মসজিদ প্রসঙ্গ। মসজিদ তৈরি ও পরিষ্কার করার নির্দেশ

মসজিদ প্রসঙ্গ। মসজিদ তৈরি ও পরিষ্কার করার নির্দেশ

মসজিদ প্রসঙ্গ। মসজিদ তৈরি ও পরিষ্কার করার নির্দেশ >> বুলুগুল মারাম এর মুল সুচিপত্র দেখুন

অধ্যায় ৬ঃ মসজিদ প্রসঙ্গ

পরিচ্ছেদ ৭১. মসজিদ তৈরি ও পরিষ্কার করার নির্দেশ
পরিচ্ছেদ ৭২. কবরের উপর মসজিদ নির্মাণ করার বিধান
পরিচ্ছেদ ৭৩. কাফির ব্যক্তির মাসজিদে প্রবেশ করার বিধান
পরিচ্ছেদ ৭৪. -মাসজিদে কবিতা পাঠ করার বিধান
পরিচ্ছেদ ৭৫. মাসজিদে হারানো বস্তুর ঘোষণা দেয়ার বিধান
পরিচ্ছেদ ৭৬. মাসজিদে ক্রয়- বিক্রয় করার বিধান
পরিচ্ছেদ ৭৭. মাসজিদে হাদ্দ [শরীয়াত কর্তৃক শাস্তি] প্রতিষ্ঠা করা নিষেধ
পরিচ্ছেদ ৭৮. প্রয়োজনে মসজিদে তাঁবু স্থাপন করা বৈধ
পরিচ্ছেদ ৭৯. মাসজিদে বর্শা বা বল্লম দিয়ে খেলা-ধুলা করা বৈধ
পরিচ্ছেদ ৮০. মাসজিদে মহিলার অবস্থান ও সেখানে ঘুমানো বৈধ
পরিচ্ছেদ ৮১. মাসজিদে থুথু ফেলার হুকুম
পরিচ্ছেদ ৮২. মাসজিদে চাকচিক্য নিয়ে গর্ব করা নিন্দনীয় ও তা কিয়ামতের আলামত
পরিচ্ছেদ ৮৩. মসজিদকে জাঁকজমকপূর্ণ করা শরীয়তসম্মত কাজ নয়
পরিচ্ছেদ ৮৪. মসজিদ থেকে ময়লা- আবর্জনা দূর করার ফযীলত
পরিচ্ছেদ ৮৫. তাহিয়্যাতুল মসজিদ নামাজ আদায় করার বিধান

পরিচ্ছেদ ৭১. মসজিদ তৈরি ও পরিষ্কার করার নির্দেশ

২৫১ – আয়িশা [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, আল্লাহ্‌র রসূল [সাঃআঃ] লোকালয়ে [পাড়া মহল্লায়] মসজিদ তৈরি করিতে এবং তা পরিষ্কার ও সুবাসিত করে রাখতে আদেশ করিয়াছেন। তিরমিজি এটির মুরসাল হওয়াকে সঠিক বলেছেন। {২৮৯}

{২৮৯} আবূ দাউদ ৪৫৫, তিরমিজি ৫৯৪, মসজিদ তৈরি হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৭২. কবরের উপর মসজিদ নির্মাণ করার বিধান

২৫২ – আবূ হুরাইরা [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

আল্লাহর রসূল [সাঃআঃ] বলেন; আল্লাহ তা’আলা ইয়াহূদীদের ধ্বংস করুন। কেননা তারা তাদের নাবীদের কবরকে মসজিদ বানিয়ে নিয়েছে। মুসলিম`খ্রিস্টান’ শব্দটি বর্ধিত করিয়াছেন। {২৯০}

{২৯০} বুখারী ৪৩৭, মুসলিম ৫৩০, নাসায়ো ২০৪৭, আহমাদ ৯৫৪০। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

২৫৩ – আয়িশা [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তাদের মধ্যে কোন সৎ লোক মারা গেলে তাঁরা তাহাঁর কবরের উপর মসজিদ বানাতো। এতে আরো আছে- “এরা সৃষ্টির মধ্যে নিকৃষ্টতম। {২৯১}

{২৯১} বুখারী ৪২৭, মুসলিম ৫২৮, নাসায়ি হাদিস ৭০৪, আহমাদ ২৩৭৩১। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৭৩. কাফির ব্যক্তির মাসজিদে প্রবেশ করার বিধান

২৫৪ – আবূ হুরাইরা [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, নাবী [সাঃআঃ] কিছু সৈন্য [নজদে] পাঠিয়েছিলেন- তাঁরা একজনকে ধরে নিয়ে এসে মাসজিদের কোন একটি খুঁটির সঙ্গে বেঁধে রাখল। {২৯২}

{২৯২} বুখারী ৪৬৯, মুসলিম ১৭৬৪, আবূ দাউদ ২৬৭৯, আহমাদ ৯৫২৩। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৭৪. -মাসজিদে কবিতা পাঠ করার বিধান

২৫৫ – আবূ হুরাইরা [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

উমার [রাঃআঃ] হাস্‌সান [রাঃআঃ] -কে মাসজিদে কবিতা পাঠরত অবস্থায় পেয়ে তার দিকে অসন্তুষ্টি ভাব নিয়ে দৃষ্টি করিলেন। ফলে হাস্‌সান [রাঃআঃ] তাঁকে বললেনঃ এখানে আপনার চেয়ে উত্তম ব্যক্তির উপস্থিতিতেও আমি কবিতা আবৃত্তি করতাম। [অর্থাৎ নাবী [সাঃআঃ] -এর উপস্থিতিতে]। {২৯৩}

{২৯৩} বুখারী ৩২১২, ৬১৫২, মুসলিম ২৪৮৫, নাসায়ি হাদিস ৭১৬, আহমাদ ২১৪২৯। মসজিদ তৈরি হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৭৫. মাসজিদে হারানো বস্তুর ঘোষণা দেয়ার বিধান

২৫৬ – আবূ হুরাইরা [সাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, আল্লাহ্‌র রসূল [সাঃআঃ] বলেছেন – যে শুনতে পাবে কেউ মাসজিদে হারানো বস্তুর ঘোষণা করছে শ্রবণকারী যেন বলে –`আল্লাহ্‌ যেন তোমাকে তা আর ফিরিয়ে না দেন।‘ কেননা মসজিদ এরূপ [ঘোষণার] কাজের জন্য তৈরী করা হয়নি। {২৯৪}

{২৯৪} মুসলিম ৫৬৮, তিরমিজি ১৩১২, আবূ দাউদ ৪৭৩, ইবনু মাজাহ ৭৬৭ আহমাদ ৮৩৮২, ৯১৬১, দারেমী ১৪০১। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৭৬. মাসজিদে ক্রয়- বিক্রয় করার বিধান

২৫৭ – আবূ হুরাইরা [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

আল্লাহ্‌র রসূল [সাঃআঃ] বলেছেন, তোমরা কোন ব্যক্তিকে মসজিদে ক্রয়বিক্রয় করিতে দেখলে তাকে বলবে, আল্লাহ্‌ তোমার ব্যবসাকে যেন লাভজনক না করেন। তিরমিজি হাদিসটিকে`হাসান’ বলেছেন। {২৯৫}

{২৯৫} মুসলিম ৫৬৮, তিরমিজি ১৩১২, আবূ দাউদ ৪৭৩, ইবনু মাজাহ ৭৬৭ আহমাদ ৮৩৮২, ৯১৬১, দারেমী ১৪০১। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৭৭. মাসজিদে হাদ্দ [শরীয়াত কর্তৃক শাস্তি] প্রতিষ্ঠা করা নিষেধ

২৫৮ – হাকিম বিন্‌ হিযাম [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, আল্লাহ্‌র রসূল [সাঃআঃ] বলেছেনঃ মাসজিদে`হদ্দ’ কার্যকর করা ও`কিসাস’ [হত্যার বদলে হত্যা] নেয়া যায় না। – আহমাদ ও আবূ দাউদ, দুর্বল সানাদে। {২৯৬}

{২৯৬} আবূ দাউদ ৪৪৯০, আহমাদ ১৫১৫১

নাসীরুদ্দীন আলবানী সহীহুল জামে [৭৩৮১] গ্রন্থে হাসান ও ইমাম সুয়ূতী জামে ছগীর [৯৮৩৯] গ্রন্থে হাদিসটিকে সহিহ বলে উল্লেখ করলেও এই হাদিসের এক জন বর্ণনাকারী ইসমাঈল বিন মুসলিম আল মাক্কী রয়েছেন। তার সম্পর্কে তিরমিজি [১৪০১] বাযযার তাহাঁর আল বাহরুয যিখার [১১/১১৪] গ্রন্থদ্বয়ে বলেছেন তার সম্পর্কে আহলূল ইলমগণ সমালোচনা করিয়াছেন। ইবনু হাজার তার আল মাহাল্লী [১১/১২৩] গ্রন্থে বলেন, এই হাদিসের দুই জন রাবী ইসমাঈল বিন মুসলিম ও সাঈদ বিন বাসীর দুর্বল। ইমাম বায়হাক্বী সুনানুল কুবরা [৪/৩৯] গ্রন্থে হাদসটিকে মাওসুল এবং ইবনু কাত্তান আল ওয়াহাম ওয়াল ইহাম [৫/৪৯৬] গ্রন্থেও অনুরূপ বলেছেন। ইমাম হায়সামী মাজমাঊয যাওয়ায়িদ [২/২৮] গ্রন্থে যুবায়ির বিন মুত্বয়ীম বর্ণিত হাদিসের রাবী আল ওয়াকেদীকে দুর্বল বলেছেন। ইমাম যাহাবী মিযানুল ইতিদাল [১/২৪৯] গ্রন্থে হাদিসটিকে মুনকার বলেছেন। হাদিসের তাহকীকঃ অন্যান্য

পরিচ্ছেদ ৭৮. প্রয়োজনে মসজিদে তাঁবু স্থাপন করা বৈধ

২৫৯ – আয়িশা [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, খন্দকের যুদ্ধে সা’দ [রাঃআঃ] -এর [হাতের শিরা] যখম হয়েছল। নাবী [সাঃআঃ] মাসজিদে [তাহাঁর জন্য] একটা তাঁবু স্থাপন করিলেন, যাতে নিকট হতে তাহাঁর দেখাশুনা করিতে পারেন। {২৯৭}

{২৯৭} বুখারী ৪৬৩, ২৮১৩, ৩৯০১, ৪১১৭, ৪১২২, মুসলিম ১৭৬৯, নাসায়ি হাদিস ৭১০, আবূ দাউদ ৩১০১, আহমাদ ২৩৭৭৩, ২৪৫৭৩। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৭৯. মাসজিদে বর্শা বা বল্লম দিয়ে খেলা-ধুলা করা বৈধ

২৬০ – আয়িশা [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, আমি আল্লহর রসূল [সাঃআঃ] -কে দেখেছি তিনি আমাকে আড়াল করে রাখছিলেন, এর আমি [তাহাঁর পিছন থেকে] মাসজিদে হাবশার লোকেদের খেলা অবলোকন করছিলাম। [দীর্ঘ হাদিস] {২৯৮}

{২৯৮} বুখারী ৪৫৪, ৪৫৫, ৯৫০, নাসায়ি হাদিস ১৫৯৩, ১৫৯৪, ১৫৯৫, ইবনু মাজাহ ১৮৯৮, আহমাদ ২৩৭৭৫, ২৪০১২, ২৫৫৭০, মুসলিম৮৯২। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৮০. মাসজিদে মহিলার অবস্থান ও সেখানে ঘুমানো বৈধ

২৬১ – আয়িশা [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

একজন কৃষ্ণবর্ণা নারীর জন্যে মাসজিদে [নাবাবীতে] একটা তাঁবু অথবা ছাপড়া করে দেয়া হয়েছিল।`আয়িশা [রাঃআঃ] বলেনঃ সে [দাসীটি] আমার নিকট আসতো আর আমার সঙ্গে কথাবার্তা বলতো। [দীর্ঘ হাদিস]। {২৯৯}

২৯৯} বুখারী ৪৩৯, ৩৮৩৫।মসজিদ তৈরি হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৮১. মাসজিদে থুথু ফেলার হুকুম

২৬২ – আনাস ইব্‌নু মালিক [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, নাবী [সাঃআঃ] বলেছেনঃ মাসজিদে থুথু ফেলা গুনাহের কাজ, আর তার কাফ্‌ফারাহ [প্রতিকার] হচ্ছে তা দাবিয়ে দেয়া [মুছে ফেলা]। {৩০০}

{৩০০} বুখারী ৪১৫, মুসলিম ৫৫২, তিরমিজি ৫৭২, নাসায়ি হাদিস ৭২৩ আবূ দাউদ ২৭৪, ৪৭৪, ৪৭৫, আহমাদ ১১১৬৫১, ১২৩৬৪, ১৩৬৬১, দারেমী ১৩৯৫। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৮২. মাসজিদে চাকচিক্য নিয়ে গর্ব করা নিন্দনীয় ও তা কিয়ামতের আলামত

২৬৩ – আনাস ইবনু মালিক [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ যতক্ষণ পর্যন্ত লোকেরা মাসজিদের সৌন্দর্য ও সুসজ্জিতকরণ নিয়ে পরস্পর গর্ব না করিবে ততক্ষণ ক্বিয়ামাত সংঘঠিত হইবে না। ইবনু খুযাইমাহ এটিকে সহিহ বলেছেন। {৩০১}

{৩০১} আবূ দাউদ ৪৪৯, নাসায়ি হাদিস ৬৮৯, ইবনু মাজাহ ৭৩৯, আহমাদ ১১৯৭১, দারিমী ১৪০৮। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৮৩. মসজিদকে জাঁকজমকপূর্ণ করা শরীয়তসম্মত কাজ নয়

২৬৪ – ইবনু`আব্বাস [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ`জাঁকজমকভাবেপূর্ণ মসজিদ তৈরির নির্দেশ আমি পাইনি।’ ইবনু হিব্বান একে সহীহ্‌ বলেছেন। {৩০২}

{৩০২} ইবনু মাজাহ ৭৪০। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৮৪. মসজিদ থেকে ময়লা- আবর্জনা দূর করার ফযীলত

২৬৫ – আনাস [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, আল্লাহ্‌র রসূল [সাঃআঃ] বলেছেনঃ আমার উম্মাতের কল্যাণজনক কাজগুলো আমার সামনে পেশ করা হয়েছিল। এমনকি ক্ষুদ্র খড়কুটোগুলো কোন ব্যক্তি মসজিদ থেকে বাইরে নিক্ষেপ করে এমন কাজও। আবূ দাউদ ও তিরমিজি, তিরমিজি এটিকে গরীব বলে সাব্যস্ত করিয়াছেন, ইবনু খুযাইমাহ একে সহিহ বলেছেন। {৩০৩}

{৩০৩} আবূ দাউদ ৪৬১ তিরমিজি ২৯১৬, ইমাম সুয়ূতী আল জামেউস সগীর [৫৪২১] গ্রন্থে একে দুর্বল বলেছেন। ইমাম যাহাবী তাহাঁর তালখীসুল ইলাল আল মুতানাহিয়াহ [৪১] গ্রন্থে বলেন, হাদিসটি ইবনু জুরাইজ মুত্তালিব থেকে শুনেননি। ইমাম মুনযিরী তাহাঁর তারগীব ওয়াত তারহীব [১/১৫৮] গ্রন্থে বলেন, এর সনদে আবদুল মাজীদ বিন আবদুল আযীয বিন আবূ রাওয়াদ রয়েছেন। যার বিশ্বস্ত হওয়ার ব্যাপারটি বিতর্কিত। শাইখ আলবানী যঈফুল জামে [৩৭০০], যইফ তারগীব [১৮৪ ও ৮৭২], জঈফ আবূ দাউদ [৪৬১], জঈফ তিরমিজি [২৯১৬] গ্রন্থে হাদিসটিকে দুর্বল বলেছেন। আর তাখরিজ মিশকাতুল মাসাবীহ [৬৮৯] গ্রন্থে একে মুনকাতি’ বলেছেন। হাদিসের তাহকীকঃ দুর্বল হাদিস

পরিচ্ছেদ ৮৫. তাহিয়্যাতুল মসজিদ নামাজ আদায় করার বিধান

২৬৬ – আবূ কাতাদাহ [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, নাবী [সাঃআঃ] ইরশাদ করেছেনঃ তোমাদের কেউ মাসজিদে প্রবেশ করলে দু’ রাক’আত নামাজ [তাহিয়্যাতুল-মসজিদ] আদায় করার পূর্বে যেন না বসে। {৩০৪}

{৩০৪} বুখারী [৪৪৪, ১১৬৭], তিরমিজি ৩১৬, নাসায়ি হাদিস ৭৩০, আবূ দাউদ ৪৬৭, ইবনু মাজাহ ১০১৩, আহমাদ [২২০২৩, ২২০৭২], মুওয়াত্তা মালেক ৩৮৮, দারেমী ১৩৯৩। মসজিদ তৈরি হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

By বুলূগুল মারাম

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Leave a Reply