সুরা কালাম বাংলা Sura Qalam in Words & Audio

সুরা কালাম বাংলা Sura Qalam in Words & Audio

সুরা কালাম >> ১১৪ টি সূরা >> বুখারী

Arabicতাফসীর

৬৮ – সুরা কালাম – আয়াত : ৫২, মাক্কী, রুকু ২

সুরা কালাম Sura Qalam mp3 Download

পরম করুণাময় অতি দয়ালু আল্লাহর নামেبِسۡمِ ٱللَّهِ ٱلرَّحۡمَٰنِ ٱلرَّحِيمِ
(1) নূন; কলমের কসম এবং তারা যা লিখে তার কসম!نٓۚ وَٱلۡقَلَمِ وَمَا يَسۡطُرُونَ ١
(2) তোমার রবের অনুগ্রহে তুমি পাগল নও।مَآ أَنتَ بِنِعۡمَةِ رَبِّكَ بِمَجۡنُونٖ ٢
(3) আর নিশ্চয় তোমার জন্য রয়েছে অফুরন্ত পুরস্কার।وَإِنَّ لَكَ لَأَجۡرًا غَيۡرَ مَمۡنُونٖ ٣
(4) আর নিশ্চয় তুমি মহান চরিত্রের উপর অধিষ্ঠিত।وَإِنَّكَ لَعَلَىٰ خُلُقٍ عَظِيمٖ ٤
(5) অতঃপর শীঘ্রই তুমি দেখতে পাবে এবং তারাও দেখতে পাবে-فَسَتُبۡصِرُ وَيُبۡصِرُونَ ٥
(6) তোমাদের মধ্যে কে বিকারগ্রস্ত?بِأَييِّكُمُ ٱلۡمَفۡتُونُ ٦
(7) নিশ্চয় তোমার রবই সম্যক পরিজ্ঞাত তাদের ব্যাপারে যারা তাঁর পথ থেকে বিচ্যুত হয়েছে, আর তিনি হিদায়াতপ্রাপ্তদের সম্পর্কেও সম্যক জ্ঞাত।إِنَّ رَبَّكَ هُوَ أَعۡلَمُ بِمَن ضَلَّ عَن سَبِيلِهِۦ وَهُوَ أَعۡلَمُ بِٱلۡمُهۡتَدِينَ ٧
(8) অতএব তুমি মিথ্যারোপকারীদের আনুগত্য করো না।فَلَا تُطِعِ ٱلۡمُكَذِّبِينَ٨
(9) তারা কামনা করে, যদি তুমি আপোষকামী হও, তবে তারাও আপোষকারী হবে।وَدُّواْ لَوۡ تُدۡهِنُ فَيُدۡهِنُونَ ٩
(10) আর তুমি আনুগত্য করো না প্রত্যেক এমন ব্যক্তির যে অধিক কসমকারী, লাঞ্ছিত।وَلَا تُطِعۡ كُلَّ حَلَّافٖ مَّهِينٍ ١٠
(11) পিছনে নিন্দাকারী ও যে চোগলখুরী করে বেড়ায়,هَمَّازٖ مَّشَّآءِۢ بِنَمِيمٖ ١١
(12) ভাল কাজে বাধাদানকারী, সীমালঙ্ঘনকারী অপরাধী,مَّنَّاعٖ لِّلۡخَيۡرِ مُعۡتَدٍ أَثِيمٍ ١٢
(13) দুষ্ট প্রকৃতির, তারপর জারজ।عُتُلِّۢ بَعۡدَ ذَٰلِكَ زَنِيمٍ ١٣
(14) এ কারণে যে, সে ছিল ধন-সম্পদ ও সন্তান- সন্ততির অধিকারী।أَن كَانَ ذَا مَالٖ وَبَنِينَ ١٤
(15) যখন তার কাছে আমার আয়াতসমূহ তিলাওয়াত করা হয় তখন সে বলে, এগুলো পূর্ববর্তীদের কল্পকাহিনীমাত্র।إِذَا تُتۡلَىٰ عَلَيۡهِ ءَايَٰتُنَا قَالَ أَسَٰطِيرُ ٱلۡأَوَّلِينَ ١٥
(16) অচিরেই আমি তার শুঁড়ের[1] উপর দাগ দিয়ে দেব।سَنَسِمُهُۥ عَلَى ٱلۡخُرۡطُومِ ١٦
(17) নিশ্চয় আমি এদেরকে পরীক্ষা করেছি, যেভাবে পরীক্ষা করেছিলাম বাগানের মালিকদেরকে। যখন তারা কসম করেছিল যে, অবশ্যই তারা সকাল বেলা বাগানের ফল আহরণ করবে।إِنَّا بَلَوۡنَٰهُمۡ كَمَا بَلَوۡنَآ أَصۡحَٰبَ ٱلۡجَنَّةِ إِذۡ أَقۡسَمُواْ لَيَصۡرِمُنَّهَا مُصۡبِحِينَ ١٧
(18) আর তারা ‘ইনশাআল্লাহ’ বলেনি।وَلَا يَسۡتَثۡنُونَ ١٨
(19) অতঃপর তোমার রবের পক্ষ থেকে এক প্রদক্ষিণকারী (আগুন) বাগানের ওপর দিয়ে প্রদক্ষিণ করে গেল, আর তারা ছিল ঘুমন্ত।فَطَافَ عَلَيۡهَا طَآئِفٞ مِّن رَّبِّكَ وَهُمۡ نَآئِمُونَ ١٩
(20) ফলে তা (পুড়ে) কালো বর্ণের হয়ে গেল।فَأَصۡبَحَتۡ كَٱلصَّرِيمِ ٢٠
(21) তারপর সকাল বেলা তারা একে অপরকে ডেকে বলল,فَتَنَادَوۡاْ مُصۡبِحِينَ ٢١
(22)  ‘তোমরা যদি ফল আহরণ করতে চাও তাহলে সকাল সকাল তোমাদের বাগানে যাও’।أَنِ ٱغۡدُواْ عَلَىٰ حَرۡثِكُمۡ إِن كُنتُمۡ صَٰرِمِينَ ٢٢
(23) তারপর তারা চলল, নিম্নস্বরে একথা বলতে বলতে-فَٱنطَلَقُواْ وَهُمۡ يَتَخَٰفَتُونَ ٢٣
(24) যে, ‘আজ সেখানে তোমাদের কাছে কোন অভাবী যেন প্রবেশ করতে না পারে’।أَن لَّا يَدۡخُلَنَّهَا ٱلۡيَوۡمَ عَلَيۡكُم مِّسۡكِينٞ ٢٤
(25) আর তারা ভোর বেলা দৃঢ় ইচ্ছা শক্তি নিয়ে সক্ষম অবস্থায় (বাগানে) গেল।وَغَدَوۡاْ عَلَىٰ حَرۡدٖ قَٰدِرِينَ ٢٥
(26) তারপর তারা যখন বাগানটি দেখল, তখন তারা বলল, ‘অবশ্যই আমরা পথভ্রষ্ট’।فَلَمَّا رَأَوۡهَا قَالُوٓاْ إِنَّا لَضَآلُّونَ ٢٦
(27) ‘বরং আমরা বঞ্চিত’।بَلۡ نَحۡنُ مَحۡرُومُونَ ٢٧
(28) তাদের মধ্যে সবচেয়ে ভাল ব্যক্তিটি বলল, ‘আমি কি তোমাদেরকে বলিনি যে, তোমরা কেন (আল্লাহর) তাসবীহ পাঠ করছ না’?قَالَ أَوۡسَطُهُمۡ أَلَمۡ أَقُل لَّكُمۡ لَوۡلَا تُسَبِّحُونَ ٢٨
(29) তারা বলল, ‘আমরা আমাদের রবের পবিত্রতা ঘোষণা করছি। অবশ্যই আমরা যালিম ছিলাম’।قَالُواْ سُبۡحَٰنَ رَبِّنَآ إِنَّا كُنَّا ظَٰلِمِينَ ٢٩
(30) তারপর তারা একে অপরের প্রতি দোষারোপ করতে লাগল।فَأَقۡبَلَ بَعۡضُهُمۡ عَلَىٰ بَعۡضٖ يَتَلَٰوَمُونَ ٣٠
(31) তারা বলল, ‘হায়, আমাদের ধ্বংস! নিশ্চয় আমরা সীমালঙ্ঘনকারী ছিলাম’।قَالُواْ يَٰوَيۡلَنَآ إِنَّا كُنَّا طَٰغِينَ ٣١
(32) সম্ভবতঃ আমাদের রব আমাদেরকে এর চেয়েও উৎকৃষ্টতর বিনিময় দেবেন। অবশ্যই আমরা আমাদের রবের প্রতি আগ্রহী।عَسَىٰ رَبُّنَآ أَن يُبۡدِلَنَا خَيۡرٗا مِّنۡهَآ إِنَّآ إِلَىٰ رَبِّنَا رَٰغِبُونَ ٣٢
(33) এভাবেই হয় আযাব। আর পরকালের আযাব অবশ্যই আরো বড়, যদি তারা জানত।كَذَٰلِكَ ٱلۡعَذَابُۖ وَلَعَذَابُ ٱلۡأٓخِرَةِ أَكۡبَرُۚ لَوۡ كَانُواْ يَعۡلَمُونَ ٣٣
(34) নিশ্চয় মুত্তাকীদের জন্য তাদের রবের কাছে রয়েছে নিআমতপূর্ণ জান্নাত।إِنَّ لِلۡمُتَّقِينَ عِندَ رَبِّهِمۡ جَنَّٰتِ ٱلنَّعِيمِ ٣٤
সুরা কালামع রুকু
(35) তবে কি আমি মুসলিমদেরকে (অনুগতদেরকে) অবাধ্যদের মতই গণ্য করব?أَفَنَجۡعَلُ ٱلۡمُسۡلِمِينَ كَٱلۡمُجۡرِمِينَ ٣٥
(36) তোমাদের কী হল, তোমরা কিভাবে ফয়সালা করছ?مَا لَكُمۡ كَيۡفَ تَحۡكُمُونَ ٣٦
(37) তোমাদের কাছে কি কোন কিতাব আছে যাতে তোমরা পাঠ করছ?أَمۡ لَكُمۡ كِتَٰبٞ فِيهِ تَدۡرُسُونَ ٣٧
(38) যে, নিশ্চয় তোমাদের জন্য সেখানে রয়েছে যা তোমরা পছন্দ কর?إِنَّ لَكُمۡ فِيهِ لَمَا تَخَيَّرُونَ ٣٨
(39) অথবা তোমাদের জন্য কি আমার উপর কিয়ামত পর্যন্ত বলবৎ কোন অঙ্গীকার রয়েছে যে, অবশ্যই তোমাদের জন্য থাকবে তোমরা যা ফয়সালা করবে?أَمۡ لَكُمۡ أَيۡمَٰنٌ عَلَيۡنَا بَٰلِغَةٌ إِلَىٰ يَوۡمِ ٱلۡقِيَٰمَةِ إِنَّ لَكُمۡ لَمَا تَحۡكُمُونَ ٣٩
(40) তুমি তাদেরকে জিজ্ঞাসা কর, কে এ ব্যাপারে যিম্মাদার?سَلۡهُمۡ أَيُّهُم بِذَٰلِكَ زَعِيمٌ ٤٠
(41) অথবা তাদের জন্য কি অনেক শরীক আছে? তাহলে তারা তাদের শরীকদেরকে উপস্থিত করুক যদি তারা সত্যবাদী হয়।أَمۡ لَهُمۡ شُرَكَآءُ فَلۡيَأۡتُواْ بِشُرَكَآئِهِمۡ إِن كَانُواْ صَٰدِقِينَ ٤١
(42) সে দিন পায়ের গোছা[2] উন্মোচন করা হবে। আর তাদেরকে সিজদা করার জন্য আহবান জানানো হবে, কিন্তু তারা সক্ষম হবে না।يَوۡمَ يُكۡشَفُ عَن سَاقٖ وَيُدۡعَوۡنَ إِلَى ٱلسُّجُودِ فَلَا يَسۡتَطِيعُونَ ٤٢
(43) তাদের দৃষ্টিসমূহ অবনত অবস্থায় থাকবে, অপমান তাদেরকে আচ্ছন্ন করবে। অথচ তাদেরকে তো নিরাপদ অবস্থায় সিজদা করার জন্য আহবান করা হত (তখন তো তারা সিজদা করেনি)।خَٰشِعَةً أَبۡصَٰرُهُمۡ تَرۡهَقُهُمۡ ذِلَّةٞۖ وَقَدۡ كَانُواْ يُدۡعَوۡنَ إِلَى ٱلسُّجُودِ وَهُمۡ سَٰلِمُونَ ٤٣
(44) অতএব ছেড়ে দাও আমাকে এবং যারা এ বাণী প্রত্যাখ্যান করে তাদেরকে। আমি তাদেরকে ধীরে ধীরে এমনভাবে পাকড়াও করব যে, তারা জানতে পারবে না।فَذَرۡنِي وَمَن يُكَذِّبُ بِهَٰذَا ٱلۡحَدِيثِۖ سَنَسۡتَدۡرِجُهُم مِّنۡ حَيۡثُ لَا يَعۡلَمُونَ ٤٤
(45) আর আমি তাদেরকে অবকাশ দেব। অবশ্যই আমার কৌশল অত্যন্ত বলিষ্ঠ।وَأُمۡلِي لَهُمۡۚ إِنَّ كَيۡدِي مَتِينٌ ٤٥
(46) তুমি কি তাদের কাছে পারিশ্রমিক চাচ্ছ? ফলে তারা ঋণের কারণে ভারাক্রান্ত হয়ে পড়ছে।أَمۡ تَسۡ‍َٔلُهُمۡ أَجۡرٗا فَهُم مِّن مَّغۡرَمٖ مُّثۡقَلُونَ ٤٦
(47) অথবা তাদের কাছে কি ‘গায়েব’ (লওহে মাহফুয) আছে যে, তারা লিখে রাখছে।أَمۡ عِندَهُمُ ٱلۡغَيۡبُ فَهُمۡ يَكۡتُبُونَ ٤٧
(48) অতএব তুমি তোমার রবের হুকুমের জন্য ধৈর্যধারণ কর। আর তুমি মাছওয়ালার মত হয়ো না, যখন সে দুঃখে কাতর হয়ে ডেকেছিল।فَٱصۡبِرۡ لِحُكۡمِ رَبِّكَ وَلَا تَكُن كَصَاحِبِ ٱلۡحُوتِ إِذۡ نَادَىٰ وَهُوَ مَكۡظُومٞ ٤٨
(49) যদি তার রবের অনুগ্রহ তার কাছে না পৌঁছত, তাহলে সে নিন্দিত অবস্থায় উন্মুক্ত প্রান্তরে নিক্ষিপ্ত হত।لَّوۡلَآ أَن تَدَٰرَكَهُۥ نِعۡمَةٞ مِّن رَّبِّهِۦ لَنُبِذَ بِٱلۡعَرَآءِ وَهُوَ مَذۡمُومٞ ٤٩
(50) তারপর তার রব তাকে মনোনীত করলেন এবং তাকে সৎকর্মপরায়ণদের অন্তর্ভুক্ত করলেন।فَٱجۡتَبَٰهُ رَبُّهُۥ فَجَعَلَهُۥ مِنَ ٱلصَّٰلِحِينَ٥٠
(51) আর কাফিররা যখন উপদেশবাণী শুনে তখন তারা যেন তাদের দৃষ্টি দ্বারা তোমাকে আছড়ে ফেলবে, আর তারা বলে, ‘এ তো এক পাগল’।وَإِن يَكَادُ ٱلَّذِينَ كَفَرُواْ لَيُزۡلِقُونَكَ بِأَبۡصَٰرِهِمۡ لَمَّا سَمِعُواْ ٱلذِّكۡرَ وَيَقُولُونَ إِنَّهُۥ لَمَجۡنُونٞ ٥١
(52) আর এ কুরআন তো সৃষ্টিকুলের জন্য শুধুই উপদেশবাণী।وَمَا هُوَ إِلَّا ذِكۡرٞ لِّلۡعَٰلَمِينَ ٥٢
সুরা কালামع রুকু

[1] অর্থাৎ নাকের উপর। বিদ্রূপাত্মক অর্থে ব্যবহৃত। [2] এ কথার ব্যাপারে ইমাম বুখারী একটি হাদীস বর্ণনা করেন। তা হল, আবু সাঈদ খুদরী রা. বলেন, মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, আমাদের রব তাঁর পায়ের গোছা উন্মুক্ত করবেন, তখন প্রত্যেক মুমিন নর-নারী তাঁকে সিজদা করবে…।

Sura Qalam in Words

(1)

نٓ

নুন

Nun

وَٱلْقَلَمِ

কলমের শপথ

By the pen

وَمَا

এবং যা

and what

يَسْطُرُونَ

তারা লিখছে

they write

(2)

مَآ

না

Not

أَنتَ

তুমি

you (are)

بِنِعْمَةِ

অনুগ্রহে

by (the) Grace

رَبِّكَ

তোমার রবের

(of) your Lord

بِمَجْنُونٍ

পাগল

a madman

(3)

وَإِنَّ

এবং নিশ্চয়

And indeed

لَكَ

তোমার জন্য

for you

لَأَجْرًا

অবশ্যই(আছে) পুরস্কার

surely (is) a reward

غَيْرَ

ছাড়া

without

مَمْنُونٍ

শেষ

end

(4)

وَإِنَّكَ

এবং তুমি নিশ্চয়

And indeed you

لَعَلَىٰ

উপর অবশ্যই(অথিষ্ঠিত)

surely (are)

خُلُقٍ

চরিত্রের

(of) a moral character

عَظِيمٍ

মহান

great

(5)

فَسَتُبْصِرُ

অতএব তুমি শীঘ্রই দেখবে

So soon you will see

وَيُبْصِرُونَ

এবং তারা দেখবে,

and they will see

(6)

بِأَييِّكُمُ

তোমাদের মধ্যে কে

Which of you

ٱلْمَفْتُونُ

বিকারগ্রস্ত

(is) the afflicted one

(7)

إِنَّ

নিশ্চয়

Indeed

رَبَّكَ

তোমার রব,

your Lord

هُوَ

তিনিই

He

أَعْلَمُ

সব জানেন

(is) most knowing

بِمَن

কে

of (he) who

ضَلَّ

ভ্রষ্ট হয়েছে

has strayed

عَن

থেকে

from

سَبِيلِهِۦ

তার পথ,

His way

وَهُوَ

এবং তিনিই

and He

أَعْلَمُ

সব জানেন

(is) most knowing

بِٱلْمُهْتَدِينَ

পথ প্রাপ্তদেরকে

of the guided ones

(8)

فَلَا

না অতএব

So (do) not

تُطِعِ

মেনো

obey

ٱلْمُكَذِّبِينَ

মিথ্যারোপকারীদের।

the deniers

(9)

وَدُّوا۟

তারা চাই

They wish

لَوْ

যদি

that

تُدْهِنُ

তুমি নমনীয় হও

you should compromise

فَيُدْهِنُونَ

তবে তারা নমনীয় হবে

so they would compromise

(10)

وَلَا

এবং না

And (do) not

تُطِعْ

অনুসরণ করে!

obey

كُلَّ

প্রত্যেক

every

حَلَّافٍ

অত্যাধিক শপথকারী

habitual swearer

مَّهِينٍ

গুরুত্বহীন(ব্যক্তির)

worthless

(11)

هَمَّازٍ

নিন্দাকারী

Defamer

مَّشَّآءٍۭ

ঘুরে বেড়াই

going about

بِنَمِيمٍ

চোগলখুরীসহ

with malicious gossip

(12)

مَّنَّاعٍ

প্রতিবন্ধক,

A preventer

لِّلْخَيْرِ

কল্যানের জন্য

of (the) good

مُعْتَدٍ

সীমালংঘণকারী,

transgressor

أَثِيمٍ

পাপিষ্ঠ

sinful

(13)

عُتُلٍّۭ

নিষ্ঠুর,

Cruel

بَعْدَ

পরে

after

ذَٰلِكَ

এর

(all) that

زَنِيمٍ

(এ কারণে) বদজাতও

utterly useless

(14)

أَن

যে

Because

كَانَ

সেছিলো

(he) is

ذَا

অধিকারী

a possessor

مَالٍ

মালের(ধন-সম্পদের)

(of) wealth

وَبَنِينَ

এবং সন্তানসন্ততির

and children

(15)

إِذَا

যখন

When

تُتْلَىٰ

আবৃত্তি করা হয়

are recited

عَلَيْهِ

তার নিকট

to him

ءَايَٰتُنَا

আমাদের আয়াতগুলো,

Our Verses

قَالَ

সে বলে,

he says

أَسَٰطِيرُ

“গল্পকাহিনী সমুহ

“Stories

ٱلْأَوَّلِينَ

আগেরকালের(লোকদের)”

(of) the former (people)”

(16)

سَنَسِمُهُۥ

তাকে দাগাব শিঘ্র

We will brand him

عَلَى

উপর

on

ٱلْخُرْطُومِ

শুড়ের

the snout

(17)

إِنَّا

নিশ্চয়,আমরা

Indeed We

بَلَوْنَٰهُمْ

তাদের পরীক্ষায় ফেলেছি

have tried them

كَمَا

যেমন

as

بَلَوْنَآ

আমরা পরীক্ষা করেছিলাম

We tried

أَصْحَٰبَ

মালিকদের

(the) companions

ٱلْجَنَّةِ

বাগানটির

(of) the garden

إِذْ

যখন

when

أَقْسَمُوا۟

তারা শপথ করেছিল

they swore

لَيَصْرِمُنَّهَا

তারা অবশ্যই তা কাটবে(পাড়িবে)

to pluck its fruit

مُصْبِحِينَ

সকাল(হতে)

(in the) morning

(18)

وَلَا

এবং না

And not

يَسْتَثْنُونَ

তারা ব্যাতিক্রম রাখলো

making exception

(19)

فَطَافَ

অতএব বিপদ আসলো

So there came

عَلَيْهَا

তার উপর

upon it

طَآئِفٌ

বিপদ

a visitation

مِّن

থেকে

from

رَّبِّكَ

তোমার রবের,

your Lord

وَهُمْ

এবং তারা(ছিল)

while they

نَآئِمُونَ

ঘুমন্ত অবস্থায়

were asleep

(20)

فَأَصْبَحَتْ

ফলে হয়ে গেল

So it became

كَٱلصَّرِيمِ

কর্তিত ফসলের মত

as if reaped
(21)

فَتَنَادَوْا۟

অতঃপর পরস্পরে ডাকলো

And they called one another

مُصْبِحِينَ

সকাল(হতে)

(at) morning

(22)

أَنِ

যে

That

ٱغْدُوا۟

“সকালে চলো

“Go early

عَلَىٰ

দিকে

to

حَرْثِكُمْ

তোমাদের ক্ষেতের

your crop

إِن

যদি

if

كُنتُمْ

তোমরা হও

you would

صَٰرِمِينَ

ফসল কর্তনকারী”

pluck (the) fruit”

(23)

فَٱنطَلَقُوا۟

অতঃপর তারা চললো

So they went

وَهُمْ

এবং তারা

while they

يَتَخَٰفَتُونَ

নিচু স্বরে বলছিল

lowered (their) voices

(24)

أَن

যে

That

لَّا

“না

“Not

يَدْخُلَنَّهَا

এতে নিশ্চয়ই প্রবেশ করবে

will enter it

ٱلْيَوْمَ

আজ

today

عَلَيْكُم

তোমাদের কাছে

upon you

مِّسْكِينٌ

ভিখারী”

any poor person”

(25)

وَغَدَوْا۟

এবং তারা চললো

And they went early

عَلَىٰ

ব্যাপারে(যেন)

with

حَرْدٍ

নিবৃত্ত করার

determination

قَٰدِرِينَ

সক্ষম

able

(26)

فَلَمَّا

কিন্তু যখন

But when

رَأَوْهَا

তারা তা দেখলো

they saw it

قَالُوٓا۟

তারা বলল,

they said

إِنَّا

“নিশ্চয় আমরা

“Indeed we

لَضَآلُّونَ

অবশ্যই পথভ্রষ্ট

(are) surely lost

(27)

بَلْ

বরং

Nay!

نَحْنُ

আমরা

We

مَحْرُومُونَ

বঞ্চিত”

(are) deprived”

(28)

قَالَ

বললো

Said

أَوْسَطُهُمْ

তাদের শ্রেষ্ঠ ব্যাক্তি

(the) most moderate of them

أَلَمْ

“নাই কি

“Did not

أَقُل

আমি বলি

I tell

لَّكُمْ

তোমাদেরকে

you

لَوْلَا

না কেন

Why not

تُسَبِّحُونَ

তোমরা তসবিহ করো

you glorify (Allah)

(29)

قَالُوا۟

তারা বললো

They said

سُبْحَٰنَ

“পবিত্র

“Glory be

رَبِّنَآ

আমাদের রব

(to) our Lord!

إِنَّا

নিশ্চিত

Indeed we

كُنَّا

(আমরা)ছিলাম

[we] were

ظَٰلِمِينَ

যালেম”

wrongdoers”

(30)

فَأَقْبَلَ

অতএব তারা মুখোমুখি হলো

Then approached

بَعْضُهُمْ

তাদের একে

some of them

عَلَىٰ

প্রতি

to

بَعْضٍ

অপরের

others

يَتَلَٰوَمُونَ

তিরস্কার করতে লাগলো

blaming each other

(31)

قَالُوا۟

তারা বললো

They said

يَٰوَيْلَنَآ

“আমাদের আফসোস

“O woe to us!

إِنَّا

আমরা নিশ্চয়

Indeed we

كُنَّا

ছিলাম

[we] were

طَٰغِينَ

সিমালংঘনকারী

transgressors

(32)

عَسَىٰ

সম্ভবত

Perhaps

رَبُّنَآ

আমাদের রব

our Lord

أَن

দেবেন

[that]

يُبْدِلَنَا

আমাদের বদলে

will substitute for us

خَيْرًا

উত্তম

a better

مِّنْهَآ

তা হতেও

than it

إِنَّآ

আমরা নিশ্চত

Indeed we

إِلَىٰ

দিকে

to

رَبِّنَا

আমাদের রবের

our Lord

رَٰغِبُونَ

অভিমুখী হলাম”

turn devoutly”

(33)

كَذَٰلِكَ

এমনই

Such

ٱلْعَذَابُ

আযাব

(is) the punishment

وَلَعَذَابُ

এবং আযাব অবশ্যই

And surely the punishment

ٱلْءَاخِرَةِ

আখিরাতের

(of) the Hereafter

أَكْبَرُ

অনেক বড়

(is) greater

لَوْ

যদি

if

كَانُوا۟

তারা

they

يَعْلَمُونَ

জানত

know

(34)

إِنَّ

নিশ্চয়

Indeed

لِلْمُتَّقِينَ

পরহেজগারদের জন্য

for the righteous

عِندَ

কাছে রয়েছে

with

رَبِّهِمْ

তাদের রবের

their Lord

جَنَّٰتِ

জান্নাতসমূহ

(are) Gardens

ٱلنَّعِيمِ

নিয়ামতে ভরা

(of) Delight

Sura Qalam in Words Ruku 1

(35)

أَفَنَجْعَلُ

অতএব আমরা কি বানাব

Then will We treat

ٱلْمُسْلِمِينَ

আত্মসমর্পণ কারীদের

the Muslims

كَٱلْمُجْرِمِينَ

যেমন অপরাধকারীদের

like the criminals?

(36)

مَا

কি

What

لَكُمْ

তোমাদের হয়েছে

(is) for you?

كَيْفَ

কেমন

How

تَحْكُمُونَ

তোমরা বিচার কর

(do) you judge?

(37)

أَمْ

অথবা

Or

لَكُمْ

তোমাদের জন্যে

(is) for you

كِتَٰبٌ

কিতাব(আছে)

a book

فِيهِ

তার মধ্যে

wherein

تَدْرُسُونَ

তোমরা পড়

you learn

(38)

إِنَّ

নিশ্চয়

That

لَكُمْ

তোমাদের জন্য

for you

فِيهِ

তার মধ্যে

therein

لَمَا

যা

what

تَخَيَّرُونَ

তোমরা পছন্দ কর

you choose?

(39)

أَمْ

অথবা

Or

لَكُمْ

তোমাদের জন্যে রয়েছে

(do) you have

أَيْمَٰنٌ

প্রতিশ্রুতি

oaths

عَلَيْنَا

আমাদের উপর

from us

بَٰلِغَةٌ

বলবৎ

reaching

إِلَىٰ

পর্যন্ত

to

يَوْمِ

দিন

(the) Day

ٱلْقِيَٰمَةِ

কিয়ামতের

(of) the Resurrection

إِنَّ

নিশ্চয়

That

لَكُمْ

তোমাদের জন্যে আছে

for you

لَمَا

যা

(is) what

تَحْكُمُونَ

তোমরা সিদ্ধান্ত নিচ্ছ

you judge?

(40)

سَلْهُمْ

তাদের জিজ্ঞেস কর

Ask them

أَيُّهُم

তাদের মধ্যে কে

which of them

بِذَٰلِكَ

এই ক্ষেত্রে

for that

زَعِيمٌ

যিম্নাদার

(is) responsible

(41)

أَمْ

অথবা

Or

لَهُمْ

তাদের জন্যে আছে

(do) they have

شُرَكَآءُ

অংশীদার

partners?

فَلْيَأْتُوا۟

অতএব তারা উপস্থিত করুক

Then let them bring

بِشُرَكَآئِهِمْ

তাদের শরীকদের

their partners

إِن

যদি

if

كَانُوا۟

হয় তারা

they are

صَٰدِقِينَ

সত্যবাদী

truthful

(42)

يَوْمَ

সসেদিন

(The) Day

يُكْشَفُ

উন্মোচিত হবে

will be uncovered

عَن

থেকে

from

سَاقٍ

পিণ্ডলী

the shin

وَيُدْعَوْنَ

এবং তাদের ডাকা হবে

and they will be called

إِلَى

দিকে

to

ٱلسُّجُودِ

সিজদাসমূহের

prostrate

فَلَا

না তখন

but not

يَسْتَطِيعُونَ

তারা পারবে

they will be able

(43)

خَٰشِعَةً

অবনত হবে

Humbled

أَبْصَٰرُهُمْ

তাদের দৃষ্টিগুলো

their eyes

تَرْهَقُهُمْ

তাদের আচ্ছাদিত করবে

will cover them

ذِلَّةٌ

অপমান

humiliation

وَقَدْ

এবং নিশ্চয়

And indeed

كَانُوا۟

তারা ছিল

they were

يُدْعَوْنَ

তাদের ডাকা হতো

called

إِلَى

দিকে

to

ٱلسُّجُودِ

সিজদাসমূহের

prostrate

وَهُمْ

অথচ তারা

while they

سَٰلِمُونَ

নিরাপদ ছিল

(were) sound

(44)

فَذَرْنِى

অতএব আমাকে ছেড়ে দাও

So leave Me

وَمَن

এবং যে

and whoever

يُكَذِّبُ

মিথ্যারোপ করে

denies

بِهَٰذَا

এর উপর

this

ٱلْحَدِيثِ

কথার

Statement

سَنَسْتَدْرِجُهُم

শীঘ্রয় আমরা তাদের ক্রমে ক্রমে নিয়ে যাব

We will progressively lead them

مِّنْ

থেকে

from

حَيْثُ

যেখান

where

لَا

না

not

يَعْلَمُونَ

তারা জানতেও পারবে

they know

(45)

وَأُمْلِى

এবং আমি অবকাশ দিচ্ছি

And I will give respite

لَهُمْ

তাদের জন্যে

to them

إِنَّ

নিশ্চয়

Indeed

كَيْدِى

আমার কাইদা(কোশল)

My plan

مَتِينٌ

বলিষ্ঠ

(is) firm

(46)

أَمْ

কি

Or

تَسْـَٔلُهُمْ

তাদের কাছে তুমি চাচ্ছ

you ask them

أَجْرًا

কোন পারিশ্রমিক

a payment

فَهُم

অতএব তারা

so they

مِّن

থেকে

from

مَّغْرَمٍ

জরিমানা

(the) debt

مُّثْقَلُونَ

বোঝাগ্রস্থ

(are) burdened?

(47)

أَمْ

কি

Or

عِندَهُمُ

তাদের কাছে আছে

(is) with them

ٱلْغَيْبُ

গায়েবের(জ্ঞান)

the unseen

فَهُمْ

বা তারা

so they

يَكْتُبُونَ

লিখে রাখে

write it?

(48)

فَٱصْبِرْ

অতএব সবর কর

So be patient

لِحُكْمِ

ফয়সালার জন্যে

for (the) decision

رَبِّكَ

তোমার রবের

(of) your Lord

وَلَا

এবং না

and (do) not

تَكُن

হয়ো

be

كَصَاحِبِ

ওঁয়ালার মতো

like (the) companion

ٱلْحُوتِ

মাছ

(of) the fish

إِذْ

যখন

when

نَادَىٰ

শসে ডেকেছিল

he called out

وَهُوَ

এবং সে

while he

مَكْظُومٌ

বিষণ্ণ ছিল

(was) distressed

(49)

لَّوْلَآ

যদি না

If not

أَن

তাকে

that

تَدَٰرَكَهُۥ

পেতো

overtook him

نِعْمَةٌ

অনুগ্রহ

a Favor

مِّن

থেকে

from

رَّبِّهِۦ

তার রবের

his Lord

لَنُبِذَ

অবশ্যই নিক্ষিপ্ত হতো

surely he would have been thrown

بِٱلْعَرَآءِ

উন্মুক্ত প্রাস্তরে

onto (the) naked shore

وَهُوَ

এবং সে

while he

مَذْمُومٌ

নিন্দিত হতো

(was) blamed

(50)

فَٱجْتَبَٰهُ

অতঃপর তাকে মনোনীত করলেন

But chose him

رَبُّهُۥ

তার রব

his Lord

فَجَعَلَهُۥ

তাই তাকে করলেন

and made him

مِنَ

অন্তর্ভুক্ত

of

ٱلصَّٰلِحِينَ

নেক বান্দাদের

the righteous

(51)

وَإِن

এবং যেন

And indeed

يَكَادُ

মনে হয়

would almost

ٱلَّذِينَ

যারা

those who

كَفَرُوا۟

অস্বীকার করেছে

disbelieve

لَيُزْلِقُونَكَ

অবশ্যই তোমাকে পদংখলন করাবে

surely make you slip

بِأَبْصَٰرِهِمْ

তাদের দৃষ্টিগুলো দিয়ে

with their eyes

لَمَّا

যখন

when

سَمِعُوا۟

তারা শুনে

they hear

ٱلذِّكْرَ

উপদেশ(কুরআন)

the Message

وَيَقُولُونَ

এবং তারা বলে

and they say

إِنَّهُۥ

“সেনিশ্চয়

“Indeed he

لَمَجْنُونٌ

অবশ্যই পাগল”

(is) surely mad”

(52)

وَمَا

এবং নয়

And not

هُوَ

তা

it (is)

إِلَّا

ছাড়া

but

ذِكْرٌ

উপদেশ

a Reminder

لِّلْعَٰلَمِينَ

সারা বিশের জন্যে

to the worlds

Sura Qalam in Words Ruku 2

৬৭ সুরা মুলক<< সুরা কালাম >> ৬৯ সুরা হাক্বকাহ

By Quran Sharif

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply