নতুন লেখা

নামাজে হোক বা নামাজের বাইরে মাসজিদে থুথু নিক্ষেপ নিষিদ্ধ

নামাজে হোক বা নামাজের বাইরে মাসজিদে থুথু নিক্ষেপ নিষিদ্ধ

নামাজে হোক বা নামাজের বাইরে মাসজিদে থুথু নিক্ষেপ নিষিদ্ধ >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

১৩. অধ্যায়ঃ নামাজে হোক বা নামাজের বাইরে মাসজিদে থুথু নিক্ষেপ করা নিষিদ্ধ

১১১০

আবদুল্লাহ ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, [একদিন] রাসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] মাসজিদের ক্বিবলার দিকে দেয়ালে কাশি লেগে থাকা দেখিতে পেলেন। তিনি নখ দিয়ে আঁচড়ে আঁচড়ে উঠালেন। এরপর লোকদের সামনে গিয়ে বললেনঃ তোমরা কেউ যখন নামাজ আদায় করো তখন সামনের দিকে থুথু নিক্ষেপ করো না। কারণ কেউ যখন নামাজ আদায় করে তখন তার সম্মুখে থাকেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১১০৩, ই.সে ১১১২]

১১১১

আবদুল্লাহ ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেছেনঃ [একদিন] নবী [সাঃআঃ] মাসজিদের ক্বিবলাতে কাশি বা শিকনি দেখিতে পেলেন কথাটা উল্লেখিত হয়েছে। এরপর তারা মালিক বর্ণিত হাদীসের অনুরূপ অর্থবোধক হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১১০৪, ই.সে ১১১৩]

১১১২

আবু সাঈদ খুদরী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

[তিনি বলেছেন:] নবী [সাঃআঃ] ক্বিবলায় [ক্বিবলার দিকের দেয়ালে গায়ে] কাশি বা থুথু লেগে আছে দেখিতে পেলেন। তিনি একটি পাথরের টুকরা দ্বারা ঘষে ঘষে তা উঠিয়ে ফেললেন। এরপর মাসজিদের মধ্যে তিনি কাউকে ডান দিকে কিংবা সামনের দিকে থুথু নিক্ষেপ করিতে নিষেধ করিলেন এবং বললেনঃ [থুথু নিক্ষেপ প্রয়োজন হলে] সে যেন বা পায়ের নিচে নিক্ষেপ করে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১১০৫, ই.সে ১১১৪]

১১১৩

আবু হুরায়রাহ্ ও আবু সাঈদ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] থুথু বা কাশি দেখিতে পেলেন। [অবশিষ্ট] উয়াইনাহ্ বর্ণিত হাদীসের অনুরূপ। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১১০৬, ই.সে ১১১৫]

১১১৪

আয়িশাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, [একদিন] নবী [সাঃআঃ] ক্বিবলার দেয়ালে [মাসজিদের ক্বিবলার দিকের দেয়ালে গাত্রে] থুথু অথবা শ্লেষ্মা অথবা কাশি দেখিতে পেলেন এবং ঘষে ঘষে তা উঠিয়ে ফেললেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১১০৭, ই.সে ১১১৬]

১১১৫

আবু হুরায়রাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

[তিনি বলেছেন] , রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] একদিন মাসজিদের ক্বিবলার দিকে [ক্বিবলার দিকে দেয়ালে] থুথু দেখিতে পেলেন। তিনি [সাঃআঃ] তখন লোকদের কাছে এসে বললেনঃ তোমাদের কি হয়েছে যে, তোমরা কেউ তার প্রভুর সামনে দাঁড়িয়ে সামনের দিকে থুথু নিক্ষেপ করে। কেউ তোমাদের মুখের উপর দাঁড়িয়ে মুখের উপর থুথু নিক্ষেপ করুক এটা কি তোমরা পছন্দ করিবে? তোমাদের কাউকে [মাসজিদে] থুথু নিক্ষেপ করিতে হলে সে যেন বাঁ দিকে পায়ের নিচে থুথু নিক্ষেপ করে। আর যদি এরুপ করার অবকাশ না পায় তাহলে যেন এরূপ করে। ক্বাসিম ইবনি ইবরাহীম তা এভাবে করে দেখিয়ে দিলেন যে, তিনি কাপড়ে থুথু ফেললেন এবং কাপড়খানা ঘষলেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১১০৮, ই.সে ১১১৭]

১১১৬

আবু হুরায়রাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নবী [সাঃআঃ] থেকে ইবনি উলাইয়্যাহ্ বর্ণিত হাদিসের অনুরূপ হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন, তবে হুশায়ম বর্ণিত হাদীসে কতটুকু কথা অতিরিক্ত আছে, আবু হুরায়রাহ [রাদি.] বললেনঃ আমি যেন এখনো দেখিতে পাচ্ছি রাসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] কাপড় ঘষছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১১০৯, ই.সে ১১১৮]

১১১৭

.আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রাসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ তোমরা কেউ যখন নামাজ আদায় করো তখন যেন সে তার রব বা প্রভুর সাথে কানে কথা বলে। সুতরাং সে যেন সামনে বা ডান দিকে থুথু নিক্ষেপ না করে। বরং বাঁ দিকে বাঁ পায়ের নীচে থুথু নিক্ষেপ করে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১১১০, ই.সে ১১১৯]

১১১৮

আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ মাসজিদের মধ্যে থুথু ফেলা পাপের কাজ। আর ঐ থুথু মাটিতে পুঁতে দেয়াই এর কাফফারাহ্। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১১১১, ই.সে ১১২০]

১১১৯

আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কে বলিতে শুনেছি। তিনি [সাঃআঃ] বলেছেন মাসজিদের মধ্যে থুথু ফেলা পাপের কাজ। আর তা পুঁতে ফেলা হলো এর কাফফারাহ্। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১১১২, ই.সে ১১২১]

১১২০

আবু যার [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, নবী [সাঃআঃ] বলেছেন, আমার উম্মাতের সমস্ত আমাল বা কাজ-কর্ম [ভাল-মন্দ উভয়ই] আমার সামনে পেশ করা হয়েছিল। আমি দেখলাম তাদের সমস্ত উত্তম কাজের মধ্যে রাস্তা থেকে কষ্টদায়ক বস্তু দুরীকরণও একটা উত্তম কাজ। আর আমি এও দেখলাম যে, তাদের খারাপ আমালের মধ্যে রয়েছে মাসজিদের মধ্যে কাশি বা থুথু ফেলা এবং তা মিটিয়ে না ফেলা। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১১১৩, ই.সে ১১২২]

১১২১

আবদুল্লাহ ইবনি শিখখীর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] এর পিছনে নামাজ আদায় করেছি। আমি দেখলাম তিনি কাশি ফেলে তা জুতা দিয়ে ঘষে [মাটির সাথে মিশিয়ে] দিলেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১১১৪, ই.সে ১১২৩]

১১২২

আবদুল্লাহ ইবনি শিখখীর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি নবী [সাঃআঃ] এর সাথে নামাজ আদায় করিয়াছেন। তিনি দেখেছেন, নবী [সাঃআঃ] কাশি ফেলেছেন এবং তা বাঁ পায়ের জুতা দিয়ে ঘষে দিয়েছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১১১৫, ই.সে ১১২৪]

About halalbajar.com

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Check Also

মহান আল্লাহর বাণী : “তারা দুটি বিবদমান পক্ষ তাদের প্রতিপালক সম্পর্কে বাক-বিতণ্ডা করে”

মহান আল্লাহর বাণী : “তারা দুটি বিবদমান পক্ষ তাদের প্রতিপালক সম্পর্কে বাক-বিতণ্ডা করে” মহান আল্লাহর …

Leave a Reply

%d bloggers like this: