যৌথ ব্যবসা ও উকিল নিয়োগ করা। অংশীদার হওয়ার বিধান

যৌথ ব্যবসা ও উকিল নিয়োগ করা। অংশীদার হওয়ার বিধান

 যৌথ ব্যবসা ও উকিল নিয়োগ করা। অংশীদার হওয়ার বিধান >> বুলুগুল মারাম এর মুল সুচিপত্র দেখুন

অধ্যায়-৯ঃ যৌথ ব্যবসা ও উকিল নিয়োগ করা

পরিচ্ছেদ ০১. শরীকানা ব্যবসার ক্ষেত্রে উপদেশ সহকারে উৎসাহ প্রদান এবং এতে খিয়ানত না করা

৮৮০ -আবূ হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেন, মহান আল্লাহ বলেছেন- যতক্ষণ দু`জন শরীকদার ব্যবসায়ে একে অপরের সাথে খিয়ানত [বিশ্বাসঘাতকতা] না করে ততক্ষণ আমি তাহাদের তৃতীয় শরীক হিসাবে [তাহাদের সহযোগিতা করিতে] থাকি । অতঃপর যখন খিয়ানত করে, তখন আমি তাহাদের মধ্য থেকে বেরিয়ে যাই [তারা আমাদের সহযোগিতা থেকে বঞ্চিত হয়] ।

-হাকিম একে সহিহ বলেছেন ।

{৯৪৬} আবু দাউদ ৩৩৮৩ । শাইখ আলবানী ইরওয়াউল গালীল [১৪৬৮], জঈফ তারগীব [১১১৪], গায়াতুল মারাম ৩৫৭, যঈফুল জামে` ১৭৪৮, জঈফ আবু দাউদ [৩৩৮৩] গ্রন্থে একে দুর্বল বলেছেন । আর নাকদুন নুসুস ৩০ গ্রছে বলেন এর সনদে দুর্বলতা ও দুটি ক্রটি রহিয়াছে । ইমাম দারাকুতনী আত-তালখীসুল হাবীর ৩/১০১৭গ্ৰছে বলেন, : …… মুরসাল হওয়ার দোষে দুষ্ট।হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০২. শরীকানা ব্যবসায় ইসলাম আসার পূর্বেও প্রচলিত ছিলো

৮৮১ -সায়িব ইবনু ইয়াযীদ মাখযূমী [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি নবী [সাঃআঃ] এর সাথে ব্যবসায়ে শরীক ছিলেন তার নবী হওয়ার পূর্বে । তারপর তিনি [মাখযুমী] মাক্কবিজয় দিবসে এলেন । নবী [সাঃআঃ] স্বাগত জানিয়ে বলিলেন, `মারহাবা স্বাগতম-হে আমার ভাই! আমার শেয়ারদার ।” {৯৪৭}

{৯৪৭} আবু দাউদ ৪৮৩৬, ইবনু মাযাহ ২২৮৪- হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৩. একাধিক অংশীদার হওয়ার বিধান

৮৮২ -আবদুল্লাহ [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, বদর যুদ্ধের দিন সাদ [রাঃআঃ], [আম্মার রাঃআঃ] ও আমি গনীমতের মালের ব্যাপারে অংশীদার হই [এই মর্মে যে, আমরা যা পাবো তা তিনজনে ভাগ করে নিবে] । হাদীসের শেষে আছে- সা`দ দু`জন বন্দী আনলেন, আমি ও আম্মার কিছুই আনতে পারলাম না।” {৯৪৮}

{৯৪৮} আবু দাউদ ৩৩৮৮, নাসায়ী ৪৬৯৭, ইবনু মাজহ ২২৮৮ । ইমাম শওকানী নাইলুল আওত্বার ৫/৩৯২ গ্রন্থে ও শাইখ আলবানী আত তালীকাতুর রযীয়্যাহ ২/৪৬৯ গ্রন্থে এটিকে মুনকাতি বলেছেন । আলবানী জঈফ ইবনু মাযাহ ৪৫৩ জঈফ নাসায়ী ৩৯৪৭, ৪৭১১, ইরওয়াউল গালীল ১৪৭৪ গ্রন্থে একে দুর্বল আখ্যায়িত করিয়াছেন । হাদিসের তাহকিকঃ অন্যান্য

পরিচ্ছেদ ০৪. উকিল [ভারপ্রাপ্ত ব্যক্তি] নিয়োগ করার বৈধতা

৮৮৩ -জাবির বিন আবদিল্লাহ [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেছেন, আমি খাইবারে যাবার মনস্থ করি । তাই নবী [সাঃআঃ] এর নিকটে আসলাম । তিনি বলিলেন- যখন তুমি খাইবারে আমার উকিল বা প্রতিনিধির নিকটে গমন করিবে তখন তুমি তার নিকট থেকে পনেরো `অসক` [খেজুর] নিয়ে নেবে । আবু দাউদ সহিহ বলেছেন । {৯৪৯}

{৯৪৯} আবু দাউদ ৩৬৩৩। শাইখ আলবানী মিশকাতুল মাসাবীহ ২৮৬৫ গ্রছে বলেন, ইবন ইসহাক আন আন করে করে হাদিস বর্ণনা করিয়াছেন। সে মুদল্লিস। তিনি যঈফুল জামে ২৮৮ গ্রন্থে একে দুর্বল বলেছেন। ইমাম শওকানী নাইলুল আওত্বার ৬/৩ গ্রন্থেও উক্ত রাবীর দিকেই ইঙ্গিত করিয়াছেন। হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৫. দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তির পক্ষে দায়িত্বভার অর্পনকারীর কল্যাণে মাল খরচের বিধান

৮৮৪ -উরওয়াহ বারিকী [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তাকে একটি দীনার দিয়ে তার জন্য কুরবানীর জন্তু ক্রয় করিতে পাঠিয়েছিলেন । অন্য হাদীসের মধ্যে তিনি এ অংশটুকু বর্ণনা করিয়াছেন যা পূর্বে বর্ণিত হয়েছে ।{৯৫০}

{৯৫০} সহিহ, আবু দাউদ ৩৩৮৪, ইমাদুদ্দীন ইবনু কাসীর লিখিত ইরশাদুল ফাকীহ [২/৬৩] ইবনু আবদুল বার লিখিত আততামহীদ [২/১০৮] গ্রন্থে হাদিসটিকে উত্তম বলেছেন । ইবনুল মুলকিনের আল বদরুল মুনীর [৬/৪৫২] সহিহ সনদে । হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৬. যাকাতদাতাহাদের কাছ থেকে যাকাত উসুল করার জন্য কোন ব্যক্তিকে নিয়োজিত করার বৈধতা

৮৮৫ -আবূ হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] ইমরান [রাঃআঃ]-কে সদাকাহ [যাকাত] আদায়ের জন্য নিয়োগ করেছিলেন । [হাদিসটির আরো অংশ রহিয়াছে] । {৯৫১}

{৯৫১} বুখারি ১৪৬৮, মুসলিম ৯৮৩, ৩৭৬১, নাসায়ী ২৪৬৪, আবু দাউদ ১৬২৩, আহমাদ ৮০৮৫। বুখারির বর্ণনায় রহিয়াছে, আবু হুরাইরাহ [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিত । তিনি বলেন, আল্লাহর রসূল [সাঃআঃ] যাকাত দেয়ার নির্দেশ দিলে বলা হলো, [আরবী] ইবনু জামীল, খালিদ ইব্‌নু ওয়ালীদ ও আব্বাস ইবনু `আব্দুল মুত্তালিব [রাঃআঃ] যাকাত প্রদানে অস্বীকার করছে। নবী [সাঃআঃ] বললেনঃ ইবনু জামীলের যাকাত না দেয়ার কারণ এ ছাড়া কিছু নয় যে, সে দরিদ্র ছিল, পরে আল্লাহর অনুগ্রহে ও তার রসূলের বরকতে সম্পদশালী হয়েছে। আর খালিদের ব্যাপার হলো তোমরা খালিদের উপর অন্যায় করেছ, কারণ সে তার বর্ম ও অন্যান্য যুদ্ধান্ত্র আল্লাহর পথে আবদ্ধ রেখেছে । হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৭. উট কুরবানী করার ক্ষেত্রে ভারপ্রাপ্ত ব্যক্তি নিয়োগ করা জায়েয

৮৮৬ -জাবির [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

নবী [সাঃআঃ] তেষট্টিটি উট কুরবানী করিলেন এবং `আলী [রাঃআঃ]-কে অবশিষ্টগুলি [৩৭টি] যবাহ করার নির্দেশ দিলেন [এ হাদিসটি দীর্ঘ হাদীসের অংশবিশেষ] । {৯৫২}

{৯৯২} মুসলিম ২৮১৫, আহমাদ ২৪৩২৪ । হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

৮৮৭ -আবূ হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

এক ব্যভিচারীর ঘটনায় নবী [সাঃআঃ] বলেছিলেন, হে উনাইস [ইবনু যিহাক আসলামী] সে মহিলার নিকট যাও । যদি সে [অপরাধ] স্বীকার করে তবে তাকে প্রস্তর নিক্ষেপে হত্যা কর । [দীর্ঘ হাদীসের অংশবিশেষ]। {৯৫৩}

{৯৫৩} বুখারি ২৩১৫, ২৬৪৯, ২৭২৫, মুসলিম ১৬৯৮, তিরমিজি ১৪৩৩, নাসায়ী ৫৪১০, ৫৪১১, আবূ দাউদ ৫৫৫, ৪৪৪৫, ইবনু মাযাহ ২৫৫৯, আহমাদ ১৬৫৯০, মুয়াত্তা মালেক ১৫৫৬, দারেমী ২৩১৭ । হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

By najmulislam

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Leave a Reply