সন্ধি ও জিয্‌ইয়া – অগ্নিপূজক দের কাছ থেকে কর নেওয়া

সন্ধি ও জিয্‌ইয়া – অগ্নিপূজক দের কাছ থেকে কর নেওয়া

সন্ধি ও জিয্‌ইয়া  >> বুলুগুল মারাম এর মুল সুচিপত্র দেখুন

অধ্যায় -১ঃ সন্ধি ও জিয্‌ইয়া

পরিচ্ছেদ – 31 অগ্নিপূজক দের কাছ থেকে কর নেওয়া
পরিচ্ছেদ- ৩২. আরবদের কাছ থেকে কর নেয়া
পরিচ্ছেদ – করের পরিমান এবং এর পরিশোধকারীর বিবরণ
পরিচ্ছেদ ৩৩. – ইসলাম উঁচু থাকিবে, নিচু হইবে না
পরিচ্ছেদ ৩৪. আহলে কিতাবদের সালাম দেওয়া এবং তাহাদের জন্য রাস্তা ছেড়ে দেয়া নিষেধ
পরিচ্ছেদ ৩৫. মুসলমান এবং মুশরিকদের মাঝে যুদ্ধবিরতির চুক্তি করা জায়েয
পরিচ্ছেদ ৩৬. চুক্তিবদ্ধ ব্যক্তিকে হত্যাকারীর গুনাহ

পরিচ্ছেদ – 31 অগ্নিপূজক দের কাছ থেকে কর নেওয়া

১৩০৬. আবদুর রহমান ইবনি আউফ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নাবী [সাঃআঃ] হাজার এলাকার অগ্নিপূজকদের নিকট হতে তা অর্থাৎ যিযিয়া গ্রহণ করিয়াছেন। {১৪১৩}

{১৪১৩} মুসলিম ৩১৫৭, তিরমিজি ১৫৮৬, ১৫৮৭, আবু দাউদ ৩০৪৬, আহম্মদ ১৬৬০, ১৬৮৮, মালেক ১৬১৭, দারিমী ২৫০১। হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৩২. আরবদের কাছ থেকে কর নেয়া

১৩০৭. আসিম ইবনি উমার [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি আনাস ও উসমান ইবনি আবু সুলায়মান [রাদি.] হতে বর্ণনা করিয়াছেন যে, নাবী [সাঃআঃ] খালিদ ইবনি ওয়ালীদকে যুদ্ধাভিযানে দুমাতুল জান্দালে শাসক উকাইদিরের নিকটে পাঠিয়েছিলেন । তিনি তাকে বন্দী করে নিয়ে আসেন। রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তাকে হত্যা করা হতে রক্ষা করিলেন ও তার সাথে জিইযয়া করের বিনিময়ে সন্ধি করেন। {১৪১৪}

{১৪১৪} আবু দাউদ ৩০৬৭।আলবানি হাদিসটিকে হাসান বলেছেন, তাহকিক আবু দাউদ। হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

পরিচ্ছেদ – করের পরিমান এবং এর পরিশোধকারীর বিবরণ

১৩০৮. মুআয ইবনি জাবাল [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেনঃ নাবী [সাঃআঃ] আমাকে ইয়ামান পাঠিয়েছিলেন। আর প্রত্যেক বয়ঃপ্রাপ্ত জিম্মী প্রজার মাথাপিছু [বার্ষিক] কর একটি দিনার বা তার সমমূল্যের মুআফিরী কাপড় আদায়ের আদেশ দিয়েছিলেন। {১৪১৫}

{১৪১৫} [আরবী] ইয়ামানের তৈরীকৃত পোশাককে বলা হয়। আর এই নামকরণটি সেখানকার একটি শহরের দিকে সম্বন্ধযুক্ত করে রাখা হয়েছে। আবু দাউদ ৩০৩৮, ১৫৭৬, তিরমিজি ৬২৩, নাসায়ী ২৪৫০, ২৪৫১, ২৪৫২, ইবনি মাজাহ ১৮০৩, আহম্মদ ২১৫০৫, ২১৫৩২, মালেক ৫৯৮, দারিমী ১৬২৩, ১৬২৪ । হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৩৩. – ইসলাম উঁচু থাকিবে, নিচু হইবে না

১৩০৯. আয়িয ইবন আমর মুযানী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ ইসলাম উঁচু থাকিবে-নীচু হইবে না। {১৪১৬}

হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

পরিচ্ছেদ ৩৪. আহলে কিতাবদের সালাম দেওয়া এবং তাহাদের জন্য রাস্তা ছেড়ে দেয়া নিষেধ

১৩১০. আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেন; সালাম আদান-প্রদানকালে ইয়াহুদী ও নাসারাদেরকে আগে সালাম দেবে না। রাস্তায় চলাচলে [কাছাকাছি হলে] তাহাদেরকে পাথের সংকীর্ণতার দিকে যেতে বাধ্য করিবে। {১৪১৭}

{১৪১৭} মুসলিম ২১৬৭, তিরমিজি ২৭০০, আবু দাউদ ১৪৯. আহম্মদ ৭৫১৩, ৭৫৬২, ৯২৩৩। হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৩৫. মুসলমান এবং মুশরিকদের মাঝে যুদ্ধবিরতির চুক্তি করা জায়েয

১৩১১. মারওয়ান [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নাবী [সাঃআঃ] হুদাইবিয়ার যুদ্ধ দিবসে বের হয়েছিলেন । [হাদসটি লম্বা, তার মধ্যে বর্ণিত হয়েছে]। এটা ঐ সন্ধি যা আব্দুল্লাহর পুত্র মুহাম্মদ সুহাইল ইবনি আমরের সাথে দশ বছর যুদ্ধ বন্ধ রাখার জন্য সম্পাদন করিলেন। জনসাধারণ এতে নিরাপদে থাকিবে ও একপক্ষ অন্য পক্ষের উপর আঘাত হানবে না। {১৪১৮}

{১৪১৮} আবু দাউদ ২৭৬৫, ২৭৬৬, বোখারী ১৬৯৫, ১৮১১, ২৭৩৪, ৪১৭৯, নাসায়ী ২৭৭১, আহম্মদ ১৮৪৩০, ১৮৪৪১, ১৮৪৪৫। হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

১৩১২. মুসলিমে আনাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

হাদিসের একটা অংশে এরূপ আছে, [প্রতিপক্ষ কুরাইশ বললো] তোমাদের যে লোক আমাদের কাছে চলে আসবে, আমরা তাকে তোমাদের কাছে ফেরত দেব না। আর আমাদের মধ্য থেকে যে লোক তোমাদের কাছে চলে যাবে তাকে আমাদের কাছে ফেরত পাঠাতে হইবে। [এরূপ শর্ত প্রসঙ্গে] সাহাবীগণ বলেন, হে আল্লাহর রাসূল! এ শর্ত কি আমরা লেখব? রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বললেনঃ হ্যা। কেননা আমাদেরকে ছেড়ে যারা তাহাদের কাছে চলে যাবে [জানতে হইবে] আল্লাহ তাকে [আমাদের থেকে] দূর করে দিয়েছেন। আর যে তাহাদের মধ্যে থেকে আমাদের কাছে চলে আসবে তার জন্য আল্লাহ অচিরেই মুক্তি ও বিপদ হতে ত্রাণের ব্যবস্থা করবেন। {১৪১৯}

{১৪১৯} মুসলিম ১৭৮৪. আহম্মদ ১৩৪১৫। হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৩৬. চুক্তিবদ্ধ ব্যক্তিকে হত্যাকারীর গুনাহ

১৩১৩. আবদুল্লাহ ইবনি আমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নাবী [সাঃআঃ] বলেন, যে ব্যক্তি কোন জিম্মীকে হত্যা করে, সে জান্নাতের ঘ্রাণ পাবে না। যদিও জান্নাতের ঘ্রাণ চল্লিশ বছরের দূরত্ব হতে পাওয়া যাবে। {১৪২০}

{১৪২০} বোখারী ৬৯১৪, নাসায়ী ৪৭৫০, ইবনি মাজাহ ২৬৮৬. আহম্মদ ৬৭০৬। হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

By ইবনে হাজার আসকালানী

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Leave a Reply