সফরে দু ওয়াক্তের নামাজ একত্রে [এক ওয়াক্তে] আদায় জায়িয

সফরে দু ওয়াক্তের নামাজ একত্রে  [এক ওয়াক্তে] আদায় জায়িয

সফরে দু ওয়াক্তের নামাজ একত্রে  [এক ওয়াক্তে] আদায় জায়িয >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৫. অধ্যায়ঃ সফরে দু ওয়াক্তের নামাজ একত্রে  [এক ওয়াক্তে] আদায় জায়িয

১৫০৬

আবদুল্লাহ ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, কোন সফরে দ্রুত চলতে হলে রাসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] মাগরিব এবং ইশার নামাজ একসাথে আদায় করিতেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১৪৯১, ইসলামিক সেন্টার- ১৪৯৯]

১৫০৭

নাফি [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

কোন সফরে আবদুল্লাহ ইবনি উমর [রাদি.] -কে দ্রুত পথ চলতে হলে সূর্যাস্তের পর পশ্চিম আকাশের লালিমা অদৃশ্য হওয়ার পর তিনি মাগরিব এবং ইশার নামাজ একত্র করে আদায় করিতেন। এ ব্যাপারে তিনি বলিতেনঃ সফরে রাসুলুল্লাহ [সাঃআঃ]-কে যখন দ্রুত চলতে হত তখন তিনি মাগরিব এবং ইশার নামাজ একসাথে আদায় করিতেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১৪৯২, ইসলামিক সেন্টার- ১৫০০]

১৫০৮

সালিম ইবনি আবদুল্লাহ [রাদি.] -এর মাধ্যমে তাহাঁর পিতার হইতে বর্ণীতঃ

তিনি [আবদুল্লাহ ইবনি উমর] বলেছেনঃ আমি দেখেছি সফরে দ্রুত পথ চলার প্রয়োজন হলে রসূলুল্লাহ্ [সাঃআঃ] মাগরিব এবং ইশার নামাজ একসাথে আদায় করে নিতেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১৪৯৩, ইসলামিক সেন্টার- ১৫০২]

১৫০৯

আবদুল্লাহ ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি দেখেছি সফরে কখনো রাসুলুল্লাহ [সাঃআঃ]-কে দ্রুত চলতে মাগরিব এবং ইশার নামাজ দেরী করে একসাথে আদায় করিতেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১৪৯৪, ইসলামিক সেন্টার- ১৫০৩]

১৫১০

আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, সূর্য পশ্চিম দিকে হেলে পড়ার পূর্বেই যদি তিনি সফরে রওয়ানা হইতেন তাহলে আস্‌রের নামাজের সময় পর্যন্ত দেরী করিতেন এবং তারপর কোথাও থেমে যুহর ও আস্‌রের নামাজ একসাথে আদায় করিতেন। কিন্তু রওয়ানা হওয়ার পূর্বেই যদি সূর্য ঢলে পড়ত তাহলে তিনি যুহরের নামাজ আদায় করে তারপর যাত্রা করিতেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১৪৯৫, ইসলামিক সেন্টার- ১৫০৪]

১৫১১

আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, নবী [সাঃআঃ] সফরে থাকাকালীন দুওয়াক্ত নামাজ একসাথে আদায় করিতে মনস্থ করলে যুহর নামাজ আদায় করিতে বিলম্ব করিতেন। পরে আস্‌রের ওয়াক্ত শুরু হলে তিনি যুহর ও আস্‌রের নামাজ এক সাথে আদায় করিতেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১৪৯৬, ইসলামিক সেন্টার- ১৫০৫]

১৫১২

আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

সফররত অবস্থায় নবী [সাঃআঃ]-এর কোন তাড়াহুড়ো থাকলে আস্রের সময় পর্যন্ত যুহরের নামাজ আদায় করিতে দেরী করিতেন এবং আস্রের প্রাথমিক সময়ে যুহর ও আস্রের নামাজ একসাথে আদায় করিতেন। আর এ অবস্থায় তিনি [সাঃআঃ] মাগরিবের নামাজ ও দেরী করে পশ্চিমাকাশে রক্তিম আভা অন্তর্হিত হওয়ার সময় মাগরিব ও ইশার নামাজ একসাথে আদায় করিতেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১৪৯৭, ইসলামিক সেন্টার- ১৫০৬]

By বুলূগুল মারাম

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Leave a Reply