যাদুকরণ

যাদুকরণ

যাদুকরণ >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

১৭. অধ্যায়ঃ যাদুকরণ

৫৫৯৬

আয়েশাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, লাবীদ ইবনি আসাম নামে বানূ যুরায়ক সম্প্রদায়ের এক ইয়াহূদী রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] -কে যাদু করিল। তিনি বলেন, এ যাদুর কারণে এমনও হত যে, রসূলু্ল্লাহ [সাঃআঃ] -এর স্মরণ হত যে কোন [পার্থিব] কাজ তিনি করছেন, অথচ [প্রকৃতভাবে] তিনি তা করছেন না। পরিশেষে একদিনে কিংবা এক রাত্রে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] দুআ করিলেন; আবার দুআ করিলেন, আবার দুআ করিলেন। অতঃপর বললেনঃ হে আয়েশাহ! তুমি কি অনুধাবন করিতে পেরেছো যে, আল্লাহ আমাকে সে ব্যাপারে সমাধান দিয়েছেন, যে ব্যাপারে আমি তাহাঁর নিকট সমাধান চেয়েছিলাম? [তা এভাবে যে] [দুজন ফেরেশ্‌তা] দুলোক [মানুষের বেশ ধরে] আমার নিকট আসলো। তাদের একজন আমার মস্তকের নিকট এবং অপরজন আমার পায়ের নিকট বসল। অতঃপর আমার মাথার নিকটের লোক পায়ের নিকটের লোককে অথবা আমার পায়ের নিকটের লোকটি আমার মাথার নিকটের লোকটিকে বলিল, লোকটির ব্যাধি কি? [অপরজন] বলিল, যাদুগ্রস্ত। [প্রথম জন] বলিল, কে তাকে যাদু করেছে? [দ্বিতীয় জন] বলিল- লাবীদ ইবনি আসাম। [প্রথমজন] বলিল, কোন জিনিসে? [দ্বিতীয় জন] বলিল- চিরুনি, [আঁচড়ানোর সময় চিরুনীর সঙ্গে] উঠা চুল, [আরও] বলিল, পুরুষ খেজুরের ফুলের বেষ্টনীতে। [প্রথমজন] বলিল, তা কোথায়? [দ্বিতীয় জন] বলিল- যী আরওয়ান কুয়ায়।

তিনি {আয়িশা [রাদি.] } বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তাহাঁর কতিপয় সহাবীকে সাথে নিয়ে সেথায় আসলেন। তারপর [ফিরে এসে] বলিলেন, হে আয়েশাহ! আল্লাহ্‌র কসম, সে [কূপের] পানি যেন মেন্দীপাতা ভিজানো [পানি] এবং সেখানকার খেজুর গাছ যেন শাইতানের মস্তিষ্ক।

তিনি বলেন, তখন আমি বললাম, হে আল্লাহর রসূল! তাহলে আপনি তা [জনসমক্ষে] পুড়ে ফেললেন না কেন? তিনি বলিলেন, না, [আমি তা উচিত মনে করেনি]। কেননা, আল্লাহ আমাকে তো রোগমুক্ত করিয়াছেন-আর লোকদেরকে কোন অকল্যাণে উত্তেজিত করা অপছন্দ করছি। আমি সে ব্যাপারে নির্দেশ দিলাম। ফলে মাটিতে পুঁতে ফেলা হয়েছে।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৫১৫, ইসলামিক সেন্টার- ৫৫৪০]

৫৫৯৭

আয়েশাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] -কে জাদু করা হলো …… আবু কুবায়ব [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] এ হাদীসটি বিস্তারিত বর্ণনাসহ [উপরোক্ত] ইবনি নুমায়র [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] কর্তৃক বর্ণিত হাদীসের অর্থানুযায়ী বর্ণনা করিয়াছেন এবং তিনি তাতে এ কথাটিও বলেছেন-পরে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কূপের নিকট গমন করিলেন এবং সেটির [চার] দিকে লক্ষ্য করিলেন। তাতে একটি খেঁজুর গাছ রয়েছে। তিনি {আয়িশা [রাদি.] } আরও বলেন, আমি বললাম, হে আল্লাহর রসূল! তাহলে আপনি তা [লোকালয়ে] বের করে ফেলেন। এ বর্ণনায় জ্বালিয়ে দেয়ার অংশটি বর্ণনা করেননি এবং আমি সে সম্পর্কে নির্দেশ দিলে তা মাটিতে পুঁতে ফেলা হলো, [কথাটিও] বর্ণনা করেননি।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৫১৬, ইসলামিক সেন্টার- ৫৫৪১]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply