শিরক না করা অবস্থায় যার মৃত্যু হয় সে জান্নাতী

শিরক না করা অবস্থায় যার মৃত্যু হয় সে জান্নাতী

শিরক না করা অবস্থায় যার মৃত্যু হয় সে জান্নাতী >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৪০.অধ্যায়ঃ শিরক না করা অবস্থায় যার মৃত্যু হয় সে জান্নাতী, মুশরিক অবস্থায় যার মৃত্যু হয় সে জাহান্নামী

১৬৯

আবদুল্লাহ ইবনি মাসউদ [রাঃআ:] হইতে বর্ণিতঃ

রসূলুল্লাহ্‌ [সাঃআ:] বলেছেন, অন্য বর্ণনায় রসূল [সাঃআ:]-কে বলিতে শুনিয়াছি। যে ব্যক্তি আল্লাহর সাথে কোন কিছুকে শারীক করে মারা যাবে সে জাহান্নামে প্রবেশ করিবে। আমি বলি, যে ব্যক্তি আল্লাহর সাথে অন্য কাউকে শারীক না করা অবস্থায় মারা যায় সে জান্নাতে প্রবেশ করিবে। [ই.ফা. ১৭০; ই.সে. ১৭৬]

হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

১৭০

জাবির [রাঃআ:] হইতে বর্ণিতঃ

এক ব্যক্তি নবি [সাঃআ:] এর সামনে উপস্থিত হয়ে জিজ্ঞেস করিল-ইয়া রসুলুল্লাহ! ওয়াজিবকারী [অবশ্যম্ভাবী] দুটো বিষয় কি? তিনি বলিলেন, আল্লাহর সাথে কোন কিছু শারীক না করে যে ব্যক্তি মারা যাবে সে জান্নাতে প্রবেশ করিবে। আর যে ব্যক্তি আল্লাহর সাথে কোন কিছু শারীক করা অবস্থায় মারা যাবে সে জাহান্নামে যাবে। [ই.ফা. ১৭১; ই.সে. ১৭৭]

হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

১৭১

জাবির ইবনি আবদুল্লাহ [রাঃআ:] হইতে বর্ণিতঃ

আমি রসুলুল্লাহ [সাঃআ:]-কে বলিতে শুনিয়াছি, যে ব্যক্তি আল্লাহর সাথে কাউকেও শারীক না করে আল্লাহর সামনে উপস্থিত হইবে সে জান্নাতে প্রবেশ করিবে। আর যে ব্যক্তি তাহাঁর সম্মুখে উপস্থিত হইবে এমন অবস্থায় যে, সে আল্লাহর সাথে শারীক স্থির করে, তাহলে সে জাহান্নামে প্রবেশ করিবে। [ই.ফা. ১৭২; ই.সে. ১৭৮]

হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

১৭২

জাবির [রাঃআ:] হইতে বর্ণিতঃ

নবি [সাঃআ:] বলেছেন, যার পরবর্তী অংশ পূর্ববর্তী হাদীসের অনুরূপ। [ই.ফা. ১৭৩; ই.সে. ১৭৯]

হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

১৭৩

আবু যার [রাঃআ:] হইতে বর্ণিতঃ

নবি [সাঃআ:] বলেন, জিবরীল [আ:] আমার নিকট এসে সুসংবাদ দিলেন যে, আপনার উম্মাতের যে কেউ শিরক না করে মারা যাবে সে জান্নাতে প্রবেশ করিবে। আমি [আবু যার] বললাম, যদিও সে ব্যভিচার করে এবং যদিও সে চুরি করে। তিনি বলিলেন, যদিও সে ব্যভিচার করে ও চুরি করে। [ই.ফা. ১৭৪; ই.সে. ১৮০]

হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

১৭৪

আবু যার [রাঃআ:] হইতে বর্ণিতঃ

একদা আমি নবি [সাঃআ:]-এর খিদমাতে উপস্থিত হলাম। সে সময় তিনি ঘুমাচ্ছিলেন এবং তাহাঁর গায়ের উপর একখানা চাদর ছিল। আবার এসে তাঁকে ঘুমন্ত অবস্থায় পেলাম। পরে আবার এসে দেখি, তিনি ঘুম থেকে উঠেছেন। আমি তাহাঁর নিকটে বসলাম। তারপর তিনি বলিলেন, যে কোন বান্দা [আল্লাহ ব্যতীত কোন ইলাহ নেই] বলবে এবং এ বিশ্বাসের উপর মারা যাবে, সে জান্নাতে প্রবেশ করিবে। আমি আরয করলাম, যদি সে ব্যভিচার করে এবং চুরি করে তবুও? রসূল [সাঃআ:] বলিলেন, যদিও সে ব্যভিচার করে ও চুরি করে। এ কথাটি তিন তিনবার পুনরাবৃত্তি করা হলো। চতুর্থবারে রসূলুল্লাহ্‌ [সাঃআ:] বলিলেন, যদিও আবু যার-এর নাক ধূলিমলিন হয়, [অর্থাৎ আবু যার-এর অপছন্দ হলেও] রাবী বলেন, আবু যার [রাঃআ:] এ কথা বলিতে বলিতে বের হলেন, যদিও আবু যার-এর নাক ধূলিমলিন হয়। [ই.ফা. ১৭৫; ই.সে. ১৮১]

হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply