কোন লোককে নারীদের সঙ্গে একাকী দেখা পেলে …

কোন লোককে নারীদের সঙ্গে একাকী দেখা পেলে

কোন লোককে নারীদের সঙ্গে একাকী দেখা পেলে >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৯. অধ্যায়ঃ কোন লোককে নারীদের সঙ্গে একাকী দেখা পেলে এবং সে মহিলা তার স্ত্রী বা তার মাহরাম হলে কু-ধারণা কে দমনের জন্য এ স্ত্রীলোক অমুক বলে দেয়া মুস্তাহাব

৫৫৭১

আনাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রাসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] তাহাঁর স্ত্রীগণের কোন একজনের সাথে ছিলেন, সে সময় তাহাঁর নিকট দিয়ে এক লোক যাচ্ছিল। তিনি তাকে ডাকলেন। সে [কাছে] আসলে তিনি বলিলেন, ওহে! এটা আমার অমুক স্ত্রী। সে বলিল, হে আল্লাহ্‌র রসূল! অপর কারো সম্বন্ধে আমি মন্দ ধারণা করলেও হয়ত করতাম, কিন্তু আপনার সম্বন্ধে তো মন্দ ধারণা করতাম না। সে সময় রাসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বললেনঃ শাইতান মানুষের রক্ত সঞ্চারণের শিরায় শিরায় চলাফেরা করে থাকে।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৪৯১, ইসলামিক সেন্টার- ৫৫১৫]

৫৫৭২

সাফিয়্যাহ্‌ বিনতু হুয়াই [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] ইতেকাফরত ছিলেন। আমি রাত্রিতে তাহাঁর সাথে দেখা করিতে এলাম। [কিছু সময়] তাহাঁর সাথে কথা বললাম, এরপর ফিরে যাওয়ার জন্যে উঠলাম। তিনিও আমাকে বিদায় দেয়ার জন্যে আমার সঙ্গে উঠলেন। [বর্ণনাকারী বলেন] , সে সময় তার {সাফিয়্যাহ্‌ [রাদি.] } বাসস্থান ছিল উসামাহ্‌ ইবনি যায়দ [রাদি.] -এর ঘরে। তখন [সেখান দিয়ে] আনসারীদের দুজন লোক গমন করছিলেন। তারা রাসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] -কে [এক মহিলার সঙ্গে] দেখিতে পেয়ে জলদি যেতে লাগল। রাসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] তখন বললেনঃ তোমরা দুজন আস্তে আস্তে যাও। এ কিন্তু সাফিয়্যাহ্‌ বিনতু হুয়াই [আমার স্ত্রী]। তারা দুজন বলিল, সুব্‌হানাল্লাহ্‌! হে আল্লাহ্‌র রসূল [আমরা তো কিছু ভাবিনি] ! তিনি বলিলেন, শাইতান মানুষের শিরায় শিরায় চলাফেরা করে। আর আমি আশঙ্কা করলাম যে, শাইতান তোমাদের দুজনের মনে কোন মন্দ ধারণা ঢেলে দিবে অথবা [বর্ণনা সন্দেহ] এ বিষয়ে কোন কিছু তৈরি করিতে পারে।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৪৯২, ইসলামিক সেন্টার- ৫৫১৬]

৫৫৭৩

আলী ইবনি হুসায়ন [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

রাসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] -এর স্ত্রী সাফিয়্যাহ্‌ [রাদি.] তার নিকট বর্ণনা করিয়াছেন যে, রমাযানের শেষ দশকে মাসজিদে [নাবাবীতে] রাসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] -এর ইতিকাফের সময় তিনি তাহাঁর সাথে দেখা করিতে গেলেন। তিনি তাহাঁর সাথে কিছু সময় আলোচনা করিলেন, তারপর প্রত্যাবর্তনের জন্যে উঠে দাঁড়ালেন। নবী [সাঃআঃ] -ও তাঁকে বিদায় দিতে উঠে দাঁড়ালেন …..। অতঃপর [পূর্ববর্তী হাদীসের রাবী] মামার [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বর্ণিত হাদীসের মর্মানুযায়ী হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। তাছাড়া তিনি বলেছেন, নবী [সাঃআঃ] বলিলেন, শাইতান মানুষের রক্ত সঞ্চারণের শিরায় শিরায় পৌঁছে। “প্রবাহিত হয়” বলেননি। [বরং তিনি এ বর্ণনায় [আরবি] বলেছেন, তিনি [আরবি] বলেন নি

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৪৯২, ইসলামিক সেন্টার- ৫৫১৭]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply