নতুন লেখা

দুনিয়াবী ভোগবিলাস এর প্রতি অনাসক্তি

দুনিয়াবী ভোগবিলাস এর প্রতি অনাসক্তি

দুনিয়াবী ভোগবিলাস এর প্রতি অনাসক্তি >> সুনান তিরমিজি শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন

অধ্যায়ঃ ৩৪, অনুচ্ছেদঃ (১-১২)=টি

১. অনুচ্ছেদঃ সুস্বাস্থ্য ও অবসর সময় দুইটি মূল্যবান ঐশ্বর্য
২. অনুচ্ছেদঃ নিষিদ্ধ জিনিস ত্যাগকারী অধিক ইবাদাতকারী
৩. অনুচ্ছেদঃ সৎকাজের প্রতিযোগিতায় এগিয়ে যাওয়া
৪. অনুচ্ছেদঃ মৃত্যুর কথা স্মরণ প্রসঙ্গে
৫. অনুচ্ছেদঃ কবরের শাস্তিকে ভয় করা
৬. অনুচ্ছেদঃ আল্লাহ্‌র সাক্ষাৎ পছন্দকারীর সাথে সাক্ষাৎ করিতে আল্লাহ্‌ও পছন্দ করেন
৭. অনুচ্ছেদঃ রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] তাহাঁর জাতিকে সতর্ক করিয়াছেন
৮. অনুচ্ছেদঃ আল্লাহ্‌র ভয়ে কান্নাকাটির ফাযীলাত
৯. অনুচ্ছেদঃ রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর বাণী ঃ আমি যা জানি, তোমরা তা জানতে পারলে খুব কমই হাসতে
১০. অনুচ্ছেদঃ কেউ যদি লোকদের হাসানোর উদ্দেশ্যে কোন কথা বলে
১১. অনুচ্ছেদঃ অনর্থক কথা বলা
১২. অনুচ্ছেদঃ স্বল্পভাষী হওয়া

১. অনুচ্ছেদঃ সুস্বাস্থ্য ও অবসর সময় দুইটি মূল্যবান ঐশ্বর্য

২৩০৪. ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ এরূপ দুটি নিয়ামাত আছে যে ব্যাপারে বেশিরভাগ লোক ধোঁকায় নিপতিত ঃ সুস্বাস্থ্য ও অবসর সময়।

সহীহ্‌ ; বুখারী। মুহাম্মাদ ইবনি বাশশার-ইয়াহ্‌ইয়া ইবনি সাঈদ হইতে, তিনি আবদুল্লাহ ইবনি সাঈদ ইবনি আবী হিন্দ হইতে, তিনি তার পিতা হইতে, তিনি ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে, তিনি রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] সূত্রে উপরোক্ত হাদীসের মতই হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতেও এ অনুচ্ছেদে হাদীস বর্ণিত আছে। এ হাদীসটি হাসান সহিহ। এই হাদীসটি আবদুল্লাহ ইবনি সাঈদ ইবনি আবী হিন্দ-এর সূত্রে একাধিক বর্ণনাকারী রিওয়ায়াত করিয়াছেন। এ হাদীসটি তার সূত্রে কেউ মারফূভাবে এবং কেউ মাওকূফভাবে বর্ণনা করিয়াছেন। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ সহীহ হাদীস

২. অনুচ্ছেদঃ নিষিদ্ধ জিনিস ত্যাগকারী অধিক ইবাদাতকারী

২৩০৫. আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ এমন কে আছে যে আমার নিকট হইতে এ কথাগুলো গ্রহণ করিবে এবং সে মুতাবিক নিজেও আমল করিবে অথবা এমন কাউকে শিক্ষা দিবে যে অনুরূপ আমল করিবে? আবু হুরাইরা [রাদি.] বলেন, আমি বললাম, হে আল্লাহ্‌র রাসূল [সাঃআঃ]! আমি আছি। অতঃপর তিনি আমার হাত ধরলেন এবং গুনে গুনে এ পাঁচটি কথা বললেনঃ তুমি হারাম সমূহ হইতে বিরত থাকলে লোকদের মধ্যে সর্বাপেক্ষা বড় আবিদ বলে গণ্য হইবে; তোমার ভাগ্যে আল্লাহ্‌ তাআলা যা নির্ধারিত করে রেখেছেন তাতে খুশি থাকলে লোকদের মধ্যে সর্বাপেক্ষা স্বনির্ভর বলে গণ্য হইবে; প্রতিবেশীর সাথে ভদ্র আচরণ করলে প্রকৃত মুমিন হইতে পারবে; যা নিজের জন্য পছন্দ কর তা-ই অন্যের জন্যও পছন্দ করিতে পারলে প্রকৃত মুসলমান হইতে পারবে এবং অধিক হাসা থেকে বিরত থাক। কেননা অতিরিক্ত হাস্য-কৌতুক হৃদয়কে মৃতবৎ করে দেয়।

-হাসান, সহিহাহ [৯৩০], তাখরিজুল মুশকিলাহ [১৭] আবু ঈসা বলেন, এ হাদীসটি গারীব। আমরা এটি শুধুমাত্র জাফর ইবনি সুলাইমানের সূত্রেই জেনেছি। আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে হাসান বাসরী [রাহঃ] কিছুই শুনেননি। আইয়্যূব, ইউনুস ইবনি উবাইদ ও আলী ইবনি যাইদ [রাহঃ] হইতেও একইরকম বর্ণিত আছে। তারাও বলেন, আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে হাসান বাসরী [রাহঃ] কিছুই শুনেননি। আবু উবাইদা আন-নাজী [রাহঃ] এ হাদীসটি হাসানের সূত্রে বর্ণনা করলেও তাতে তিনি “আবু হুরাইরা [রাদি.] – রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] হইতে” এরূপ উল্লেখ করেননি। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ হাসান হাদীস

৩. অনুচ্ছেদঃ সৎকাজের প্রতিযোগিতায় এগিয়ে যাওয়া

২৩০৬. আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেনঃ তোমরা কার্য সম্পাদনে সাতটি বিষয়ের অগ্রগামী হও। তোমরা কি এমন দারিদ্র্যের অপেক্ষায় আছ যা আল্লাহ্‌ তাআলাকে ভুলিয়ে দেয় অথবা এরূপ ধনবান হওয়ার যা আল্লাহ্‌ তাআলার অবাধ্যাচারে লিপ্ত করে অথবা এমন রোগের যা স্বাস্থ্যকে ধ্বংস করে দেয় অথবা নির্বোধে পরিণতকারী বার্ধক্যের অথবা এমন মৃত্যুর যা হঠাৎ করেই এসে যায় অথবা অপেক্ষা করছো দাজ্জালের অপেক্ষমাণ অদৃশ্য অমঙ্গলের অথবা কিয়ামাতের? আর কিয়ামাত তো আরো বিভিষিকাময়, আরো তিক্ত।

যঈফ, যঈফা [১৬৬৬]। আবু ঈসা বলেন, এ হাদীসটি হাসান গারীব। মুহ্‌রিয ইবনি হারূনের বরাত ব্যতীত আরাজ হইতে আবু হুরাইরা [রাদি.]-এর সূত্রে বর্ণিত হাদীস হিসাবে আমরা এটি প্রসঙ্গে জানতে পারিনি। বিশর ইবনি উমার প্রমুখ এই হাদীস মুহ্‌রিয ইবনি হারূনের সূত্রে বর্ণনা করিয়াছেন। মামার এই হাদীসটি এমন ব্যক্তির সূত্রে বর্ণনা করিয়াছেন যিনি সাঈদ আল-মাকবুরীর নিকট শুনেছেন। তিনি আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে, তিনি রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] হইতে পূর্বোক্ত হাদীসের মতই বর্ণনা করিয়াছেন। এখানে ইউনতাযারু এর পরিবর্তে তানতাযিরুনা শব্দ উল্লেখ করিয়াছেন। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ দুর্বল হাদীস

৪. অনুচ্ছেদঃ মৃত্যুর কথা স্মরণ প্রসঙ্গে

২৩০৭. আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ তোমরা বেশি পরিমাণে জীবনের স্বাদ হরণকারীর অর্থাৎ মৃত্যুর স্মরণ কর।

হাসান, সহীহ্‌ , ইবনি মা-জাহ [৪২৫৮]। আবু সাঈদ [রাদি.] হইতেও এ অনু্চ্ছেদে হাদীস বর্ণিত রয়েছে। আবু ঈসা বলেন, এ হাদীসটি হাসান গারীব। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ হাসান সহীহ

৫. অনুচ্ছেদঃ কবরের শাস্তিকে ভয় করা

২৩০৮. উসমান [রাদি.]-এর মুক্তদাস হানী হইতে বর্ণীতঃ

উসমান [রাদি.] কোন কবরের পাশে দাঁড়িয়ে এত কাঁদতেন যে, তার দাড়ি ভিজে যেত। তাকে প্রশ্ন করা হলো, জান্নাত-জাহান্নামের আলোচনা করা হলে তো আপনি কাঁদেন না, অথচ এই কবর দর্শনে এত বেশি কাঁদেন কেন? তিনি বলিলেন, রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ আখিরাতের মানযিলসমূহের [প্রাসাদ] মধ্যে কবর হলো প্রথম মানযিল। এখান হইতে কেউ মুক্তি পেয়ে গেলে তবে তার জন্য পরবর্তী মানযিলগুলোতে মুক্তি পাওয়া খুব সহজ হয়ে যাবে। আর সে এখান হইতে মুক্তি না পেলে তবে তার জন্য পরবর্তী মানযিলগুলো আরো বেশি কঠিন হইবে। তিনি [উসমান] বলেন, রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] আরো বলেছেনঃ আমি কবরের দৃশ্যের চাইতে অধিক ভয়ংকর দৃশ্য আর কখনো দেখিনি।

হাসান , ইবনি মা-জাহ [৪২৬৭]। আবু ঈসা বলেন, এ হাদীসটি হাসান গারীব। আমরা এ হাদীসের ব্যাপারে শুধুমাত্র হিশাম ইবনি ইউসুফের রিওয়ায়াত হইতেই জেনেছি। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ হাসান হাদীস

৬. অনুচ্ছেদঃ আল্লাহ্‌র সাক্ষাৎ পছন্দকারীর সাথে সাক্ষাৎ করিতে আল্লাহ্‌ও পছন্দ করেন

২৩০৯. উবাদা ইবনিস সামিত [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নাবী [সাঃআঃ] বলেছেনঃ আল্লাহ্‌ তাআলার সাথে সাক্ষাৎ করাকে যে লোক পছন্দ করে, তার সাথে সাক্ষাৎ করিতে আল্লাহ্‌ তাআলাও পছন্দ করেন। আর আল্লাহ্‌ তাআলার সাথে সাক্ষাৎ করিতে যে লোক অপছন্দ করে, আল্লাহ্‌ তাআলাও তার সাথে সাক্ষাৎ করিতে অপছন্দ করেন।

সহীহ্‌ , বুখারী, মুসলিম। আবু ঈসা বলেন, আবু হুরাইরা, আইশা, আবু মূসা ও আনাস [রাদি.] হইতেও এ অনুচ্ছেদে হাদীস বর্ণিত আছে। উবাদা [রাদি.] বর্ণিত হাদীসটি হাসান সহিহ। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ সহীহ হাদীস

৭. অনুচ্ছেদঃ রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] তাহাঁর জাতিকে সতর্ক করিয়াছেন

২৩১০. আইশা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, যখন এ আয়াত অবতীর্ণ হলো ঃ

 وَأَنْذِرْ عَشِيرَتَكَ الأَقْرَبِينَ

“আপনি আপনার নিকটাত্মীয়দের ভয় প্রদর্শন করুন” [২৬ ঃ ২১৪], তখন রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলিলেন, হে সাফিয়্যা বিনতু আবদিল মুত্তালিব, হে ফাতিমা বিনতু মুহাম্মাদ, হে আবদুল মুত্তালিবের বংশধর! আল্লাহ্‌ তাআলার [পাকড়াও] হইতে তোমাদেরকে বাঁচানোর ক্ষমতা আমার নেই। আমার ধন-সম্পদ হইতে তোমরা যতটুকু খুশি চাইতে পার [কিতাবুল তাফসীরে পুনরুক্ত]।

সহীহ্‌ , মুসলিম [১/১৩৩]। আবু ঈসা বলেন, আবু হুরাইরা, আবু মূসা ও ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতেও এ অনুচ্ছেদে হাদীস বর্ণিত আছে। আইশা [রাদি.]-এর বর্ণিত হাদীসটি হাসান গারীব। কিছু বর্ণনাকারী হিশাম ইবনি উরওয়া হইতে এরকমই বর্ণনা করিয়াছেন। হিশাম ইবনি উরওয়া-তার পিতা উরওয়া [রাহঃ]-এর বরাতে রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] হইতে কোন কোন বর্ণনাকারী মুরসাল হিসাবে বর্ণনা করিয়াছেন তাতে আইশার উল্লেখ করেননি। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ সহীহ হাদীস

৮. অনুচ্ছেদঃ আল্লাহ্‌র ভয়ে কান্নাকাটির ফাযীলাত

২৩১১. আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ আল্লাহ্‌ তাআলার ভয়ে ক্রন্দনকারী ব্যক্তি জাহান্নামে প্রবেশ করিবে না, যেরূপ দোহনকৃত দুধ আবার স্তনে ফিরিয়ে নেয়া যায় না। আর আল্লাহ্‌ তাআলার পথের [জিহাদের] ধুলা ও জাহান্নামের ধোঁয়া কখনো একত্র হইবে না।

সহীহ্‌ , মিশকাত [৩৮২৮], তালীকুর রাগীব [২/১৬৬]। আবু ঈসা বলেন, আবু রাইহানা ও ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতেও এ অনুচ্ছেদে হাদীস বর্ণিত আছে। এ হাদীসটি হাসান সহিহ। মুহাম্মাদ ইবনি আবদুর রাহমান [রাহঃ] তালহা-পরিবারের মুক্তদাস, তিনি নির্ভরযোগ্য বর্ণনাকারী এবং মাদীনার অধিবাসী। শুবা ও সুফিয়ান সাওরী তার সূত্রে হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ সহীহ হাদীস

৯. অনুচ্ছেদঃ রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর বাণী ঃ আমি যা জানি, তোমরা তা জানতে পারলে খুব কমই হাসতে

২৩১২. আবু যার [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ আমি [অদৃশ্য জগতের] যা দেখি তোমরা তা দেখ না, আর আমি যা শুনতে পাই তোমরা তা শুনতে পাও না। আসমান তো চড়চড় শব্দ করছে, আর সে এই শব্দ করার যোগ্য। তাতে এমন চার আঙ্গুল পরিমাণ জায়গাও নেই যেখানে কোন ফেরেশতা আল্লাহ্‌ তাআলার জন্যে অবনত মস্তকে সাজদায় পড়ে না আছে। আল্লাহ্‌র শপথ! আমি যা জানি তোমরা যদি তা জানতে তাহলে তোমরা খুব কমই হাসতে, বেশি কাঁদতে এবং বিছানায় স্ত্রীদের উপভোগ করিতে না, বাড়ী-ঘর ছেড়ে পথে-প্রান্তরে বেরিয়ে পড়তে, আল্লাহ্‌ তাআলার সামনে কাকুতি-মিনতি করিতে। বর্ণনাকারী বলেন, আমার মন চায় আমি যদি একটি বৃক্ষ হতাম আর তা কেটে ফেলা হতো। “আমার মন চায়….” অংশ ব্যতীত হাদীসটি হাসান,

ইবনি মা-জাহ [৪১৯০]। আবু ঈসা বলেন, আবু হুরাইরা, আইশা, ইবনি আব্বাস ও আনাস [রাদি.] হইতেও এ অনুচ্ছেদে বর্ণিত আছে। এ হাদীসটি হাসান গারীব। অপর একটি সূত্রে বর্ণিত আছে যে, আবু যার [রাদি.] বলেন, আমার আকাঙক্ষা যে, “আমি যদি একটি গাছ হতাম যা কেটে ফেলা হতো”। আবু যার [রাদি.] হইতে এ হাদীসটি মাওকূফ হিসাবেও বর্ণিত আছে। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ হাসান হাদীস

২৩১৩. আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ আমি যা জানি তোমরা যদি তা জানতে, তাহলে খুব অল্পই হাসতে এবং খুব বেশি কাঁদতে।

সহীহ্‌ , ফিকহুস সীরাহ্‌ [৪৭৯], বুখারী, মুসলিম আনাস [রাদি.] হইতে। এ হাদীসটি হাসান সহিহ। আবু ঈসা বলেন, আবু হুরাইরা, আইশা, ইবনি আব্বাস ও আনাস [রাদি.] হইতেও এ অনুচ্ছেদে হাদীস বর্ণিত আছে। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ সহীহ হাদীস

১০. অনুচ্ছেদঃ কেউ যদি লোকদের হাসানোর উদ্দেশ্যে কোন কথা বলে

২৩১৪. আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ যে লোক এমন কথাও বলে যে প্রসঙ্গে সে মনে করে যে, তাতে কোন অসুবিধা নেই, এইজন্য সে সত্তর বছর জাহান্নামে অবস্থান করিবে।

হাসান সহীহ্‌ , ইবনি মা-জাহ [৩৯৭০]। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ হাসান সহীহ

২৩১৫. বাহ্‌য ইবনি হাকীম [রাহঃ] হইতে বর্ণীতঃ

তার দাদা বলেন, রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ]-কে আমি বলিতে শুনিয়াছি ঃ সেই লোক ধ্বংস হোক যে মানুষদের হাসানোর উদ্দেশ্যে কথা বলিতে গিয়ে মিথ্যা বলে। সে নিপাত যাক, সে নিপাত যাক।

হাসান , গাইয়াতুল মারাম [৩৭৬], মিশকাত, তাহকীক ছানী [৪৮৩৮]। আবু ঈসা বলেন, আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতেও এ অনুচ্ছেদে হাদীস বর্ণিত আছে। এ হাদীসটি হাসান। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ হাসান হাদীস

১১. অনুচ্ছেদঃ অনর্থক কথা বলা

২৩১৬. আনাস ইবনি মালিক [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, কোন এক সময় রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর এক সাহাবী মারা গেলে এক ব্যক্তি বলিল, জান্নাতের সুসংবাদ গ্রহণ কর। তখন রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বললেনঃ তুমি তো জান না, হয়ত সে বেহুদা কথা বলেছে অথবা যা দান করলে তার কোন ক্ষতি হত না তাতেও সে কৃপণতা করেছে?

যঈফ, তালীকুর রাগীব [৪/১১]। আবু ঈসা বলেন, এ হাদীসটি গারীব। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ দুর্বল হাদীস

২৩১৭. আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ কোন ব্যক্তির ইসলামের অন্যতম সৌন্দর্য হলো অনর্থক আচরণ ত্যাগ করা।

সহীহ্‌ , ইবনি মা-জাহ [৩৯৭৬]। আবু ঈসা বলেন, এ হাদীসটি গারীব। আমরা শুধুমাত্র আবু সালামা হইতে আবু হুরাইরা [রাদি.]-এর বরাতে রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর সূত্রে বর্ণিত রিওয়ায়াত হিসাবে এটি জেনেছি। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ সহীহ হাদীস

২৩১৮. আলী [যাইনুল আবিদীন] ইবনিল হুসাইন [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ কোন ব্যক্তির ইসলামের অন্যতম সৌন্দর্য হলো অর্থহীন কথা বা কাজ ত্যাগ করা।

পূর্বের হাদীসের সহায়তায় সহিহ। আবু ঈসা বলেন, উক্ত হাদীস যুহরীর একাধিক শিষ্য যুহরী হইতে, তিনি আলী ইবনিল হুসাইন হইতে, তিনি রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ] হইতে এই সূত্রে মালিকের রিওয়ায়াতের অনুরূপ মুরসালভাবে বর্ণনা করিয়াছেন। আমাদের মতে এটিই আবু সালামা-আবু হুরাইরা [রাদি.]-এর সূত্রের চাইতে অনেক বেশি সহিহ। আলী ইবনিল হুসাইন [রাদি.] আলী ইবনি আবী তালিব [রাদি.]-এর দেখা পাননি [তার যুগ পাননি]। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ সহীহ হাদীস

১২. অনুচ্ছেদঃ স্বল্পভাষী হওয়া

২৩১৯. বিলাল ইবনিল হারিস আল-মুযানী [রাদি.] নামীয় রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর সাহাবী হইতে বর্ণীতঃ

আমি রসুলুল্লাহ [সাঃআঃ]-কে বলিতে শুনিয়াছি ঃ তোমাদের মধ্যে কোন ব্যক্তি কখনো আল্লাহ্‌ তাআলার সন্তুষ্টির কথা বলে, যার সম্পর্কে সে ধারণাও করে না যে, তা কোথায় গিয়ে পৌছবে, অথচ আল্লাহ্‌ তাআলা তার এ কথার কারণে তাহাঁর সাথে মিলিত হওয়ার দিন পর্যন্ত তার জন্য স্বীয় সন্তুষ্টি লিখে দেন। আবার তোমাদের মধ্যে কোন ব্যক্তি কখনো আল্লাহ্‌ তাআলার অসন্তুষ্টির কথা বলে, যার সম্পর্কে সে চিন্তাও করে না যে, তা কোন পর্যন্ত গিয়ে পৌছবে। অথচ এ কথার কারণে আল্লাহ্‌ তাআলা তার সাথে মিলিত হওয়ার দিন পর্যন্ত তার জন্য অসন্তুষ্টি লিখে দেন।

সহীহ্‌ , ইবনি মা-জাহ [৩৯৬৯]। আবু ঈসা বলেন, উম্মু হাবীবা [রাদি.] হইতেও এ অনুচ্ছেদে হাদীস বর্ণিত আছে। এ হাদীসটি হাসান সহিহ। মুহাম্মাদ ইবনি আমরের সূত্রে একাধিক বর্ণনাকারী উপরোক্ত হাদীসের অনুরূপ বর্ণনা করিয়াছেন। তারা মুহাম্মাদ ইবনি আমর-তার বাবা-তার দাদা-বিলাল ইবনিল হারিস [রাহঃ]-এর সূত্রের উল্লেখ করিয়াছেন। এ হাদীসটি মালিক [রাহঃ] মুহাম্মাদ ইবনি আমর-তার বাবা-বিলাল ইবনিল হারিস [রাহঃ]-এর সূত্রে বর্ণনা করিয়াছেন এবং তার দাদার কথা তাতে উল্লেখ করেননি। দুনিয়াবী ভোগবিলাস – এই হাদীসটির তাহকিকঃ সহীহ হাদীস

About halalbajar.com

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Check Also

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ ও অন্যান্য দুয়া

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ ও অন্যান্য দুয়া লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ …

Leave a Reply

%d bloggers like this: