জমি দখল জোরপূর্বক অন্যায়ভাবে কিছু অধিকার করা

জমি দখল জোরপূর্বক অন্যায়ভাবে কিছু অধিকার করা

 জমি দখল জোরপূর্বক অন্যায়ভাবে কিছু অধিকার করা >> বুলুগুল মারাম এর মুল সুচিপত্র দেখুন

অধ্যায় -১২ঃ জোরপূর্বক অন্যায়ভাবে কিছু অধিকার করা

পরিচ্ছেদ ০১. অন্যায়ভাবে এক বিঘৎ পরিমাণ কারও জমি দখল করা গুনাহ
পরিচ্ছেদ ০২. অপরের বস্তু নষ্ট করলে তার বিধান
পরিচ্ছেদ ০৩. অন্যের জমিতে চাষাবাদ করার বিধান
পরিচ্ছেদ ০৪. অন্যের জমিতে খেজুর গাছ রোপন করা বিধান
পরিচ্ছেদ ০৫. কারও সম্পদ, রক্ত [খুন] এবং সন্মানহানী করার ব্যাপারে কঠিনভাবে নিষেধাজ্ঞা

পরিচ্ছেদ ০১. অন্যায়ভাবে এক বিঘৎ পরিমাণ কারও জমি দখল করা গুনাহ

৮৯৪ – সা`ঈদ ইবনু যায়দ [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেন- যে ব্যক্তি যুল্‌ম করে অন্যের এক বিঘত যমীনও আত্মসাৎ করে, ক্বিয়ামতের দিন সাত তবক যমীনের শিকল তার গলায় পরিয়ে দেয়া হইবে । {৯৬০}

{৯৬০} বুখারি ২৪৫২, ৩১৯৮, মুসলিম ১৫১০, তিরমিজি ১৪১৮, আহমাদ ১৬৩১, ১৬৩৬, ১৬৫২, দারেমী ২৬০৬ । হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০২. অপরের বস্তু নষ্ট করলে তার বিধান

৮৯৫ – আনাস [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

একদিন নবী [সাঃআঃ] তাহাঁর কোন এক সহধর্মিণীর কাছে ছিলেন । উম্মুল মু`মিনীনদের অপর একজন খাদিমের মারফত এক পাত্রে খাবার পাঠালেন । তিনি পাত্রটি ভেংগে ফেললেন । তখন নবী [সাঃআঃ] তা জোড়া লাগিয়ে তাতে খাবার রাখলেন এবং [সাথীদেরকে] বলিলেন, তোমরা খাও এবং উক্ত খাদিমকে দিয়ে ভাল পেয়ালাটি [ভাঙ্গাটির বদলে] পাঠিয়ে দিলেন । আর ভাঙ্গা পেয়ালাটি রেখে দিলেন । তিরমিজি `আয়িশা-কে ভঙ্গকারিনী বলে উল্লেখ করেছে । আর তিনি বর্ধিত বর্ণনা করিয়াছেন যে, নবী [সাঃআঃ] বলেছিলেন, `খাবার নষ্ট করলে [জরিমানা স্বরূপ] খাবার ও পাত্র নষ্ট করলে তার পরিবর্তে পাত্র । তিরমিজি একে সহীহ্‌ বলেছেন । {৯৬১}

{৯৬১} বুখারি ৫২২৫, ২৪৮১, তিরমিজি ১৩৫৯, ৩৯৫৫, ৩৫৬৭, ইবনু মাযাহ ২৩৩৪, আহমাদ ১১৬১৬, ১৩৩৬১, দারেমী ২৫৯৮ । হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৩. অন্যের জমিতে চাষাবাদ করার বিধান

৮৯৬ – রাফি` বিন খাদীজ [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেন- যে ব্যক্তি কোন সম্প্রদায়ের জমি তাহাদের অমুমতি ছাড়াই আবাদ করিবে সে তার জন্য কোন শস্য প্রাপ্য হইবে না-কেবল সে খরচ পাবে। -তিরমিজি একে হাসান বলেছেন; বলা হয়ে থাকে, বুখারি একে যয়ীফ বলেছেন । {৯৬২}

{৯৬২} আবূ দাউদ ৩৪০৩, তিরমিজি ১৩৬৬, ইবনু মাযাহ ২৪৬৬, আহমাদ ১৫৫০৪- হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৪. অন্যের জমিতে খেজুর গাছ রোপন করা বিধান

৮৯৭ – উরওয়াহ ইবনু যুবাইর [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর কোন এক সহাবী বলেছেন, অবশ্য দু`জন লোক নবী [সাঃআঃ]-এর সমীপে একখন্ড জমির বিবাদ মীমাংসার জন্য বিচারপ্রার্থী হয়েছিল; তাহাদের এক জনের জমিতে অন্যজন খেজুর গাছ রোপন করেছিল । নবী [সাঃআঃ] জমির মালিককে জমি প্রদান করেছিলেন, আর গাছ রোপণকারীকে গাছ উঠিয়ে নিতে হুকুম দিয়েছিলেন । তিনি বলেছিলেন অত্যাচারী রোপনকারীর জন্য কোন হক [দাবী] সাব্যস্ত নয় । -আবূ দাউদ হাসান সানাদে । {৯৬৩}

{৯৬৩} আবূ দাউদ ৩০৭৪, ৩০৭৬, তিরমিজি ১৩৭৮, মুয়াত্তা মালেক ১৪৫৬ । হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

৮৯৮ – বর্ণনাকারী হইতে বর্ণিতঃ

আসহাবে সুনানে সা`ঈদ বিন যায়দ থেকে `উরওয়াহ কর্তৃক শেষাংশে বর্ণিত হয়েছে । এর মাউসূর ও মুরসাল [যুক্ত ও ছিন্ন সূত্র] এবং সাহাবী নির্দিষ্ট করার ব্যাপারে মতবিরোধ ঘটেছে ।

হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস- হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৫. কারও সম্পদ, রক্ত [খুন] এবং সন্মানহানী করার ব্যাপারে কঠিনভাবে নিষেধাজ্ঞা

৮৯৯ – আবূ বাক্‌রাহ [রাঃআঃ] হইতে বর্ণিতঃ

নবী [সাঃআঃ] কুরবানী দিবসে মিনায় ভাষণ দানকালে বলেছেন, `তোমাদের রক্ত, তোমাদের ধন-সম্পদ, তোমাদের সন্মান তোমাদের পরস্পরের জন্য হারাম, যেমন আজকের তোমাদের এ দিন, তোমাদের এ মাস, তোমাদের এ শহর মর্যাদাসম্পন্ন । {৯৬৪}

{৯৬৪} বুখারি ৬৭, ১০৫, ১৭৪১, ৩১৯৭, মুসলিম ১৬৭৯, উবনু মাজাহ ২৩৩, আহমাদ ১৯৮৭৩, ১৯৮৯৪, দারেমী ১৯১৬ । হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

By বুলূগুল মারাম

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Leave a Reply