মাক্কায় ও মাদীনায় নবী [সাঃআঃ] -এর অবস্থানকাল কত ছিল

মাক্কায় ও মাদীনায় নবী [সাঃআঃ] -এর অবস্থানকাল কত ছিল

মাক্কায় ও মাদীনায় নবী [সাঃআঃ] -এর অবস্থানকাল কত ছিল >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৩৩. অধ্যায়ঃ মাক্কায় ও মাদীনায় নবী [সাঃআঃ] -এর অবস্থানকাল কত ছিল

৫৯৮৮. আম্‌র [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি উরওয়াহ্‌কে প্রশ্ন করলাম, নবী [সাঃআঃ] মাক্কায় কতদিন ছিলেন? তিনি বলিলেন, দশ বছর। বর্ণনাকারী বলেন, আমি বললাম, ইবনি আব্বাস [রাদি.] তো বলেন, তেরো বছর।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৮৮৪, ইসলামিক সেন্টার- ৫৯২০]

৫৯৮৯.আম্‌র [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি উরওয়াহ্‌কে প্রশ্ন করলাম, নবী [সাঃআঃ] মাক্কায় কত দিন অবস্থান করেছিলেন? তিনি বলিলেন, দশ বছর। বর্ণনাকারী বলেন, আমি বললাম, ইবনি আব্বাস তো বলেন, দশ বছরের বেশি। বর্ণনাকারী বলেন, তিনি ইবনি আব্বাসের জন্য দুআ করে বলিলেন, তিনি এ তত্ত্ব কবিদের থেকে গ্রহণ করিয়াছেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৮৮৫, ইসলামিক সেন্টার- ৫৯২১]

৫৯৯০.ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

মাক্কায় রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তের বছর ছিলেন এবং তেষট্টি বছর বয়সে তিনি ইন্তিকাল করেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৮৮৬, ইসলামিক সেন্টার- ৫৯২২]

৫৯৯১. ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] মাক্কায় তের বছর অবস্থান করেছিলেন, সে সময় তাহাঁর উপর ওয়াহী অবতীর্ণ হয় এবং মাদীনায় দশ বছর ছিলেন। আর তাহাঁর যখন ওফাত হয়, তখন তাহাঁর বয়স ছিল তেষট্টি বছর।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৮৮৭, ইসলামিক সেন্টার- ৫৯২৩]

৫৯৯২. আবু ইসহাক্‌ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি আবদুল্লাহ ইবনি উত্‌বাহ্‌ [রাদি.]-এর সাথে উপবিষ্ট ছিলাম। তখন মানুষেরা রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর বয়স নিয়ে আলোচনায় লিপ্ত হল। তাঁদের মধ্যে কেউ কেউ বলিল, আবু বকর [রাদি.] [বয়সে] রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর তুলনায় বড় ছিলেন। আবদুল্লাহ [রাদি.] বলিলেন, যখন রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর ইন্তিকাল হয় তখন তাহাঁর বয়স হয়েছিল তেষট্টি বছর। আর আবু বকর [রাদি.]-এর যখন ওফাত হয়, তখন তাহাঁর বয়সও তেষট্টি বছর হয়েছিল। আর উমর [রাদি.] শাহাদাত বরণ করেন তখন তাহাঁর বয়স হয়েছিল তেষট্টি বছর।

বর্ণনাকারী বলেন, লোকদের মাঝে আম্‌র ইবনি সাদ নামধারী একজন বলিল, জারীর আমাকে বলেছেন যে, আমরা মুআবিয়াহ্‌ [রাদি.]-এর নিকট বসা ছিলাম। মানুষেরা রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর বয়সের বর্ণনা করিল। সে সময় মুআবিয়াহ্‌ [রাদি.] বলিলেন, যখন রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর ইন্তিকাল হয় তখন তাহাঁর বয়স ছিল তেষট্টি বছর। আর যখন আবু বকর [রাদি.] ইন্তিকাল করেন তখন তাহাঁর বয়স ছিল তেষট্টি বছর এবং উমর [রাদি.] শাহাদাতপ্রাপ্ত হন তখন তাহাঁর বয়সও তেষট্টি বছর ছিল।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৮৮৮, ইসলামিক সেন্টার- ৫৯২৪]

৫৯৯৩. জারীর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি মুআবিয়াহ্‌ [রাদি.]-কে খুতবাহ্‌ দিতে শুনেছেন। মুআবিয়াহ্‌ [রাদি.] বলিলেন, যখন রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর ওফাত হয়, তখন তাহাঁর বয়স ছিল তেষট্টি বছর। আবু বকর [রাদি.], উমর [রাদি.]-ও তেষট্টি বছর [বয়সে ইন্তিকাল করেন] এবং আমি তেষট্টি বছর [বয়সের]।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৮৮৯, ইসলামিক সেন্টার- ৫৯২৫]

৫৯৯৪. বানূ হাশিমের মুক্তদাস আম্মার [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি ইবনি আব্বাস [রাদি.]-কে প্রশ্ন করলাম, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর যখন ওফাত হয় তখন তাহাঁর [বয়স] কত ছিল? ইবনি আব্বাস [রাদি.] বলিলেন, আমি চিন্তা করিনি যে, তুমি তাহাঁর গোত্রের ব্যক্তি হয়েও এ কথাটা অজানা রইবে। আমি বললাম, আমি লোকদের প্রশ্ন করেছি, তারা ভিন্ন মতাবলম্বন করিয়াছেন। তাই এ ব্যাপারে আপনার বক্তব্য জানা আমি বেশি ভাল মনে করলাম। ইবনি আব্বাস [রাদি.] বলিলেন, তুমি কি হিসাব করিতে জানো? তিনি বলেন, আমি বললাম, হ্যাঁ। তিনি বলিলেন, আচ্ছা চল্লিশ স্মরণ রেখ। এ সময় তিনি রসূল হন। এর সাথে পনের বছর যোগ করো, মাক্কায় যখন অবস্থান করেন ভয় এবং নিরাপত্তায়। আরো দশ হিজরাতের পর হইতে মাদীনায়।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৮৯০, ইসলামিক সেন্টার- ৫৯২৬]

৫৯৯৫. ইউনুস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

উপরোক্ত সূত্রে ইয়াযীদ ইবনি যুরাই-এর হাদীসের অবিকল রিওয়ায়াত করিয়াছেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৮৯১, ইসলামিক সেন্টার- ৫৯২৭]

৫৯৯৬. ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]৩৭ পঁয়ষট্টি বছর বয়সে ইন্তিকাল করেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৮৯২, ইসলামিক সেন্টার- ৫৯২৮]

৩৭ উল্লেখ্য যে, যাঁরা ভাঙ্গা বছরকেও গণনায় ধরেছেন তারা ৬৫ কিংবা ৬৪ বছর বলেছেন। আর যারা বাদ দিয়েছেন তাদের নিকট ৬৩ বছর গণনায় আসছে। আর এটাই প্রসিদ্ধ মত।

৫৯৯৭. আবু বাকর ইবনি আবু শাইবাহ্ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

এ সূত্রে খালিদ হইতে রিওয়ায়াত করিয়াছেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৮৯২, ইসলামিক সেন্টার- ৫৯২৯]

৫৯৯৮. ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] মাক্কায় পনের বছর থাকেন, সাত বছর শব্দ শুনতেন এবং আলো দেখিতে পেতেন, কিন্তু ভিন্ন কিছু দেখিতেন না। আর আট বছর তাহাঁর নিকট ওয়াহী আসত। অতঃপর মাদীনায় দশ বছর থাকেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৮৯৩, ইসলামিক সেন্টার- ৫৯৩০]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply