পিতা অপ্রাপ্ত বয়স্কা কুমারী কন্যা র বিবাহ দিতে পারে

পিতা অপ্রাপ্ত বয়স্কা কুমারী কন্যা র বিবাহ দিতে পারে

পিতা অপ্রাপ্ত বয়স্কা কুমারী কন্যা র বিবাহ দিতে পারে >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

১০. অধ্যায়ঃ পিতা অপ্রাপ্ত বয়স্কা কুমারী কন্যা র বিবাহ দিতে পারে

৩৩৭০

আয়েশাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] আমাকে বিয়ে করিয়াছেন, আমার বয়স তখন ছয় বছর। তিনি আমাকে নিয়ে বাসর ঘরে যান, তখন আমার বয়স নয় বছর। আয়িশা [রাদি.] বলেন, আমরা হিজরাত করে মাদীনায় পৌঁছার পর আমি একমাস যাবৎ জ্বরে আক্রান্ত ছিলাম এবং আমার মাথার চুল পড়ে গিয়ে কানের কাছে [কিছু] থাকে। [আমার মা] উম্মু রূমান আমার নিকট এলেন, আমি তখন একটি দোলনার উপরে ছিলাম এবং আমার কাছে আমার খেলার সাথীরাও ছিল। তিনি আমাকে উচ্চৈঃস্বরে ডাকলেন, আমি তার নিকট গেলাম। আমি বুঝতে পারিনি যে, তিনি আমাকে নিয়ে কী করবেন। তিনি আমার হাত ধরে আমাকে দরজায় নিয়ে দাঁড় করালেন। আমি তখন বলছিলাম, আহ, আহ। অবশেষে আমার উদ্বেগ দূরীভূত হল। তিনি আমাকে একটি ঘরে নিয়ে গেলেন। সেখানে আনসার মহিলাগণ উপস্থিত ছিলেন। তাঁরা সকলে আমার কল্যাণ ও রহমাতের জন্য দুআ করিলেন এবং আমার সৌভাগ্য কামনা করিলেন। তিনি [মা] আমাকে তাঁদের নিকট সমর্পণ করিলেন। তাঁরা আমার মাথা ধুয়ে দিলেন এবং আমাকে সুসজ্জিত করিলেন। আমি কোন কিছুতে ভীত শংকিত হইনি। চাশ্‌তের সময় রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] এলেন এবং তাঁরা আমাকে তাহাঁর নিকট সমর্পণ করিলেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩৪৪, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩৪৩]

৩৩৭১

আয়েশাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমার ছয় বছর বয়সে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] আমাকে বিবাহ করেন এবং আমার নয় বছর বয়সে তিনি আমার সঙ্গে বাসর যাপন করেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩৪৫, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩৪৪]

৩৩৭২

আয়েশাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

আছে যে, তার সাত বছর{৫১} বয়সে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তাকে বিবাহ করেন। তাকে নয় বছর বয়সে তাহাঁর ঘরে বধুবেশে নেয়া হয় এবং তাহাঁর সঙ্গে তাহাঁর খেলার পুতুলগুলোও ছিল। তাহাঁর আঠার বছর বয়সে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] ইন্তিকাল করেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩৪৬, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩৪৫]

{৫১} তিনি বলেন যে, তাহাঁর ছয় বছর বয়সে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তাকে বিবাহ করেন। লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, কোন হাদীসে আয়িশাহ্ [রাদি.]-এর বিবাহ হওয়ার ছয় বছর আবার কোন হাদীসে সাত বছর বর্ণিত হয়েছে। হাদীসের ব্যাখ্যাকারদের মতে, ঐ সময় আয়িশাহ্ [রাদি.]-এর বয়স ছয় পার হয়ে সাত বছর চলছিল। ফলে কোন হাদীসে ছয় বছরের উপর অতিরিক্ত সময় বাদ দিয়ে ছয় বছর গণনা করা হয়েছে, আবার কোন হাদীসে অতিরিক্ত সময়কে পূর্ণ বছর ধরে সাত বছর গণনা করা হয়েছে।

৩৩৭৩

আয়েশাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন যে, তাহাঁর ছয় বছর বয়সে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তাকে বিবাহ করেন, তাহাঁর নয় বছর বয়সে তিনি তাকে নিয়ে বাসর যাপন করেন এবং আঠার বছর বয়সে তিনি ইন্তিকাল করেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৩৪৭, ইসলামিক সেন্টার- ৩৩৪৬]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply