নতুন লেখা

তামাত্তু হজ্জ পালনকারীর জন্য কুরবানী ওয়াজিব

তামাত্তু হজ্জ পালনকারীর জন্য কুরবানী ওয়াজিব

তামাত্তু হজ্জ পালনকারীর জন্য কুরবানী ওয়াজিব >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

২৪. অধ্যায়ঃ তামাত্তু হজ্জ পালনকারীর জন্য কুরবানী ওয়াজিব; যে ব্যক্তি এর সামর্থ্য না রাখে, সে হজ্জের অনুষ্ঠান চলাকালে তিনদিন এবং বাড়িতে প্রত্যাবর্তনের পরে সাতদিন সওম পালন করিবে

২৮৭২

আবদুল্লাহ ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

বিদায় হাজ্জে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তামাত্তু করিয়াছেন, প্রথমে উমরাহ্‌ ও পরে হজ্জ করিয়াছেন এবং পশু কুরবানী করিয়াছেন। তিনি যুল হুলায়ফাহ্‌ থেকে সাথে করে কুরবানীর পশু নিয়েছিলেন। এখান থেকে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] প্রথমে উমরার, অতঃপর হজ্জের তালবিয়াহ্‌ পাঠ শুরু করেন। লোকেরাও রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর অনুসরণে হজ্জের সাথে উমরাহ্‌ যুক্ত করে তামাত্তু করেছে। কতক লোকেরা কুরবানীর পশু সাথে নিয়েছিল, আর কতকের কুরবানীর পশু ছিল না। রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] মাক্কাতে উপনীত হয়ে লোকদের উদ্দেশে বলিলেন, তোমাদের মধ্যে যাদের সাথে কুরবানীর পশু আছে, হজ্জ শেষ না করা পর্যন্ত তাদের জন্য [সাময়িকভাবে] নিষিদ্ধ কোন জিনিস হালাল হইবে না। আর তোমাদের মধ্যে যাদের সাথে কুরবানীর পশু নেই- তার যেন বায়তুল্লাহ-এর ত্বওয়াফ ও সাফা-মারওয়ার মাঝে সাঈ করে মাথার চুল খাটো করার পর ইহরাম খুলে ফেলে। অতঃপর তারা [৮ যিলহজ্জ] পুনরায় হজ্জের জন্য ইহরাম বাঁধবে এবং [নির্দিষ্ট দিনে] কুরবানী করিবে। কোন ব্যক্তি বুরবানীর পশু না পেলে হজ্জ চলাকালীন সময়ে তিনদিন এবং বাড়িতে ফেরার পর সাতদিন সওম পালন করিবে।

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] মাক্কায় পৌঁছে প্রথমে রুকনে [হাজারে আসওয়াদ] স্পর্শ করিলেন, অতঃপর বায়তুল্লাহ-এর ত্বওয়াফ করিলেন- তিন চক্কর সামান্য দ্রুতগতিতে এবং চার চক্কর ধীরগতিতে। বায়তুল্লাহ-এর ত্বওয়াফ সমাপ্ত করে তিনি মাক্বামে ইব্‌রাহীমের নিকট দু রাকআত নামাজ আদায় করিলেন। অতঃপর সালাম ফিরিয়ে নামাজ শেষ করিলেন। অতঃপর তিনি সাফা পাহাড়ে এলেন এবং সাফা-মারওয়াহ্‌ পাহাড়দ্বয়ের মাঝে সাতবার সাঈ করিলেন। এরপর তিনি কোন জিনিস হালাল করেননি- যা হারাম হয়েছিল [ইহরামের কারণে অর্থাৎ তিনি ইহরামমুক্ত হননি] যে পর্যন্ত না হজ্জ সমাপন করেন এবং কুরবানীর দিন নিজের পশু কুরবানী না করেন এবং কাবাহ্‌ ঘর-এর ত্বওয়াফ করিয়াছেন। অতঃপর যে সব জিনিস হারাম ছিল, তা তাহাঁর জন্য হালাল হয়ে গেল [অর্থাৎ তিনি ইহরাম খুললেন] আর যেসব লোক সাথে করে কুরবানীর পশু এনেছিল, তারাও রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর অনুরূপ করেছিল। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৮৪৮, ইসলামিক সেন্টার- ২৮৪৭]

২৮৭৩

উরওয়াহ্ ইবনি যুবায়র [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

নবী [সাঃআঃ]-এর সহধর্মিণী আয়িশা [রাদি.] তাকে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর তামাত্তু হজ্জ পালন এবং তাহাঁর সাথের লোকদের তামাত্তু হজ্জ সম্পাদন সম্পর্কে অবহিত করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৮৪৯, ইসলামিক সেন্টার- ২৮৪৮]

About halalbajar.com

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Check Also

মহান আল্লাহর বাণী : “তারা দুটি বিবদমান পক্ষ তাদের প্রতিপালক সম্পর্কে বাক-বিতণ্ডা করে”

মহান আল্লাহর বাণী : “তারা দুটি বিবদমান পক্ষ তাদের প্রতিপালক সম্পর্কে বাক-বিতণ্ডা করে” মহান আল্লাহর …

Leave a Reply

%d bloggers like this: