সম্ভ্রান্ত চোর এবং অন্যান্যদের হাত কাটা এবং হুদূদ …

সম্ভ্রান্ত চোর এবং অন্যান্যদের হাত কাটা এবং হুদূদ

সম্ভ্রান্ত চোর এবং অন্যান্যদের হাত কাটা এবং হুদূদ >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

২. অধ্যায়ঃ সম্ভ্রান্ত চোর এবং অন্যান্যদের হাত কাটা এবং হুদূদ [শারীআত কর্তৃক নির্ধারিত বিভিন্ন অপরাধের শাস্তি]- এর ব্যাপারে সুপারিশ নিষিদ্ধ

৪৩০২

আয়েশাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

মাখযূমী গোত্রের একজন মহিলা চুরি করলে তার [প্রতি হদ প্রয়োগের ব্যাপারে] কুরায়শগণ চিন্তান্বিত হয়ে পড়লো। তাঁরা বলিল, কে এ ব্যাপারে রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]- এর কাছে কথা বলিতে [সুপারিশ করিতে] পারে? তখন তাঁরা বলিলেন, এ ব্যাপারে উসামাহ [রাদি.] ব্যতিত আর কারো হিম্মত নেই। তিনি হলেন রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]- এর প্রিয় ব্যক্তি। রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]- এর সাথে তিনি এ ব্যাপারে কথা বলিলেন। তখন রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম] বললেনঃ তুমি কি আল্লাহ কর্তৃক নির্ধারিত হদ্দের ব্যাপারে সুপারিশ করিতে চাও? অতঃপর রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম] দাঁড়িয়ে ভাষণ দিলেন। তিনি বললেনঃ হে লোক সকল! নিশ্চয়ই তোমাদের পূর্ববর্তী উম্মাতগণ ধ্বংস হয়েছে এ কারণে যে, তাদের মধ্যে যখন কোন সম্ভ্রান্ত লোক চুরি করতো, তখন তারা তাকে ছেড়ে দিত। আর যদি কোন দুর্বল লোক চুরি করতো, তবে তারা তার উপর শাস্তি প্রয়োগ করতো। আল্লাহর কসম! যদি মুহাম্মাদ– এর কন্যা ফাতিমাহ্‌-ও চুরি করতো, তবুও নিশ্চয়ই আমি তার হাত কেটে দিতাম।

ইবনি রুমহ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বর্ণিত অপর এক হাদীসে নিশ্চয়ই তোমাদের পূর্ববর্তীগণ ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়েছে বাক্যটি অতিরিক্ত বর্ণিত হয়েছে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪২৬৩, ইসলামিক সেন্টার- ৪২৬৩]

৪৩০৩

রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]-এর সহধর্মিণী আয়িশাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

কুরায়শরা এক মহিলার ব্যাপারে চিন্তিত হয়ে পড়লো, যে মহিলাটি রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]- এর সময়কালে মাক্কাহ্ বিজয়ের সময় চুরি করেছিল। তখন তাঁরা বলিল, এ ব্যাপারে কে রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]- এর নিকট কথা [সুপারিশ] বলবে? তখন তাঁরা বলিল, এ ব্যাপারে রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]- এর প্রিয়পাত্র উসামাহ্ ইবনি যায়দ [রাদি.] ব্যতীত আর কার হিম্মত থাকতে পারে? তিনি হলেন রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]- এর খুবই প্রিয় পাত্র। অতঃপর উক্ত মহিলাকে নিয়ে উসামাহ্ ইবনি যায়দ [রাদি.] রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]- এর নিকটে এসে তার ব্যাপারে কথা বলিলেন। এতে রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]- এর মুখমন্ডল বিবর্ণ হয়ে গেল। তখন তিনি বললেনঃ তুমি কি আল্লাহ কর্তৃক নির্ধারিত হদ-এর ব্যাপারে সুপারিশ করিতে চাও? তখন উসামাহ [রাদি.] বলিলেন, হে আল্লাহর রসূল। আমার জন্য [আল্লাহর কাছে] ক্ষমা প্রার্থনা করুন। যখন সন্ধ্যা হল তখন রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]- দন্ডায়মান হয়ে এক ভাষণ দিলেন। প্রথমে তিনি আল্লাহর যথাযথ প্রশংসা করিলেন, অতঃপর বললেনঃ তোমাদের পূর্ববর্তী উম্মাতগণকে ধ্বংস করা হয়েছে এজন্য যে, যখন তাদের মধ্যে যখন কোন সম্ভ্রান্ত লোক চুরি করতো, তখন তারা তাকে ছেড়ে দিত। আর যখন তাদের মধ্যে হীন লোক চুরি করতো, তখন তার উপর হদ প্রয়োগ করতো। সে মহান আল্লাহর কসম! যাঁর হাতে আমার জীবন! যদি মুহাম্মাদের কন্যা ফাতিমাহ্ও চুরি করতো, তবে অবশ্যই আমি তার হাত কেটে দিতাম। এরপর যে মহিলা চুরি করেছিল, তিনি তার হাত কাটার নির্দেশ দিলেন। সুতরাং তার হাত কেটে দেয়া হল।

ইউনুস [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] আয়িশা [রাদি.] হইতে বর্ণনা করেন যে, অতঃপর সে মহিলা খাঁটিভাবে তাওবাহ্ করিল এবং এরপরে তার বিয়ে হলো। আয়িশা [রাদি.]….. বলেন, এ ঘটনার পর ঐ মহিলা প্রায়ই আমার কাছে আসতো। তাহাঁর কোন প্রয়োজন থাকলে আমি তা রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]- এর কাছে তুলে ধরতাম। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪২৬৪, ইসলামিক সেন্টার- ৪২৬৪]

৪৩০৪

আয়েশাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, এক মাখযুমী মহিলা বিভিন্ন ঋণ নিয়ে পরে সে তা অস্বীকার করতো। এতে নবী [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম] তার হাত কাটার নির্দেশ দিলেন। এরপর সে মহিলার পরিবারবর্গ উসামাহ্‌ [রাদি.]- এর কাছে এসে এ ব্যাপারে কথোপকথন করলো। তিনি এ ব্যাপারে রসূলুল্লাহ [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]- এর সঙ্গে কথা বলিলেন। অতঃপর তিনি লায়স ও ইউনুস [রাদি.]….. এর বর্ণিত হাদীসের অনুরূপ বর্ণনা করেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪২৬৫, ইসলামিক সেন্টার- ৪২৪৫]

৪৩০৫

জাবির [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

একদা এক মাখযূমী মহিলা চুরি করিল। অতঃপর তাকে [নিয়ে এসে] নবী [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম]- এর সহধর্মিণী উম্মু সালামার মাধ্যমে ক্ষমা চাইলো। নবী [সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম] তখন বললেনঃ যদি ফাতিমাহ্‌ও চুরি করতো, তবে আমি তার হাত কেটে দিতাম। এরপর মহিলাটির হাত কেটে দেয়া হল। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪২৬৬, ইসলামিক সেন্টার- ৪২৬৬]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply