মালামাল ক্রয়ের ঠিক রাখা, না রাখার স্বাধীনতা

মালামাল ক্রয়ের ঠিক রাখা, না রাখার স্বাধীনতা

 মালামাল ক্রয়ের ঠিক রাখা, না রাখার স্বাধীনতা >> বুলুগুল মারাম এর মুল সুচিপত্র দেখুন

অধ্যায়-২ঃ ক্রয়ের ঠিক রাখা, না রাখার স্বাধীনতা

পরিচ্ছেদ ০১. ক্রয়-বিক্রয়ের মালামাল ফেরত প্রদানকারী ব্যক্তিকে সুযোগ দেয়া মুস্তাহাব

৮২৫ -আবূ হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ যে ব্যক্তি কোন মুসলমানের [বা অনুতপ্ত ব্যক্তির অনুরোধে] চুক্তি ভঙ্গের সুযোগ দিলো, আল্লাহ তার ত্রুটি–বিচ্যুতি মাফ করবেন। – ইবনু হিব্বান ও হাকিম একে সহীহ্ বলেছেন। {৮৭৮}

{৮৭৮} আবূ দাউদ ৩৪৬০, ইবনু মাযাহ ২১৯৯, আহমাদ ৭৩৮৩। হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০২. ক্রেতা এবং বিক্রেতার বেচা কেনার স্থান পরিত্যাগ করা পর্যন্ত সাওদা বাতিল করার অধিকার থাকা

৮২৬ -ইবনু `উমার [রাঃআঃ] সূত্রে আল্লাহর রসূল [সাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, যখন দু` ব্যক্তি ক্রয়-বিক্রয় করে, তখন তাহাদের উভয়ে যতক্ষণ বিচ্ছিন্ন না হইবে অথবা একে অপরকে ইখতিয়ার প্রদান না করিবে, ততক্ষণ তাহাদের উভয়ের ইখতিয়ার থাকিবে। এভাবে তারা উভয়ে যদি ক্রয়-বিক্রয় করে তবে তা সাব্যস্ত হয়ে যাবে। আর যদি তারা উভয়ে ক্রয়-বিক্রয়ের পর বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় এবং তাহাদের কেউ যদি তা পরিত্যাগ না করে তবে ক্রয়-বিক্রয় সাব্যস্ত হয়ে যাবে। – শব্দ বিন্যাস মুসলিমের। {৮৭৯}

{৮৭৯} বুখারি ২১১২, ২১০৭, ২১০৯, ২১১১, ২১১৩, মুসলিম ১৫৩১, তিরমিজি ১২৪৫, নাসায়ী ৪৪৬৫, ৪৪৬৬, ৪৪৭১, আবূ দাউদ ৩৪৪৫, ৪৪৭০, মুয়াত্তা মালেক ১৩৭৪। হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৩. চুক্তিভঙ্গের শঙ্কায় ক্রেতা-বিক্রেতার স্থান ত্যাগ করা নিষেধ

৮২৭ -আম্‌র বিন শু`আইব হইতে বর্ণিতঃ

তিনি তাহাঁর পিতা থেকে, তিনি তাহাঁর দাদা [রাঃআঃ] থেকে বর্ণনা করেন যে, নবী [সাঃআঃ] বলেছেন- বিক্রেতা ও ক্রেতা উভয় বেচাকেনার স্থান ছেড়ে যাবার পূর্ব পর্যন্ত [ক্রয়-বিক্রয় বাতিল করার] অধিকারী থাকিবে। এ সুযোগ থাকিবে তাহাদের জন্য- যারা খেয়ার বা অধিকার দেয়ার চুক্তিতে ক্রয় বিক্রয় করিবে। ক্রয়-বিক্রয় প্রত্যাহার করিবে এ ভয়ে অন্যকে ছেড়ে চলে যাওয়া হালাল বা বৈধ হইবে না।

আর অন্য বর্ণনায় আছে- `এ অধিকার তাহাদের উভয়ের স্থান ত্যাগ না করা পর্যন্ত।` {৮৮০}

{৮৮০} আবূ দাউদ ৩৪৫৬, তিরমিজি ১২৪৭, নাসায়ী ৪৪৮৩, আহমাদ ৬৬৬২। হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৪. কেনা বেচায় প্রতারিত ব্যক্তির বিক্রয় বাতিল করার অধিকার থাকার বিধান

৮২৮ -আবদুল্লাহ ইবনু `উমার [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

এক সাহাবী নবী [সাঃআঃ] এর নিকট উল্লেখ করিলেন যে, তাকে ক্রয়-বিক্রয়ে ধোঁকা দেয়া হয়। তখন তিনি বলিলেন, যখন তুমি ক্রয়-বিক্রয় করিবে তখন বলবে কোন প্রকার ধোঁকা নেই। {৮৮১}

{৮৮১} বুখারির বর্ণনায় আরো রয়েছে, এরপর লোকটি ক্রয়-বিক্রয়ের সময় এই কথা বলত। আর মুসলিমের বর্ণনায় রয়েছে, লোকটি বেচাকেনার সময় “ধোঁকা দিবে না” এ কথাটি বলত। লোকটির নাম হচ্ছেঃ হিব্বান বিন মুনকায আল আনসারী [রাঃআঃ]। বুখারি ২১১৭, ২৪০৭, ২৪১৪, ৬৯৬৪, মুসলিম ১৫৩৩ নাসায়ী ৪৪৮৪, আবূ দাউদ ৩৫০০৯। মালামাল হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

By najmulislam

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Leave a Reply