নতুন লেখা

সিয়ামের ফযিলত

সিয়ামের ফযিলত

সিয়ামের ফযিলত >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৩০. অধ্যায়ঃ সিয়ামের ফযিলত

২৫৯৪

আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কে বলিতে শুনেছিঃ “মহান আল্লাহ্‌ তাআলা বলেছেন, মানব সন্তানের যাবতীয় কাজ তার নিজের জন্য। কিন্ত রোজা, এটা আমার জন্য এবং আমিই এর প্রতিদান দিব।” সে মহান সত্তার শপথ, যাঁর হাতের মুঠায় মুহাম্মাদের জীবন! নিশ্চয়ই রোজা পালনকারীর মুখের গন্ধ আল্লাহ্‌র কাছে কস্তুরীর সুগন্ধির চেয়েও অধিক সুগন্ধিময়। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৭১, ইসলামিক সেন্টার- ২৫৭০]

২৫৯৫

আবু হুরায়রাহ্‌ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ রোজা ঢাল স্বরূপ। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৭২, ইসলামিক সেন্টার- ২৫৭১]

২৫৯৬

আবু হুরায়রাহ্‌ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ “মানব সন্তানের প্রতিটি নেক কাজের সওয়াব দশ গুন থেকে সাতশ গুন পর্যন্ত বাড়িয়ে দেয়া হয়।” মহান আল্লাহ্‌ বলেন, “আদম সন্তানের যাবতীয় আমাল তার নিজের জন্য কিন্ত রোজা বিশেষ করে আমার জন্যই রাখা হয়। আর আমি নিজেই এর প্রতিদান দিব।” সুতরাং যখন তোমাদের কারো রোজার দিন আসে সে যেন ঐ দিন অশ্লীল কথাবার্তা না বলে এবং অনর্থক শোরগোল না করে। যদি কেউ তাকে গালি দেয় অথবা তার সাথে বিবাদ করিতে চায়, সে যেন বলে, “আমি একজন রোজা পালনকারী”। সে মহান আল্লাহ্‌র শপথ, যাঁর হাতে মুহাম্মাদের জীবন! রোজা পালনকারীদের মুখের দুর্গন্ধ ক্বিয়ামতের দিন আল্লাহ্‌র কাছে কস্তুরীর সুগন্ধির চেয়েও উত্তম হইবে। আর রোজা পালনকারীদের জন্য দুটি আনন্দ রয়েছে। এর মাধ্যমে সে অনাবিল আনন্দ লাভ করে। একটি হল যখন সে ইফত্বার করে তখন ইফত্বারীর মাধ্যমে আনন্দ পায় আর দ্বিতীয়টি হলো যখন সে তার প্রভুর সাথে মিলিত হইবে তখন সে তার সিয়ামের জন্য আনন্দিত হইবে।” [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৭৩, ইসলামিক সেন্টার- ২৫৭২]

২৫৯৭

আবু হুরায়রাহ্‌ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ “মানব সন্তানের প্রতিটি নেক কাজের সাওয়াব দশ গুন থেকে সাতশ গুন পর্যন্ত বাড়িয়ে দেয়া হয়। মহান আল্লাহ্‌ বলেন, “কিন্তু রোজা আমারই জন্য এবং আমি নিজেই এর প্রতিফল দান করব। বান্দা আমারই জন্য নিজের প্রবৃত্তিকে নিয়ন্ত্রণ করেছে এবং পানাহার পরিত্যাগ করেছে।” রোজা পালনকারীর জন্য দুটি আনন্দ আছে। একটি তার ইফত্বারের সময় এবং অপরটি তার প্রতিপালক আল্লাহ্‌র সাথে সাক্ষাতের সময়। রোজা পালনকারীর মুখের দুর্গন্ধ আল্লাহ্‌ তাআলার কাছে মিশকের সুগন্ধির চেয়েও অধিক সুগন্ধময়। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৭৪, ইসলামিক সেন্টার- ২৫৭৩]

২৫৯৮

আবু হুরায়রাহ্ ও আবু সাঈদ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তাঁরা উভয়ে বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ আল্লাহ্ তাআলা বলেন, “রোজা আমারই জন্য এবং আমিই এর প্রতিফল দান করব।” রোজা পালনকারীর জন্য দুটি আনন্দ রয়েছে। একটি হলো যখন সে ইফত্বার করে আনন্দিত হয়, অপরটি হলো যখন সে মহান আল্লাহ্‌র সাথে সাক্ষাৎ করিবে তখন সে আনন্দিত হইবে। সে মহান সত্তার শপথ, যাঁর হাতে মুহাম্মাদের জীবন! নিশ্চয়ই রোজা পালনকারীর মুখের গন্ধ আল্লাহ্ তাআলার কাছে মিশ্কের সুগন্ধের চেয়েও তীব্র। {৮} [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৭৫, ইসলামিক সেন্টার- ২৫৭৪]

{৮} ইফত্বারের সময় খুশির কারণ হলো, মহান আল্লাহ্ তাআলার অপার অনুগ্রহ সাহায্য এবং তাওফীকের কারণে এ রকম একটি ফাযীলত ও মর্যাদাপূর্ণ কাজ সম্পাদন করিতে পেরেছে, আর এ সময় দুনিয়ার যাবতীয় হালাল বস্তু আহার করা তার জন্য হালাল এবং এ সওম পূর্ণ হওয়ার কারণে সে পরকালীন সুখ-শান্তির আশাবাদী হলো।

২৫৯৯

যিরার ইবনি মুর্‌রাহ্‌ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] অর্থাৎ আবু সিমান থেকে এ সানাদ হইতে বর্ণীতঃ

উপরের হাদীস অনুরূপ বর্ণিত আছে। তবে এতে আরো আছে, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেন, যখন রোজা পালনকারী আল্লাহ্‌র সাথে সাক্ষাৎ করিবে এবং তিনি তাকে প্রতিদান দিবেন তখন সে আনন্দিত হইবে। {৯} [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৭৬, ইসলামিক সেন্টার- ২৫৭৫]

{৯} আল্লাহ্ তাআলার সাথে সাক্ষাতের সময় খুশি এজন্য যে, আল্লাহ্ তার অপার রহমত ও দয়ায় ইবাদাত কবূল করিয়াছেন এবং যে সাওয়াব ও প্রতিদানের প্রতিশ্রুতি করেছিলেন তা পূর্ণ হয়ে গেল।

২৬০০

সাহ্‌ল ইবনি সাদ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ জান্নাতে রাইয়্যান নামক একটি দরজা আছে। ক্বিয়ামতের দিন এ দরজা দিয়ে রোজা পালনকারী জান্নাতে প্রবেশ করিবে। আর রোজা পালনকারীগণ ছাড়া অন্য কেউ তাদের সাথে এ দরজা দিয়ে প্রবেশ করিতে পারবে না। ক্বিয়ামতের দিন রোজা পালনকারীদের ডেকে বলা হইবে, রোজা পালনকারীরা কোথায়? তখন তারা সে দরজা দিয়ে জান্নাতে প্রবেশ করিবে। অতঃপর রোজা পালনকারীদের শেষ লোকটি প্রবেশ করার সাথে সাথে তা বন্ধ করে দেয়া হইবে। অতঃপর সে দরজা দিয়ে আর কেউ প্রবেশ করিতে পারবে না। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৭৭, ইসলামিক সেন্টার- ২৫৭৬]

About halalbajar.com

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Check Also

মহান আল্লাহর বাণী : “তারা দুটি বিবদমান পক্ষ তাদের প্রতিপালক সম্পর্কে বাক-বিতণ্ডা করে”

মহান আল্লাহর বাণী : “তারা দুটি বিবদমান পক্ষ তাদের প্রতিপালক সম্পর্কে বাক-বিতণ্ডা করে” মহান আল্লাহর …

Leave a Reply

%d bloggers like this: