নতুন লেখা

কুরবানী করা মুস্তাহাব , আর অপর কে দায়িত্ব না দিয়ে নিজেই তা জবেহ করা

কুরবানী করা মুস্তাহাব , আর অপর কে দায়িত্ব না দিয়ে নিজেই তা জবেহ করা

কুরবানী করা মুস্তাহাব , আর অপর কে দায়িত্ব না দিয়ে নিজেই তা জবেহ করা >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৩. অধ্যায়ঃ কুরবানী করা মুস্তাহাব , আর অপর কে দায়িত্ব না দিয়ে নিজেই তা জবেহ করা এবং বিস্‌মিল্লা-হ ও আল্ল-হু আকবার বলাও মুস্তাহাব

৪৯৮১

আনাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, নবী [সাঃআঃ] দু শিং বিশিষ্ট সাদা-কালো ধুসর রংয়ের দুটি দুম্বা স্বহস্তে জবেহ করেন। [জবেহ করার সময়] তিনি বিস্‌মিল্লা-হ ও আল্ল-হু আকবার বলেন {২} এবং [যাবাহ্‌কালে] তাহাঁর একখানা পা দুম্বা দুটির ঘাড়ের পাশে রাখেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯২৭, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৩১]

{২} জবেহ করার শুরুতে ……… [বিসমিল্লা-হি আল্ল-হু আকবার] বলে জবেহ করা সুন্নাত।

৪৯৮২

আনাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] দুশিং যুক্ত সাদা-কালো বর্ণের দুটি দুম্বা কুরবানী করেন। তিনি আরও বলেন, আমি-তাঁকে দুম্বা দুটি স্বহস্তে জবেহ করিতে দেখেছি। আরও দেখেছি, তিনি ও দুটির ঘাড়ের পাশে নিজ পা দিয়ে চেপে রাখেন এবং বিস্‌মিল্লা-হ ও আল্লাহ আকবার বলেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯২৮, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৩২]

৪৯৮৩

আনাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কুরবানী করেন। রাবী পরবর্তী অংশ উল্লেখিত হাদীসের মতই রিওয়ায়াত করেন।

শুবাহ্‌ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বলেন, আমি কাতাদাহ্‌কে বললাম, আপনি কি আনাস [রাদি.] থেকে হাদীসটি শুনেছেন? তিনি বলিলেন, হ্যাঁ [শুনেছি]। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯২৯, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৩৩]

৪৯৮৪

আনাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

আনাস [রাদি.]-এর সানাদে নবী [সাঃআঃ] হইতে হুবহু রিওয়ায়াত করেন। তবে তিনি উল্লেখ করেন যে, আমি তাঁকে ……… বলিতেও শুনেছি। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৩০, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৩৪]

৪৯৮৫

আয়েশাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কুরবানী করার জন্য শিংওয়ালা দুম্বাটি আনতে নির্দেশ দেন- যেটি কালোর মধ্যে চলাফেরা করতো [অর্থাৎ- পায়ের গোড়া কালো ছিল], কালোর মধ্যে শুইতো [অর্থাৎ- পেটের নিচের অংশ কালো ছিল] এবং কালো মধ্য দিয়ে দেখিতে [অর্থাৎ- চোখের চারদিকে কালো ছিল]। সেটি আনা হলে তিনি আয়িশা [রাদি.]-কে বলিলেন, ছোরাটি নিয়ে এসো। অতঃপর বলেন, ওটা পাথরে ধার দাও। তিনি তা ধার দিলেন। পরে তিনি সেটি নিলেন এবং দুম্বাটি ধরে শোয়ালেন। তারপর সেটা জবেহ করিলেন এবং বলিলেন- …………

 بِاسْمِ اللَّهِ اللَّهُمَّ تَقَبَّلْ مِنْ مُحَمَّدٍ وَآلِ مُحَمَّدٍ وَمِنْ أُمَّةِ مُحَمَّدٍ

“আল্লাহ্‌র নামে। হে আল্লাহ! তুমি মুহাম্মাদ ও তাহাঁর পরিবার ও তাহাঁর উম্মাতের পক্ষ হইতে এটা ক্ববূল করে নাও”। তারপর এটা কুরবানী করেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯৩১, ইসলামিক সেন্টার- ৪৯৩৫]

About halalbajar.com

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Check Also

মহান আল্লাহর বাণী : “তারা দুটি বিবদমান পক্ষ তাদের প্রতিপালক সম্পর্কে বাক-বিতণ্ডা করে”

মহান আল্লাহর বাণী : “তারা দুটি বিবদমান পক্ষ তাদের প্রতিপালক সম্পর্কে বাক-বিতণ্ডা করে” মহান আল্লাহর …

Leave a Reply

%d bloggers like this: