শাসকের যুলুম ও অন্যায় পক্ষপাতিত্বের সময় ধৈর্যধারণের আদেশ

শাসকের যুলুম ও অন্যায় পক্ষপাতিত্বের সময় ধৈর্যধারণের আদেশ

শাসকের যুলুম ও অন্যায় পক্ষপাতিত্বের সময় ধৈর্যধারণের আদেশ >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

১১. অধ্যায়ঃ শাসকের যুলুম ও অন্যায় পক্ষপাতিত্বের সময় ধৈর্যধারণের আদেশ

৪৬৭৩

উসায়দ ইবনি হুরায়ব [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

জনৈক আনসার রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]-এর সাথে একান্তে সাক্ষাৎ করলো এবং বললো আপনি ওমুককে যেভাবে কর্মচারী নিযুক্ত করিয়াছেন, সেভাবে আমাকেও কি কর্মচারী নিয়োগ করবেন না? তখন তিনি বলিলেন, আমার পরে তোমরা অনেক পক্ষপাতিত্ব দেখবে তখন তোমরা ধৈর্যধারণ করিবে যে পর্যন্ত না তোমরা হাওয [কাওসার]-এ আমার সাথে মিলিত হও। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৬২৭, ইসলামিক সেন্টার-৪৬২৮]

৪৬৭৪

উসায়দ ইবনি হুরায়র [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

জনৈক আনসার রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম] এর সাথে একান্তে সাক্ষাৎ করিল। এরপর পূর্বোক্ত হাদীসের অনুরূপ বর্ণনা করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৬২৮, ইসলামিক সেন্টার-৪৬২৯]

৪৬৭৫

উবাইদুল্লাহ ইবনি মুআয [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

শুবাহ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতেও উক্ত সানাদে হাদীসটি বর্ণনা করিয়াছেন। তবে তিনি রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]-এর সাথে একান্তে মিলিত হন বর্ণনা করেননি। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৬২৮, ইসলামিক সেন্টার-৪৬৩০]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply