সুরা আলাক এর তাফসির । তাফসিরুল কুরআন

সুরা আলাক এর তাফসির । তাফসিরুল কুরআন

সুরা আলাক এর তাফসির । তাফসিরুল কুরআন >> তিরমিজি শরিফের তাফসিরুল কোরআন অধ্যায়ের অন্যান্য সুরার তাফসীর পড়ুন >> সুরা আলাক আরবি তে পড়ুন বাংলা অনুবাদ সহ

অধ্যায়ঃ ৪৪, অনুচ্ছেদ-৮৫ঃ সুরা আলাক এর তাফসির

৩৩৪৮. ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

“আমিও শাস্তি প্রদানকারী ফেরেশতাহাদের আহ্বান করব “-[সূরা আলাক্ব ১৮] আয়াতের বর্ণনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আবু জাহল বলল, যদি মুহাম্মদকে আমি নামাযরত অবস্থায় পাই তবে তার ঘাড় পদদলিত করব। নাবী [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম] বলেনঃ যদি তাই করিতে সে প্রস্তুত হত তাহলে ফেরেশতারা তখনই তাকে আটক করত।

সহীহঃ বোখারি [হাঃ ৪৯৫৮]। আবু ঈসা বলেন, হাদীসটি হাসান, সহীহ গারীব। সুরা আলাক তাফসির – এই হাদিসটির তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৩৩৪৯. ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, নাবী [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম] নামায আদায় করছিলেন। আবু জাহল তখন এসে বলল, আমি কি তোমাকে এ কাজ করিতে বারণ করিনি, আমি তোমাকে এ কাজ করিতে কি বারণ করিনি, আমি তোমাকে এ কাজ করিতে কি বারণ করিনি? নাবী [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম] নামায সমাপ্ত করে তাকে ভর্ৎসনা করিলেন। আবু জাহল বলল, তুমি নিশ্চয়ই জান যে, মক্কায় আমার তুলনায় বেশি সংখ্যক সমর্থক আর কারো নেই [আমার ডাকে যত লোক সাড়া দেয় তত লোক আর কারো ডাকে সাড়া দেয় না]। সে সময় আল্লাহ তাআলা অবর্তীণ করেনঃ “সে তার সহযোগীদের ডাকুক। আমি ডাকব জাহান্নামের প্রহরীদের “-[সূরা আলাক্ব ১৭-১৮]। ইবনি আব্বাস [রাদি.] বলেন, আল্লাহ্র শপথ! যদি আবু জাহল তার সহযোগীদের ডাকত, তাহলে আল্লাহ তাআলার প্রহরীগণ [ফেরেশতাগন] তাকে অবশ্যই গ্রেপ্তার করত।

হাদীসটির সানাদ সহীহ।আবু ঈসা বলেন, হাদীসটি হাসান, সহীহ গারীব। এ অনুচ্ছেদে আবু হুরাইরাহ্ [রাদি.] হইতেও হাদীস বর্ণিত আছে। সুরা আলাক এর তাফসির – এই হাদিসটির তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

By ইমাম তিরমিজি

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply