দৌড় প্রতিযোগিতা এবং তীর নিক্ষেপন শরীয়তসম্মত ভাবে

দৌড় প্রতিযোগিতা এবং তীর নিক্ষেপন শরীয়তসম্মত ভাবে

দৌড় প্রতিযোগিতা >> বুলুগুল মারাম এর মুল সুচিপত্র দেখুন

অধ্যায় -২ঃ দৌড় প্রতিযোগিতা এবং তীর নিক্ষেপন

পরিচ্ছেদ ৩৭. ঘৌড়-দৌড় শরীয়তসম্মত এবং শক্তি-সামর্থ্য অনুযায়ী প্রতিযোগিতার দূরত্ব নির্ধারণ

১৩১৪. আবদুল্লাহ ইবনি উমার [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, নাবী [সাঃআঃ] যুদ্ধের জন্যে তৈরি ঘোড়াকে হাফয়া [নামক স্থান] হতে সানিয়াতুল ওয়াদা পর্যন্ত দৌড় প্রতিযোগিতা করিয়েছিলেন। আর যে ঘোড়া যুদ্ধের জন্যে তৈরি নয়, সে ঘোড়াকে সানিয়া হতে যুরাইক গোত্রের মাসজিদ পর্যন্ত দৌড় প্রতিযোগিতা করিয়েছিলেন। আর এই প্রতিযোগিতায় আবদুল্লাহ ইবনি উমার [রাদি.] অগ্রগামী ছিলেন।

বোখারীতে আছে, সুফইয়ান [রাদি.] বলেন, হাফইয়া হতে সানিয়াতুল ওয়াদা পাঁচ বা ছমাইল এবং সানিয়া হতে বানি যুরাইক্বের মাসজিদ এক মাইল। [হাফইয়া এটা মদীনার বাইরের একটা স্থানের নাম]। {১৪২১}

{১৪২১} বোখারী ২৮৬৮, ২৮৬৯, ২৮৭০, মুসলিম ১৮৭০, তিরমিজি ১৬৯৯, নাসায়ী ৩৫৮৩, ৩৫৮৪, আর দাউদ ২৫৭৫, ২৫৭৬, ২৫৭৭, আহম্মদ ৪৪৭৩, ৪৫৮০, ৫১৫৯, মালেক ১০১৭, দারিমী ২৪২৯। দৌড় প্রতিযোগিতা হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৩৮. ঘোড়ার শক্তি ও সামর্থ্য অনুযায়ী ঘৌড়-দৌড়ের সীমানা নির্ধারণ

১৩১৫. ইবনি উমার [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেনঃ নাবী [সাঃআঃ] ঘোড়া দৌড়ের প্রতিযোগিতা করিয়েছেন, তিনি এতে পূর্ণ বয়সের ঘোড়া যা দীর্ঘ পথ অতিক্রমে সক্ষম, সে গুলোকে প্রাধান্য দিয়েছেন। -ইবনি হিব্বান হাদিসটিকে সহিহ বলেছেন। {১৪২২}

{১৪২২} [আরবী] শব্দটি [আরবী] এর বহুবচন। যে ঘোড়া পঞ্চম বছরে প্রবিষ্ট হয়েছে তাকে [আরবী] বলা হয়। বোখারী ৪২১, ২৮৬৮ ২৮৬৯, ২৮৭০, ৭৩৩, মুসলিম ১৮৭০, আবু দাউদ ২৫৭৫, ২৫৭৬. তিরমিজি ১৬৯৯, নাসায়ী ৩৫৮৩, ৩৫৮৪, ইবনি মাজাহ ২৮৭৭ আহম্মদ ৪৪৭৩, মালেক ১০১৭. দারিমী ২৪২৯। দৌড় প্রতিযোগিতা দৌড় প্রতিযোগিতা হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৩৯. কল্যাণের স্বার্থে প্রতিযোগিতা বৈধ

১৩১৬. আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেনঃ রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ উট, তীর ও ঘোড়া ছাড়া অন্য বস্তুতে প্রতিযোগিতা নেই। {১৪২৩}

{১৪২৩} আবু দাউদ ২৫৭৪, তিরমিজি ১৭০০।দৌড় প্রতিযোগিতা দৌড় প্রতিযোগিতা হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ৪০. প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রে তৃতীয় ঘোড়া প্রবেশ করানোর শর্ত প্রসঙ্গ

১৩১৭. আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ যে ব্যক্তি পিছিয়ে যাওয়ার আশংকা নিয়ে কোন ঘোড়াকে দুটো ঘোড়ার মধ্যে ঢুকিয়ে দেয় এরূপ ক্ষেত্রে কোন দোষ নেই। কিন্তু এরূপ আশংকা না থাকার অবস্থায় ঢুকানো জুয়ার শামিল হইবে। {১৪২৪}

{১৪২৪} বোখারী ৫৫৭০, মুসলিম ১৯৭১, তিরমিজি ১৫১১, নাসায়ী ৪৪৩১, ৪৪৩২, ৪৪৩৩, আবু দাউদ ২৮১১, ইবনি মাজাহ ৩১৫৯, আহম্মদ ২৩৭২৮, ২৫২২৩, মালেক ১০৪৭, দারিমী ১৯৫৯। শাইখ আলবানী যষ্টফ ইবনি মাজাহ ৫৭২, যঈফুল জামে ৫৩৭১, ইরওয়াউল গালীল ১৫০৯ গ্রন্থত্রয়ে হাদিসটিকে দুর্বল বলেছেন। ইবনি তাইমিয়াহ আল মুসতাদরাক আলাল মাজমু ৪/৪২ গ্রন্থে বলেন, এটি নাবী [সাঃআঃ]-এর বাণী নয়, বরং সাঈদ ইবনিল মুসাইয়িব এর বানী। বিশ্বস্ত রাবীগণ এরূপই বলেছেন। সুফইয়ান বিন হুসাইন আল ওয়াসিত্বী মারফু হিসেবে বর্ণনা করিয়াছেন। তবে তিনি দুর্বল বর্ণনাকারী। ইবনিল কাইয়্যিম তার আল ফুরুসিয়্যাহ গ্রন্থেও ২১২ বলেন, এটি বিশুদ্ধ নয়। দৌড় প্রতিযোগিতা হাদিসের তাহকিকঃ দুর্বল হাদিস

পরিচ্ছেদ ৪১. তীর চালনার ফজীলত এবং এ ব্যপারে উৎসাহ প্রদান

১৩১৮. উক্ববাহ ইবনি আমির [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন; আমি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কে মিম্বারের উপরে

وَأَعِدُّوا لَهُمْ مَا اسْتَطَعْتُمْ مِنْ قُوَّةٍ} [الأنفال: 60]

ওয়া আইদুল্লাহুম এ আয়াতটা পড়তে শুনিয়াছি, তিনি এর ব্যাখ্যায় বলেছিলেন, তোমরা সজাগ হও শর নিক্ষেপেই শক্তি। সজাগ হও, শর নিক্ষেপই শক্তি রহিয়াছে। সজাগ হও শর নিক্ষেপেই শক্তি রহিয়াছে।

[অর্থাৎ তীর নিক্ষেপে তখনকার দিনে বিশেষভাবে উৎসাহিত করিয়াছেন। সমসাময়িক কালে যুদ্ধের জন্য প্রয়োজন বলে যা সাব্যস্ত হইবে সেটাকেই আয়ত্ব করা মুজাহিদগণের কর্তব্য]। {১৪২৫}

{১৪২৫} মুসলিম ১৯৭১, আবু দাউদ ২৫৭৯, ইবনি মাজাহ ২৮৭৬. আহম্মদ ১০১৭৯। দৌড় প্রতিযোগিতা দৌড় প্রতিযোগিতা হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

By রিয়াদুস সালেহিন

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply