অবাঞ্ছিত কিছু ঘটার সম্ভাবনা না থাকলে মহিলাদের মাসজিদে যাওয়া

অবাঞ্ছিত কিছু ঘটার সম্ভাবনা না থাকলে মহিলাদের মাসজিদে যাওয়া

অবাঞ্ছিত কিছু ঘটার সম্ভাবনা না থাকলে মহিলাদের মাসজিদে যাওয়া >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৩০. অধ্যায়ঃ অবাঞ্ছিত কিছু ঘটার সম্ভাবনা না থাকলে মহিলাদের মাসজিদে যাওয়া কিন্তু সুগন্ধি মেখে তারা বের হইবে না

৮৭৪

সালিম থেকে তার পিতার সূত্রে হইতে বর্ণীতঃ

নবী [সাঃআঃ] বলেছেনঃ তোমাদের কারো স্ত্রী তার স্বামীর কাছে মাসজিদে যাওয়ার অনুমতি চাইলে সে যেন তাকে নিষেধ না করে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৮৭০, ইসলামিক সেন্টার-৮৮৩]

৮৭৫

আবদুল্লাহ ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] -কে বলিতে শুনেছিঃ তোমাদের স্ত্রীরা মাসজিদে যাওয়ার জন্য তোমাদের কাছে অনুমতি চাইলে তাদের বাধা দিও না।

রাবী [সালিম] বলেন, বিলাল ইবনি আবদুল্লাহ বললেনঃ আল্লাহর শপথ! অবশ্যই আমরা তাদেরকে বাধা দিব। রাবী [ সালিম] বলেন, আবদুল্লাহ [রাদি.] তার দিকে ফিরে তাকে অকথ্য ভাষায় তিরস্কার করিলেন। আমি তাকে এর আগে কখনো এভাবে গালিগালাজ করিতে শুনিনি। তিনি আরো বলেন, আমি তোমাকে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] এর নির্দেশ সম্পর্কে অবহিত করছি, আর তুমি বলছঃ আল্লাহর শপথ, অবশ্যই আমরা তাদেরকে বাধা দিব। [ ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৮৭১, ইসলামিক সেন্টার-৮৮৪]

৮৭৬

ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ আল্লাহর বাঁদীদের আল্লাহর মাসজিদে যেতে বাধা দিও না। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৮৭২, ইসলামিক সেন্টার-৮৮৫]

৮৭৭

ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] -কে বলিতে শুনেছি : তোমাদের মহিলারা মাসজিদে যাওয়ার জন্য তোমাদের কাছে অনুমতি চাইলে তাদেরকে অনুমতি দিও। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৮৭৩, ইসলামিক সেন্টার- ৮৮৬]

৮৭৮

ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ মহিলাদেরকে রাতের বেলা মাসজিদে যেতে বাধা দিও না। আবদুল্লাহ ইবনে উমারের [রাদি.] এক ছেলে [বিলাল] বলিল, আমরা তাদেরকে বের হইতে দিব না। কেননা লোকেরা এটাকে ফ্যাসাদের রূপ দিবে। রাবী বলেন, ইবনি উমর [রাদি.] তাকে ধমক দিয়ে বলিলেন, আমি বলছি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেন, আর তুমি বলছ আমরা তাদেরকে [বাইরে যেতে] ছেড়ে দিব না! [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৮৭৪, ইসলামিক সেন্টার- ৮৮৭]

৮৭৯

আল আমাশ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] -এর সূত্রে হইতে বর্ণীতঃ

এ সানাদে উপরোক্ত হাদীসের অনুরূপ বর্ণনা করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৮৭৫, ইসলামিক সেন্টার- ৮৮৮]

৮৮০

ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ মহিলাদেরকে রাতের বেলা মাসজিদে যাওয়ার অনুমতি দিও। আবদুল্লাহ ইবনি উমারের ছেলে ওয়াকিদ তাকে [পিতাকে] বলিল, এ সুযোগকে তারা বিপর্যয়ের কারণে পরিণত করিবে।

রাবী বলেন, এ কথা শুনামাত্র তিনি [ইবনি উমর] ওয়াকিদ-এর বুকে আঘাত করিলেন এবং বলিলেন, আমি তোমাকে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] -এর হাদীস [নির্দেশ] বলছি, আর তুমি বলছ- না! [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৮৭৬, ইসলামিক সেন্টার- ৮৮৯]

৮৮১

বিলাল ইবনি আবদুল্লাহ ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি [আবদুল্লাহ] বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ মহিলাদের মাসজিদে যাওয়ার অধিকারে তোমরা বাধা দিও না। তারা যদি তোমাদের নিকট অনুমতি চায়। বিলাল বললেনঃ আল্লাহর শপথ! অবশ্যই আমরা তাদেরকে বাধা দিব। ইবনি উমর উত্তরে বললেনঃ আমি তোমাকে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] -এর নির্দেশ সম্পর্কে অবহিত করছি, আর তুমি বলছ : তাদেরকে অবশ্যই বাধা দিব। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৮৭৭, ইসলামিক সেন্টার- ৮৯০]

৮৮২

সাকীফ গোত্রের যাইনাব আস্ সাকাফিয়্যাহ্ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ তোমাদের [মহিলাদের] কেউ যখন ইশার সলাতে শামিল হইতে চায়, ঐ রাতে সে যেন সুগন্ধি ব্যবহার না করে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৮৭৮, ইসলামিক সেন্টার- ৮৯১]

৮৮৩

আবদুল্লাহর স্ত্রী যাইনাব [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] আমাদের বললেনঃ তোমাদের কোন মহিলা যখন মাসজিদে উপস্থিত হওয়ার ইচ্ছা পোষণ করে, সে যেন সুগন্ধি স্পর্শ না করে [আসে]। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৮৭৯, ইসলামিক সেন্টার- ৮৯২]

৮৮৪

আবু হুরাইরাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ যে কোন স্ত্রীলোক সুগন্ধি দ্রব্যের ধোঁয়া গ্রহণ করে, সে যেন আমাদের সাথে ইশার সলাতে শামিল না হয়। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৮৮০, ইসলামিক সেন্টার- ৮৯৩]

৮৮৫

আবদুর রহমান-এর কন্যা আমরাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি নবী [সাঃআঃ] -এর স্ত্রী আয়িশা [রাদি.] -কে বলিতে শুনেছেন। মহিলারা [সাজসজ্জার যেসব] নতুন পন্থা বের করে নিয়েছে, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] এগুলো দেখলে বনী ইসরাঈলের মহিলাদের মত তাদেরকেও মাসজিদে আসতে নিষেধ করিতেন। ইয়াহইয়া ইবনি সাঈদ বলেনঃ আমি আমরাহ্ কে জিজ্ঞেস করলাম, ইসরাঈল বংশের মহিলাদেরকে কি মাসজিদে আসতে নিষেধ করে দেয়া হয়েছিল? তিনি বললেনঃ হ্যাঁ। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৮৮১, ইসলামিক সেন্টার- ৮৯৪]

৮৮৬

ইয়াহ্ইয়া ইবনি সাঈদ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] –এর উল্লেখিত সূত্রে হইতে বর্ণীতঃ

উপরের হাদীসের অনুরূপ হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৮৮২, ইসলামিক সেন্টার- ৮৯৫]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply