ভ্রমণকালে রোজা রাখা ও না রাখার ইখতিয়ার প্রসঙ্গে

ভ্রমণকালে রোজা রাখা ও না রাখার ইখতিয়ার প্রসঙ্গে

ভ্রমণকালে রোজা রাখা ও না রাখার ইখতিয়ার প্রসঙ্গে >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

১৭. অধ্যায়ঃ ভ্রমণকালে রোজা রাখা ও না রাখার ইখতিয়ার প্রসঙ্গে

২৫১৫

আয়িশাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, হামযাহ্ ইবনি আমর আল আসলামী [রাদি.] রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কে সফরের অবস্থায় সওম পালন করা সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলিলেন, যদি তোমার ইচ্ছা হয় তবে সওম পালন কর, আর যদি ইচ্ছা হয় তবে সওম ছেড়ে দাও। [ই. ফা.২৪৯২, ইসলামিক সেন্টার- ২৪৯১]

২৫১৬

আয়িশাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, হামযাহ্ ইবনি আম্‌র আল আসলামী [রাদি.] রাসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কে জিজ্ঞেস করিলেন, ইয়া রসূলুল্লাহ! আমি তো অনবরত সওম পালন করি। সফরের অবস্থায়ও সওম পলন করব কি? তিনি বলিলেন, যদি তোমার ইচ্ছা হয়, তবে সওম পালন কর, আর যদি ইচ্ছা হয়, তবে সওম ছেড়ে দাও। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৪৯৩, ইসলামিক সেন্টার- ২৪৯২]

২৫১৭

হিশাম [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

এ সানাদে হাম্মাদ ইবনি যায়দের অনুরূপ হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন, [তিনি বলেন] আমি সর্বদা সওম পালন করি। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৪৯৪, ইসলামিক সেন্টার- ২৪৯৩]

২৫১৮

হিশাম [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

এ সানাদে অনুরূপ হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। হামযাহ্ [রাদি.] বলেন, আমি সর্বদা সওম পালন করি। সুতরাং সফরে আমি কি সওম পালন করব? [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৪৯৫, ইসলামিক সেন্টার- ২৪৯৪]

২৫১৯

হামযাহ্ ইবনি আমর আল আসলামী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, ইয়া রসূলাল্লাহ! সফরের অবস্থায় রোজা পালনের ক্ষমতা আমার রয়েছে। এ সময় রোজা পালন করলে আমার কোন গুনাহ হইবে কি? তিনি বলিলেন, এটা আল্লাহর পক্ষ হইতে এক বিশেষ অবকাশ, যে তা গ্রহন করিবে, তা তার জন্য উত্তম। আর যদি কেউ রোজা পালন করিতে চায়, তবে তার কোন গুনাহ হইবে না। হারূন তার হাদীসের মধ্যে [আরবি] [এটা ছাড়] কথাটি উল্লেখ করিয়াছেন। কিন্ত [আরবি] [আল্লাহর পক্ষ থেকে] কথাটি উল্লেখ করেননি। [ই. ফা.২৪৯৬, ইসলামিক সেন্টার- ২৪৯৫]

২৫২০

আবু দারদা [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, এক প্রচন্ড গরমের দিনে রমজান মাসে আমরা রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] এর সাথে সফরে বের হলাম। গরম এত প্রচন্ড ছিল যে, আমাদের প্রত্যেকেই নিজ নিজ হাত মাথার উপর তুলে ধরেছিল। আর মাত্র রাসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] ও আব্দুল্লাহ ইবনি রওয়াহাহ্ [রাদি.] ব্যতীত আমাদের মাঝে কেউই সওম পালনকারী ছিল না। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৪৯৭, ইসলামিক সেন্টার- ২৪৯৬]

২৫২১

উম্মু দারদা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

আবু দারদা [রাদি.] বলেছেন যে প্রচন্ড গরমের দিনে কোন এক সফরে আমরা রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] এর সাথে ছিলাম। গরম এতো প্রচন্ড ছিল যে, লোকেরা নিজ নিজ হাত মাথার উপরে রেখে দিয়েছিল। আর রাসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] ও আব্দুল্লাহ ইবনি রওয়াহাহ্ [রাদি.] ব্যতীত আমাদের মাঝে কেউই সওম পালনকারী ছিল না। [ই. ফা.২৪৯৮, ইসলামিক সেন্টার- ২৪৯৭]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply