রূহসমূহ সমাজবদ্ধ ও ভালবাসার মানুস একসাথে থাকবে

রূহসমূহ সমাজবদ্ধ ও ভালবাসার মানুস একসাথে থাকবে

রূহসমূহ সমাজবদ্ধ >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৪৮. অধ্যায়ঃ আল্লাহ তাআলা যখন কোন বান্দাকে মুহাব্বাত করেন তখন তাকে তার সকল বান্দাদের কাছেও প্রিয় করিয়ে দেন
৪৯. অধ্যায়ঃ রূহসমূহ সমাজবদ্ধ
৫০. অধ্যায়ঃ যাকে যে মানুষ ভালবাসে সে তার সাথেই থাকিবে
৫১. অধ্যায়ঃ যদি সৎলোকের গুণ বর্ণনা করা হয় তবে তা সুসংবাদ তার জন্যে ক্ষতি নয়

৪৮. অধ্যায়ঃ আল্লাহ তাআলা যখন কোন বান্দাকে মুহাব্বাত করেন তখন তাকে তার সকল বান্দাদের কাছেও প্রিয় করিয়ে দেন

৬৫৯৮. আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ আল্লাহ তাআলা যদি কোন বান্দাকে পছন্দ করেন তখন জিব্রীল [আঃ]-কে ডাক দেন এবং বলেন, নিশ্চয়ই আমি অমুক লোককে পছন্দ করি, তুমিও তাকে পছন্দ কর। তিনি বলেন, তখন জিব্রীল [আঃ] তাকে পছন্দ করেন। অতঃপর তিনি আকাশমণ্ডলীতে ঘোষণা দিয়ে বলেন, নিশ্চয়ই আল্লাহ অমুক লোককে পছন্দ করেন, সুতরাং আপনারাও তাকে পছন্দ করুন। তখন আকাশবাসীরা তাকে পছন্দ করে। তিনি বলেন, এরপর দুনিয়াতে তাকে নন্দিত, সমাদৃত করা হয়। আর আল্লাহ যদি কোন লোকের উপর রাগ করেন তখন জিব্রীল [আঃ]-কে ডাক দেন এবং বলেন, আমি অমুক বান্দার উপর রাগ করেছি, তুমিও তার প্রতি নারাজ হও। তিনি [সাঃআঃ] বলেন, তখন জিব্রীল [আঃ] তার উপর রাগান্বিত হন। তারপর তিনি আকাশবাসীদেরকে ডাক দিয়ে বলেন, নিশ্চয়ই আল্লাহ তাআলা অমুকের উপর রাগান্বিত। কাজেই আপনারাও তার উপর ক্রোধান্বিত হোন। তিনি বলেন, তখন লোকেরা তার উপর দুশমনি পোষণ করে। তারপর তার জন্য পৃথিবীতে শত্রু বানিয়ে দেয়া হয়।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৬০৫, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫১৭]

৬৫৯৯. সুহায়ল [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

সুহায়ল [রাদি.] এ সূত্রে হুবহু হাদীস বর্ণিত। তাছাড়া আলা ইবনিল মুসাইয়্যাব [রহমাতুল্লাহি আলাইহি]-এর হাদীসে [আরবি] [শত্রুতা] শব্দটির উল্লেখ নেই।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৬৬, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫১৮]

৬৬০০. আবু সালিহ্ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমরা আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করছিলাম। তখন উমর ইবনি আবদুল আযীয [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] গমন করিলেন। সে সময় হাজ্জের মৌসুম, লোকেরা তাঁকে দেখে দাঁড়িয়ে গেলেন। তখন আমি আমার পিতাকে বললাম, হে আব্বাজান! আমার মনে হয়, আল্লাহ তাআলা উমর ইবনি আবদুল আযীয [রহমাতুল্লাহি আলাইহি]-কে পছন্দ করেন। তিনি বলেন, সে কি? অর্থাৎ- তুমি কিভাবে বুঝলে? আমি বললাম, এ কারণে যে, মানুষের হৃদয়ে তার ভালবাসা বদ্ধমূল হয়ে আছে। তিনি বলিলেন, তোমার পিতার শপথ! তুমি শুনেছ আবু হুরায়রা্ [রাদি.]-কে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] হইতে হাদীস বর্ণনা করিতে। তারপর তিনি সুহায়ল [রাদি.] হইতে জারীর বর্ণিত হাদীসের হুবহু বর্ণনা করেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৬৭, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫১৯]

৪৯. অধ্যায়ঃ রূহসমূহ সমাজবদ্ধ

৬৬০১. আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ রূহসমূহ সমাজবদ্ধ২। সুতরাং যারা পরস্পরে পরিচিতি লাভ করছে তারা দুনিয়াতে পরস্পরে প্রীতি বন্ধনে আবদ্ধ হয়। আর যারা সেখানে অপরিচিত তারা এখানেও ভিন্ন থাকে।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৬৮, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫২০]

২ [আরবি] এর মর্ম ঃ রূহ পৃথিবীতে আসার পূর্বে সমাজবদ্ধ বিভিন্ন শ্রেনীর ছিল। বর্ণিত আছে যে, মানুষকে সৃষ্টি করে সমাজবদ্ধভবে করা হয়েছে। তারপর তা বিভিন্ন দেহে পৃথকভাবে স্থাপন করা হয়েছে। সুতরাং যার স্বভাব জগতের যার সাথে মিল আছে তাকে সে ভালবাসবে। আর স্বভাবের সাথে যার মিল নেই, তার থেকে সে ভিন্ন থাকিবে।

৬৬০২. আবু হুরাইরাহ [রাদি.] থেকে মারফূ সূত্রে হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, মানুষ স্বর্ণ ও রৌপ্যের খনি স্বরূপ। জাহিলিয়্যাতের সময় যারা সর্বোৎকৃষ্ট তারা ইসলামের সময়ও সর্বোৎকৃষ্ট, যখন তারা সূক্ষ্ম জ্ঞান অর্জন করেন [দ্বীনের বুঝদার হয়ে থাকেন]। আর আত্মাসমূহ স্বভাবজাত সমাজবদ্ধ। সেখানে যেসব রূহ পরস্পরে পরিচিতি লাভ করেছিল দুনিয়াতে সেগুলো সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে থাকে আর সেখানে যেগুলো অপরিচিত ছিল, এখানেও তারা অপরিচিত।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৬৯, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫২০{ক}]

৫০. অধ্যায়ঃ যাকে যে মানুষ ভালবাসে সে তার সাথেই থাকিবে

৬৬০৩. আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

এক যাযাবর রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-কে প্রশ্ন করিল, কিয়ামাত কবে হইবে? রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তাকে বলিলেন, তুমি কিয়ামাতের জন্যে কি পাথেয় প্রস্তুত করেছ? সে বলিল, আমি বেশি কিছু প্রস্তুত করিতে পারিনি। তবে আল্লাহ ও তাহাঁর রসূলের মুহাব্বত। তিনি বলিলেন, তুমি তারই সাথী হইবে যাকে তুমি মুহাব্বাত কর।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৭০, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫২১]

৬৬০৪. আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, এক ব্যক্তি বলিল, হে আল্লাহর রসূল [সাঃআঃ]! কিয়ামাত কবে সংঘটিত হইবে? তিনি বলিলেন, তুমি তার জন্যে কি সংগ্রহ করেছ? তখন সে বেশি কিছু উল্লেখ করিতে পারেনি। তিনি বলেন, কিন্তু আমি আল্লাহ ও তাহাঁর রসূলকে মুহাব্বত করি। তিনি বলিলেন, তুমি তার সাথেই থাকিবে যাকে তুমি মুহাব্বাত কর।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৭১, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫২২]

৬৬০৫. আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

জনৈক বেদুঈন রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর নিকট আসলো। তারপর তার মতো হুবহু হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। তাছাড়া এ বর্ণনায় রয়েছে, তিনি বলেন, বেদুঈন লোকটি বলিল, আমি কিয়ামাতের জন্যে এমন কোন বেশি সম্বল তৈরি করিনি, যার জন্য আমি নিজেকে সাধুবাদ দিতে পারি।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৭১, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫২৩]

৬৬০৬. আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, জনৈক লোক রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর কাছে আসলো, অতঃপর বললো, হে আল্লাহর রসূল [সাঃআঃ]! কিয়ামাত কবে সংঘটিত হইবে? তিনি বলিলেন, তুমি সেদিনের জন্যে কি পাথেয় সংগ্রহ করেছ? সে বললো, আল্লাহ ও তাহাঁর রসূলের মুহাব্বাত। তিনি বলিলেন, নিশ্চয়ই তুমি তার সাথে থাকিবে যাকে তুমি মুহাব্বাত কর। আনাস [রাদি.] বলেন, আমি আল্লাহ ও তাহাঁর রসূল, আবু বকর [রাদি.] ও উমর [রাদি.]-কে পছন্দ করি। সুতরাং আমি আশা রাখি যে, কিয়ামাতের দিনে আমি তাদের সাথে থাকব, যদিও আমি তাঁদের সমান আমাল করিতে পারিনি।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৭২, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫২৪]

৬৬০৭. আনাস ইবনি মালিক [রাদি.]-এর সানাদে নবী [সাঃআঃ] হইতে বর্ণীতঃ

তবে জাফার ইবনি সুলাইমান [রহমাতুল্লাহি আলাইহি]-এর বর্ণিত হাদীসে আনাস-এর উক্তি “আমি ভালবাসি এবং এর পরবর্তী অংশ” উল্লেখ করেননি।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৭৩, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫২৫]

৬৬০৮. আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি ও রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] উভয়ে মাসজিদে নাবাবী হইতে বের হচ্ছিলাম। এমন সময় মাসজিদের দরজায় এক লোকের সাথে সাক্ষাৎ হলো। সে বলিল, হে আল্লাহর রসূল [সাঃআঃ]! কিয়ামাত কবে সংঘটিত হইবে? রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলিলেন, তুমি কিয়ামাতের জন্যে কি সম্বল সংগ্রহ করেছ? তিনি বলেন, তখন লোকটি নীরব থাকলো। তারপর সে বলিল, হে আল্লাহর রসূল [সাঃআঃ]! আমি তো সেজন্যে বেশি পরিমাণ নামাজ, সিয়াম ও সদাকাহ্-খয়রাত সংগ্রহ করিনি। তবে আমি আল্লাহ ও তাহাঁর রসূলকে মুহাব্বাত করি। তিনি বলিলেন, তুমি তার সাথেই থাকিবে যাকে তুমি মুহাব্বাত কর।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৭৪, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫২৬]

৬৬০৯. আনাস [রাদি.]-এর সানাদে নবী [সাঃআঃ] হইতে বর্ণীতঃ

আনাস [রাদি.]-এর সানাদে নবী [সাঃআঃ] হইতে হুবহু হাদীস বর্ণিত হয়েছে।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৭৫, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫২৭]

৬৬১০. আনাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

আনাস [রাদি.]-এর সানাদে হুবহু এ হাদীস নবী [সাঃআঃ] হইতে বর্ণীত আছে।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৭৬, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫২৮]

৬৬১১. আবদুল্লাহ ইবনি মাসঊদ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, জনৈক ব্যক্তি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর নিকট আসলো। অতঃপর সে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-কে বললো, হে আল্লাহর রসূল [সাঃআঃ]! সে লোকটি সম্পর্কে আপনি কী মনে করেন, যে একটি সম্প্রদায়কে মুহাব্বাত করে অথচ সে তাদের সাথে মিলিত হয়নি। রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলিলেন, যে যাকে মুহাব্বাত করে সে তার সঙ্গেই থাকিবে।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৭৭, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫২৯]

৬৬১২. আবদুল্লাহ ইবনি মাসউদ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

আবদুল্লাহ ইবনি মাসউদ [রাদি.]-এর সানাদে নবী [সাঃআঃ] হইতে তার হুবহু হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৭৮, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫৩০]

৬৬১৩. আবু মূসা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, জনৈক লোক নবী [সাঃআঃ]-এর নিকট আসলো। অতঃপর তিনি আমাশ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি]-এর সানাদে জারীর [রাদি.] কর্তৃক বর্ণিত হাদীসের হুবহু উল্লেখ করেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৭৯, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫৩১]

৫১. অধ্যায়ঃ যদি সৎলোকের গুণ বর্ণনা করা হয় তবে তা সুসংবাদ তার জন্যে ক্ষতি নয়

৬৬১৪. আবু যার গিফারী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর সমীপে আবেদন করা হলো, ঐ লোক সম্পর্কে আপনার কি মতামত, যে সৎ আমাল করে এবং মানুষেরা তার গুণ বর্ণনা করে? তিনি বলিলেন, এটা মুমিনের জন্যে দ্রুত সুবার্তা। {৩}

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৮০, ইসলামিক সেন্টার- ৬৫৩২]

{৩} উলামারা বলেন, তার জন্যে এটা নগদ সুসংবাদ। আর সেটাই পরকালের প্রতি পরবর্তী সুসংবাদের দলীল। যেমন আল্লাহ বলেন, “আজ তোমার সৌজন্যে জান্নাতের সুসংবাদ। তাৎক্ষণিক সুসংবাদটি আল্লাহ তার উপর সন্তুষ্টি ও তার প্রতি মুহাব্বাতের উপর প্রমাণ স্বরূপ। যা তাকে সকলের নিকট প্রিয় বানিয়ে দেয়।

৬৬১৫. হাম্মাদ ইবনি যায়দ হইতে বর্ণীতঃ

হাম্মাদ ইবনি যায়দ-এর সূত্রে আবু ইমরান আল জাওনী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে তার হুবহু হাদীস বর্ণিত। তাছাড়া আবদুস্ সামাদ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] ব্যতীত শুবার সানাদে অন্যান্যদের হাদীসে আছে, এবং লোকেরা তাকে এজন্য মুহাব্বাত করে উল্লেখ আছে। আর আবদুস্ সামাদ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বর্ণিত হাদীসে হাম্মাদ যেভাবে বলেছেন তেমনি মানুষেরা তার শুকরিয়া করে উল্লেখ রয়েছে।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৪৮১, ই .সে. ৬৫৩৩]

By ইমাম মুসলিম

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply