অন্যান্য সকল দ্বীন ও ধর্ম তাহাঁর দ্বীনের মাধ্যমে রহিত হয়ে গেছে

অন্যান্য সকল দ্বীন ও ধর্ম তাহাঁর দ্বীনের মাধ্যমে রহিত হয়ে গেছে  

অন্যান্য সকল দ্বীন ও ধর্ম তাহাঁর দ্বীনের মাধ্যমে রহিত হয়ে গেছে   >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৭০. অধ্যায়ঃ সকল মানুষের জন্য আমাদের নবি মুহাম্মাদ [সাঃআ:] প্রেরিত হয়েছেন এবং অন্যান্য সকল দ্বীন ও ধর্ম তাহাঁর দ্বীনের মাধ্যমে রহিত হয়ে গেছে  এ কথার উপর বিশ্বাস স্থাপন ওয়াজিব

২৭৮

আবু হুরাইরাহ [রাঃআ:] হইতে বর্ণিতঃ

রসূলুল্লাহ্‌ [সাঃআ:] বলেন, প্রত্যেক নবিকে সে পরিমাণ মুজিযা দেয়া হয়েছে, যে পরিমাণ মুজিযার প্রতি মানুষ ঈমান এনেছে। পক্ষান্তরে আমাকে যে মুজিযা প্রদান করা হয়েছে, তা হচ্ছে আল্লাহ প্রেরিত ওয়াহী। {৬১} সুতরাং কিয়ামাতের দিন আমার অনুসারীদের সংখ্যা সবচেয়ে বেশী হইবে বলে আশা রাখি। [ই.ফা. ২৮২; ই.সে. ২৯৩]

{৬১} কুরআন [ওয়াহী] এমন মুজিযা যাতে যাদুটোনা ইত্যাদির সন্দেহ নেই। পক্ষান্তরে অন্যান্য মুজিযার মধ্যে সন্দেহের অবকাশ আছে। এজন্য আমার অনুসারী বেশী হইবে। অথবা অন্যান্য নবিগণের মুজিযা অতীত হয়ে গেছে, তাহাদের যুগ অতিবাহিত হওয়ার সাথে সাথে। পক্ষান্তরে আমার মুজিযা আল কুরআন কিয়ামাত পর্যন্ত অবশিষ্ট থাকিবে। অতএব আমার অনুসারী বেশি হইবে। [সংক্ষিপ্ত নাবাবী]

২৭৯

আবু হুরাইরাহ [রাঃআ:] হইতে বর্ণিতঃ

রসূলুল্লাহ্‌ [সাঃআ:] বলেন, সে সত্তার কসম, যাঁহার হাতে মুহাম্মাদের প্রাণ! ইয়াহুদী হোক আর খৃস্টান হোক, যে ব্যক্তিই আমার এ রিসালাতের খবর শুনেছে অথচ আমার রিসালাতের উপর ঈমান না এনে মৃত্যুবরণ করিবে, অবশ্যই সে জাহান্নামী হইবে। [ই.ফা. ২৮৩; ই.সে. ২৯৪]

২৮০

সালিহ্‌ আল হামদানী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণিতঃ

ইমাম শাবীর নিকট এসে জনৈক খুরাসানী ব্যক্তিকে প্রশ্ন করিতে দেখলাম। সে বলিল, হে আবু আমর! আমাদের অঞ্চলে কতিপয় খুরাসানীর মতামত হলো, যে ব্যক্তি নিজের দাসীকে আযাদ করে দিয়ে তাকে বিয়ে করিল সে যেন নিজে কুরবানীর উটের উপর সওয়ার হলো [অর্থাৎ তা নিন্দনীয় কাজ মনে করে।] শাবী উত্তরে বলিলেন, আমাকে আবু বুরদাহ [রাঃআ:] তাহাঁর পিতার সূত্রে বর্ণনা করিয়াছেন যে, রসুলুল্লাহ বলেনঃ তিন ধরণের লোককে দ্বিগুণ সাওয়াব দান করা হইবে। [তারা হলো] [১] যে আহলে কিতাব তার নবির প্রতি ঈমান এনেছে এবং পরে আমার প্রতি ঈমান এনেছে এবং সত্য বলে মেনে নিয়েছে এবং আমার অনুসরণ করেছে সে দ্বিগুণ সাওয়াব পাবে। [২] যে দাস আল্লাহ তাআলার হাক্‌ আদায় করেছে এবং তার মালিকের হাক্‌ও আদায় করেছে, সেও দ্বিগুণ সাওয়াব লাভ করিবে। [৩] যে ব্যক্তি তার দাসীকে উত্তম খাবার দিয়েছে, উত্তমরূপে আদব-কায়দা শিখিয়েছে, তারপর তাকে আযাদ করে বিয়ে করেছে; সেও দ্বিগুণ সাওয়াবের অধিকারী হইবে। বর্ণনাকারী বলেন, এরপর শাবী উক্ত খোরাসানীকে বলিলেন, কোন বিনিময় ছাড়াই তুমি এ হাদীস নিয়ে যাও। অথচ এর চেয়ে কম গুরুত্বপূর্ণ হাদীসের জন্যও এক সময় মাদীনাহ্‌ পর্যন্ত লোকেরা সফর করত।

আবু বাক্‌র ইবনি আবু শাইবাহ্‌ ও ইবনি আবু উমার ও উবাইদুল্লাহ ইবনি মুআয [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] … সালিহ্‌ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] থেকে পূর্বোল্লিখিত সানাদে অনুরূপ বর্ণনা করিয়াছেন। [ই.ফা. ২৮৪, ২৮৫;; ই.সে. ২৯৫, ২৯৬]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply