শত্রুতা ও পরস্পরকে পরিত্যাগ করা নিষিদ্ধ হওয়ার বিবরণ

শত্রুতা ও পরস্পরকে পরিত্যাগ করা নিষিদ্ধ হওয়ার বিবরণ

শত্রুতা ও পরস্পরকে পরিত্যাগ করা নিষিদ্ধ হওয়ার বিবরণ >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

১১. অধ্যায়ঃ শত্রুতা ও পরস্পরকে পরিত্যাগ করা নিষিদ্ধ হওয়ার বিবরণ

৬৪৩৮

আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ প্রতি সোমবার ও বৃহস্পতিবার জান্নাতের দরজাসমূহ খুলে দেয়া হয়। এরপর এমন সব বান্দাকে ক্ষমা করে দেয়া হয়, যারা আল্লাহর সাথে অংশীদার স্থাপন করে না। তবে সে ব্যক্তিকে নয়, যার ভাই ও তার মধ্যে শত্রুতা বিদ্যমান। এরপর বলা হইবে, এ দুজনকে আপোষ মীমাংসা করার জন্য অবকাশ দাও, এ দুজনকে আপোষ মীমাংসা করার জন্য সুযোগ দাও, এ দুজনকে আপোষ মীমাংসা করার জন্য সুযোগ দাও। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৩১২, ইসলামিক সেন্টার- ৬৩৬১]

৬৪৩৯

সুহায়ল [রাদি.]-এর পিতার সূত্রে হইতে বর্ণীতঃ

মালিক-এর সানাদে তার হাদীসের অনুরূপ হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। তবে দারাওয়ার্দী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বর্ণিত হাদীসে ইবনি আবদাহ্-এর বর্ণনায় [আরবী] “কিন্তু সম্পর্কচ্ছেদকারী দুব্যক্তিকে ক্ষমা করা হইবে না” উল্লেখ আছে। আর কুতাইবাহ্ [রাদি.] বলেছেন, [আরবী] [তবে সম্পর্ক বিচ্ছিন্নকারী দুজনকে ক্ষমা করা হইবে না]। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৩১২, ইসলামিক সেন্টার- ৬৩৬২]

৬৪৪০

মারফূ সানাদে আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, প্রতি বৃহস্পতিবার ও সোমবার আমাল পেশ করা হয়। তখন আল্লাহ তাআলা সেদিন প্রত্যেক এমন বান্দাকে ক্ষমা করেন, যারা তাহাঁর সাথে কোন কিছুকে অংশীদার স্থির করে না। তবে এমন ব্যক্তিকে নয়, যার ভাই ও তার মধ্যে শত্রুতা আছে। তখন বলা হইবে, এ দুজনকে অবকাশ দাও যতক্ষণ না তারা সংশোধনের দিকে ফিরে আসে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৩১৩, ইসলামিক সেন্টার- ৬৩৬৩]

৬৪৪১

আবু হুরাইরাহ [রাদি.]-এর সূত্রে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, মানুষের আমাল [সপ্তাহে দুবার] সোমবার ও বৃহস্পতিবার [আল্লাহর দরবারে] উপস্থাপন করা হয়। এরপর প্রত্যেক মুমিন বান্দাকে ক্ষমা করা হয়। তবে সে ব্যক্তিকে নয়, যার ভাই-এর সাথে তার দুশমনি রয়েছে। তখন বলা হইবে, এ দুজনকে বর্জন করো অথবা অবকাশ দাও যতক্ষণ না তারা মীমাংসার প্রতি প্রত্যাবর্তন করে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৩১৪, ইসলামিক সেন্টার- ৬৩৬৪]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply