٱلطُّورِ ١
(2) আর কসম কিতাবের যা লিপিবদ্ধ আছে।وَكِتَٰبٖ مَّسۡطُورٖ ٢
(3) উন্মুক্ত পাতায়।فِي رَقّٖ مَّنشُورٖ ٣
(4) কসম আবাদ গৃহের,[1]وَٱلۡبَيۡتِ ٱلۡمَعۡمُورِ ٤
(5) আর সমুন্নত আকাশের;وَٱلسَّقۡفِ ٱلۡمَرۡفُوعِ ٥
(6) কসম তরঙ্গ-বিক্ষুব্ধ সাগরের,[2]  وَٱلۡبَحۡرِ ٱلۡمَسۡجُورِ ٦
(7) নিশ্চয় তোমার রবের আযাব অবশ্যম্ভাবী।إِنَّ عَذَابَ رَبِّكَ لَوَٰقِعٞ ٧
(8) যার কোন প্রতিরোধকারী নেই। مَّا لَهُۥ مِن دَافِعٖ ٨
(9) যেদিন তীব্রভাবে আকাশ প্রকম্পিত হবে,يَوۡمَ تَمُورُ ٱلسَّمَآءُ مَوۡرٗا ٩
(10) আর পর্বতমালা দ্রুত পরিভ্রমণ করবে,وَتَسِيرُ ٱلۡجِبَالُ سَيۡرٗا ١٠
(11) অতএব মিথ্যারোপকারীদের জন্য সেদিনের ধ্বংস,فَوَيۡلٞ يَوۡمَئِذٖ لِّلۡمُكَذِّبِينَ١١
(12) যারা খেল-তামাশায় মত্ত থাকে।ٱلَّذِينَ هُمۡ فِي خَوۡضٖ يَلۡعَبُونَ ١٢
(13) সেদিন তাদেরকে জাহান্নামের আগুনের দিকে হাঁকিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে।يَوۡمَ يُدَعُّونَ إِلَىٰ نَارِ جَهَنَّمَ دَعًّا ١٣
(14) এটি সেই জাহান্নাম যা তোমরা অস্বীকার করতে।’هَٰذِهِ ٱلنَّارُ ٱلَّتِي كُنتُم بِهَا تُكَذِّبُونَ١٤
(15) এটি কি জাদু, নাকি তোমরা দেখতে পাচ্ছ না!’أَفَسِحۡرٌ هَٰذَآ أَمۡ أَنتُمۡ لَا تُبۡصِرُونَ ١٥
(16) তোমরা আগুনে প্রবেশ কর[3], তারপর তোমরা ধৈর্যধারণ কর বা না কর, উভয়ই তোমাদের জন্য সমান; তোমাদেরকে তো কেবল তোমাদের আমলের প্রতিফল দেয়া হচ্ছে।ٱصۡلَوۡهَا فَٱصۡبِرُوٓاْ أَوۡ لَا تَصۡبِرُواْ سَوَآءٌ عَلَيۡكُمۡۖ إِنَّمَا تُجۡزَوۡنَ مَا كُنتُمۡ تَعۡمَلُونَ ١٦
(17) নিশ্চয় মুত্তাকীরা (থাকবে) জান্নাতে ও প্রাচুর্যে।إِنَّ ٱلۡمُتَّقِينَ فِي جَنَّٰتٖ وَنَعِيمٖ ١٧
(18) তাদের রব তাদেরকে যা দিয়েছেন তা উপভোগ করবে, আর তাদের রব তাদেরকে বাঁচাবেন জ্বলন্ত আগুনের আযাব থেকে।فَٰكِهِينَ بِمَآ ءَاتَىٰهُمۡ رَبُّهُمۡ وَوَقَىٰهُمۡ رَبُّهُمۡ عَذَابَ ٱلۡجَحِيمِ ١٨
(19) তোমরা তৃপ্তি সহকারে খাও ও পান কর, তোমরা যে আমল করতে তার বিনিময়ে।كُلُواْ وَٱشۡرَبُواْ هَنِيٓ‍َٔۢا بِمَا كُنتُمۡ تَعۡمَلُونَ ١٩
(20) সারিবদ্ধ পালঙ্কে তারা হেলান দিয়ে বসবে; আর আমি তাদেরকে মিলায়ে দেব ডাগরচোখা হূর-এর সাথে।مُتَّكِ‍ِٔينَ عَلَىٰ سُرُرٖ مَّصۡفُوفَةٖۖ وَزَوَّجۡنَٰهُم بِحُورٍ عِينٖ ٢٠
(21) আর যারা ঈমান আনে এবং তাদের সন্তান-সন্ততি ঈমানের সাথে তাদের অনুসরণ করে, আমরা তাদের সাথে তাদের সন্তানদের মিলন ঘটাব এবং তাদের কর্মের কোন অংশই কমাব না। প্রত্যেক ব্যক্তি তার কামাইয়ের ব্যাপারে দায়ী থাকবে।وَٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ وَٱتَّبَعَتۡهُمۡ ذُرِّيَّتُهُم بِإِيمَٰنٍ أَلۡحَقۡنَا بِهِمۡ ذُرِّيَّتَهُمۡ وَمَآ أَلَتۡنَٰهُم مِّنۡ عَمَلِهِم مِّن شَيۡءٖۚ كُلُّ ٱمۡرِيِٕۢ بِمَا كَسَبَ رَهِينٞ ٢١
(22) আর আমি তাদেরকে অতিরিক্ত দেব ফলমূল ও গোশ্ত যা তারা কামনা করবে।وَأَمۡدَدۡنَٰهُم بِفَٰكِهَةٖ وَلَحۡمٖ مِّمَّا يَشۡتَهُونَ ٢٢
(23) তারা পরস্পরের মধ্যে পানপাত্র বিনিময় করবে; সেখানে থাকবে না কোন বেহুদা কথাবার্তা এবং কোন পাপকাজ।يَتَنَٰزَعُونَ فِيهَا كَأۡسٗا لَّا لَغۡوٞ فِيهَا وَلَا تَأۡثِيمٞ ٢٣
(24) আর তাদের সেবায় চারপাশে ঘুরবে বালকদল; তারা যেন সুরক্ষিত মুক্তা।۞وَيَطُوفُ عَلَيۡهِمۡ غِلۡمَانٞ لَّهُمۡ كَأَنَّهُمۡ لُؤۡلُؤٞ مَّكۡنُونٞ ٢٤
(25) আর তারা একে অপরের মুখোমুখি হয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করবে,وَأَقۡبَلَ بَعۡضُهُمۡ عَلَىٰ بَعۡضٖ يَتَسَآءَلُونَ ٢٥
(26) তারা বলবে, ‘পূর্বে আমরা আমাদের পরিবারের মধ্যে শঙ্কিত ছিলাম।’قَالُوٓاْ إِنَّا كُنَّا قَبۡلُ فِيٓ أَهۡلِنَا مُشۡفِقِينَ ٢٦
(27) অতঃপর আল্লাহ আমাদের প্রতি দয়া করেছেন এবং আগুনের আযাব থেকে আমাদেরকে রক্ষা করেছেন।’فَمَنَّ ٱللَّهُ عَلَيۡنَا وَوَقَىٰنَا عَذَابَ ٱلسَّمُومِ ٢٧
(28) নিশ্চয় পূর্বে আমরা তাঁকে ডাকতাম; নিশ্চয় তিনি ইহসানকারী, পরম দয়ালু।إِنَّا كُنَّا مِن قَبۡلُ نَدۡعُوهُۖ إِنَّهُۥ هُوَ ٱلۡبَرُّ ٱلرَّحِيمُ ٢٨

সুরা তুর ع Ruku রুকু [১][1] >> [২][2]

.

(29) অতএব, তুমি উপদেশ দিতে থাক; কারণ তোমার রবের অনুগ্রহে তুমি গণক নও এবং উন্মাদও নও।فَذَكِّرۡ فَمَآ أَنتَ بِنِعۡمَتِ رَبِّكَ بِكَاهِنٖ وَلَا مَجۡنُونٍ ٢٩
(30) তারা কি বলছে, ‘সে (মুহাম্মাদ) একজন কবি? আমরা তার মৃত্যুর প্রতীক্ষা করছি।’أَمۡ يَقُولُونَ شَاعِرٞ نَّتَرَبَّصُ بِهِۦ رَيۡبَ ٱلۡمَنُونِ ٣٠
(31) বল, ‘তোমরা অপেক্ষায় থাক! আমিও তোমাদের সাথে প্রতীক্ষাকারীদের অন্তর্ভুক্ত রইলাম।’قُلۡ تَرَبَّصُواْ فَإِنِّي مَعَكُم مِّنَ ٱلۡمُتَرَبِّصِينَ ٣١
(32) তাদের বিবেক কি তাদেরকে এ আদেশ দেয়, না তারা সীমালংঘন কারী কওম?أَمۡ تَأۡمُرُهُمۡ أَحۡلَٰمُهُم بِهَٰذَآۚ أَمۡ هُمۡ قَوۡمٞ طَاغُونَ ٣٢
(33) তারা কি বলে, ‘সে এটা বানিয়ে বলছে?’ বরং তারা ঈমান আনে না।  أَمۡ يَقُولُونَ تَقَوَّلَهُۥۚ بَل لَّا يُؤۡمِنُونَ ٣٣
(34) অতএব, তারা যদি সত্যবাদী হয় তবে তার অনুরূপ বাণী নিয়ে আসুক।فَلۡيَأۡتُواْ بِحَدِيثٖ مِّثۡلِهِۦٓ إِن كَانُواْ صَٰدِقِينَ٣٤
(35) তারা কি স্রষ্টা ছাড়া সৃষ্টি হয়েছে, না তারাই স্রষ্টা?أَمۡ خُلِقُواْ مِنۡ غَيۡرِ شَيۡءٍ أَمۡ هُمُ ٱلۡخَٰلِقُونَ ٣٥
(36) তারা কি আসমান ও যমীন সৃষ্টি করেছে? বরং তারা দৃঢ় বিশ্বাস করে না।أَمۡ خَلَقُواْ ٱلسَّمَٰوَٰتِ وَٱلۡأَرۡضَۚ بَل لَّا يُوقِنُونَ ٣٦
(37) তোমার রবের গুপ্তভান্ডার কি তাদের কাছে আছে, না তারা সব কিছু নিয়ন্ত্রণকারী?أَمۡ عِندَهُمۡ خَزَآئِنُ رَبِّكَ أَمۡ هُمُ ٱلۡمُصَۜيۡطِرُونَ ٣٧
(38) নাকি তাদের আছে সিঁড়ি, যাতে চড়ে তারা (ঊর্ধ্বলোকের কথা) শুনতে পায়; তাদের শ্রোতা স্পষ্ট প্রমাণ নিয়ে আসুক না?أَمۡ لَهُمۡ سُلَّمٞ يَسۡتَمِعُونَ فِيهِۖ فَلۡيَأۡتِ مُسۡتَمِعُهُم بِسُلۡطَٰنٖ مُّبِينٍ ٣٨
(39) তবে কি কন্যাসন্তান তাঁর; আর পুত্রসন্তান তোমাদের?    أَمۡ لَهُ ٱلۡبَنَٰتُ وَلَكُمُ ٱلۡبَنُونَ ٣٩
(40) তবে কি তুমি তাদের কাছে প্রতিদান চাও যে, তারা তা ভারী জরিমানা মনে করে?أَمۡ تَسۡ‍َٔلُهُمۡ أَجۡرٗا فَهُم مِّن مَّغۡرَمٖ مُّثۡقَلُونَ ٤٠
(41) নাকি তাদের কাছে আছে গায়েবের জ্ঞান, যা তারা লিখছে?أَمۡ عِندَهُمُ ٱلۡغَيۡبُ فَهُمۡ يَكۡتُبُونَ ٤١
(42) নাকি তারা ষড়যন্ত্র করতে চায়? অতএব যারা কুফরী করে তারাই হবে ষড়যন্ত্রের শিকার। أَمۡ يُرِيدُونَ كَيۡدٗاۖ فَٱلَّذِينَ كَفَرُواْ هُمُ ٱلۡمَكِيدُونَ ٤٢
(43) নাকি তাদের জন্য আল্লাহ ছাড়া অন্য ইলাহ আছে? তারা যে শির্ক করে তা থেকে আল্লাহ পবিত্র।أَمۡ لَهُمۡ إِلَٰهٌ غَيۡرُ ٱللَّهِۚ سُبۡحَٰنَ ٱللَّهِ عَمَّا يُشۡرِكُونَ ٤٣
(44) আর কোন আকাশখন্ড ভেঙ্গে পড়তে দেখলে তারা বলবে, ‘এটি তো এক পুঞ্জীভূত মেঘ’!وَإِن يَرَوۡاْ كِسۡفٗا مِّنَ ٱلسَّمَآءِ سَاقِطٗا يَقُولُواْ سَحَابٞ مَّرۡكُومٞ ٤٤
(45) অতএব, তাদেরকে ছেড়ে দাও সেদিন পর্যন্ত যেদিন তারা ধ্বংস হবে। فَذَرۡهُمۡ حَتَّىٰ يُلَٰقُواْ يَوۡمَهُمُ ٱلَّذِي فِيهِ يُصۡعَقُونَ ٤٥
(46) যেদিন তাদের পক্ষ থেকে কৃত তাদের ষড়যন্ত্র কোন কাজে আসবে না এবং তারা সাহায্যপ্রাপ্তও হবে না।يَوۡمَ لَا يُغۡنِي عَنۡهُمۡ كَيۡدُهُمۡ شَيۡ‍ٔٗا وَلَا هُمۡ يُنصَرُونَ ٤٦
(47) আর নিশ্চয় যারা যুলুম করবে তাদের জন্য থাকবে এছাড়া আরো আযাব; কিন্তু তাদের বেশীরভাগই জানে না।وَإِنَّ لِلَّذِينَ ظَلَمُواْ عَذَابٗا دُونَ ذَٰلِكَ وَلَٰكِنَّ أَكۡثَرَهُمۡ لَا يَعۡلَمُونَ ٤٧
(48) আর তোমাদের রবের সিদ্ধান্তের জন্য ধৈর্যধারণ কর; কারণ তুমি আমার চোখের সামনেই আছ, তুমি যখন জেগে ওঠ তখন তোমার রবের সপ্রশংস তাসবীহ পাঠ কর।وَٱصۡبِرۡ لِحُكۡمِ رَبِّكَ فَإِنَّكَ بِأَعۡيُنِنَاۖ وَسَبِّحۡ بِحَمۡدِ رَبِّكَ حِينَ تَقُومُ ٤٨
(49) আর রাতের কিছু অংশে এবং নক্ষত্রের অস্ত যাবার পর তার তাসবীহ পাঠ কর।وَمِنَ ٱلَّيۡلِ فَسَبِّحۡهُ وَإِدۡبَٰرَ ٱلنُّجُومِ ٤٩

সুরা তুর ع Ruku রুকু [২][2] >> [১][1]

সুরা তুর Sura At Tur in Words [১][1] >> [২][2]

(1)

وَٱلطُّورِ

শপথ তূর (পাহাড়ের)

By the Mount

(2)

وَكِتَٰبٍ

এবং (শপথ) কিতাবের

And by (the) Book

مَّسْطُورٍ

(যা) লিখিত

written

(3)

فِى

মধ্যে

In

رَقٍّ

চামড়ার কাগজের

parchment

مَّنشُورٍ

উন্মুক্ত

unrolled

(4)

وَٱلْبَيْتِ

এবং (শপথ) ঘরের

By the House

ٱلْمَعْمُورِ

চির আবাদ

frequented

(5)

وَٱلسَّقْفِ

এবং (শপথ) ছাদের (অর্থাৎ আকাশের)

By the roof

ٱلْمَرْفُوعِ

সুউচ্চ

raised high

(6)

وَٱلْبَحْرِ

এবং (শপথ) সাগরের

By the sea

ٱلْمَسْجُورِ

উত্তাল

filled

(7)

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

عَذَابَ

শাস্তি

(the) punishment

رَبِّكَ

তোমার রবের

(of) your Lord

لَوَٰقِعٌ

অবশ্যই ঘটবে

(will) surely occur

(8)

مَّا

নেই

Not

لَهُۥ

তার জন্যে

for it

مِن

কোনো

any

دَافِعٍ

প্রতিরোধকারী

preventer

(9)

يَوْمَ

সেদিন

(On the) Day

تَمُورُ

কাঁপবে

will shake

ٱلسَّمَآءُ

আকাশ

the heaven

مَوْرًا

প্রবল কম্পনে

(with violent) shake

(10)

وَتَسِيرُ

এবং চলবে

And will move away

ٱلْجِبَالُ

পাহাড়গুলো

the mountains

سَيْرًا

(দ্রুত) চলার মতো

(with an awful) movement

(11)

فَوَيْلٌ

অতঃপর দুর্ভোগ

Then woe

يَوْمَئِذٍ

সেদিন

that Day

لِّلْمُكَذِّبِينَ

মিথ্যারোপকারীদের জন্যে

to the deniers

(12)

ٱلَّذِينَ

যারা (এমন যে)

Who

هُمْ

তারা

they

فِى

মধ্যে

in

خَوْضٍ

অর্থহীন যুক্তি প্রদানের

(vain) discourse

يَلْعَبُونَ

খেলায় মেতে আছে

are playing

(13)

يَوْمَ

সেদিন

(The) Day

يُدَعُّونَ

তাদেরকে ধাক্কা দেওয়া হবে

they will be thrust

إِلَىٰ

দিকে

(in)to

نَارِ

আগুনের

(the) Fire

جَهَنَّمَ

জাহান্নামের

(of) Hell

دَعًّا

জোর ধাক্কা

(with) a thrust

(14)

هَٰذِهِ

“(বলা হবে) সেই এই

“This

ٱلنَّارُ

আগুন

(is) the Fire

ٱلَّتِى

যা

which

كُنتُم

তোমরা ছিলে

you used (to)

بِهَا

সে বিষয়ে

of it

تُكَذِّبُونَ

মিথ্যা মনে করতে

deny

(15)

أَفَسِحْرٌ

জাদু তবে কি

Then is this magic

هَٰذَآ

এটা

Then is this magic

أَمْ

নাকি

or

أَنتُمْ

তোমরা

you

لَا

না

(do) not

تُبْصِرُونَ

চোখে দেখছ

see?

(16)

ٱصْلَوْهَا

তাতে তোমরা প্রবেশ করো

Burn in it

فَٱصْبِرُوٓا۟

অতঃপর তোমরা সহ্য করতে পার

then be patient

أَوْ

বা

or

لَا

না

(do) not

تَصْبِرُوا۟

তোমরা সহ্য করতে পার

be patient

سَوَآءٌ

(সবই) সমান

(it is) same

عَلَيْكُمْ

তোমাদের জন্যে

for you

إِنَّمَا

প্রকৃতপক্ষে (আজ)

Only

تُجْزَوْنَ

তোমাদেরকে প্রতিফল দেয়া হচ্ছে

you are being recompensed

مَا

যা

(for) what

كُنتُمْ

তোমরা ছিলে

you used (to)

تَعْمَلُونَ

কাজ করছ”

do”

(17)

إِنَّ

নিশ্চয়ই

Indeed

ٱلْمُتَّقِينَ

মুত্তাকীরা (অবস্থিত হবে)

the righteous

فِى

মধ্যে

(will be) in

جَنَّٰتٍ

জান্নাতের

Gardens

وَنَعِيمٍ

ও আরাম আয়েশে

and pleasure

(18)

فَٰكِهِينَ

সানন্দে উপভোগকারী হবে তারা

Enjoying

بِمَآ

ঐ জিনিসের যা

in what

ءَاتَىٰهُمْ

তাদের দান করবেন

has given them

رَبُّهُمْ

তাদের রব

their Lord

وَوَقَىٰهُمْ

এবং তাদের রক্ষা করবেন

and protected them

رَبُّهُمْ

তাদের রব

their Lord

عَذَابَ

শাস্তি (হতে)

(from the) punishment

ٱلْجَحِيمِ

জাহান্নামের

(of) Hellfire

(19)

كُلُوا۟

“(বলা হবে) তোমরা খাও

“Eat

وَٱشْرَبُوا۟

ও তোমরা পান করো

and drink

هَنِيٓـًٔۢا

তৃপ্তির সাথে

(in) satisfaction

بِمَا

তার বদলে যা

for what

كُنتُمْ

তোমরা করছিলে

you used (to)

تَعْمَلُونَ

তোমরা কাজ করছিলে”

do”

(20)

مُتَّكِـِٔينَ

তারা হেলান দিয়ে বসবে

Reclining

عَلَىٰ

উপর

on

سُرُرٍ

আসনসমূহের

thrones

مَّصْفُوفَةٍ

সারিবদ্ধভাবে

lined up

وَزَوَّجْنَٰهُم

এবং তাদেরকে আমরা বিয়ে দিব

and We will marry them

بِحُورٍ

হূরদের সাথে

to fair ones

عِينٍ

(যারা হবে) আয়তলোচনা

with large eyes
(21)

وَٱلَّذِينَ

এবং যারা

And those who

ءَامَنُوا۟

ঈমান এনেছে

believed

وَٱتَّبَعَتْهُمْ

ও তাদেরকে অনুসরণ করেছে

and followed them

ذُرِّيَّتُهُم

তাদের সন্তানরা

their offspring

بِإِيمَٰنٍ

ঈমানসহ

in faith

أَلْحَقْنَا

আমরা মিলিত করব

We will join

بِهِمْ

তাদের সাথে

with them

ذُرِّيَّتَهُمْ

তাদের সন্তানদেরকে

their offspring

وَمَآ

এবং না

and not

أَلَتْنَٰهُم

তাদের আমরা কম করব

We will deprive them

مِّنْ

হতে

of

عَمَلِهِم

তাদের আমল

their deeds

مِّن

কোনো

(in) any

شَىْءٍ

কিছুই

thing

كُلُّ

প্রত্যেক

Every

ٱمْرِئٍۭ

ব্যক্তি

person

بِمَا

ঐ বিষয়ে যা

for what

كَسَبَ

সে অর্জন করেছে

he earned

رَهِينٌ

দায়ী/ বন্ধক (আছে)

(is) pledged

(22)

وَأَمْدَدْنَٰهُم

এবং তাদেরকে আমরা বেশি করে দেব

And We will provide them

بِفَٰكِهَةٍ

ফল মূল

with fruit

وَلَحْمٍ

ও গোশত

and meat

مِّمَّا

তা হতে যা

from what

يَشْتَهُونَ

তারা পছন্দ করবে

they desire

(23)

يَتَنَٰزَعُونَ

তারা পরস্পরে নেবে

They will pass to one another

فِيهَا

তার মধ্যে

therein

كَأْسًا

পানপাত্র

a cup

لَّا

না

no

لَغْوٌ

অসার কথা (হবে)

ill speech

فِيهَا

তার মধ্যে

therein

وَلَا

এবং না

and no

تَأْثِيمٌ

পাপকর্ম

sin

(24)

وَيَطُوفُ

এবং ঘুরতে থাকবে

And will circulate

عَلَيْهِمْ

তাদের কাছে

among them

غِلْمَانٌ

কিশোরেরা (সেবা করতে)

boys

لَّهُمْ

তাদের জন্যে

for them

كَأَنَّهُمْ

(এত সুন্দর হবে) তারা যেন

as if they (were)

لُؤْلُؤٌ

মুক্তা

pearls

مَّكْنُونٌ

লুকিয়ে রাখা

well-protected

(25)

وَأَقْبَلَ

এবং সামনাসামনি হয়ে

And will approach

بَعْضُهُمْ

তাদের একে

some of them

عَلَىٰ

কাছে

to

بَعْضٍ

অপরের

others

يَتَسَآءَلُونَ

পরস্পরের জিজ্ঞাসাবাদ করবে (অতীত সম্পর্কে)

inquiring

(26)

قَالُوٓا۟

তারা বলবে

They will say

إِنَّا

“নিশ্চয়ই আমরা

“Indeed we

كُنَّا

ছিলাম

[we] were

قَبْلُ

পূর্বে

before

فِىٓ

মধ্যে

among

أَهْلِنَا

আমাদের পরিবারের

our families

مُشْفِقِينَ

শঙ্কিত অবস্থায়

fearful

(27)

فَمَنَّ

অবশেষে অনুগ্রহ করেছেন

But Allah conferred favor

ٱللَّهُ

আল্লাহ

But Allah conferred favor

عَلَيْنَا

আমাদের উপর

upon us

وَوَقَىٰنَا

এবং আমাদেরকে রক্ষা করেছেন

and protected us

عَذَابَ

শাস্তি (হতে)

(from the) punishment

ٱلسَّمُومِ

দগ্ধকারী হাওয়ার (যা ঝলসে দেয়)

(of) the Scorching Fire

(28)

إِنَّا

নিশ্চয়ই আমরা

Indeed, we

كُنَّا

ছিলাম

[we] used (to)

مِن

থেকে

before

قَبْلُ

পূর্বেও

before

نَدْعُوهُ

তাঁকে ডাকতাম আমরা

call Him

إِنَّهُۥ

নিশ্চয়ই তিনি

Indeed, He

هُوَ

তিনিই

[He]

ٱلْبَرُّ

বড় অনুগ্রহকারী

(is) the Most Kind

ٱلرَّحِيمُ

পরম দয়ালু”

the Most Merciful”

Sura At Tur in Words [১][1] >> [২][2]

(29)

فَذَكِّرْ

(হে নবী) তাই উপদেশ দাও

Therefore remind

فَمَآ

না আর

for not

أَنتَ

তুমি

you

بِنِعْمَتِ

অনুগ্রহের কারণে

(are) by (the) grace

رَبِّكَ

তোমার রবের

(of) your Lord

بِكَاهِنٍ

কোনো গণক

a soothsayer

وَلَا

আর না

and not

مَجْنُونٍ

পাগল

a madman

(30)

أَمْ

কি

Or

يَقُولُونَ

তারা বলে

(do) they say

شَاعِرٌ

“(সে) একজন কবি

“A poet

نَّتَرَبَّصُ

অপেক্ষা করছি আমরা

we wait

بِهِۦ

এ ব্যাপারে

for him

رَيْبَ

বিপর্যয়ের”

a misfortune of time”

ٱلْمَنُونِ

মৃত্যুর”

a misfortune of time”

(31)

قُلْ

(তুমি) বলো

Say

تَرَبَّصُوا۟

“তোমরা অপেক্ষা করো

“Wait

فَإِنِّى

আর নিশ্চয়ই আমি

for indeed I am

مَعَكُم

তোমাদের সাথে

with you

مِّنَ

অন্তর্ভুক্ত

among

ٱلْمُتَرَبِّصِينَ

অপেক্ষাকারীদের”

those who wait”

(32)

أَمْ

(তবে) কি

Or

تَأْمُرُهُمْ

নির্দেশ দেয় তাদেরকে

command them

أَحْلَٰمُهُم

তাদের বিবেকবুদ্ধি

their minds

بِهَٰذَآ

এটা সম্বন্ধে

this

أَمْ

না কি (প্রকৃতপক্ষে)

or

هُمْ

তারা

they

قَوْمٌ

জাতি

(are) a people

طَاغُونَ

সীমালঙ্ঘনকারী

transgressing?

(33)

أَمْ

কি

Or

يَقُولُونَ

তারা বলে

(do) they say

تَقَوَّلَهُۥ

“তা সে রচনা করেছে”

“He has made it up”

بَل

আসল কথা হল

Nay

لَّا

না

not

يُؤْمِنُونَ

তারা ঈমান আনতে চায়

they believe

(34)

فَلْيَأْتُوا۟

তারা আনুক তাহলে (রচনা করে)

Then let them bring

بِحَدِيثٍ

নিয়ে কোনো বাণী

a statement

مِّثْلِهِۦٓ

তার মতো (মর্যাদাবান)

like it

إِن

যদি

if

كَانُوا۟

তারা হয়

they

صَٰدِقِينَ

সত্যবাদী

(are) truthful

(35)

أَمْ

কি

Or

خُلِقُوا۟

তারা সৃষ্টি হয়েছে

were they created

مِنْ

কোনো

of

غَيْرِ

ব্যতীতই

nothing

شَىْءٍ

কিছু (কোনো স্রষ্টা)

nothing

أَمْ

অথবা

or

هُمُ

তারা (নিজেরাই)

(are) they

ٱلْخَٰلِقُونَ

(নিজেদের) সৃষ্টিকারী

the creators?

(36)

أَمْ

অথবা

Or

خَلَقُوا۟

তারা সৃষ্টি করেছে

(did) they create

ٱلسَّمَٰوَٰتِ

আকাশ

the heavens

وَٱلْأَرْضَ

ও পৃথিবী

and the earth?

بَل

বরং

Nay

لَّا

না

not

يُوقِنُونَ

(কোনো কথায়) তারা বিশ্বাস করে

they are certain

(37)

أَمْ

তবে কি

Or

عِندَهُمْ

তাদের আছে

with them

خَزَآئِنُ

ধনভাণ্ডারসমূহ

(are the) treasures

رَبِّكَ

তোমার রবের

(of) your Lord

أَمْ

নাকি

or

هُمُ

তারা

(are) they

ٱلْمُصَۣيْطِرُونَ

(তার উপর) নিয়ন্তা

the controllers?

(38)

أَمْ

তবে কি

Or

لَهُمْ

তাদের আছে

for them

سُلَّمٌ

কোনো সিঁড়ি

(is) a stairway

يَسْتَمِعُونَ

(তা চড়ে গোপন খবর) তারা শুনে নেয়

they listen

فِيهِ

সেখানকার

therewith?

فَلْيَأْتِ

আসুক তাহলে

Then let bring

مُسْتَمِعُهُم

তাদের কোনো শ্রোতা

their listener

بِسُلْطَٰنٍ

নিয়ে প্রমাণসহ

an authority

مُّبِينٍ

সুস্পষ্ট

clear

(39)

أَمْ

না কি

Or

لَهُ

তাঁর জন্যে (নির্ধারণ করে)

for Him

ٱلْبَنَٰتُ

কন্যাসমূহ

(are) daughters

وَلَكُمُ

ও তোমাদের জন্যে (চাও)

while for you

ٱلْبَنُونَ

পুত্রসমূহ

(are) sons?

(40)

أَمْ

তবে কি

Or

تَسْـَٔلُهُمْ

তাদের কাছে চাচ্ছ তুমি

(do) you ask from them

أَجْرًا

কোনো পারিশ্রমিক

a payment

فَهُم

তারা তাই

so they

مِّن

কারণে

from

مَّغْرَمٍ

জরিমানার

a debt

مُّثْقَلُونَ

ভারগ্রস্ত হয়ে আছে

(are) overburdened

(41)

أَمْ

নাকি

Or

عِندَهُمُ

আছে তাদের কাছে

with them

ٱلْغَيْبُ

অদৃশ্যের জ্ঞান

(is) the unseen

فَهُمْ

তারা ফলে

so they

يَكْتُبُونَ

লিখে দিতে পারে

write (it) down?

(42)

أَمْ

তবে কি

Or

يُرِيدُونَ

তারা চাচ্ছে

(do) they intend

كَيْدًا

কোনো ষড়যন্ত্র (করতে)

a plot?

فَٱلَّذِينَ

যারা তাহলে

But those who

كَفَرُوا۟

অস্বীকার করেছে

disbelieve

هُمُ

তারাই

themselves

ٱلْمَكِيدُونَ

ষড়যন্ত্রের শিকার হবে

(are in) the plot

(43)

أَمْ

নাকি

Or

لَهُمْ

তাদের আছে

for them

إِلَٰهٌ

কোনো উপাস্য

a god

غَيْرُ

ব্যতীত

other than

ٱللَّهِ

আল্লাহ

Allah?

سُبْحَٰنَ

মহান পবিত্র

Glory be

ٱللَّهِ

আল্লাহ

(to) Allah

عَمَّا

তা হতে যার

from what

يُشْرِكُونَ

তারা শরিক করছে

they associate (with Him)

(44)

وَإِن

এবং যদি

And if

يَرَوْا۟

তারা দেখে

they were to see

كِسْفًا

এক অংশ

a portion

مِّنَ

হতে

from

ٱلسَّمَآءِ

আকাশ

the sky

سَاقِطًا

ভেঙে পড়তে

falling

يَقُولُوا۟

(তবুও) তারা বলবে

they will say

سَحَابٌ

“(সেটা) মেঘ

“Clouds

مَّرْكُومٌ

পুঞ্জীভূত”

heaped up”

(45)

فَذَرْهُمْ

(হে নবী) অতএব তাদেরকে ছেড়ে দাও

So leave them

حَتَّىٰ

যতক্ষণ না

until

يُلَٰقُوا۟

তারা সাক্ষাৎ করবে

they meet

يَوْمَهُمُ

তাদের সেই দিনের

their Day

ٱلَّذِى

যা (এমন যে)

which

فِيهِ

তার মধ্যে

in it

يُصْعَقُونَ

তাদেরকে শাস্তির মধ্যে নিক্ষেপ করা হবে

they will faint

(46)

يَوْمَ

সেদিন

(The) Day

لَا

না

not

يُغْنِى

কাজে আসবে

will avail

عَنْهُمْ

তাদের জন্যে

to them

كَيْدُهُمْ

তাদের ষড়যন্ত্র

their plotting

شَيْـًٔا

কিছুমাত্রও

(in) anything

وَلَا

এবং না

and not

هُمْ

তাদের

they

يُنصَرُونَ

সাহায্য করা হবে

will be helped

(47)

وَإِنَّ

এবং নিশ্চয়ই

And indeed

لِلَّذِينَ

(তাদের) জন্যে যারা

for those who

ظَلَمُوا۟

সীমালঙ্ঘন করেছে

do wrong

عَذَابًا

শাস্তি (রয়েছে)

(is) a punishment

دُونَ

ছাড়াও

before

ذَٰلِكَ

এটা

that

وَلَٰكِنَّ

কিন্তু

but

أَكْثَرَهُمْ

তাদের অধিকাংশই

most of them

لَا

না

(do) not

يَعْلَمُونَ

তারা জানে

know

(48)

وَٱصْبِرْ

এবং (হে নবী) ধৈর্য ধর

So be patient

لِحُكْمِ

সিদ্ধান্তের জন্যে

for (the) Command

رَبِّكَ

তোমার রবের

(of) your Lord

فَإِنَّكَ

অতঃপর তুমি নিশ্চয়ই

for indeed you

بِأَعْيُنِنَا

আমাদের চোখে (আছ)

(are) in Our Eyes

وَسَبِّحْ

এবং পবিত্রতা ঘোষণা করো

And glorify

بِحَمْدِ

প্রশংসার সাথে

(the) praise

رَبِّكَ

তোমার রবের

(of) your Lord

حِينَ

যখন

when

تَقُومُ

তুমি উঠবে

you arise

(49)

وَمِنَ

এবং কিছু অংশে

And of

ٱلَّيْلِ

রাতের

the night

فَسَبِّحْهُ

অতঃপর তার পবিত্র মহিমা ঘোষণা করো

glorify Him

وَإِدْبَٰرَ

এবং অস্তগমনেও

and after

ٱلنُّجُومِ

তারাদের

the stars

Sura At Tur in Words [২][2] >> [১][1]

[1] আবাদ গৃহ বলতে সপ্তাকাশের বায়তুল মা‘মূরকে বুঝানো হয়েছে। অগণিত ফেরেশতা নিরবচ্ছিন্ন ইবাদাতে যা আবাদ রেখেছে।

[2] অন্য তাফসীর মতে- আগুনের সাগর যা দুনিয়াতে হতে পারে, অথবা কিয়ামতে।

[3] অন্য তাফসীর মতে- ‘‘তোমরা এর উত্তাপ ভোগ কর’’।

৫১সুরা যারিয়া’ত << সুরা তুর >> ৫৩সুরা নাজম

By Quran Sharif

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply