চুরির শাস্তি । চোরের হাত কর্তনের আবশ্যকতা

চুরির শাস্তি । চোরের হাত কর্তনের আবশ্যকতা

চুরির শাস্তি >> বুলুগুল মারাম এর মুল সুচিপত্র দেখুন

অধ্যায় – ৩ঃ চুরির শাস্তি

পরিচ্ছেদ ০১. চোরের হাত কর্তনের আবশ্যকতা এবং যে পরিমাণ চুরিতে হাত কাটা যাবে – এ প্রসঙ্গে
পরিচ্ছেদ ০২. আরিয়ার [নিজের প্রয়োজন মেটাতে ফেরত দেয়ার শর্তে সাময়িকভাবে কোন কিছু গ্রহণ করা] অস্বীকারকারীর বিধান এবং শাস্তির ক্ষেত্রে সুপারিশ করা নিষেধ
পরিচ্ছেদ ০৩. আমানতের খিয়ানতকারী, ছিনতাইকারী এবং লুন্ঠনকারীর হাত কাটা যাবে না
পরিচ্ছেদ ০৪. খেজুর গাছের মাথি এবং ফল চুরি করার বিধান
পরিচ্ছেদ ০৫. চুরির স্বীকারোক্তিকারীকে বার বার জিজ্ঞেস করা যাতে স্বীকার করা থেকে ফিরে আসে
পরিচ্ছেদ ০৬. হাত কাটার পর রক্ত বন্ধ করা প্রসঙ্গে
পরিচ্ছেদ ০৭. চোরের উপর হাদ্দ জারী করা হলে তাকে মালের ক্ষতিপূরণের জন্য দায়ী করা যাবে না
পরিচ্ছেদ ০৮. সংরক্ষিত মাল চুরির অপরাধ ব্যতীত হাত কাটা যাবে না
পরিচ্ছেদ ০৯. ইমামের কাছে আনার পূর্বেই চোরকে ক্ষমা করা জায়েয
পরিচ্ছেদ ১০. বারংবার চুরি করলে চোরের শাস্তি

পরিচ্ছেদ ০১. চোরের হাত কর্তনের আবশ্যকতা এবং যে পরিমাণ চুরিতে হাত কাটা যাবে – এ প্রসঙ্গে

১২২৮. আয়িশাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ কোন চোরের হাত চার ভাগের এক ভাগ দিনার বা তার অধিক পরিমাণ মাল চুরি ছাড়া কাটা যাবে না। বোখারীতে এভাবে আছে, এক চতুর্থাংশ দীনার বা তার অধিক চুরির কারণে হাত কাটা যাবে। আহমাদে আছে এক চতুর্থাংশ দীনারের চুরির কারণে হাত কাটো, এর কমে হাত কেটো না। {১৩৩৪}

{১৩৩৪} বোখারী ৬৭৮৯, ৬৭৯০, ৬৭৯১, মুসলিম ১৬৮৪, তিরমিজি ১৪৪৫, নাসাঈ ৪৯১৪, ৪৯১৫, আবু দাউদ ৪৩৮৩, ৪৩৮৪, ইবনি মাজাহ ২৫৮৫, আহম্মদ ২৩৫৫৮, ২৩৯৯৪, ২৪২০৪, মালেক ১৫৫৭, দারিমী ২৩০০। চুরির শাস্তি হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

১২২৯. ইবনি উমার [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নাবী [সাঃআঃ] তিন দিরহাম মূল্যের ঢালের চুরিতে হাত কেটেছিলেন। {১৩৩৫}

{১৩৩৫} বোখারী ৬৭৯৬, ৬৭৯৭, ৬৭৯৮, মুসলিম ১৬৮৯, তিরমিজি ১৪৪৬, নাসাঈ ৪৯০৬, ৪৯০৭, ৪৯০৮, আবু দাউদ ৪৩৮৫, ইবনি মাজাহ ২৫৮৪, আহম্মদ ৪৪৮৯, ৫১৩৫, মালেক ১৫৭২, দারিমী ২৩০১। চুরির শাস্তি হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

১২৩০. আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেন, আল্লাহর লানত বর্ষিত হয় চোরের উপর যে একটি ডিম চুরি করেছে। তাতে তার হাত কাটা গেছে বা একটি দড়ি চুরি করেছে যার ফলে তার হাত কাটা গেছে। {১৩৩৬}

{১৩৩৬} বোখারী ৬৭৮৩, মুসলিম ১৬৮৭, নাসাঈ ৪৮৭৩, ইবনি মাজাহ ২৫৮৮, আহম্মদ ৭৩৮৮। চুরির শাস্তি হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০২. আরিয়ার [নিজের প্রয়োজন মেটাতে ফেরত দেয়ার শর্তে সাময়িকভাবে কোন কিছু গ্রহণ করা] অস্বীকারকারীর বিধান এবং শাস্তির ক্ষেত্রে সুপারিশ করা নিষেধ

১২৩১. আয়িশাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেন, তুমি কি আল্লাহর নির্ধারিত শাস্তি গুলোর একটি শাস্তির ব্যাপারে আমার কাছে সুপারিশ করছ? এরপর রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] দাঁড়ালেন এবং খুতবা দিলেন। বলিলেন, হে লোকসকল! তোমাদের পূর্ববর্তী উম্মতরা এ জন্য ধ্বংস হয়েছিল যে, তারা তাহাদের মধ্যকার উচ্চ শ্রেণীর কোন লোক চুরি করলে তাকে ছেড়ে দিত। পক্ষান্তরে কোন দুর্বল লোক চুরি করলে তার উপর নির্ধারিত শাস্তি প্রয়োগ করত।

অন্য সূত্রে আয়িশাহ [রাদি.] হতে বর্ণিত। কোন এক নারী আসবাবপত্র চেয়ে নিয়ে তা [ফেরত না দিয়ে] অস্বীকার করে বসত, ফলে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তার হাত কাটার আদেশ দিয়েছিলেন।{১৩৩৭}

{১৩৩৭} বোখারী ২৬৪৮, ৩৪৭৫, ৩৭৩৩, ৪৩০৪, মুসলিম ১৬৮৮, তিরমিজি ১৪৩০, নাসাঈ ৪৮৯৫, ৪৮৯৭, ৪৮৯৮, আবু দাউদ ৪৩৭৩, ইবনি মাজাহ ২৫৪৭, আহম্মদ ২২৯৬৮, মালেক ২৩০২। চুরির শাস্তি হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৩. আমানতের খিয়ানতকারী, ছিনতাইকারী এবং লুন্ঠনকারীর হাত কাটা যাবে না

১২৩২. জাবির [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নাবী [সাঃআঃ] বলেন, আমানতের খিয়ানতকারী ও ছিনতাইকারী, লুন্ঠনকারীর হাত কাটা যাবে না। {১৩৩৮}

{১৩৩৮} তিরমিজি ১৪৪৮, নাসাঈ ৪৯৭১, ৪৯৭২, ৪৯৭৩, আবু দাউদ ৪৩৯১, ৪৩৯২, ইবনি মাজাহ ২৫৯১, আহম্মদ ১৪৬৬২, দারিমী ২৩১০। চুরির শাস্তি হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৪. খেজুর গাছের মাথি এবং ফল চুরি করার বিধান

১২৩৩. রাফি ইবনি খাদীজ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কে বলিতে শুনিয়াছি, ফলে ও খেজুরের গাছের মাথিতে হাত কাটার বিধান নেই। {১৩৩৯}

{১৩৩৯} আবু দাউদ ৪৩৮৮, তিরমিজি ১৪৪৯, নাসাঈ ৪৯৬০, ৪৯৬১, ইবনি মাজাহ ২৫৯৩, আহম্মদ ১৫৩৭৭, ১৫৩৮৭, মালেক ১৫৮৩, দারিমী ২৩০৪, ২৩০৫। চুরির শাস্তি হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৫. চুরির স্বীকারোক্তিকারীকে বার বার জিজ্ঞেস করা যাতে স্বীকার করা থেকে ফিরে আসে

১২৩৪. আবু উমাইয়া মাখযুমী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেনঃ নাবী [সাঃআঃ] এর নিকটে কোন এক চোরকে আনা হলো যে যথারীতি চুরির কথা স্বীকার করেছিল কিন্তু তার নিকটে কোন মাল পাওয়া যায়নি। রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেনঃ তুমি চুরি করেছ বলে তো আমি মনে করছি না! সে বললঃ হাঁ [আমি চুরি করেছি]। বর্ণনাকারী বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] দুই কি তিনবার তাকে এ কথা ঘুরিয়ে ফিরিয়ে বলেছেন। অতঃপর তাহাঁর আদেশক্রমে তার হাত কাটা হলো এবং তাকে পুনরায় রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] এর দরবারে আনা হলো। তাকে তিনি বললেনঃ আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাও ও তাওবাহ কর। সে বললঃ আমি আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাইছি ও তাওবাহ করছি। তারপর রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] লোকটির জন্য ৩ বার এই বলে প্রার্থনা জানালেন যে, হে আল্লাহ! তুমি তার তাওবাহ কবুল কর। {১৩৪০}

চুরির শাস্তি হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৬. হাত কাটার পর রক্ত বন্ধ করা প্রসঙ্গে

১২৩৫. ঈমাম হাকিম আবু হুরাইরা [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

এ অর্থেই একটি হাদিস সংকলন করিয়াছেন, তাতে রাবী বলেছেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেনঃ তাকে নিয়ে গিয়ে তার হাত কেটে দাও ও তার রক্ত বন্ধ করে দাও। হাদিসটি বাযযারও সংকলন করিয়াছেন ও তিনি হাদিসটির সানাদকে নির্দোষ বলেছেন। {১৩৪১}

{১৩৪১} ঈমাম আবু দাউদের আল মারাসীল [৩২৪], ঈমাম হাইসামীর মাজমাউয যাওয়ায়েদ [৬/২৭৯] এর বর্ণনাকারী আহম্মদ বিন আবান আল কুরাশীকে ইবনি হিব্বান সহিহ বিশ্বস্ত বলেছেন, অবশিষ্ট রাবীগণ বোখারীর। ঈমাম বাইহাকীর আস সুনান আস সাগীর [৩/৩১৪], ঈমাম শওকানীর নাইলুল আওত্বার [৭/৩১০] মুত্তাসিল ও মুরসাল রূপে বর্ণনা করিয়াছেন। চুরির শাস্তি হাদিসের তাহকিকঃ অন্যান্য

পরিচ্ছেদ ০৭. চোরের উপর হাদ্দ জারী করা হলে তাকে মালের ক্ষতিপূরণের জন্য দায়ী করা যাবে না

১২৩৬. আবদুর রহমান ইবনি আউফ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেনঃ চোরের উপর হাদ্দ জারি করা হলে তাকে মালের ক্ষতিপূরণের জন্য দায়ী করা যাবে না। {১৩৪২}

{১৩৪২} নাসাঈ ৪৯৮৪। ঈমাম দারাকুতনী তাহাঁর সুনানে ৩/১০৪ গ্রন্থে একে মুরসাল বলেছেন, বাইহাকী তাহাঁর কুবরা ৮/২৭৭ গ্রন্থে বলেন, এ ব্যাপারে মতভেদ আছে, এটি বিচ্ছিন্ন সনদে বর্ণিত হয়েছে। ইবনি হাজার লিসানুল আরাব ৪/৩৭ গ্রন্থে বলেন, এর সানাদে আল মাসরূর বিন ইবরাহী রয়েছে। তার সম্পর্কে দারাকুতনী বলেন, তিনি আবদুর রহমান বিন আওফেকে পাননি। ঈমাম সনআনী বলেন, সে তার দাদা আবদুর রহমান বিন আওফকে পাননি, সুতরাং এর দ্বারা দলিল সাব্যস্ত হয় না। ইবনি উসাইমীন শরহে বুলুগুল মারাম ৫/৪০২ গ্রন্থে বলেন, হাদিসটি মতনেরদ দিক থেকে পরিত্যাজ্য আর সনদের দিক থেকে মুনকাতি। আলবানী জঈফ নাসাঈতে ৪৯৯৯ একে দুর্বল বলেছেন। ঈমাম যাহাবী তার মীযানুল ইতিদাল ৪/১১৩ গ্রন্থে একে মুনকার বলেছেন, ঈমাম নাসাঈ আদদিরায়াহ ২/১১৩ গ্রন্থে বলেন, এটির সানাদ বিচ্ছিন্ন, সুতরাং এর বিশুদ্ধতা প্রমাণিত নয়। চুরির শাস্তি হাদিসের তাহকিকঃ দুর্বল হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৮. সংরক্ষিত মাল চুরির অপরাধ ব্যতীত হাত কাটা যাবে না

১২৩৭. আবদুল্লাহ ইবনি আমর ইবনিল আস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কে গাছে ঝুলন্ত খেজুর প্রসঙ্গে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেনঃ যদি নিয়ে যাওয়ার জন্য আঁচলে না বেঁধে কেবল প্রয়োজন [ক্ষুধা] মেটানোর জন্য খায় তবে তাতে কোন দোষ নেই। আর যদি কিছু নিয়ে বেরিয়ে যায় তবে তাকে জরিমানা করিতে হইবে ও শাস্তি ও দিতে হইবে। আর যদি খামারে রাখার পর সেখানে হতে তার কিছু উঠিয়ে নিয়ে যায় আর তার মূল্য একটি ঢাল পরিমাণ হয়ে যায় তবে তার হাত কাটা হইবে। {১৩৪৩}

{১৩৪৩} নাসাঈ ৪৯৫৭, ৪৯৫৯, তিরমিজি ১২৮৯, আবু দাউদ ১৭১০, ৪৩৯০, আহম্মদ ৬৬৪৮। চুরির শাস্তি হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ০৯. ইমামের কাছে আনার পূর্বেই চোরকে ক্ষমা করা জায়েয

১২৩৮.সাফওয়ান ইবনি উমাইয়াহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নাবী [সাঃআঃ] তাকে বলেছিলেন – যখন তিনি [সাফওয়ান] তার এক চাদর চুরির ব্যাপারে হাত কাটার আদেশ দেয়ার পর সুপারিশ করেছিলেন – কেন তুমি তাকে [চোরকে] আমার কাছে আনার আগেই এ সুপারিশ করনি। {১৩৪৪}

{১৩৪৪} নাসাঈ ৪৮৭৮, ৪৮৭৯, ৪৮৮৩, ইবনি মাজাহ ২৫৯৫, আহম্মদ ১৪৮৭৯, ২৭০৯০, ২৭০৯৭। চুরির শাস্তি হাদিসের তাহকিকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ১০. বারংবার চুরি করলে চোরের শাস্তি

১২৩৯. জাবির [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

কোন এক চোরকে নাবী [সাঃআঃ] এর কাছে আনা হলে তিনি তাকে হত্যা করিতে বলেন। সাহাবীগণ বলেনঃ এ তো চুরি করেছে মাত্র। তিনি বলেনঃ তার হাত কেটে দাও ফলে তার হাত কাটা হল। তারপর দ্বিতীয় বার তাকে আনা হলে তিনি এবারেও বললেনঃ তাকে হত্যা করো। কিন্তু পূর্বের মতই ঘটল [হত্যা করা হল না] তারপর তৃতীয়বার তাকে আনা হলে ঐরূপ ঘটলো। তারপর চতুর্থবার তাকে আনা হলো এবং ঐরূপ ঘটল। তারপর তাকে পঞ্চমদফা আনা হলে তিনি তাকে হত্যা করার আদেশ দিলেন। {১৩৪৫}

{১৩৪৫} নাসাঈ ৪৯৭৮, আবু দাউদ ৪৪১০। শাইখ আলবানী তাহাঁর সহিহ আবু দাউদ [৪৪১০] গ্রন্থে হাসান বলেছেন। ঈমাম সআআনী তাহাঁর সুবুল সালাম গ্রন্থে বলেছেন, এর শাহেদ আছে। কিন্তু শাইখ বিন বায তাহাঁর বুলুগুল মারামের হাশিয় [৬৮৬] গ্রন্থে একে অত্যন্ত দুর্বল বলেছেন, উসাইমীনও তার বুলুগুল মারামের শরাহ [৫/৪০৭] গ্রন্থে বলেন, হাদিসটি মুনকার, সহিহ নয়। ইবনি হাজার আসকালানী তাহাঁর আত-তালখীসুল হাবীর [৪/১৩৮৭] গ্রন্থে বলেন, এর সনদে মাসআব বিন সাদ রয়েছে, তার সম্পর্কে ঈমাম নাসাঈ বলেন, তিনি শক্তিশালী বর্ণনাকারী নন। আর এ হাদিসটি মুনকার, এ সম্পর্কে আমার কোন সহিহ হাদিস জানা নেই। ইবনি মুলকীনও তার আল বাদরুল মুনীর [৮/৬৭২] গ্রন্থে বলেন, এ সানাদের বর্ণনাকারী মাসআব বিন সাদকে দুর্বল বলা হয়েছে। চুরির শাস্তি হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

১২৪০. হারিস ইবনি হাত্বিব হইতে বর্ণীতঃ

অনুরূপ হাদিস নাসাঈতে সংকলিত হয়েছে। আর ঈমাম শাফিঈ বলেনঃ ৫ম দফায় চোরকে হত্যা করার আদেশ মানসুখ বা বাতিল হয়ে গেছে। {১৩৪৬}

{১৩৪৬} নাসাঈ [৪৯৭৭] এককভাবে বর্ণনা করিয়াছেন। হাদিসটি মুনকার। চুরির শাস্তি হাদিসের তাহকিকঃ দুর্বল হাদিস

By বুলূগুল মারাম

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Leave a Reply