একজনের বিবাহের প্রস্তাবের উপর অন্যের বিবাহের প্রস্তাব দেয়া নিষেধ

একজনের বিবাহের প্রস্তাবের উপর অন্যের বিবাহের প্রস্তাব দেয়া নিষেধ

একজনের বিবাহের প্রস্তাবের উপর অন্যের বিবাহের প্রস্তাব দেয়া নিষেধ >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৬. অধ্যায়ঃ একজনের বিবাহের প্রস্তাবের উপর অন্যের বিবাহের প্রস্তাব দেয়া নিষেধ, প্রথমোক্ত ব্যক্তি অনুমতি দিলে অথবা প্রস্তাব প্রত্যাহার করলে [তা জায়িয]

৩৩৪৫

ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নবী [সাঃআঃ] বলেনঃ তোমাদের কেউ যেন অন্যের দামাদামীর উপর দর বাড়িয়ে না বলে এবং অন্যের বিবাহের প্রস্তাবের উপর প্রস্তাব না দেয়। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩২০, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩১৮]

৩৩৪৬

ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নবী [সাঃআঃ] বলেনঃ কোন ব্যক্তি যেন তার ভাইয়ের দরদামের উপর দরদাম না করে এবং তার বিবাহের প্রস্তাবের উপর প্রস্তাব না দেয়। তবে সে অনুমতি দিলে [তা জায়িয]। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩২১, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩১৯]

৩৩৪৭

উবায়দুল্লাহ্ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] থেকে এ সূত্র হইতে বর্ণীতঃ

এ হাদীসের অনুরূপ বর্ণিত হয়েছে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩২২, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩২০]

৩৩৪৮

নাফি [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] থেকে এ সূত্র হইতে বর্ণীতঃ

অনুরূপ বর্ণিত হয়েছে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩২৩, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩২১]

৩৩৪৯

আবু হুরায়রাহ্‌ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নবী [সাঃআঃ] নিষেধ করিয়াছেন- গ্রামের লোকদের পক্ষ থেকে পণ্য দ্রব্য শহরের লোকদের বিক্রয় করে দিতে, অথবা কৃত্রিম ক্রেতা সেজে দাম বাড়িয়ে বলিতে, একজনের বিয়ের প্রস্তাবের উপর অপরজনের প্রস্তাব দিতে, একজনের ক্রয়-বিক্রয়ের দরদাম করার উপর অপরজনের দরদাম করিতে এবং কোন স্ত্রীলোককে স্বীয় পাত্র পূর্ণ করার উদ্দেশে অপর স্ত্রীলোকের ত্বলাক্ব দাবী করিতে।

আম্‌রের বর্ণনায় আরো আছেঃ “একজনের দর করার উপর অপরজনকে দর বাড়িয়ে বলিতে।” [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩২৪, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩২২]

৩৩৫০

আবু হুরায়রাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ [ক্রয়ের ইচ্ছা না থাকলে দালালী করার উদ্দেশে] দাম বাড়িয়ে বলবে না, কোন ব্যাক্তি যেন তার ভাইয়ের ক্রয়-বিক্রয়ের উপর ক্রয়-বিক্রয় না করে, শহরবাসী যেন গ্রামবাসীর পণ্য বিক্রয় না করে, কোন ব্যাক্তি যেন তার ভাই এর বিয়ের প্রস্তাবের উপর প্রস্তাব না দেয় এবং কোন স্ত্রীলোক যেন নিজের পাত্র পূর্ণ করার জন্য অপর স্ত্রীলোকের ত্বলাক্ব দাবী না করে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩২৫, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩২৩

৩৩৫১

যুহরী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

এ সানাদের অনুরূপ হাদীস বর্ণিত হয়েছে। তবে মামারের বর্ণনায় আছেঃ “কোন ব্যাক্তি যেন ক্রয়-বিক্রয়ে তার ভাইয়ের দামের উপর দিয়ে দাম বাড়িয়ে না বলে।” [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩২৬, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩২৪]

৩৩৫২

আবু হুরায়রাহ্‌ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেনঃ কোন মুসলিম যেন অপর মুসলিমের দামের উপর দাম না করে এবং তার বিবাহের প্রস্তাবের উপর প্রস্তাব না দেয়। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩২৭, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩২৫]

৩৩৫৩

আবু হুরায়রাহ্ [রাদি.]-এর সূত্র হইতে বর্ণীতঃ

আবু হুরায়রাহ্ [রাদি.]-এর সূত্রে নবী [সাঃআঃ] হইতে বর্ণীত। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩২৮, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩২৬]

৩৩৫৪

আবু হুরায়রাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নবী [সাঃআঃ] থেকে হাদীসটি বর্ণনা করিয়াছেন। কিন্তু তারা “তার ভাইয়ের দামের উপর” এবং “তার ভাইয়ের প্রস্তাবের উপর” কথা দুটি উল্লেখ করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩২৮, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩২৭]

৩৩৫৫

উক্ববাহ্ ইবনি আমির [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

মিম্বারের উপর দাঁড়িয়ে বলেছেন যে, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ মুমিন ব্যাক্তি অপর মুমিন ব্যাক্তির ভাই। অতএব মুমিনের জন্য তার ভাইয়ের দামের উপর দাম বলা এবং তার ভাইয়ের বিবাহের প্রস্তাবের উপর প্রস্তাব দেয়া হালাল নয়। তবে সে [নিজের প্রস্তাব] প্রত্যাহার করলে স্বতন্ত্র কথা। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩২৯, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩২৮]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply