সন্তানের মৃত্যুতে যে লোক সাওয়াবের আশা করে তার মর্যাদা

সন্তানের মৃত্যুতে যে লোক সাওয়াবের আশা করে তার মর্যাদা

সন্তানের মৃত্যুতে যে লোক সাওয়াবের আশা করে তার মর্যাদা >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৪৭. অধ্যায়ঃ সন্তানের মৃত্যুতে যে লোক সাওয়াবের আশা করে তার মর্যাদা

৬৫৯০

আবু হুরাইরাহ [রাদি.]-এর সানাদে নবী [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, কোন মুসলিমের তিনটি সন্তান মৃত্যুবরণ করলে তাকে জাহান্নামের আগুন ছুইবে না, শপথ কার্যকরের জন্যে যা দরকার তা ব্যতীত। [ই.ফা, ৬৪৫৭, ই.সে ৬৫০৮]

৬৫৯১

যুহরী মালিক-এর সূত্রে হইতে বর্ণীতঃ

যুহরী মালিক-এর সূত্রে তার হুবহু হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। তাছাড়া সুফইয়ান [রাদি.] হইতে বর্ণীত হাদীসে আরো আছে- সে জাহান্নামে গমন করিবে না, শপথ কার্যকরী ব্যতীত। [ই.ফা, ৬৪৫৮, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫০৯]

৬৫৯২

আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম] [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম] কিছু আনসারী নারীদের উদ্দেশ্য করে বলেন, তোমাদের মধ্যে কারো তিনটি সন্তান মৃত্যুবরণ করার পরও সে আল্লাহর প্রতিদানের আশা করে ধৈর্য ধারণ করলে সে জান্নাতে গমন করিবে। অতঃপর এক স্ত্রী বলিল, হে আল্লাহর রসূল [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম] দুজন সন্তান মৃত্যুবরণ করলে? তিনি বলিলেন, দুজনেও তাই। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৫৯, ইসলামিক সেন্টার-৬৫১০]

৬৫৯৩

আবু সাঈদ আল খুদরী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, এক নারী রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম] -এর নিকট এসে বললো, হে আল্লাহর রসূল [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম] পুরুষ লোকজন আপনার হাদীস শুনতে পায়। কাজেই আপনি আপনার নিকট হইতে আমাদের [নারী সমাজের] জন্যে একটি দিন ঠিক করে দিন [যেদিন আমরা আপনার নিকট একত্র হই]। আর আল্লাহ আপনাকে যা শিক্ষা দান করেন তা হইতে আমাদেরকে শিক্ষা দিন। তিনি [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম] বলিলেন, বেশ ভালো তো, অমুক অমুক দিন তোমরা সমবেত হইবে। তারা [নির্দিষ্ট দিনে] একত্র হলো। অতঃপর রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম] তাদের সমীপে আসলেন এবং আল্লাহ তাকে যা শিখিয়েছেন তা হইতে তাদেরকে শিখালেন। অতঃপর তিনি বলিলেন, তোমাদের মাঝে যে কোন মহিলা তার জীবিত থাকতে সন্তান থেকে তিনটি সন্তান পাঠালেন [অর্থাৎ- তিনটি সন্তান মারা গেল]। সে সন্তানরা বিচার দিবসে তার জন্যে আড়াল হইবে। তখন এক স্ত্রী বলিল, দুজন, দুজন, দুজন হলে [কি বিধান]। রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম] বলিলেন, হ্যা, দুজন, দুজন, দুজনেও এ বিধান। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৬০, ইসলামিক সেন্টার-৬৫১১]

৬৫৯৪

আবদুর রহমান ইবনিল আসবাহানী [রাদি.] এ সূত্রে হইতে বর্ণীতঃ

আবদুর রহমান ইবনিল আসবাহানী [রাদি.] এ সূত্রে তার সমার্থ হুবহু হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। তবে তারা সকলে আবদুর রহমান ইবনি আসবাহানী [রাদি.] হইতে এটুকু বেশি বর্ণনা করিয়াছেন যে, “তিনি বলেন, আমি আবু হযিমকে আবু হুরায়রা [রাদি.] হইতে বলিতে শুনেছি”। তিনি বলেন, এমন তিনটি সন্তান যারা সাবালক হয়নি। [ই.ফা, ৬৪৬১, ই.সে ৬৫১২]

৬৫৯৫

আবু হাসসান [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি আবু হুরায়রা [রাদি.]-কে বললাম, আমার দুটি ছেলে সন্তান মৃত্যুবরণ করেছে। আপনি কি রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম]-এর পক্ষ হইতে একটি হাদীস উল্লেখ করবেন, যাতে আমাদের মৃতদের ক্ষেত্রে আপনি আমাদের মনে শান্তি দিতে পারেন। তিনি [বর্ণনাকারী] বলেন, তিনি বলিলেন, হ্যা, তাদের জন্যে তার ছোটশিশুরা জান্নাতের প্রজাপতি তুল্য। তাদের মাঝে কেউ তার পিতার সাথে মিলিত হইবে, অথবা তিনি বলেছেন বাবা-মা দুজনের সাথে মিলিত হইবে। অতঃপর তিনি তার পরিধানের কাপড় কিংবা বলেছেন, হাত ধরবে, যেমনটি আমি তোমার কাপড়ের আঁচল ধরছি। এরপর আর তারা তাদের ছাড়বে না, কিংবা রাবী বলেছেন, ধরে থাকা শেষ হইবে না যতক্ষণ পর্যন্ত না আল্লাহ তার বাবা-মাকে জান্নাতে প্রবেশ করবেন। সুওয়াইদ [রাদি.]-এর বর্ণনায় আরো রহিয়াছে, আবু সালীল আমাদেরকে হাদীসটি বর্ণনা করিয়াছেন। [ই ফা.৬৪৬২,ই-সে,৬৫১৩]

উবাইদুল্লাহ ইবনি সাঈদ [রাদি.] … আত তাইমী [রাদি.] হইতে এ সূত্রে হুবহু হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। তিনি বলেন, আপনি কি রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম] হইতে এমন কিছু শুনেছেন, যা আমাদের মৃতদের সম্পর্কে আমাদের হৃদয়কে খুশি করে দেয়? তিনি বলিলেন, হ্যা। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৬২, ই.সে,৬৫১৪]

৬৫৯৬

আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, জনৈক মহিলা একটি ছেলে সন্তান নিয়ে নবী [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম] এর নিকট এসে বলিল, হে আল্লাহর নবী [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম]। আপনি তার জন্যে আল্লাহর নিকট দুআ করুন। আমি তিনটি সন্তান কবরস্থ করেছি। তিনি বলিলেন, তুমি তিনটি সন্তান দাফন করেছ? মহিলা বলিল, হ্যা। তিনি বলিলেন, তুমি তো অবশ্যই জাহান্নাম হইতে একটি শক্ত প্রাচীর তৈরি করেছ। তাদের মাঝ থেকে উমর তার দাদার সানাদে হাদীসটি বর্ণনা করিয়াছেন।

তিনি বলেন, অবশিষ্টরা তালুক [রাদি.] হইতে রিওয়ায়াত করিয়াছেন। তারা , দাদার শব্দটি উল্লেখ করেননি। [ই.ফা, ৬৪৬৩, ই.সে, ৬৫১৫]

৬৫৯৭

আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, এক মহিলা তার একটি ছেলে নিয়ে নবী [সাঃআঃ]-এর সমীপে এসে বলিল, হে আল্লাহর রসূল [সাঃআঃ]! নিশ্চয়ই সে অসুস্থ এবং তার ব্যাপারে আমি ভয় করছি। আর আমি তিনটি সন্তান কবরস্থ করেছি। তিনি বলিলেন, তুমি জাহান্নাম হইতে বাঁচার জন্যে একটি শক্ত দেয়াল তৈরি করেছ।

যুহায়র [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] তাল্ক হইতে হাদীসটি বর্ণনা করিয়াছেন এবং তিনি কুন্ইয়াত [উপনাম] উল্লেখ করেননি। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৬৪, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫১৬]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply