ফরয গোসল এ ওযর ছাড়া দেরী করার প্রতি ভীতি প্ৰদৰ্শন

ফরয গোসল এ ওযর ছাড়া দেরী করার ভীতি প্ৰদৰ্শন

<< সহীহ আত তারগীব ওয়াত তারহীব হাদীস বই এর মুল সুচিপত্র << ফরয গোসল এ ওযর ছাড়া দেরী করার প্রতি ভীতি প্ৰদৰ্শন

পরিচ্ছেদঃ ফরজ গোসল এ ওযর ছাড়া দেরী করার প্রতি ভীতি প্ৰদৰ্শনঃ

১৭৩ -আম্মার বিন ইয়াসের [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেনঃ তিন ব্যক্তির নিকট [রহমাত ও বরকতের] ফেরেশতা নিকটবর্তী হয় না। [১] কাফেরের লাশ, [২] খালুক [বা রঙ্গিন খশবু] ব্যবহারকারী ব্যক্তি, [৩] নাপাক ব্যক্তি, অবশ্য যদি সে ওযু করে নেয় তবে কোন অসুবিধা নেই।”

[হাদীসটি বর্ণনা করিয়াছেন আবু দাউদ] হাফেয মুনযেরী [রহঃ] বলেন, এখানে ফেরেশতা বলিতে রহমত ও বরকতের ফেরেশতা উদ্দেশ্য। হেফাযত বা সংরক্ষণের কাজে নিয়োজিত ফেরেশতা উদ্দেশ্য নয়। কেননা তাঁরা কোন সময়ই মানুষ থেকে আলাদা থাকেন না। অতঃপর বলা হয়েছেঃ এই হাদীস তাহাদের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য হইবে যারা বিনা ওযরে ফরয গোসল করিতে দেরী করে। ওযর থাকলে যদি ওযু করা সম্ভব থাকে। তবে ওযু না করলেও তার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হইবে। কেউ বলেছেনঃ এ দ্বারা উদ্দেশ্য হচ্ছে যারা সর্বদা উদাসীনতা ও অলসতা করে গোসল করিতে দেরী করে এবং এটাকে অভ্যাসে পরিণত করে নেয়। হাদিসের তাহকিকঃ হাসান লিগাইরিহি

১৭৪ -ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

বাযযার সহিহ সনদে ইবনি আব্বাস [রাদি.] থেকে বর্ণনা করেন। নাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ “তিন ব্যক্তির নিকট [রহমতের] ফেরেশতা নিকটবর্তী হয় না। [১] নাপাক, [২] নেশাগ্ৰস্ত এবং [৩] খালুক [বা রঙ্গিন খশবু] ব্যবহারকারী ব্যক্তি।”

হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

Leave a Reply