রসূলুল্লাহ [সাঃ] এর পানাহারের নিয়ম পদ্ধতি

রসূলুল্লাহ [সাঃ] এর পানাহারের নিয়ম পদ্ধতি

পানাহারের নিয়ম পদ্ধতি , এই অধ্যায়ে হাদীস ৪ টি ( ১০৩-১০৬ পর্যন্ত )<< শামায়েলে তিরমিযী হাদীসের মুল সুচিপত্র দেখুন 

অধ্যায়-২৪ঃ রাসূলুল্লাহ (সাঃ) এর পানাহারের নিয়ম পদ্ধতি

১।পরিচ্ছদঃ রসূলুল্লাহ (সাঃআঃ) আহার শেষে তিন আঙ্গুলি চুষে নিতেন
২।পরিচ্ছদঃ তিনি তিন আঙ্গুলি দিয়ে আহার করিতেন
৩।পরিচ্ছদঃ অতি ক্ষুধার কারণ তিনি একবার বাঁকা হয়ে ঠেস দিয়ে খেয়েছিলেন

১।পরিচ্ছদঃ রসূলুল্লাহ (সাঃআঃ) আহার শেষে তিন আঙ্গুলি চুষে নিতেন

১০৩. আনাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নাবী [সাঃআঃ] যখন আহার করিতেন তখন তিনি তাহাঁর তিনটি আঙ্গুলি চুষে নিতেন। {১০৪}

{১০৪}সহিহ মুসলিম, হাদিস নং/৫৪১৬; আবু দাউদ, হাদিস নং/৩৮৪৭; ইবনি হিব্বান, হাদিস নং/৫২৫২; মুস্তাদরাকে হাকিম, হাদিস নং/৭১২১; বায়হাকী, হাদিস নং/১৪৩৯৫; মুসান্নাফে ইবনি আবি শায়বা, হাদিস নং/২৪৯৩৭; জামেউস সগীর, হাদিস নং/৮৮১১. পানাহারের নিয়ম পদ্ধতি হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

১০৪. আবু জুহায়ফা হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, নাবী [সাঃআঃ] ইরশাদ করিয়াছেন, আমি ঠেসরত অবস্থায় আহার করি না। {১০৫}

{১০৫}মুসনাদুল বাযযার, হাদিস নং/৪২১৪; সুনানুল কুবরা লিন নাসাঈ, হাদিস নং/৬৭০৯, সুনানুল কুবরা লিল বায়হাকী, হাদিস নং/১৩৭০৬; মুজামুল কাবীর, হাদিস নং/১৭৮০২; ইবনি হিব্বান, হাদিস নং/৫২৪০. পানাহারের নিয়ম পদ্ধতি হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

২।পরিচ্ছদঃ তিনি তিন আঙ্গুলি দিয়ে আহার করিতেন

১০৫. কাব ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তিন অঙ্গুলি দিয়ে আহার করিতেন এবং তা চুষে নিতেন। {১০৬}

ব্যাখ্যাঃ সাধারণত আহারের সময় রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তিনটি আঙ্গুল ব্যবহার করিতেন এবং খাওয়ার পর সেগুলো চেটে খেতেন। আঙ্গুল তিনটি হলো বৃদ্ধা, তর্জনী ও মধ্যম।

কাব ইবনি উজরা [রাদি.] বলেন, আমি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কে বৃদ্ধা, তর্জনী ও মধ্যমা এ আঙ্গুলত্রয় দ্বারা পানাহার করিতে দেখেছি। আরো দেখেছি যে, তিনি হাত ধৌত করার আগে তিন আঙ্গুল চেটে খেয়েছেন। প্রথমে মধ্যমা অতঃপর তর্জনী অতঃপর বৃদ্ধাঙ্গুল চেটেছেন।

উল্লেখ্য যে, নাবী [সাঃআঃ] এর সময় খেজুর, রুটি, গোশত অথবা তরকারীই ছিল প্রধান খাদ্য। এসব খাদ্য গ্রহণের সময় সব আঙ্গুল ব্যবহার করার প্রয়োজন হয় না। বিধায় নাবী [সাঃআঃ] তিন আঙ্গুল দ্বারা খেতেন। কিন্তু ভাত খাওয়ার সময় পাঁচ আঙ্গুলই ব্যবহার করিতে হয়। বিধায় সৰ আঙ্গুলই চেটে খাওয়া উচিত। রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেন, যখন তোমাদের মধ্যে কেউ আহার কর, তখন যেন আহার শেষে আঙ্গুলগুলো চেটে খায়। কারণ সে জানে না খাবারের কোন অংশে বরকত রহিয়াছে। {১০৭}

{১০৬}মুসন্নাফে ইবনি আবু শায়বা, হাদিস নং/২৪৯৫৫; মুসনাদুল বাযযার, হাদিস নং/৩৮২০। {১০৭}সহিহ ইবনি হিব্বান,হাদিস নং/৫২৫৩; সিলসিলা সহিহাহ, হাদিস নং/১৪০৪; সহিহ তারগীব ওয়াত তারহীব, হাদিস নং/২১৬১। পানাহারের নিয়ম পদ্ধতি হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

৩।পরিচ্ছদঃ অতি ক্ষুধার কারণ তিনি একবার বাঁকা হয়ে ঠেস দিয়ে খেয়েছিলেন

১০৬. আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, একবার রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] এর কাছে খুরমা আনা হলো। তখন আমি তাকে তীব্র ক্ষুধার কারণে বাঁকা হয়ে ঠেস দিয়ে খেতে দেখেছি। {১০৮}

ব্যাখ্যাঃ সাধারণত রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কোন জিনিসের সাথে ঠেস দিয়ে বসে আহার করিতেন না। এখানে সমস্যার কারণে হেলান দিয়েছিলেন। {১০৮}শারহুস সুন্নাহ, হাদিস নং/২৮৪২। পানাহারের নিয়ম পদ্ধতি হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

By ইমাম তিরমিজি

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply