নতুন লেখা

বানী হাশিম ও বানী মুত্ত্বালিবের জন্য হাদিয়্যাহ্‌ উপঢৌকন গ্রহণ করা

বানী হাশিম ও বানী মুত্ত্বালিবের জন্য হাদিয়্যাহ্‌ উপঢৌকন গ্রহণ করা  >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৫২. অধ্যায়ঃ নবী [সাঃআঃ], বানী হাশিম ও বানী মুত্ত্বালিবের জন্য হাদিয়্যাহ্‌ উপঢৌকন গ্রহণ করা জায়িয যদিও হাদিয়্যাহ্‌ দাতা তা সাদকাহ সরূপ পেয়ে থাকে, সাদকাহ যখন গ্রহীতার হস্তগত হয় তখন তা থেকে সদাক্বার বৈশিষ্ট্য দূরীভূত হয়ে যায় এমনকি যাদের জন্য সাদকাহ ভক্ষণ করা হারাম তাদের জন্যও তা হালাল হয়ে যায়

২৩৭৩

নবী [সাঃআঃ]-এর স্ত্রী জুওয়াইরিয়্যাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তাকে এ হাদীস অবহিত করিয়াছেন। রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তাহাঁর ঘরে এসে বললেনঃ খাওয়ার কিছু আছে কি? তিনি [উত্তরে] বলিলেন, আল্লাহর শপথ! হে আল্লাহ্‌র রসূল! আমাদের খাওয়ার কিছু নেই। তবে বকরীর কয়েকটি হাড় আছে। এটা আমার মুক্ত দাসীকে সাদকাহ হিসেবে দেয়া হয়েছে। তিনি বললেনঃ তা আমার কাছে নিয়ে এসো, কেননা সাদকাহ তার নির্দিষ্ট স্থানে পৌঁছে গেছে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৩৫১, ইসলামিক সেন্টার-২৩৫১]

২৩৭৪

যুহরী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

এ সূত্রেও উপরের হাদীসের অনুরূপ বর্ণিত হয়েছে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৩৫২, ইসলামিক সেন্টার-২৩৫২]

২৩৭৫

আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, বারীয়াহ [রাদি.] নবী [সাঃআঃ]-কে কিছু গোশ্‌ত উপহার দিলেন। এটা তাকে সাদকাহ হিসেবে দেয়া হয়েছিল। নবী [সাঃআঃ] বললেনঃ এ গোশ্‌ত তার [বারীরার] জন্য সাদকাহ কিন্তু আমাদের জন্য হাদিয়্যাহ্‌ বা উপঢৌকন হিসেবে গণ্য। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৩৫৩, ইসলামিক সেন্টার-২৩৫৩]

২৩৭৬

আয়েশাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

একদা নবী [সাঃআঃ]-এর কাছে কিছু গরুর গোশ্‌ত আনা হলো। অতঃপর বলা হলো এ গোশ্‌ত বারীরাকে সাদকাহ হিসেবে দান করা হয়েছে। তখন নবী [সাঃআঃ] বলিলেন, এটা তার জন্য সাদকাহ কিন্তু আমাদের জন্য হাদিয়্যাহ্‌ বা উপঢৌকন।” [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৩৫৪, ইসলামিক সেন্টার-২৩৫৪]

২৩৭৭

আয়েশাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, বারীরাহ্‌ [রাদি.]-কে মুক্বদ্দামার প্রেক্ষিতে শারীআতের তিনটি হুকুম প্রবর্তিত হয়। লোকজন তাকে সাদকাহ দিত এবং তিনি তা আমাদেরকে উপহার হিসেবে দান করিতেন। এ ব্যাপারে আমি নবী [সাঃআঃ]-কে জানালাম। তিনি বলিলেন, এটা তার জন্য সাদকাহ এবং তোমাদের জন্য হাদিয়্যাহ্‌। সুতরাং তোমরা তা খাও। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৩৫৫, ইসলামিক সেন্টার-২৩৫৫]

২৩৭৮

আয়িশাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নবী [সাঃআঃ] থেকে আর একটি হাদীস বর্ণনা করেন। তবে এ হাদীসে অতিরিক্ত বর্ণনা করেন যে, “এ তো আমাদের জন্য তার পক্ষ থেকে হাদিয়্যাহ্।” [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৩৫৬, ইসলামিক সেন্টার-২৩৫৬]

২৩৭৯

আয়িশাহ্ [রাদি.] নবী [সাঃআঃ] হইতে বর্ণীতঃ

অনুরূপ আর একটি হাদীস বর্ণনা করেন। তবে এ হাদীসে অতিরিক্ত বর্ণনা করেন যে, “এ তো আমাদের জন্য তার পক্ষ থেকে হাদিয়্যাহ্।” [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৩৫৭, ইসলামিক সেন্টার-২৩৫৭]

২৩৮০

উম্মু আতিয়্যাহ্‌ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] আমার জন্য সদাক্বার একটি বকরী পাঠালেন। অতঃপর আমি এ থেকে কিছু গোশ্‌ত আয়িশা [রাদি.]-এর জন্য পাঠালাম। রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] আয়িশা [রাদি.]-এর কাছে এসে বলিলেন, তোমাদের কাছে খাওয়ার কিছু আছে কি? তিনি [উত্তরে] বলিলেন, না; তবে আপনি নুসায়বার [উম্মু আতিয়্যাহ্‌] কাছে [সদাক্বার] বকরী পাঠিয়ে ছিলেন। এ থেকে সে আমার জন্য কিছু গোশ্‌ত পাঠিয়েছে। তিনি বলিলেন, এ [সাদকাহ] তো তাহাঁর যথাযথ স্থানে পৌঁছে গেছে [অর্থাৎ উম্মু আত্বিয়ার জন্য সাদকাহ ছিল। সে তা হস্তান্তর করার পর এখন তোমার জন্য এটা হাদীয়্যাহ। কাজেই তুমি খাও, আমাকে দাও]। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৩৫৮, ইসলামিক সেন্টার-২৩৫৮]

About halalbajar.com

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Check Also

মহান আল্লাহর বাণী : “তারা দুটি বিবদমান পক্ষ তাদের প্রতিপালক সম্পর্কে বাক-বিতণ্ডা করে”

মহান আল্লাহর বাণী : “তারা দুটি বিবদমান পক্ষ তাদের প্রতিপালক সম্পর্কে বাক-বিতণ্ডা করে” মহান আল্লাহর …

Leave a Reply

%d bloggers like this: