মুদাব্বার , মুকাতাব , উম্মু ওয়ালাদের বর্ণনা

মুদাব্বার , মুকাতাব , উম্মু ওয়ালাদের বর্ণনা

মুদাব্বার , মুকাতাব , উম্মু ওয়ালাদের বর্ণনা >> বুলুগুল মারাম এর মুল সুচিপত্র দেখুন

অধ্যায় – ১ঃ মুদাব্বার , মুকাতাব , উম্মু ওয়ালাদের বর্ণনা

পরিচ্ছেদ ০৮. মুদাব্বার গোলাম বিক্রির বিধান
পরিচ্ছেদ ০৯. চুক্তিবদ্ধ দাসের কিছু পাওনা পরিশোধ করলে তার বিধান
পরিচ্ছেদ ১০. চুক্তিবদ্ধ দাসের পাওনা পরিশোধের সামর্থ্য থাকলে তার হুকুম
পরিচ্ছেদ ১১. মুকাতাব দাসের রক্তপণ
পরিচ্ছেদ ১২. রাসুল [সাঃআঃ] কোন দাস-দাসী রেখে মৃত্যুবরণ করেনেনি
পরিচ্ছেদ ১৩. উম্মুল ওয়ালাদ মনিবের মৃত্যুর পর আযাদ হয়ে যাবে {১৫৪৪}
পরিচ্ছেদ ১৪. মুকাতাব দাস-দাসীকে সহযোগিতা করার ফযীলত

পরিচ্ছেদ ০৮. মুদাব্বার গোলাম বিক্রির বিধান

১৪৩০. জাবির [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

আনসার গোত্রের এক লোক তার গোলামকে মুদাব্বির বানালো [মনিবের মৃত্যু হলে গোলাম মুক্ত হয়ে যাবে] । ঐ গোলাম ছাড়া তার আর কোন মাল ছিল না। খবরটি নাবী [সাঃআঃ] এর কাছে পৌছাল। তিনি বলিলেন, গোলামটিকে আমার নিকট হতে কে কিনে নেবে? নুআয়ম ইবনি নাহহা [রাদি.] তাকে আটশ দিরহামের বিনিময়ে কিনে নিল। {১৫৩৯}

বোখারীর শব্দে আছে, লোকটি তার দাস কে আযাদ করে দেয়ার পর অভাবগ্রস্থ হয়ে পড়ে। নাসাঈর বর্ণনায় আছে, লোকটির কর্জ ছিল। ফলে গোলামটি আটশত দিরহামের বিনিময়ে রাসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বিক্রয় করে তাকে দিয়ে বলিলেন, তুমি তোমার ঋণ পরিশোধ করে দাও ।

{১৫৩৯} বোখারী ২১৪১, ২২৪১, ২২৩১, ২৪০৪, মুসলিম ৯৯৭, তিরমিজি ১২১৯, নাসাঈ ৪৬৫২, ৪৬৫৩, আবু দাউদ ৩৯৫৫, ইবনি মাজাহ ২৫১২, আহম্মদ ১৪৭৭৫, ১৪৮০৭, দারিমী ২৫৭৩। মুদাব্বার , মুকাতাব , উম্মু ওয়ালাদের হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৯. চুক্তিবদ্ধ দাসের কিছু পাওনা পরিশোধ করলে তার বিধান

১৪৩১. আমর ইবনি শুআইব [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি তাহাঁর দাদা হতে বর্ণনা করিয়াছেন, নাবী [সাঃআঃ] বলেন, মুকাতাব গোলাম স্বীয় মুক্তির জন্য নির্ধারিত অর্থের মধ্যে একটা দিরহাম পরিশোধ করিতে বাকী থাকা পর্যন্ত সে দাস [বলে গন্য হইবে]। {১৫৪০}

{১৫৪০} আবু দাউদ ৩৯২৬, ৩৯২৭, তিরমিজি ১২৬০, আহম্মদ ৬৬২৮, ৬৬৮৪। মুদাব্বার , মুকাতাব , উম্মু ওয়ালাদের হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

পরিচ্ছেদ ১০. চুক্তিবদ্ধ দাসের পাওনা পরিশোধের সামর্থ্য থাকলে তার হুকুম

১৪৩২. উম্মু সালামাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, নাবী [সাঃআঃ] বলেছেন, তোমাদের [মেয়ে জাতির বা নাবীর সহধর্মিণীদের] কারো যখন কোন মুকাতাব গোলাম থাকে আর সে গোলামের নিকটে চুক্তিকৃত টাকা পরিশোধ করার সামর্থ্য থাকে তবে ঐরুপ গোলাম সে যেন পর্দা করে। {১৫৪১ }

{১৫৪১} আবু দাউদ ৩৯২৮, তিরমিজি ১৬৬১, ইবনি মাজাহ ২৫২০, আহম্মদ ২৫৯৩৪, ২৬০৮৯। ঈমাম শওকানী তাহাঁর নাইলুল আওত্বার গ্রন্থে ৬/২১৭ গ্রন্থে বলেন, শাইখ আলবানী জঈফ ইবনি মাজাহ ৪৯৭, ইরওয়াউল গালীল ১৭৬৯ আত্তালীকাত আররযীয়াহ ২/৫০৮ গ্রন্থে, এটিকে দুর্বল বলেছেন। ঈমাম ইবনিল কাইয়্যিম তাহাঁর তাহযীবুস সুনান ১০/৪৩২ গ্রন্থে বলেন, যাদের হাদীসে আমি সন্তষ্ট তাহাদের কাউকে আমি এ হাদিসটি বর্ণনা করিতে দেখিনি । মুদাব্বার , মুকাতাব , উম্মু ওয়ালাদের হাদিসের তাহকিকঃ অন্যান্য

পরিচ্ছেদ ১১. মুকাতাব দাসের রক্তপণ

১৪৩৩. ইবনি আব্বাস হইতে বর্ণীতঃ

নাবী [সাঃআঃ] বলেন, মুকাতাব গোলাম নিহত হলে তার দিয়াত [খুনের ক্ষতিপূরণ] যে পরিমাণ অংশ আযাদ ছিল সে পরিমাণের জন্য আযাদের রক্ত পণ দিতে হইবে। আর যে অংশ দাস ছিল সে পরিমাণের জন্য গোলামের অনুরূপ রক্ত মূল্য [দিয়াত] দিতে হইবে। {১৫৪২}

{১৫৪২} আবু দাউদ ৪৫৮। মুদাব্বার , মুকাতাব , উম্মু ওয়ালাদের হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

পরিচ্ছেদ ১২. রাসুল [সাঃআঃ] কোন দাস-দাসী রেখে মৃত্যুবরণ করেনেনি

১৪৩৪. আমর ইবনিল হারিস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তাহাঁর ইন্তিকালের সময় কোন দিরহাম [রৌপ্য মুদ্রা], কোন দিনার, কোন গোলাম বা কোন দাসী আর না কোন বস্তু রেখে গিয়েছিলেন। তবে তাহাঁর একটা মাত্র সাদা রং-এর খচ্চর, যুদ্ধাস্ত্র ও কিছু জমিও ছিল যা সাদাকাহ করে রেখেছিলেন। {১৫৪৩}

{১৫৪৩} বোখারী ২৮৭৩, ২৯১২, ৩০৯৮, নাসাঈ ৩৫৯৪, ৩৫৯৫, আহম্মদ ১৭৯৯০। মুদাব্বার , মুকাতাব , উম্মু ওয়ালাদের হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ১৩. উম্মুল ওয়ালাদ মনিবের মৃত্যুর পর আযাদ হয়ে যাবে {১৫৪৪}

১৪৩৫. ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেন , যে কোন দাসী তার মনিবের ঔরসজাত সন্তান প্রসব করিবে সে তার মনিবের মৃত্যুর পর আযাদ হয়ে যাবে ।

একদল হাদিস বিশারদ এটিকে উমর [রাদি.] হতে বর্ণিত মাওকুফ হাদিস হওয়াকেই প্রাধান্য দিয়েছেন। {১৫৪৫}

{১৫৪৪} মনিবের সাথে সহবাস করার পর যে দাসী সন্তান প্রসব করে সেই দাসীকে উম্মুল ওয়ালাদ বলা হয় ।{১৫৪৫} ইবনি মাজাহ ২৫১৫, আহম্মদ ২৯৩১, দারিমী ২৫৭৮। ইবনিল কাত্তান তাহাঁর আল ওয়াহম ওয়াল ইহাম ৩/১৩৮ গ্রন্থে বলেন, আবদুল্লাহ বিন আবদুল্লাহ বিন উওয়াইস আল আসবাহী সত্যবাদী। কিন্তু হাদিস বর্ণনায় দুর্বল। আর দ্বিতীয় জন হচ্ছেন উবাইদুল্লাহ বিন ইয়াহইয়া আর রহাওয়ী, তার অবস্থা জানা যায় না। ঈমাম সুয়ুত্বী তাহাঁর আলজামেউস সগীর ২৯৮১ হাদিসটিকে দুর্বল বলেছেন। ঈমাম সনআনী সুবুলুস সালাম গ্রন্থে ৪/২২৮ গ্রন্থে বলেন, এর সনদে আল হাসান বিন আবদুল্লাহ আল হাশিমী অত্যন্ত দুর্বল রাবী। বিন বায তাহাঁর হাশিয়া বুলুগুল মারাম ৭৬৪ তে বলেন, এর সনদে হুসাইন বিন আবদুল্লাহ বিন উবাইদুল্লাহ বিন আব্বাস সে দুর্বল রাবী। বিন বায উক্ত কিতাবের ৬/২৩৩ পৃষ্ঠায় বলেন, শাইখ আলবানী যঈফুল জামে ২২১৮ তে হাদিসটিকে দুর্বল বলেছেন। মুহাদ্দিসগণের নিকট সঠিক হচ্ছে এটি উমর [রাদি.] এর ইজতিহাদ। মুদাব্বার , মুকাতাব , উম্মু ওয়ালাদের হাদিসের তাহকিকঃ অন্যান্য

পরিচ্ছেদ ১৪. মুকাতাব দাস-দাসীকে সহযোগিতা করার ফযীলত

১৪৩৬. সাহল ইবনি হুনাইফ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রাসুলাল্লাহ [সাঃআঃ] বলেন, যে ব্যক্তি কোন মুজাহিদ [দ্বীনের পথের সংগ্রামী]–কে সাহায্য করিবে বা কোন ঋণী ব্যক্তিকে [যার সাংসারিক অভাব-অনটনের কারনে ঋণ হয়েছে] বা মুকাতাব দাস বা দাসীকে দাসত্ব থেকে মুক্তির জন্য সাহায্য করিবে, তাকে আল্লাহ ছায়াহীন ক্বিয়ামাতের কঠিন দিনে ছায়া প্রদান করবেন। {১৫৪৬}

{১৫৪৬} আহম্মদ, হাকিম ২য় খন্ড ৮৯, ৯০ পৃষ্ঠা হাদিস নং ২১৭। তিনি যুহাইর বিন মুহাম্মাদ এবং আমর বিন সাবিত থেকে বর্ণনা করিয়াছেন। ঈমাম হাইসামী তাহাঁর মাজমাউয যাওয়ায়েদ ৫ম খন্ড ২৮৩ পৃষ্ঠায় বলেন, এ হাদিসের বর্ণনাকারী আবদুল্লাহ বিন সাহল বিন হুনাইফকে আমি চিনি না। আবদুল্লাহ বিন মুহাম্মাদ বিন উকাইল এর হাদিসটি হাসান। ঈমাম যাহাবী তাহাঁর আল মুহাযাযিব [৮/৪৩৪৬] গ্রন্থে হাদিসটি খুবই গরীব বলেছেন। আল মুনযিরী তাহাঁর তারগীব ওয়াত তারহীব [২/২৩০] গ্রন্থে আবদুল্লাহ বিন মুহাম্মাদ বিন উকাইল দুর্বল বলেছেন । শাইখ আলবানী তাহাঁর সিলসিলা যঈফা ৪৫৫৫, যঈফুল জামে ৫৪৪৭, জঈফ তারগীব ৭৯৬ গ্রন্থসমূহে হাদিসটিকে দুর্বল বলেছেন। তবে যারা যারা হাদিসটিকে সহিহ বলেছেন, তারা হলেনঃ ইবনি হাজার আসকালানী তাহাঁর আল আমালী আল মুতলাকা [১০৫] গ্রন্থে হাদিসটি হাসান বলেছেন। ইমামা সুয়ূতী আল জামেউস সগীর [৮৪৭০] গ্রন্থে একে সহিহ বলেছেন। আল বাদরুল মুনীর [৯/৭৪১] গ্রন্থে একে সহিহ বলেছেন। মুদাব্বার , মুকাতাব , উম্মু ওয়ালাদের হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

By বুলূগুল মারাম

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Leave a Reply