শুকনো খেজুর আর কিসমিস একত্র করে নবীয প্রস্তুত করা মাক্‌রুহ

শুকনো খেজুর আর কিসমিস একত্র করে নবীয  {১} প্রস্তুত করা মাক্‌রুহ

শুকনো খেজুর আর কিসমিস একত্র করে নবীয  {১} প্রস্তুত করা মাক্‌রুহ >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৫. অধ্যায়ঃ শুকনো খেজুর আর কিসমিস একত্র করে নবীয  {১} প্রস্তুত করা মাক্‌রুহ

৫০৩৯

জাবির ইবনি আবদুল্লাহ আনসারী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নবী [সাঃআঃ] কিসমিস ও শুকনো খেজুর এবং কাঁচা-পাকা খেজুর একসাথে মিশিয়ে নবীয বানাতে বারণ করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৮১, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৮৯]

{১}নবীয বলা হয় কাঁচা বা পাকা খেজুর, খোরমা, কিসমিস যে কোন এক প্রকারের ফল পরিমাণ মত নিয়ে কাচের পেয়ালাতে পরিমাণ মত পানিতে কয়েক ঘন্টা ভিজিয়ে রাখার পর যা তৈরি হয় সেটাকে চটকিয়ে রস করে প্রয়োজনে ছেঁকে নিয়ে পান করা হয়। তবে তাতে ফেনা উঠে গেলে খাওয়া নিষিদ্ধ এজন্য যে, সেটা তে নেশার উপকরণ তৈরি হয়ে থাকে।

৫০৪০

জাবির ইবনি আবদুল্লাহ আনসারী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] শুকনো খেজুর ও কিসমিস একত্র করে নবীজ তৈরি করিতে নিষেধ করিয়াছেন। তিনি আরও নিষেধ করিয়াছেন কাঁচা-পাকা খেজুর একত্র মিশিয়ে নবীয বানানো থেকে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৮২, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৯০]

৫০৪১

জাবির ইবনি আবদুল্লাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ তোমরা কাঁচা-পাকা খর্জুর এবং কিসমিস ও খোরমা মিশ্রণ করে নবীয বানিও না। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৮৩, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৯১]

৫০৪২

জাবির ইবনি আবদুল্লাহ আনসারী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কিসমিস ও খোরমা মিশিয়ে নবীয বানাতে বারণ করিয়াছেন। তিনি একসাথে কাঁচা-পাকা খেজুর দিয়ে নবীয প্রস্তুত করিতেও বারণ করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৮৪, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৯২]

৫০৪৩

আবু সাঈদ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] খোরমা ও কিসমিস একসঙ্গে মিশ্রণ [করে নবীয তৈরি] করিতে বারণ করিয়াছেন এবং কাঁচা-পাকা খেজুর একত্র [করে নবীয তৈরি] করিতে নিষেধ করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৮৫, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৯৩]

৫০৪৪

আবু সাঈদ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] আমাদেরকে [নবীয তৈরিতে] কিসমিস ও শুকনো খেজুর এবং কাঁচা-পাকা খেজুর একসাথে মিশাতে বারণ করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৮৬, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৯৪]

৫০৪৫

আবু মাসলামাহ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

উপরোল্লিখিত সনদে একইভাবে বর্ণিত হয়েছে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৮৭, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৯৫]

৫০৪৬

আবু সাঈদ খুদ্রী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ যে ব্যক্তি নবীয [খেজুর বা আঙ্গুর ভেজানো পানি] পান করিতে ইচ্ছা পোষণ করে, সে যেন কিসমিস বা শুকনো খেজুর অথবা কাঁচা খেজুর দ্বারা আলাদাভাবে নবীয তৈরি করে তা পান করে।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৮৮, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৯৬]

৫০৪৭

ইসমাঈল ইবনি মুসলিম আবদী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] আমাদেরকে বারণ করিয়াছেন, যেন আমরা কাঁচা খেজুর শুকনো খেজুরের সঙ্গে না মেশাই অথবা কিসমিস খোরমার সঙ্গে না মেশাই অথবা কিসমিস কাঁচা খেজুরের সাথে না মেশাই। তিনি আরও বলেন, তোমাদের মাঝে যে তা পান করিতে আগ্রহী। অতঃপর বর্ণনাকারী ওয়াকী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি]-এর হাদীসের অবকিল বর্ণনা করেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৮৮, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৯৭]

৫০৪৮

আবদুল্লাহ ইবনি আবু কাতাদাহ্ সূত্রে তাহাঁর পিতা আবু কাতাদাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ তোমরা কাঁচা-পাকা খেজুর একসাথে করে নবীয বানাবে না। কিসমিস ও খোরমা একত্র করেও নবীয প্রস্তুত করিবে না বরং একেকটি আলাদাভাবে নবীয বানাবে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৮৯, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৯৮]

৫০৪৯

ইয়াহ্ইয়া ইবনি আবু কাসীর [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

উল্লেখিত সূত্রে হুবহু বর্ণিত রয়েছে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৯০, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৯৯]

৫০৫০

আবু কাতাদাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ তোমরা কাঁচা-পাকা খেজুর একসাথে মিশিয়ে নবীয বানাবে না এবং কাঁচা খেজুর ও কিসমিস একত্রে মিশিয়ে নবীয বানাবে না বরং একেকটি দ্বারা আলাদাভাবে নবীয বানাবে।

ইয়াহ্ইয়া ধারণা করেন যে, তিনি আবদুল্লাহ ইবনি আবু কাতাদার সঙ্গে দেখা করলে তিনি তাহাঁর পিতার সনদে নবী [সাঃআঃ] হইতে অনুরূপ হাদীস তার নিকটে রিওয়ায়াত করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৯১, ইসলামিক সেন্টার- ৫০০০]

৫০৫১

ইয়াহ্ইয়া ইবনি আবু কাসীর [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

উপরোক্ত দুটি সূত্রে একই রিওয়ায়াত করিয়াছেন। তবে তিনি ……. এর স্থলে ……. এবং …… এর স্থলে ……. শব্দ উল্লেখ করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৯১, ইসলামিক সেন্টার- ৫০০১]

৫০৫২

আবু কাতাদাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নবী [সাঃআঃ] কাঁচা ও শুকনো খেজুর একত্রে সংমিশ্রণ করা হইতে এবং কিসমিস ও শুকনো খেজুর সংমিশ্রণ করা থেকে এবং কাঁচা-পাকা খেজুর সংমিশ্রণ করা হইতে বারণ করিয়াছেন। তিনি বলেছেন, প্রত্যেকটি দিয়ে আলাদাভাবে নবীয বানাও। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৯২, ইসলামিক সেন্টার- ৫০০২]

৫০৫৩

{ইয়াহ্ইয়া [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বলেন,} আবু সালামাহ্ ইবনি আবদুর রহমান [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] আবু কাতাদাহ্ [রাদি.]-এর সনদ হইতে বর্ণীতঃ

নবী [সাঃআঃ] হইতে হুবহু হাদীস রিওয়ায়াত করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৯৩, ইসলামিক সেন্টার- ৫০০২]

৫০৫৪

আবু হুরাইরাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কিসমিস ও শুকনো খেজুর [একত্রে মিশিয়ে নবীয প্রস্তুত করা] হইতে নিষেধ করিয়াছেন। তিনি বলেছেন, প্রত্যেকটি দিয়ে পৃথকভাবে নবীয বানানো যেতে পারে।[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৯৪, ইসলামিক সেন্টার- ৫০০৩]

৫০৫৫

আবু হুরাইরাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেন ….. অতঃপর রাবী অবিকল হাদীস রিওয়ায়াত করেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৯৪, ইসলামিক সেন্টার- ৫০০৪]

৫০৫৬

ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, নবী [সাঃআঃ] শুকনো খেজুর ও কিসমিস সংমিশ্রণে এবং কাঁচা ও শুকনো খেজুর মিশিয়ে নবীয প্রস্তুত করিতে বারণ করিয়াছেন। তিনি জুরাশ [ইয়ামানের একটি শহর] অধিবাসীদের চিঠি লিখে তাদেরকে শুকনো খেজুর ও কিসমিসের মিশ্রণে নবীয প্রস্তুত করিতে বারণ করেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৯৫, ইসলামিক সেন্টার- ৫০০৫]

৫০৫৭

ওয়াহ্ব ইবনি বাকিয়্যাহ খালিদ তাহ্হান [রহমাতুল্লাহি আলাইহি]-এর সনদে শাইবানী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

উল্লেখিত সূত্রে শুকনো খেজুর ও কিসমিসের কথা বর্ণনা করিয়াছেন। তবে তিনি [ওয়াহ্ব] কাঁচা ও শুকনো খেজুরের কথা বর্ণনা করেননি। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৯৫, ই.সে ৫০০৫]

৫০৫৮

ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলিতেন, কাঁচা-পাকা খেজুর একসাথে এবং শুকনো খেজুর ও কিসমিস একত্রে মিশিয়ে নবীয তৈরি করিতে বারণ করা হয়েছে।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৯৬, ই.সে ৫০০৬]

৫০৫৯

ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, কাঁচা-পাকা খেজুর মিশিয়ে এবং শুকনো খেজুর ও কিসমিস মিশ্রণে নবীয তৈরি করিতে বারণ করা হয়েছে।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৯৭, ই.সে ৫০০৭]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply