সুদ ও ঘুষ বিষয়ক উপদেশ মূলক হাদিস সমূহ

সুদ ও ঘুষ বিষয়ক উপদেশ মূলক হাদিস সমূহ

সুদ ও ঘুষ বিষয়ক উপদেশ মূলক হাদিস সমূহ , এই অধ্যায়ে মোট (১২৮-১৩৫) =৮টি হাদীস >> উপদেশ হাদিস এর মুল সুচিপত্র দেখুন

অধ্যায়-১০ঃ সুদ ও ঘুষ

পরিচ্ছেদঃ সুদ ও ঘুষ

১২৮. জাবির [রাদি.] হইতে বর্ণিতঃ

রাসূল [সাঃআঃ] সুদ গ্রহণকারী, প্রদানকারী ও সূদের দুসাক্ষীর প্রতি অভিশাপ করিয়াছেন। রাসূল [সাঃআঃ] বলেন, অভিশাপে তারা সবাই সমান

[মুসলিম, মেশকাত হাদিস/২৮০৭; বাংলা ৬ষ্ঠ খণ্ড, হাদিস/২৬৮৩ ক্রয়-বিক্রয় অধ্যায়, সুদ অনুচ্ছেদ]। এই হাদিসের তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

১২৯. আবদুল্লাহ ইবনি হানযালাহ [রাদি.] হইতে বর্ণিতঃ

রাসূল [সাঃআঃ] বলেছেন, কোন ব্যক্তি জেনে শুনে এক দিরহাম বা একটি মুদ্রা সুদ গ্রহণ করলে ছত্রিশবার যেনা করার চেয়ে কঠিন হইবে

[আহমাদ, হাদিস ছহীহ, মেশকাত হাদিস/২৮২৫; বাংলা মেশকাত হাদিস/২৭০১]। এই হাদিসের তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

১৩০. আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে বর্ণিতঃ

রাসূল [সাঃআঃ] বলেছেন, সুদের পাপের ৭০টি স্তর রয়েছে। তার মধ্যে সবচেয়ে সাধারণ হচ্ছে মাতাকে বিবাহ করা

[ইবনি মাজাহ, মেশকাত হাদিস/২৮২৬, হাদিস ছহীহ]। এই হাদিসের তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

১৩১. ইবনি মাসুদ [রাদি.] হইতে বর্ণিতঃ

রাসূল [সাঃআঃ] বলেছেন, নিশ্চয়ই সুদ এমন বস্তু যার পরিণাম হচ্ছে সংকুচিত হওয়া যদিও তা বৃদ্ধি মনে হয়

[ইবনি মাজাহ, মেশকাত হাদিস/২৮২৭]। এই হাদিসের তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

১৩২. আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে বর্ণিতঃ

রাসূল [সাঃআঃ] ঘুষ গ্রহণকারী ও ঘুষ প্রদানকারীর উপর অভিশাপ করিয়াছেন

[ইবনি মাজাহ, সনদ ছহীহ, মেশকাত, হাদিস/৩৭৫৩ নেতৃত্ব অধ্যায়]। এই হাদিসের তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

১৩৩. আবু উমামাহ [রাদি.] হইতে বর্ণিতঃ

রাসূল [সাঃআঃ] বলেছেন, যে ব্যক্তি কারো জন্য সুপারিশ করিল এবং সেই সুপারিশের প্রতিদান স্বরূপ তাকে কিছু উপহার দিল। যদি সে তা গ্রহণ করে তাহলে সে সূদের দরজাসমূহের একটি বড় দরজায় উপস্থিত হল

[আবু দাউদ, সনদ হাসান, মেশকাত, হাদিস/৩৭৫৭]। এই হাদিসের তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

১৩৪. বুরায়দাহ [রাদি.] হইতে বর্ণিতঃ

রাসূল [সাঃআঃ] বলেছেন, আমি যাকে ভাতা দিয়ে কোন কাজের দায়িত্ব প্রদান করেছি সে যদি ভাতা ব্যতীত অন্য কিছু গ্রহণ করে তাহলে তা হইবে খিয়ানাত

আবু দাউদ, মেশকাত হাদিস/৩৭৪৮]। এই হাদিসের তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

১৩৫. খাওয়ালাহ আনছারী [রাদি.] হইতে বর্ণিতঃ

রাসূল [সাঃআঃ] বলেছেন, নিশ্চয়ই কিছু লোক আল্লাহর সম্পদ অন্যায়ভাবে ভক্ষণ করে। ক্বিয়ামতের দিন তাদের জন্য রয়েছে জাহান্নাম

[বুখারী, মেশকাত হাদিস/৩৭৪৬]। এই হাদিসের তাহক্কিকঃ সহীহ হাদীস

Leave a Reply