কুকুর হত্যার আদেশ ও তা রহিত হওয়ার বর্ণনা এবং শিকার করা..

কুকুর হত্যার আদেশ ও তা রহিত হওয়ার বর্ণনা এবং শিকার করা

কুকুর হত্যার আদেশ ও তা রহিত হওয়ার বর্ণনা এবং শিকার করা >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

১০. অধ্যায়ঃ কুকুর হত্যার আদেশ ও তা রহিত হওয়ার বর্ণনা এবং শিকার করা অথবা ক্ষেত পাহারা বা জীবজন্তু পাহারা বা এ জাতীয় কোন কাজের উদ্দেশ্য ব্যতীত কুকুর পালন করা হারাম হওয়ার বর্ণনা

৩৯০৮

ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কুকুর হত্যা করার জন্যে নির্দেশ দিয়েছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৭১, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৭০]

৩৯০৯

ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন যে, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কুকুর হত্যা করার নির্দেশ দিয়ে মাদীনার চারপাশে লোক পাঠালেন যাতে কুকুর হত্যা করা হয়। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৭২, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৭১]

৩৯১০

আবদুল্লাহ ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেনঃ রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কুকুর হত্যার নির্দেশ দিতেন। অতঃপর মাদীনার ভেতরে ও তার চারপাশের কুকুর ধাওয়া করা হত। আর কোন কুকুরই আমরা না মেরে ছেড়ে দিতাম না। এমনকি বেদুঈনদের দুগ্ধবতী উষ্ট্রীর সাথে যে কুকুর থাকত [পাহারার জন্য] তাও আমরা হত্যা করতাম। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৭৩, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৭২]

৩৯১১

ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কুকুর হত্যা করিতে হুকুম দিয়েছেন। তবে শিকারী কুকুর, বকরী পাহারা দানের কুকুর অথবা অন্য জীবজন্তু পাহারা দেয়া কুকুর ব্যতীত। অতঃপর ইবনি উমারের নিকট বলা হলো যে, আবু হুরায়রা্‌ [রাদি.] তো ক্ষেত পাহারার কুকুরের কথাও বলে থাকেন। ইবনি উমর [রাদি.] বললেনঃ আবু হুরাইরার ক্ষেত আছে। {১৯} [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৭৪, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৭৩]

{১৯} ঈমাম নাবাবী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বলেন, এ হাদীসে আবু হুরাইরাহ [রাদি.]-এর তো ক্ষেত আছে –এ কথা দ্বারা ইবনি উমর [রাদি.] আবু হুরাইরাহ [রাদি.]-কে অবজ্ঞা করা কিংবা হাদীসে সন্দেহ পোষণ উদ্দেশ্য নয়। বরং এর অর্থ হইবে আবু হুরাইরাহ [রাদি.]-এর ক্ষেত আছে বলে তিনি হাদীসখানা ভালোভাবে হিফাযাত করিয়াছেন। অধিকন্তু সাহাবীগণ সকলেই হাদীস বর্ণনার ক্ষেত্রে সেকাহ বিধায় কেবল আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে হাদীসটি বর্ণিত হলেও তা গ্রহণযোগ্য। [ সহীহ মুসলিম- শারহে ঈমাম নাবাবী, ২য় খণ্ড, ২০ পৃঃ]

৩৯১২

জাবির ইবনি আবদুল্লাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলিতেন যে, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কুকুর হত্যা করার জন্য আমাদেরকে আদেশ দিয়েছেন। অতঃপর কোন বেদুঈন নারী কুকুরসহ আগমন করলে আমরা তাও হত্যা করে ফেলতাম। পরে নবী [সাঃআঃ] তা হত্যা করিতে নিষেধ করেন এবং বলেনঃ চোখের উপর সাদা দুটিকা বিশিষ্ট ঘন কালো রঙের কুকুর তোমরা হত্যা কর, কেননা তা হল শাইতান [অর্থাৎ-অতি নিকৃষ্ট]। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৭৫, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৭৪]

৩৯১৩

ইবনি মুগাফ্‌ফাল [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কুকুর হত্যা করিতে বলেন। পরে তিনি বলেছেনঃ এদের এবং কুকুরের কী অবস্থা! অতঃপর শিকারী কুকুর ও বকরীর পাল পাহারার ব্যাপারে তিনি অনুমতি প্রদান করেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৭৬, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৭৫]

৩৯১৪

শুবাহ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

শুবাহ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে উক্তরুপে বর্ণনা করেন।

আর ইবনি হাতিম ইয়াহ্ইয়া [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণিত হাদীসে বলেনঃ “এবং তিনি অনুমতি দিয়েছেন বকরীর পাল পাহারার, শিকারী এবং ক্ষেত পাহারার কুকুরের ক্ষেত্রে।” [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৭৭, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৭৬]

৩৯১৫

ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ যে ব্যক্তি এমন কুকুর পালন করে যা গৃহপালিত জীব-জন্তু পাহারা দেয়ার জন্যেও নয় কিংবা শিকার করার জন্যেও নয়, তাহলে প্রতিদিন তার সাওয়াব থেকে দুকীরাত হ্রাস পেতে থাকিবে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৭৮, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৭৭]

৩৯১৬

সালিম [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] তাহাঁর পিতার হইতে বর্ণীতঃ

নবী [সাঃআঃ] বলেছেনঃ যে ব্যক্তি শিকারী কুকুর কিংবা গৃহপালিত পশুর পাহারার কুকুর ব্যতীত অন্য কুকুর পালন করিবে, প্রতিদিন তার সাওয়াব থেকে দুকীরাত করে কমতে থাকিবে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৭৯, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৭৮]

৩৯১৭

ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেন, যে ব্যক্তি শিকারী কুকুর অথবা জীবজন্তু পাহারা দেয়ার কুকুর ছাড়া অন্য কুকুর পালন করিবে প্রতিদিন তার আমাল থেকে দুকীরাত করে কমতে থাকিবে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৮০, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৭৯]

৩৯১৮

সালিম ইবনি আবদুল্লাহ তাহাঁর পিত হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেন, যে ব্যক্তি জীবজন্তু পাহারার কুকুর বা শিকারী কুকুর ছাড়া অন্য কুকুর পালন করিবে তার আমাল থেকে প্রতিদিন এক কীরাত করে কমে যাবে। আবদুল্লাহ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বলেন, আবু হুরায়রা্ [রাদি.] বলেছেন, “ কিংবা ক্ষেত পাহারার কুকুর।” [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৮১, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৮০]

৩৯১৯

সালিম [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] তাহাঁর পিতার সূত্রে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] হইতে বর্ণীতঃ

যে ব্যক্তি শিকারী কুকুর অথবা গৃহপালিত পশু পাহারার কুকুর ব্যতীত অন্য কুকুর পালন করিবে প্রতিদিন তার আমাল থেকে দুকীরাত করে কমতে থাকিবে।

সালিম [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বলেন, আবু হুরায়রা্‌ [রাদি.] বলিতেন- “ কিংবা ক্ষেত পাহারার কুকুর।” আর তিনি ক্ষেত খামারের মালিক ছিলেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৮২, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৮১]

৩৯২০

সালিম ইবনি আবদুল্লাহ তাহাঁর পিতা হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন যে, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেন, যে ঘরের মালিক জীব জন্তু পাহারা বা শিকারের কুকুর ব্যতীত অন্য কুকুর পালন করিবে প্রতিদিন তার আমাল থেকে দুকীরাত করে কমতে থাকিবে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৮৩, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৮২]

৩৯২১

ইবনি উমর [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন যে , নবী [সাঃআঃ] বলেছেনঃ যে ব্যক্তি ক্ষেত বা বকরীর পাল পাহারার কুকুর অথবা শিকারী কুকুর ব্যতীত অন্য কুকুর রাখবে, প্রতিদিন তার সাওয়াব থেকে এক কীরাত করে কমতে থাকিবে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৮৪, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৮৩]

৩৯২২

আবু হুরাইরাহ্ [রাদি.] সূত্রে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেছেন, শিকার কিংবা জীবজন্তু পাহারার প্রয়োজন ছাড়া যে ব্যক্তি কুকুর পালন করে, প্রতিদিন তার সাওয়াব থেকে দুকীরাত করে কমতে থাকে।

আর আবু তাহিরের বর্ণনায় “ ক্ষেত পাহারার জন্যে” কথাটি নেই। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৮৫, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৮৪]

৩৯২৩

আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেনঃ রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ যে ব্যক্তি জীবজন্তু পাহারার অথবা শিকারী অথবা ক্ষেত পাহারার কুকুর ছাড়া অন্য কুকুর রাখবে, তার সাওয়াব থেকে প্রতিদিন এক কীরাত করে কমে যাবে।

যুহরী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বলেনঃ ইবনি উমারের নিকট আবু হুরাইরার বক্তব্যটি উল্লেখ করা হলে তিনি বললেনঃ আল্লাহ আবু হুরাইরার প্রতি রহমত করুন। তিনি ছিলেন একজন কৃষক। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৮৬, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৮৫]

৩৯২৪

আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেনঃ রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেন, যে ব্যক্তি কুকুর রাখবে তার আমাল থেকে প্রতিদিন এক কীরাত করে কমতে থাকিবে, তবে ক্ষেত পাহারার কিংবা জীবজন্তু পাহারার কুকুর ব্যতীত। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৮৭, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৮৬]

৩৯২৫

আবু হুরাইরাহ্ [রাদি.]-এর সূত্রে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] হইতে বর্ণীতঃ

আবু হুরায়রা্ [রাদি.]-এর সূত্রে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] থেকে উক্ত রূপ বর্ণনা করেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৮৮, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৮৭]

৩৯২৬

ইয়াহ্ইয়া ইবনি আবু কাসীর -এর সূত্রে হইতে বর্ণীতঃ

ইয়াহ্ইয়া ইবনি আবু কাসীর -এর সূত্রে উক্ত রূপ বর্ণনা করেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৮৯, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৮৮]

৩৯২৭

আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ যে ব্যক্তি এমন কুকুর রাখবে যা শিকারী অথবা বকরীর পাল পাহারা দেয়ার উদ্দেশ্য ব্যতীত তাহলে প্রতিদিন তার আমাল থেকে এক কীরাত করে কমতে থাকিবে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৯০, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৮৯]

৩৯২৮

সুফ্‌ইয়ান ইবনি যুহায়র [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি ছিলেন শানূআহ গোত্রের লোক রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] -এর সাহাবী। তিনি বলেনঃ আমি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] -কে বলিতে শুনেছি যে, যে ব্যক্তি এমন কুকুর পালন করিবে যা তার ক্ষেতের বা জীবজন্তু পাহারার কাজে ব্যতীত হয়, তবে প্রতিদিন তার নেক আমাল থেকে এক কীরাত পরিমাণ কমতে থাকে। রাবী বললেনঃ আপনি কি এ কথা রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] -এর থেকে শুনেছেন? তিনি বলিলেন, হ্যাঁ, এ মাসজিদের প্রভুর শপথ। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৯১, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৯০]

৩৯২৯

সায়িব ইবনি ইয়াযীদ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তাদের নিকট একবার সুফ্‌ইয়ান ইবনি আবু যুহায়র আশ্‌-শানায়িয়্যু প্রতিনিধি হয়ে আগমন করেন। অতঃপর তিনি বলেন যে, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ উপরের অনুরূপ। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৯২, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৯১]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

2 comments

  1. এখানে কুকুর হত্যার বিষয়ে যে সব প্রমান দেওয়া হয়েছে তার সম্পর্কে জানতি চাই

    1. সহীহ মুসলিম শরীফঃ৩৯১১- রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কুকুর হত্যা করিতে হুকুম দিয়েছেন। তবে শিকারী কুকুর, বকরী পাহারা দানের কুকুর অথবা অন্য জীবজন্তু পাহারা দেয়া কুকুর ব্যতীত। অতঃপর ইবনি উমারের নিকট বলা হলো যে, আবু হুরায়রা্‌ [রাদি.] তো ক্ষেত পাহারার কুকুরের কথাও বলে থাকেন। ইবনি উমর [রাদি.] বললেনঃ আবু হুরাইরার ক্ষেত আছে। {১৯} [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩৮৭৪, ইসলামিক সেন্টার-৩৮৭৩]

Leave a Reply