রোযার জন্য জুমার দিন ও নামাযের জুমার রাত নির্দিষ্ট করা মাকরূহ

রোযার জন্য জুমার দিন ও নামাযের জুমার রাত নির্দিষ্ট করা মাকরূহ

রোযার জন্য জুমার দিন ও নামাযের জুমার রাত নির্দিষ্ট করা মাকরূহ >> রিয়াদুস সালেহীন  হাদিস শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে রিয়াদুস সালেহীন হাদিস শরীফ এর একটি পরিচ্ছেদের হাদিস পড়ুন

পরিচ্ছেদ – ৩৪৫ : রোযার জন্য জুমার দিন এবং নামাযের জন্য

জুমার রাত নির্দিষ্ট করা মাকরূহ

1/1769 عَنْ أَبي هُرَيرَةَ رضي الله عنه عَنِ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم، قَالَ: «لاَ تَخُصُّوا لَيْلَةَ الجُمُعَةِ بِقِيَامٍ مِنْ بَيْنِ اللَّيَالِي، وَلاَ تَخُصُّوا يَومَ الجُمُعَةِ بِصِيَامٍ مِنْ بَيْنِ الأَيَّامِ، إِلاَّ أَنْ يَكُونَ فِي صَومٍ يَصُومُهُ أَحَدُكُمْ» . رواه مسلم

১/১৭৬৯। আবু হুরায়রা রাঃআঃ হইতে বর্ণিত, নবী সাঃআঃ বলেছেন, ‘‘রাত্রিসমূহের মধ্যে জুমার রাতকে কিয়াম [নফল নামায] পড়ার জন্য নির্দিষ্ট করো না এবং দিনসমূহের মধ্যে জুমার দিনকে [নফল] রোযা রাখার জন্য নির্ধারিত করো না। তবে যদি তা তোমাদের কারো রোযা রাখার তারিখ পড়ে [তাহলে সে কথা ভিন্ন]।’’ [মুসলিম] [1]                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                         

* [যেমন ঐ দিন যদি আরাফাত বা আশূরার দিন হয়, তাহলে রোযা রাখা যাবে।]

2/1770 وَعَنْه، قَالَ: سَمِعْتُ رَسُولَ اللهِ صلى الله عليه وسلم، يَقُولُ : «لاَ يَصُومَنَّ أَحَدُكُمْ يَوْمَ الجُمُعَةِ إِلاَّ يَوماً قَبْلَهُ أَوْ بَعْدَهُ» . متفق عَلَيْهِ

২/১৭৭০। উক্ত রাবী রাঃআঃ হইতে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি রসুলুল্লাহ  সাঃআঃ-কে বলিতে শুনিয়াছি যে, ‘‘অবশ্যই কেউ যেন স্রেফ জুমার দিনে রোযা না রাখে; তবে যদি তার একদিন আগে কিম্বা পরে রাখে [তাহলে তাতে ক্ষতি নেই।]’’ [বুখারী, মুসলিম] [2]

[অর্থাৎ শুক্রবারের সাথে বৃহস্পতিবার কিংবা শনিবার রোযা রাখলে রাখা চলবে।]

3/1771 وَعَنْ مُحَمَّدِ بنِ عَبَّادٍ، قَالَ: سَأَلْتُ جَابِراً رضي الله عنه : أَنَهَى النَّبِيُّ صلى الله عليه وسلم عَنْ صَومِ الجُمُعَةِ ؟ قَالَ: نَعَمْ . متفق عَلَيْهِ

৩/১৭৭১। মুহাম্মাদ ইবনি আববাদ রাঃআঃ হইতে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি জাবের রাঃআঃ-কে জিজ্ঞাসা করলাম, ‘নবী সাঃআঃ কি জুমার দিন রোযা রাখতে নিষেধ করিয়াছেন?’ তিনি বলিলেন, ‘হ্যাঁ।’ [বুখারী ও মুসলিম] [3]

4/1772 وَعَنْ أُمِّ المُؤْمِنِينَ جُوَيرِيَّةَ بِنْتِ الحَارِثِ رَضِيَ اللهُ عَنهَا : أَنَّ النَّبِيَّ صلى الله عليه وسلم دَخَلَ عَلَيْهَا يَوْمَ الجُمُعَةِ وهِيَ صَائِمَةٌ، فَقَالَ: «أَصُمْتِ أمْسِ ؟» قَالَتْ : لاَ، قَالَ: «تُرِيدِينَ أَنْ تَصُومِي غَداً ؟» قَالَتْ : لاَ . قَالَ: «فَأَفْطِرِي» . رواه البخاري

৪/১৭৭২। মুমিন জননী জুয়াইরিয়্যাহ বিন্তে হারেষ রাদিয়াল্লাহু আনহা হইতে বর্ণিত, নবী সাঃআঃ জুমার দিনে তাহাঁর নিকট প্রবেশ করিলেন, তখন তিনি [জুয়াইরিয়াহ] রোযা অবস্থায় ছিলেন। রসুলুল্লাহ  সাঃআঃ তাঁকে প্রশ্ন করিলেন, ‘‘তুমি কি গতকাল রোযা রেখেছিলে?’’ তিনি বলিলেন, ‘না।’ [নবী সাঃআঃ] বলিলেন, ‘‘আগামীকাল রোযা রাখার ইচ্ছা আছে তো?’’ তিনি জবাব দিলেন, ‘না।’ রসুলুল্লাহ  সাঃআঃ বলিলেন, ‘‘তাহলে রোযা ভেঙ্গে ফেল।’’ [বুখারী] [4]


[1] সহীহুল বুখারী ১৯৮৫, মুসলিম ১১৪৪, তিরমিযী ৭৪৩, আবূ দাউদ ২৪২০, ইবনু মাজাহ ১৭২৩, আহমাদ ৭৩৪১, ৭৭৮০, ৭৯৬৫, ৮৫৫৪, ৮৮৫৩, ৮৮৮২, ৯০৩১, ৯১৭১, ১০০৫২

[2] সহীহুল বুখারী ১৯৮৫, মুসলিম ১১৪৪, তিরমিযী ৭৪৩, আবূ দাউদ ২৪২০, ইবনু মাজাহ ১৭২৩, আহমাদ ৭৩৪১, ৭৭৮০, ৭৯৬৫, ৮৫৫৪, ৮৮৫৩, ৮৮৮২, ৯০৩১, ৯১৭১, ১০০৫২

[3] সহীহুল বুখারী ১৯৮৪, মুসলিম ১১৪৩, ইবনু মাজাহ ১৭২৪, আহমাদ ১৩৭৫০, ১৩৯৪৩, দারেমী ১৭৪৮

[4] সহীহুল বুখারী ১৯৮৬, আবূ দাউদ ২৪২২, আহমাদ ৬৭৩২, ২৬২১৫

By রিয়াদুস সালেহিন

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply