সুরা জ্বীন বাংলা অনুবাদ Sura Al Jinn in Words & Audio

সুরা জ্বীন বাংলা অনুবাদ Sura Al Jinn in Words & Audio

সুরা জ্বীন >> ১১৪ টি সূরার সূচীপত্র লিস্ট >> ২০ টির অধিক তাফসীর কিতাব পড়ুন

৭২ – সুরা জ্বীন – আয়াত : ২৮, মাক্কী, রুকু ২

সুরা জ্বীন Sura Al Jinn mp3 Download

পরম করুণাময় অতি দয়ালু আল্লাহর নামেبِسۡمِ ٱللَّهِ ٱلرَّحۡمَٰنِ ٱلرَّحِيمِ
(1) বল, ‘আমার প্রতি ওহী করা হয়েছে যে, নিশ্চয় জিনদের একটি দল মনোযোগ সহকারে শুনেছে। অতঃপর বলেছে, ‘আমরা তো এক বিস্ময়কর কুরআন শুনেছি,قُلۡ أُوحِيَ إِلَيَّ أَنَّهُ ٱسۡتَمَعَ نَفَرٞ مِّنَ ٱلۡجِنِّ فَقَالُوٓاْ إِنَّا سَمِعۡنَا قُرۡءَانًا عَجَبٗا ١
(2) যা সত্যের দিকে হিদায়াত করে; অতঃপর আমরা তাতে ঈমান এনেছি। আর আমরা কখনো আমাদের রবের সাথে কাউকে শরীক করব না’।يَهۡدِيٓ إِلَى ٱلرُّشۡدِ فَ‍َٔامَنَّا بِهِۦۖ وَلَن نُّشۡرِكَ بِرَبِّنَآ أَحَدٗا ٢
‘(3) আর নিশ্চয় আমাদের রবের মর্যাদা সমুচ্চ। তিনি কোন সংগিনী গ্রহণ করেননি এবং না কোন  সন্তান’।وَأَنَّهُۥ تَعَٰلَىٰ جَدُّ رَبِّنَا مَا ٱتَّخَذَ صَٰحِبَةٗ وَلَا وَلَدٗا ٣
(4) আর আমাদের মধ্যকার নির্বোধেরা আল্লাহর ব্যাপারে অবাস্তব কথা- বার্তা বলত’।وَأَنَّهُۥ كَانَ يَقُولُ سَفِيهُنَا عَلَى ٱللَّهِ شَطَطٗا ٤
(5) অথচ আমরা তো ধারণা করতাম যে, মানুষ ও জিন কখনো আল্লাহ সম্পর্কে মিথ্যা আরোপ করবে না’।وَأَنَّا ظَنَنَّآ أَن لَّن تَقُولَ ٱلۡإِنسُ وَٱلۡجِنُّ عَلَى ٱللَّهِ كَذِبٗا ٥
(6) আর নিশ্চয় কতিপয় মানুষ কতিপয় জিনের আশ্রয় নিত, ফলে তারা তাদের অহংকার বাড়িয়ে দিয়েছিল।وَأَنَّهُۥ كَانَ رِجَالٞ مِّنَ ٱلۡإِنسِ يَعُوذُونَ بِرِجَالٖ مِّنَ ٱلۡجِنِّ فَزَادُوهُمۡ رَهَقٗا ٦
(7) আর নিশ্চয় তারা ধারণা করেছিল যেমন তোমরা ধারণা করেছ যে, আল্লাহ কাউকে কখনই পুনরুত্থিত করবেন না।وَأَنَّهُمۡ ظَنُّواْ كَمَا ظَنَنتُمۡ أَن لَّن يَبۡعَثَ ٱللَّهُ أَحَدٗا ٧
(8) আর নিশ্চয় আমরা আকাশ স্পর্শ করতে চেয়েছিলাম[1], কিন্তু আমরা সেটাকে পেলাম যে, তা কঠোর প্রহরী এবং উল্কাপিন্ড দ্বারা পরিপূর্ণ’।وَأَنَّا لَمَسۡنَا ٱلسَّمَآءَ فَوَجَدۡنَٰهَا مُلِئَتۡ حَرَسٗا شَدِيدٗا وَشُهُبٗا ٨
(9) আর আমরা তো সংবাদ শোনার জন্য আকাশের বিভিন্ন ঘাটিতে বসতাম, কিন্তু এখন যে শুনতে চাইবে, সে তার জন্য প্রস্তুত জ্বলন্ত উল্কাপিন্ড পাবে’।وَأَنَّا كُنَّا نَقۡعُدُ مِنۡهَا مَقَٰعِدَ لِلسَّمۡعِۖ فَمَن يَسۡتَمِعِ ٱلۡأٓنَ يَجِدۡ لَهُۥ شِهَابٗا رَّصَدٗا ٩
(10) আর নিশ্চয় আমরা জানি না, যমীনে যারা রয়েছে তাদের জন্য অকল্যাণ চাওয়া হয়েছে, নাকি তাদের রব তাদের ব্যাপারে মঙ্গল চেয়েছেন’।وَأَنَّا لَا نَدۡرِيٓ أَشَرٌّ أُرِيدَ بِمَن فِي ٱلۡأَرۡضِ أَمۡ أَرَادَ بِهِمۡ رَبُّهُمۡ رَشَدٗا ١٠
(11) ‘আর নিশ্চয় আমাদের কতিপয় সৎকর্মশীল এবং কতিপয় এর ব্যতিক্রম। আমরা ছিলাম বিভিন্ন মত ও পথে বিভক্ত’।وَأَنَّا مِنَّا ٱلصَّٰلِحُونَ وَمِنَّا دُونَ ذَٰلِكَۖ كُنَّا طَرَآئِقَ قِدَدٗا ١١
(12) ‘আর আমরা তো বুঝতে পেরেছি যে, আমরা কিছুতেই যমীনের মধ্যে আল্লাহকে অপারগ করতে পারব না এবং পালিয়েও কখনো তাকে অপারগ করতে পারব না’।وَأَنَّا ظَنَنَّآ أَن لَّن نُّعۡجِزَ ٱللَّهَ فِي ٱلۡأَرۡضِ وَلَن نُّعۡجِزَهُۥ هَرَبٗا ١٢
()13( ‘আর নিশ্চয় আমরা যখন হিদায়াতের বাণী শুনলাম, তখন তার প্রতি ঈমান আনলাম। আর যে তার রবের প্রতি ঈমান আনে, সে না কোন ক্ষতির আশংকা করবে এবং না কোন অন্যায়ের’।وَأَنَّا لَمَّا سَمِعۡنَا ٱلۡهُدَىٰٓ ءَامَنَّا بِهِۦۖ فَمَن يُؤۡمِنۢ بِرَبِّهِۦ فَلَا يَخَافُ بَخۡسٗا وَلَا رَهَقٗا ١٣
(14) ‘আর নিশ্চয় আমাদের মধ্যে কিছু সংখ্যক আছে আত্মসমর্পণকারী এবং আমাদের মধ্যে কিছু সংখ্যক সীমালংঘনকারী। কাজেই যারা আত্মসমর্পণ করেছে, তারাই সঠিক পথ বেছে নিয়েছে’।وَأَنَّا مِنَّا ٱلۡمُسۡلِمُونَ وَمِنَّا ٱلۡقَٰسِطُونَۖ فَمَنۡ أَسۡلَمَ فَأُوْلَٰٓئِكَ تَحَرَّوۡاْ رَشَدٗا ١٤
(15) ‘আর যারা সীমালঙ্ঘনকারী, তারা তো জাহান্নামের ইন্ধন’।وَأَمَّا ٱلۡقَٰسِطُونَ فَكَانُواْ لِجَهَنَّمَ حَطَبٗا ١٥
(16) আর তারা যদি সঠিক পথে অবিচল থাকত, তাহলে আমি অবশ্যই তাদেরকে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করাতাম।وَأَلَّوِ ٱسۡتَقَٰمُواْ عَلَى ٱلطَّرِيقَةِ لَأَسۡقَيۡنَٰهُم مَّآءً غَدَقٗا ١٦
(17) যাতে আমি তা দিয়ে তাদেরকে পরীক্ষা করতে পারি। আর যে তার রবের স্মরণ থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়, তাকে তিনি কঠিন আযাবে প্রবেশ করাবেন।لِّنَفۡتِنَهُمۡ فِيهِۚ وَمَن يُعۡرِضۡ عَن ذِكۡرِ رَبِّهِۦ يَسۡلُكۡهُ عَذَابٗا صَعَدٗا ١٧
(18) আর নিশ্চয় মসজিদগুলো আল্লাহরই জন্য। কাজেই তোমরা আল্লাহর সাথে অন্য কাউকে ডেকো না।وَأَنَّ ٱلۡمَسَٰجِدَ لِلَّهِ فَلَا تَدۡعُواْ مَعَ ٱللَّهِ أَحَدٗا ١٨
(19) আর নিশ্চয় আল্লাহর বান্দা[2] যখন তাঁকে ডাকার জন্য দাঁড়াল, তখন তারা[3] তার নিকট ভিড় জমাল।وَأَنَّهُۥ لَمَّا قَامَ عَبۡدُ ٱللَّهِ يَدۡعُوهُ كَادُواْ يَكُونُونَ عَلَيۡهِ لِبَدٗا ١٩
সুরা জ্বীনع রুকু
(20) বল, ‘নিশ্চয় আমি আমার রবকে ডাকি এবং তার সাথে কাউকে শরীক করি না’।قُلۡ إِنَّمَآ أَدۡعُواْ رَبِّي وَلَآ أُشۡرِكُ بِهِۦٓ أَحَدٗا ٢٠
(21) বল, ‘নিশ্চয় আমি তোমাদের জন্য না কোন অকল্যাণ করার ক্ষমতা রাখি এবং না কোন কল্যাণ করার’।قُلۡ إِنِّي لَآ أَمۡلِكُ لَكُمۡ ضَرّٗا وَلَا رَشَدٗا ٢١
(22) বল, ‘নিশ্চয় আল্লাহর কাছ থেকে কেউ আমাকে রক্ষা করতে পারবে না এবং তিনি ছাড়া কখনো আমি কোন আশ্রয়ও পাব না।قُلۡ إِنِّي لَن يُجِيرَنِي مِنَ ٱللَّهِ أَحَدٞ وَلَنۡ أَجِدَ مِن دُونِهِۦ مُلۡتَحَدًا ٢٢
(23) কেবল আল্লাহর বাণী ও তাঁর রিসালাত পৌঁছানোই দায়িত্ব। আর যে আল্লাহ ও তাঁর রাসূলকে অমান্য করে, তার জন্য রয়েছে জাহান্নামের আগুন। তাতে তারা চিরস্থায়ী হবে।إِلَّا بَلَٰغٗا مِّنَ ٱللَّهِ وَرِسَٰلَٰتِهِۦۚ وَمَن يَعۡصِ ٱللَّهَ وَرَسُولَهُۥ فَإِنَّ لَهُۥ نَارَ جَهَنَّمَ خَٰلِدِينَ فِيهَآ أَبَدًا ٢٣
(24) অবশেষে যখন তারা তা প্রত্যক্ষ করবে, যে সম্পর্কে তাদেরকে সাবধান করা হয়েছিল। তখন তারা জানতে পারবে যে, সাহায্যকারী হিসেবে কে অধিকতর দুর্বল এবং সংখ্যায় কারা সবচেয়ে কম।حَتَّىٰٓ إِذَا رَأَوۡاْ مَا يُوعَدُونَ فَسَيَعۡلَمُونَ مَنۡ أَضۡعَفُ نَاصِرٗا وَأَقَلُّ عَدَدٗا ٢٤
(25) বল, ‘আমি জানি না তোমাদেরকে যার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে, তা কি নিকটবর্তী নাকি এর জন্য আমার রব কোন দীর্ঘ মেয়াদ নির্ধারণ করবেন’।قُلۡ إِنۡ أَدۡرِيٓ أَقَرِيبٞ مَّا تُوعَدُونَ أَمۡ يَجۡعَلُ لَهُۥ رَبِّيٓ أَمَدًا ٢٥
(26) তিনি অদৃশ্যের জ্ঞানী, আর তিনি তাঁর অদৃশ্যের জ্ঞান কারো কাছে প্রকাশ করেন না।عَٰلِمُ ٱلۡغَيۡبِ فَلَا يُظۡهِرُ عَلَىٰ غَيۡبِهِۦٓ أَحَدًا ٢٦
(27) তবে তাঁর মনোনীত রাসূল ছাড়া। আর তিনি তখন তার সামনে ও তার পিছনে প্রহরী নিযুক্ত করবেন।إِلَّا مَنِ ٱرۡتَضَىٰ مِن رَّسُولٖ فَإِنَّهُۥ يَسۡلُكُ مِنۢ بَيۡنِ يَدَيۡهِ وَمِنۡ خَلۡفِهِۦ رَصَدٗا ٢٧
(28) যাতে তিনি এটা জানতে পারেন যে, তারা[4] তাদের রবের রিসালাত পৌঁছিয়েছে কিনা। আর তাদের কাছে যা রয়েছে, তা তিনি পরিবেষ্টন করে রেখেছেন এবং তিনি প্রতিটি বস্তু গুণে গুণে হিসাব করে রেখেছেন।لِّيَعۡلَمَ أَن قَدۡ أَبۡلَغُواْ رِسَٰلَٰتِ رَبِّهِمۡ وَأَحَاطَ بِمَا لَدَيۡهِمۡ وَأَحۡصَىٰ كُلَّ شَيۡءٍ عَدَدَۢا ٢٨
সুরা জ্বীনع রুকু

[1]  আকাশের সংবাদ সংগ্রহ করার চেষ্টা করেছিলাম। [2] রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। [3] কাফিরগণ। [4]  রাসূলগণ।

Sura Al Jinn in Words

(1)

قُلْ

বল (হে নবী)

Say

أُوحِىَ

“ওহী করা হয়েছে

“It has been revealed

إِلَىَّ

আমার প্রতি

to me

أَنَّهُ

যে

that

ٱسْتَمَعَ

মনযোগসহ শুনেছে

listened

نَفَرٌ

একটি দল

a group

مِّنَ

মধ্যে

of

ٱلْجِنِّ

জ্বীনদের

the jinn

فَقَالُوٓا۟

তারা বলেছে অতঃপর

and they said

إِنَّا

“আমরা নিশ্চয়ই

“Indeed we

سَمِعْنَا

আমরা শুনেছি

heard

قُرْءَانًا

কুরআন

a Quran

عَجَبًا

বিস্ময়কর

amazing

(2)

يَهْدِىٓ

পথ দেখায়

It guides

إِلَى

দিকে

to

ٱلرُّشْدِ

সত্যের

the right way

فَـَٔامَنَّا

আমরা ঈমান অতঃপর এনেছি

so we believe

بِهِۦ

তার উপর

in it

وَلَن

এবং কক্ষণ না

and never

نُّشْرِكَ

শরীক আমরা করবো

we will associate

بِرَبِّنَآ

আমাদের রবের সাথে

with our Lord

أَحَدًا

কাউকে

anyone

(3)

وَأَنَّهُۥ

এবং যে

And that He –

تَعَٰلَىٰ

অতি উচ্চ

Exalted is

جَدُّ

মর্যাদা

(the) Majesty

رَبِّنَا

আমাদের রবের

(of) our Lord –

مَا

নাই

not

ٱتَّخَذَ

তিনি গ্রহণ করেন

He has taken

صَٰحِبَةً

স্ত্রী

a wife

وَلَا

আর না

and not

وَلَدًا

পুত্র

a son

(4)

وَأَنَّهُۥ

এবং যে

And that he

كَانَ

ছিল

used

يَقُولُ

বলত

(to) speak –

سَفِيهُنَا

আমাদের নির্বোধরা

the foolish among us

عَلَى

উপর

against

ٱللَّهِ

আল্লাহর

Allah

شَطَطًا

সীমাহীন মিথ্যা

an excessive transgression

(5)

وَأَنَّا

এবং আমরা যে

And that we

ظَنَنَّآ

ভেবেছিলাম

thought

أَن

যে

that

لَّن

কখনও না

never

تَقُولَ

বলবে

will say

ٱلْإِنسُ

মানুষ

the men

وَٱلْجِنُّ

ও জীন্ন

and the jinn

عَلَى

সম্পর্কে

against

ٱللَّهِ

আল্লাহ

Allah

كَذِبًا

মিথ্যা

any lie

(6)

وَأَنَّهُۥ

এবং যে

And that

كَانَ

ছিল

(there) were

رِجَالٌ

কিছু লোক

men

مِّنَ

মধ্যে

among

ٱلْإِنسِ

মানুষের

mankind

يَعُوذُونَ

আশ্রয় চাইত

who sought refuge

بِرِجَالٍ

কিছু লোকের

in (the) men

مِّنَ

মধ্যের

from

ٱلْجِنِّ

জিন্নদের

the jinn

فَزَادُوهُمْ

তাদের বাড়িয়েছিল এভাবে

so they increased them

رَهَقًا

অহংকার

(in) burden

(7)

وَأَنَّهُمْ

এবং তারা যে

And that they

ظَنُّوا۟

ভেবেছিল

thought

كَمَا

যেমন

as

ظَنَنتُمْ

তোমরা ভেবেছ

you thought

أَن

যে

that

لَّن

কখনও না

never

يَبْعَثَ

পাঠাবেন

will raise

ٱللَّهُ

আল্লাহ

Allah

أَحَدًا

কাউকে (রাসূলরূপে)

anyone

(8)

وَأَنَّا

এবং আমরা যে

And that we

لَمَسْنَا

আমরা তালাশ করেছি

sought to touch

ٱلسَّمَآءَ

আসমানে

the heaven

فَوَجَدْنَٰهَا

তা আমরা পেয়েছি ফলে

but we found it

مُلِئَتْ

পরিপূর্ণ

filled (with)

حَرَسًا

পাহারাদারে

guards

شَدِيدًا

কঠোর

severe

وَشُهُبًا

ও অগ্নিশিখা সমূহে

and flaming fires

(9)

وَأَنَّا

এবং যে

And that we

كُنَّا

(আমরা)

used (to)

نَقْعُدُ

আমরা বসতাম

sit

مِنْهَا

সেখানে

there in

مَقَٰعِدَ

আসনগুলোতে

positions

لِلسَّمْعِ

শুনার জন্য

for hearing

فَمَن

যে কিন্তু

but (he) who

يَسْتَمِعِ

শুনবে

listens

ٱلْءَانَ

এখন

now

يَجِدْ

সে পাবে

will find

لَهُۥ

তার জন্য

for him

شِهَابًا

অগ্নিশিখা

a flaming fire

رَّصَدًا

পেতে রাখা

waiting

(10)

وَأَنَّا

এবং আমরা যে

And that we –

لَا

না

not

نَدْرِىٓ

জানি আমরা

we know

أَشَرٌّ

অকল্যাণ

whether evil

أُرِيدَ

অভিপ্রেত

is intended

بِمَن

যারা সাথে

for (those) who

فِى

উপর

(are) in

ٱلْأَرْضِ

যমীনের

the earth

أَمْ

কিম্বা

or

أَرَادَ

চান

intends

بِهِمْ

তাদের সাথে

for them

رَبُّهُمْ

তাদের রব

their Lord

رَشَدًا

কল্যাণ

a right path

(11)

وَأَنَّا

এবং যে

And that

مِنَّا

আমাদের মধ্যে (আছে)

among us

ٱلصَّٰلِحُونَ

সৎলোক (কিছু)

(are) the righteous

وَمِنَّا

আবার আমাদের

and among us

دُونَ

ছাড়াও (আছে)

(are) other than

ذَٰلِكَ

that

كُنَّا

আমরা ছিলাম

We

طَرَآئِقَ

বিভিন্ন পথে

(are on) ways

قِدَدًا

বিভক্ত

different

(12)

وَأَنَّا

এবং আমরা যে

And that we

ظَنَنَّآ

আমরা ভেবেছিলাম

[we] have become certain

أَن

যে

that

لَّن

কখনও না

never

نُّعْجِزَ

আক্ষম আমরা কএওতে পারবো

we will cause failure

ٱللَّهَ

আল্লাহকে

(to) Allah

فِى

মধ্যে

in

ٱلْأَرْضِ

পৃথিবীর

the earth

وَلَن

এবং কখন না

and never

نُّعْجِزَهُۥ

আমরা পরাভূত করতে পারবো তাঁকে

we can escape Him

هَرَبًا

পলায়ন করে

(by) flight

(13)

وَأَنَّا

এবং আমরা যে

And that

لَمَّا

যখন

when

سَمِعْنَا

আমরা শুনেছি

we heard

ٱلْهُدَىٰٓ

হেদায়াত

the Guidance

ءَامَنَّا

আমরা ঈমান এনেছি

we believed

بِهِۦ

তার উপর

in it

فَمَن

যে অতএব

And whoever

يُؤْمِنۢ

ঈমান আনবে

believes

بِرَبِّهِۦ

তার রবের উপর

in his Lord

فَلَا

না অতএব

then not

يَخَافُ

সে ভয় করবে

he will fear

بَخْسًا

অবিচারের

any loss

وَلَا

এবং না

and not

رَهَقًا

জুলুমের

any burden

(14)

وَأَنَّا

এবং যে

And that we

مِنَّا

আমাদের মধ্যে

among us

ٱلْمُسْلِمُونَ

মুসলিম(আছে)

(are) Muslims

وَمِنَّا

আবার আমাদের মধ্যে

and among us

ٱلْقَٰسِطُونَ

সত্যবিমুখও (আছে)

(are) unjust

فَمَنْ

যে অতএব

And whoever

أَسْلَمَ

ইসলাম গ্রহণও করেছে

submits

فَأُو۟لَٰٓئِكَ

ঐসব লোক তবে

then those

تَحَرَّوْا۟

বেছে নিয়েছে

have sought

رَشَدًا

সত্য পথ

(the) right path

(15)

وَأَمَّا

অপরপক্ষে

And as for

ٱلْقَٰسِطُونَ

সত্য বিমুখরা

the unjust

فَكَانُوا۟

তারা অতঃপর হলো

they will be

لِجَهَنَّمَ

জাহান্নামের জন্য

for Hell

حَطَبًا

ইন্ধন”

firewood”

(16)

وَأَلَّوِ

এবং যদি

And if

ٱسْتَقَٰمُوا۟

তারা দৃঢ় থাকতো

they had remained

عَلَى

উপর

on

ٱلطَّرِيقَةِ

সত্য পথের

the Way

لَأَسْقَيْنَٰهُم

তাদের আমরা পান অবশ্যই করাতাম

surely We (would) have given them to drink

مَّآءً

পানি

water

غَدَقًا

প্রচুর

(in) abundance

(17)

لِّنَفْتِنَهُمْ

তাদের পরীক্ষা আমরা যেন করি

That We might test them

فِيهِ

তার মধ্যে

therein

وَمَن

এবং যে

And whoever

يُعْرِضْ

মুখ ফেরাবে

turns away

عَن

থেকে

from

ذِكْرِ

স্মরণ

the Remembrance

رَبِّهِۦ

তার রবের উপর

(of) his Lord

يَسْلُكْهُ

তাকে প্রবেশ করাবে

He will make him enter

عَذَابًا

আযাবে

a punishment

صَعَدًا

দুঃসহ

severe

(18)

وَأَنَّ

এবং যে

And that

ٱلْمَسَٰجِدَ

মসজিদ সমূহ

the masajid

لِلَّهِ

আল্লাহর জন্যে

(are) for Allah

فَلَا

না অতএব

so (do) not

تَدْعُوا۟

তোমরা ডেকো

call

مَعَ

সাথে

with

ٱللَّهِ

আল্লাহর

Allah

أَحَدًا

কাউকে

anyone

(19)

وَأَنَّهُۥ

এবং যে

And that

لَمَّا

যখন

when

قَامَ

দাঁড়াল

stood up

عَبْدُ

বান্দা

(the) slave

ٱللَّهِ

আল্লাহর

(of) Allah

يَدْعُوهُ

তাঁকে ডাকতে

calling (upon) Him

كَادُوا۟

করল (যেন)

they almost

يَكُونُونَ

তারা উপক্রম

became

عَلَيْهِ

তার উপর

around him

لِبَدًا

ঘিরে ধরার

a compacted mass

Sura Al Jinn Ruku 1

(20)

قُلْ

বল

Say

إِنَّمَآ

“মুলত

“Only

أَدْعُوا۟

আমি ডাকি

I call upon

رَبِّى

আমার রবকে

my Lord

وَلَآ

এবং না

and not

أُشْرِكُ

শরীক করি

I associate

بِهِۦٓ

তার সাথে

with Him

أَحَدًا

কাউকে”

anyone”

(21)

قُلْ

বল

Say

إِنِّى

“আমি নিশ্চয়

“Indeed I

لَآ

না

(do) not

أَمْلِكُ

ক্ষমতা রাখি আমি

possess

لَكُمْ

তোমাদের জন্যে

for you

ضَرًّا

ক্ষতির

any harm

وَلَا

এবং না

and not

رَشَدًا

কল্যাণের”

right path”

(22)

قُلْ

বল

Say

إِنِّى

“আমি নিশ্চয়

“Indeed I

لَن

কখন না

never

يُجِيرَنِى

আশ্রয় দিতে পারে আমাকে

can protect me

مِنَ

থেকে

from

ٱللَّهِ

আল্লাহ

Allah

أَحَدٌ

কেউ

anyone

وَلَنْ

এবং কখন না

and never

أَجِدَ

পাব আমি

can I find

مِن

তাঁকে

from

دُونِهِۦ

ছাড়া

besides Him

مُلْتَحَدًا

আশ্রয়স্থল

any refuge

(23)

إِلَّا

এছাড়া নয় (আমার কাজ)

But

بَلَٰغًا

পৌঁছান

(the) notification

مِّنَ

হতে

from

ٱللَّهِ

আল্লাহ

Allah

وَرِسَٰلَٰتِهِۦ

ও তাঁর পয়গাম সমূহ”

and His Messages”

وَمَن

এবং যে

And whoever

يَعْصِ

অমান্য করবে

disobeys

ٱللَّهَ

আল্লাহর

Allah

وَرَسُولَهُۥ

ও তাঁর রাসূলের

and His Messenger

فَإِنَّ

নিশ্চয় অতঃপর

then indeed

لَهُۥ

তার জন্যে

for him

نَارَ

আগুন

(is the) Fire

جَهَنَّمَ

জাহান্নামের জন্য

(of) Hell

خَٰلِدِينَ

তারা স্থায়ী হবে

(they will) abide

فِيهَآ

তার মধ্যে

therein

أَبَدًا

চিরকাল

forever

(24)

حَتَّىٰٓ

যতক্ষণ না

Until

إِذَا

যখন

when

رَأَوْا۟

তারা দেখবে

they see

مَا

যা

what

يُوعَدُونَ

তাদের ওয়াদা হয়েছে করা

they are promised

فَسَيَعْلَمُونَ

তারা জানতে শীঘ্রই অতঃপর পারবে

then they will know

مَنْ

কেউ

who

أَضْعَفُ

অধিক দুর্বল

(is) weaker

نَاصِرًا

সাহায্যকারী

(in) helpers

وَأَقَلُّ

এবং অতি কম

and fewer

عَدَدًا

সংখ্যায়

(in) number

(25)

قُلْ

বল

Say

إِنْ

“না

“Not

أَدْرِىٓ

জানি আমি

I know

أَقَرِيبٌ

নিকটবর্তী কী

whether is near

مَّا

যা

what

تُوعَدُونَ

তোমাদের ওয়াদা হচ্ছে করা

you are promised

أَمْ

অথবা

or (whether)

يَجْعَلُ

করেছেন

will appoint

لَهُۥ

তার জন্যে

for it

رَبِّىٓ

আমার রব

my Lord

أَمَدًا

দীর্ঘ মেয়াদ

a (distant) term

(26)

عَٰلِمُ

আবহিত তিনি

(The) All-Knower

ٱلْغَيْبِ

গায়েব

(of) the unseen

فَلَا

না অতএব

so not

يُظْهِرُ

তিনি প্রকাশ করেন

He reveals

عَلَىٰ

সম্পর্কে

from

غَيْبِهِۦٓ

তাঁর গায়েব

His unseen

أَحَدًا

কাউকে

(to) anyone

(27)

إِلَّا

কিন্তু

Except

مَنِ

যাকে

whom

ٱرْتَضَىٰ

তিনি রাজী হন

He has approved

مِن

মধ্যে

of

رَّسُولٍ

রসূলের

a Messenger

فَإِنَّهُۥ

তিনি নিশ্চয় অতঃপর

and indeed, He

يَسْلُكُ

লাগিয়ে দেন

makes to march

مِنۢ

থেকে কর

from

بَيْنِ

তার আগে

before

يَدَيْهِ

তার আগে

him

وَمِنْ

এবং…

and from

خَلْفِهِۦ

তার পিছনে

behind him

رَصَدًا

প্রহরা

a guard

(28)

لِّيَعْلَمَ

জানবার জন্য

That He may make evident

أَن

যে

that

قَدْ

নিশ্চয়

indeed

أَبْلَغُوا۟

তারা পৌঁছিয়েছে

they have conveyed

رِسَٰلَٰتِ

পয়গামসমূহ

(the) Messages

رَبِّهِمْ

তাদের রবের

(of) their Lord;

وَأَحَاطَ

এবং তিনি ঘিরে রেখেছেন

and He has encompassed

بِمَا

যা ঐ বিষয়

what

لَدَيْهِمْ

তাদের কাছে আছে

(is) with them

وَأَحْصَىٰ

এবং তিনি গুনে রেখেছেন

and He takes account

كُلَّ

সব

(of) all

شَىْءٍ

কিছু

things

عَدَدًۢا

সংখ্যায়”

(in) number”

Sura Al Jinn Ruku 2

৭১ সুরা নূহ<< সুরা জ্বীন >> ৭৩ সুরা মুযযাম্মিল

By Quran Sharif

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply