সুরা ক্বদর এর তাফসীর

সুরা ক্বদর এর তাফসীর

সুরা ক্বদর এর তাফসীর >> বুখারী শরীফ এর মুল সুচিপত্র পড়ুন >> সুরা ক্বদর আরবি তে পড়ুন বাংলা অনুবাদ সহ

সুরা ক্বদর এর তাফসীর

৬৫/৯৮/১.অধ্যায়ঃ পরিচ্ছেদ নাই।

(97) سُوْرَةُ القدر

সুরা (৯৭) : সুরা ক্বদর এর তাফসীর

يُقَالُ الْمَطْلَعُ هُوَ الطُّلُوْعُ وَالْمَطْلِعُ الْمَوْضِعُ الَّذِيْ يُطْلَعُ مِنْهُ {أَنْزَلْنَاهُ} الْهَاءُ كِنَايَةٌ عَنِ الْقُرْآنِ إِنَّا أَنْزَلْنَاهُ خَرَجَ مَخْرَجَ الْجَمِيْعِ وَالْمُنْزِلُ هُوَ اللهُ وَالْعَرَبُ تُوَكِّدُ فِعْلَ الْوَاحِدِ فَتَجْعَلُهُ بِلَفْظِ الْجَمِيْعِ لِيَكُوْنَ أَثْبَتَ وَأَوْكَدَ.

الْمَطْلَعُ বলা হয় উদয় হওয়াকে, পক্ষান্তরে, الْمَطْلِعُ মানে উদয়স্থল। أَنْزَلْنَاهُ এর ه দ্বারা আল-কুরআনের প্রতি ইশারা করা হয়েছে। এখানে বহুবচনের শব্দ ব্যবহার করা হয়েছে। যদিও একবচনের গ্রহণ করা হয়েছে। কেননা, কুরআন অবতীর্ণকারী হলেন আল্লাহ তাআলা। বস্তুত কোন বস্তুর গুরুত্ব প্রকাশ বা জোরালো ভাব প্রকামের জন্য আরবরা একবচনের স্থলে বহুবচনে ব্যবহার করে থাকে।

(98) سُوْرَةُ البينة [لَمْ يَكُنْ]

সুরা (৯৮) : বাইয়্যিনাহ

مُنْفَكِّيْنَ زَائِلِيْنَ قَيِّمَةٌ الْقَائِمَةُ دِيْنُ الْقَيِّمَةِ أَضَافَ الدِّيْنَ إِلَى الْمُؤَنَّثِ

مُنْفَكِّيْنَবিচলিত ও পদস্খলিত। قَيِّمَةٌ সঠিক। دِيْنُالْقَيِّمَةِ এর মাঝে دِيْنُ শব্দটিকে স্ত্রী লিঙ্গের দিকে اضافت করা হয়েছে।

৪৯৫৯

আনাস ইবনু মালিক (রাদি.) হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, নাবী (সাঃআঃ) উবাই ইবনু কাব (রাদি.) বলেছিলেন, তোমাকে لَمْ يَكُنْ الَّذِينَ كَفَرُوا (সুরা) পড়ে শোনানোর জন্য আল্লাহ তাআলা আমাকে আদেশ করিয়াছেন। উবাই ইবনু কাব (রাদি.) বলিলেন, আল্লাহ তাআলা কি আমার নাম উল্লেখ করে বলেছেন? তিনি বলিলেন, হ্যাঁ; এ কথা শুনে উবাই ইবনু কাব (রাদি.) কাঁদতে লাগলেন। [৩৮০৯] (আ.প্র. ৪৫৯০, ই.ফা. ৪৫৯৫)

৬৫/৯৮/২.অধ্যায়ঃ পরিচ্ছেদ নাই।

৪৯৬০

আনাস (রাদি.) হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, নাবী (সাঃআঃ) উবাই ইবনু কাব (রাদি.)-কে বলেছিলেন, তোমাকে কুরআন পড়ে শোনানোর জন্য আল্লাহ তাআলা আমাকে আদেশ করিয়াছেন। উবাই ইবনু কাব (রাদি.) বলিলেন, আল্লাহ তাআলা কি আপনার কাছে আমার নাম উল্লেখ করিয়াছেন? তিনি বলিলেন, হ্যাঁ, আল্লাহ তাআলা তোমার নাম উল্লেখ করিয়াছেন। এ কথা শুনে উবাই ইবনু কাব (রাদি.) কাঁদতে বলিলেন, হ্যাঁ, আল্লাহ তাআলা তোমার নাম উল্লেখ করিয়াছেন। এ কথা শুনে উবাই ইবনু কাব (রাদি.) কাঁদতে শুরু করিলেন। ক্বাতাদাহ (রহমাতুল্লাহি আলাইহি) বলেন, আমাকে জানানো হয়েছে যে, নাবী (সাঃআঃ) তাঁকে لَمْ يَكُنْ الَّذِينَ كَفَرُوا مِنْ أَهْلِ الْكِتَابِ পাঠ করে শুনিয়েছিলেন। [৩৮০৯] (আ.প্র. ৪৫৯১, ই.ফা. ৪৫৯৬)

৬৫/৯৮/৩.অধ্যায়ঃ পরিচ্ছেদ নাই।

৪৯৬১

আনাস ইবনু মালিক (রাদি.) হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, আল্লাহর নাবী মুহাম্মাদ (সাঃআঃ) উবাই ইবনু কাব (রাদি.)-কে বলেছিলেন, তোমাকে কুরআন পাঠ করে শোনানোর জন্য আল্লাহ তাআলা আমাকে আদেশ করিয়াছেন। এ কথা শুনে তিনি বলিলেন, আল্লাহ তাআলা কি আপনার কাছে আমার নাম উল্লেখ করিয়াছেন? তিনি বলিলেন,হ্যাঁ। তখন উবাই ইবনু কাব (রাদি.) বিস্মিত হয়ে আবার জিজ্ঞেস করিলেন, বিশ্বজাহানের প্রতিপালকের কাছে কি আমার ব্যাপারে আলোচনা করা হয়েছে? উত্তরে নাবী (সাঃআঃ) বলিলেন, হ্যাঁ। এ কথা শুনে তা দুচোখ অশ্রুতে ভরে উঠল। [৩৮০৯] (আ.প্র. ৪৫৯২, ই.ফা. ৪৫৯৭)

By ইমাম বুখারী

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply